যশোরে আওয়ামী লীগ-বিএনপির পাল্টাপাল্টি সমাবেশ ঘিরে উত্তেজনা

6

 

যশোর অফিস।।

যশোরে আওয়ামী লীগ-বিএনপির পাল্টাপাল্টি সমাবেশ ঘিরে উত্তপ্ত পরিবেশ বিরাজ করছে। শনিবার (২৭ মে) একই দিন বিএনপির সমাবেশ ও আওয়ামী লীগ সমর্থিত শ্রমিক ফেডারেশনের শ্রমিক সমাবেশের ডাক দিয়েছে। শ্রমিক ফেডারেশন শহরের টাউন হল ময়দানে সমাবেশ করার অনুমতি পেয়েছে। তবে বৃহস্পতিবার (২৫ মে) দুপুর পর্যন্ত সমাবেশের অনুমতি পায়নি বিএনপি।

জেলা বিএনপি বলছে, প্রশাসনের অনুমতি না পেলেও তারা সমাবেশ করবেন। অপরদিকে জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা বিএনপির সমাবেশ প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছেন। দুই দলের কঠোর অবস্থান সহিংসতায় রূপ নেওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তবে জেলা পুলিশের দাবি, সহিংসতার আশঙ্কা নেই। সর্বোচ্চ প্রস্তুতি আছে পুলিশের।

গত কয়েক দিন জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষনেতাদের বিএনপির সমাবেশ প্রতিহত করার হুমকি ও প্রশাসনের অনুমতি না পাওয়া নিয়ে বিএনপির সার্বিক অবস্থান তুলে ধরে বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রেস ক্লাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন করেছে জেলা বিএনপি।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির খুলনা বিভাগীয় ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত বলেন, গায়েবি মামলায় গ্রেফতার, নির্যাতনসহ সরকার পদত্যাগের ১০ দফা দাবিতে বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে ২৭ মে বিক্ষোভ সমাবেশ করবে যশোর জেলা বিএনপি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির আহবায়ক অধ্যাপক নার্গিস ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকন, সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, নগর বিএনপির সভাপতি রফিকুল ইসলাম চৌধুরী মুল্লুক চাঁদ প্রমুখ।

এদিকে গত মঙ্গলবার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন ও বুধবার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার এমপি দলীয় কর্মসূচি থেকে ঘোষণা দিয়েছেন যশোরে বিএনপির সমাবেশ প্রতিহত করা হবে।

শুক্রবার (২৬ মে) শহরের টাউন হল ময়দানে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করবে জেলা আওয়ামী লীগ। একই স্থানে শনিবার শ্রমিক সমাবেশ করবে আওয়ামী লীগ সমর্থিত শ্রমিক ফেডারেশন। ইতোমধ্যে প্রশাসনের অনুমতি পেয়েছে সংগঠনটি।

এ বিষয়ে জেলা পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) বেলাল হোসাইন বলেন, শনিবার একই দিনে বিএনপি ও শ্রমিক ফেডারেশনের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। দুটি সংগঠনের কর্মসূচি ঘিরে কোনো সহিংসতার আশঙ্কা নেই। তারপরও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি থাকবে।