এমপি আনারের হত্যাকাণ্ড দুই দেশের সমন্বয়ে তদন্ত চলছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

3
Spread the love

ঢাকা অফিস।।
ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় চিকিৎসার জন্য গিয়ে ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার হত্যাকাণ্ডের শিকার হওয়ার ঘটনায় দুই দেশের সমন্বয়ে তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে ‘২৩ মে জাতীয় নদী দিবস ঘোষণার দাবিতে’ নোঙর ট্রাস্ট আয়োজিত আলোচনা সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

হাছান মাহমুদ বলেন, সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিমের হত্যার ঘটনায় দুদেশের গোয়েন্দা, কলকাতা হাইকমিশন, পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ সমন্বয় করে কাজ করছে। তদন্তাধীন বিষয় হওয়ায় এ বিষয়ে মন্তব্য করতে চাই না। তবে দ্রুতই সব জানতে পারবেন।

এ সময় মন্ত্রী নদী প্রসঙ্গে কথা বলেন। তিনি বলেন, নদী হলো আমাদের দেশের শিরা-উপশিরা। নদী দখল দূষণ ও শুকিয়ে যাওয়ার ফলে আমাদের বিশাল অর্থনৈতিক ক্ষতি হচ্ছে। আমাদের নদীগুলোর উজানে বাঁধ নির্মাণ করা হলে সেটির প্রভাব আমাদের উপরে এসে পড়ে। তাই নদীর পানি সমভাবে বণ্টনের জন্য আঞ্চলিক সহযোগিতা প্রয়োজন। নদীপথে পণ্য পরিবহণ বাড়াতে পারলে অর্থনীতিতে বড় ভূমিকা রাখবে। এ সময় অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহণ, অধিক মুনাফা লাভের ইচ্ছা, ফিটনেসবিহীন পরিবহণ নৌ দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ বলে জানান মন্ত্রী।

আলোচনা সভায় নোঙর ট্রাস্টের পক্ষ থেকে বলা হয়, নদীমাতৃক এদেশের নদ-নদীর বুকে হাজার হাজার মানুষ প্রাণ দিয়েছে আমাদের রাষ্ট্রীয় অবহেলা আর ব্যবসায়ীদের অতি লোভের কারণে। এদেশের নৌপথ সবার অবহেলার একটি পথ। যে নদীগুলো বাংলাদেশকে মায়ের মমতা দিয়ে বুকে ধারণ করছে, সেই মায়ের বুকে আঘাতের পর আঘাত করে চলছে মুষ্টিমেয় কিছু লোক। নৌপথ নিরাপদ না হলে নদীমাতৃক দেশও নিরাপদ হবে না। এই নিরাপত্তার সঙ্গে জড়িয়ে আছে দেশপ্রেম ও মায়ের মমতা। এ কারণে নদীকে রক্ষা করতে সরকার, ব্যবসায়ী ও নাগরিকের ভূমিকা অপরিসীম।

নোঙর ট্রাস্টের চেয়ারম্যান সুমন শামসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য ড. আওলাদ হোসেন প্রমুখ।