স্টাম্পে লাথি দেওয়ার সেই ঘটনা নিয়ে মুখ খুললেন সাকিব

5
Spread the love


স্পোর্টস ডেস্ক

সাকিব আল হাসান যে বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা ক্রিকেটার, সেটা বিনা বাক্যেই মেনে নেবেন সবাই। তবে মাঠের ক্রিকেটে নিয়মিত পারফর্ম করে দলকে জেতালেও ক্যারিয়ারে তার বিতর্কিত কর্মকাণ্ডও কম নয়। ২০২১ সালে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের একটি ম্যাচে বিশাল বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন সাকিব।

ডিপিএলে সেবার মোহামেডানের হয়ে খেলেছিলেন সাকিব। আবাহনীর বিপক্ষে একটি ম্যাচে আম্পায়ারের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে স্টাম্পে লাথি মেরেছিলেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার। ঘটনার ৩ বছর পর বিষয়টি নিয়ে মুখ খুললেন সাকিব।

সম্প্রতি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে সাকিবকে নিয়ে বানানো প্রামাণ্যচিত্র ‘সাকিব আল হাসান বিশ্বকাপ স্পেশাল’-এ দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার বলেন, ‘যেটা হয়েছে (স্টাম্পে লাথি মারার ঘটনা) অবশ্যই আইডিয়াল কিছু না, না হওয়াই উচিত ছিল। তবে সেটি একদম হিট অব দ্য মোমেন্ট। কোনো কিছু চিন্তা করে না। …আম্পায়ার যখন আউট দেয়নি, আমি তো আবেদন করেছিলাম। সাধারণত, মাটিতে কিক করি আমি মাঝে মাঝে। সামনের ওপর স্টাম্পটা পড়ছে। স্টাম্প থেকে দূরে থাকলে মাটিতেই কিকটা হত, স্টাম্পে লেগে গেছে। জিনিসটা এমনই, এখন দেখলে হাসিই আসে।’

ওটিটি প্লাটফর্মে দেওয়া সেই সাক্ষাৎকারে তামিম ইকবালের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়েও কথা বলেছেন সাকিব। কেন তাদের দূরত্ব বেড়েছে সেই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি বিয়ে করলাম। সে-ও বিয়ে করল। দুজনের বাসা আলাদা, আলাদা জায়গায় হওয়াতে সময় দেওয়া কমে যায়। স্বাভাবিকভাবেই আগের টানটা ধীরে ধীরে কমতে থাকে।’

তামিমের সঙ্গে একদমই কথা বলা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল কি না এমন প্রসঙ্গে সাকিব বলেছেন, ‘কথা হতো না, এটা একদম ভুল কথা। আমাদের একসময় যে সম্পর্কটা ছিল, সারাক্ষণ একসঙ্গে থাকতাম, ওই সম্পর্কটা অনেক দিন ধরেই ছিল না।’