লাতিনশৈলীর কোপা শুরু

3
Spread the love


খুলনাঞ্চল রিপোর্ট।।

এতটা স্পষ্টবাদী হতে মেসিকে বোধ হয় এর আগে দেখা যায়নি। জীবনের বেশির ভাগ সময় ইউরোপের ক্লাব ফুটবলে কাটিয়ে দিলেও লাতিন ফুটবল নিয়ে তাঁর গর্বের বুঝি শেষ নেই। তাই সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ইউরো ফুটবলকে ইঙ্গিত করেই মেসি বলেন, ‘ওখানে তো পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল খেলে না, দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন উরুগুয়েও নেই। এমনকি বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনাও সেখানে খেলে না; তাহলে সেরা আসর কোনটা– ইউরো নাকি কোপা?’

মেসির অকাট্য যুক্তি। আসলে ১০৮ বছর আগে প্রথম আসর; দক্ষিণ আমেরিকান অঞ্চলের মানুষ বুক ফুলিয়েই বলেন, ফিফা বিশ্বকাপের চেয়েও পুরোনো তাদের এই ফুটবল মেলা কোপা আমেরিকা। ঐতিহ্য আর সম্মানে ইউরোর চেয়ে অনেক বেশি দামি। আজ যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টায় (বাংলাদেশ সময় আগামীকাল সকাল ৬টা) সেই ফুটবলের প্রাণের মেলাই শুরু হতে যাচ্ছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা ও কানাডা ম্যাচ দিয়ে এবং জ্যোতিষী না হয়েই বলে দেওয়া যাচ্ছে, এটাই হতে চলেছে ৩৬ বছর বয়সী মেসির শেষ কোপা আমেরিকা।

দক্ষিণ ও উত্তর আমেরিকার ১৬ দল নিয়ে শুরু হচ্ছে কোপার ৪৮তম আসর। যেখানে আর্জেন্টিনার গ্রুপে রয়েছে পেরু, চিলি ও কানাডা। ব্রাজিলের গ্রুপে রয়েছে কলম্বিয়া, প্যারাগুয়ে ও কোস্টারিকা। ২৪ জুন ক্যালিফোর্নিয়ায় কোস্টারিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে সেলেকাওদের কোপা মিশন। ইনজুরির কারণে এবার ব্রাজিল দলে যে নেইমার সেই, সে খবর পুরোনো হয়ে গেছে। নতুন খবর হচ্ছে– এই মুহূর্তে ক্লাব ফুটবলে রিয়াল মাদ্রিদের দুই ফরোয়ার্ড ভিনিসিয়ুস জুনিয়র ও রদ্রিগো দারুণ ফর্মে রয়েছেন। এন্ড্রিকে, ইভানিলসরাও দারুণ ছন্দে। আর যে আসরে ব্রাজিল থাকে, সেখানে তাদের ফেভারিটের তালিকায় রাখতেই হয়। তবে কোথায় গিয়ে যেন ৯ বারের কোপা চ্যাম্পিয়নরা ঠিক দল হয়ে খেলতে পারছে না– এ আক্ষেপ সাবেক ফুটবলার রোনালদিনহোর।

সম্প্রতি ব্রাজিল যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচ ড্র করেছে, কলম্বিয়ার কাছে ৫-১ গোলে বিধস্ত হয়েছে। ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ের পাঁচ নম্বরে থাকা ব্রাজিলের অবশ্য কোপার ইতিহাস খুব একটা সুখকর নয়। সর্বশেষ ২০১৯ সালে দানি আলভেজের ব্রাজিল কোপার শিরোপা জিতেছে। এমনিতে কোপার ফেভারিটের তালিকায় আর্জেন্টিনা, ব্রাজিলের সঙ্গে আরও কিছু নাম এসে যায়। বিশ্বের আদি এই ফুটবল আসরে এখন পর্যন্ত আর্জেন্টিনার সঙ্গে সমান ১৫ বার চ্যাম্পিয়ন হয়ে যৌথভাবে শীর্ষে রয়েছে উরুগুয়ে। যদিও ১৩ বছর আগে তারা সর্বশেষ এই ট্রফি জিতেছিল। তবে যে দলে সুয়ারেজ ও কাভানির মতো অভিজ্ঞদের রাখা হয়েছে, সেই দলকে একেবারে ফেলে দেওয়ার সাহস কারও নেই। অভিজ্ঞদের সঙ্গে বছর চব্বিশের লিভারপুল স্ট্রাইকার ডারউইন নুনেজ হতে যাচ্ছেন উরুগুয়ের অন্যতম অস্ত্র।

এই মুহূর্তে ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে থাকা মেসির আর্জেন্টিনা কোপা, বিশ্বকাপ আর অন্যান্য টুর্নামেন্ট মিলিয়ে সর্বাধিক ২২টি শিরোপা জিতেছে। ২০১৯ সালে ব্রাজিল আর ২০২২ বিশ্বকাপে সৌদি আরবের হারটি বাদ দিলে বাকি ৩৬ ম্যাচেই অপরাজিত মেসিরা। ডি মারিয়া কিন্তু ঘোষণা দিয়েছেন এই কোপা আমেরিকায় হবে তাঁর শেষ আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট, কোপার পরই অবসরে যাবেন তিনি। দলের চার ফুটবলার তাদের ক্লাবে এই মুহূর্তে সেরা ফর্মে রয়েছেন। মায়ামির হয়ে মেসি ১৪ ম্যাচে ২৫ গোল করেছেন। ডি মারিয়া দেশের হয়ে শেষ তিনটি ম্যাচে হয় গোল করেছেন, না হয় করিয়েছেন।

লিভারপুলের ম্যাক অ্যালিস্টার আর ম্যানইউর গ্রানচো দারুণ ফর্মে রয়েছেন। আর গোলপোস্টে ভরসা সেই এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। তবে বিশ্বকাপে ডিফেন্ডার হিসেবে ওটামেন্ডি আর রোমেরো যেভাবে প্রথম পছন্দ ছিলেন কোচের, সেখানে এবার চলে এসেছেন লিসান্দ্রো মার্টিনেজ। সব মিলিয়ে কোপার মুকুট ধরে রাখতে বেশ গুছিয়েই নামছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। দর্শকদের অপেক্ষা শুধু লাতিনশৈলীর মুগ্ধতা উপভোগ করার।