সালাম মুর্শেদীকে ফিফার জরিমানা, আরও নিষিদ্ধ হলেন দুজন

7
Spread the love


ক্রীড়া প্রতিবেদক।।

ফেঁসে গেলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) কার্যনির্বাহী কমিটির সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী। বাফুফের আর্থিক দুর্নীতির প্রমাণিত হওয়ায় সালাম মুর্শেদীকে ১০ হাজার সুইস ফ্রাঁ জরিমানা করেছে ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা।


মুর্শেদীর পাশাপাশি বাফুফের সাবেক প্রধান অর্থ কর্মকর্তা আবু হোসেন ও অপারেশন্স ম্যানেজার মিজানুর রহমানকে সকল প্রকার ফুটবলের কর্মকাণ্ড থেকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধের পাশাপাশি ১০ হাজার সুইস ফ্রাঁ জরিমানা করা হয়েছে। এর আগে গত বছর ১৪ এপ্রিল ফিফা দুই বছরের জন্য ফুটবলের সকল কর্মকাণ্ড থেকে নিষিদ্ধ করেছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সাবেক সাধারন সম্পাদক আবু নাঈমকে।

বাফুফের আর্থিক বিষয়াদি নিয়ে তদন্ত করেছিল ফিফা। সেই তদন্তের পর বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগকে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। অবশ্য আবু নাইম সোহাগ ছাড়াও আরো কয়েকজনের উপর ফিফার তদন্ত অব্যাহত রেখেছিল। সেই তদন্তের রায় প্রকাশ হলো আজ বৃহস্পতিবার।

ফিফা তাদের অফিসিয়াল পেজে বাংলাদেশ ফুটবলের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের দুর্নীতির শাস্তির রায় ঘোষণা করেছে। বাফুফের তদন্ত কমিটিও নিষিদ্ধ হওয়া ও জরিমানার কবলে পড়াদের দায় খুঁজে পেয়েছিল।

সালাম মুর্শেদী বাফুফের ফিন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান। আর্থিক অসঙ্গতি ও ফিফার কমপ্ল্যায়ন্স সঠিকভাবে বাফুফে পূরণ করতে না পারা এবং সাধারণ দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হওয়ায় তাকে জরিমানা গুনতে হচ্ছে। সালাম মুর্শেদীর পাশাপাশি বাফুফের প্রকিউরমেন্ট ম্যানেজার ইমরুল হাসান শরীফকে সাধারণ দায়িত্বের আওতায় ফিফা নির্দেশিত কমপ্ল্যায়ন্স পূরণ ভবিষ্যত পালন করার জন্য সতর্ক করা হয়েছে।

ফিফার এথিকস কমিটির এডজুকেটরি চেম্বার সবার সাক্ষ্য-প্রমাণ নিয়েই এই সিদ্ধান্ত দিয়েছে। আগে আবু নাঈমকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছিলেন। অবশ্য তার নিষেধাজ্ঞা আরও এক বছর বৃদ্ধি হয়েছে।