১০ ফুট লম্বা একটি চিচিঙ্গার ওজন ৪ কেজি!

27
Spread the love

পাইকগাছা প্রতিনিধি

খুলনার পাইকগাছায় এখন বাংলাদেশের সবচেয়ে লম্বা চিচিঙ্গার চাষ হচ্ছে। পৌরসভার সরল গ্রামের সিআইজি গ্রুপের কয়েকজন কৃষক ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে বীজ সংগ্রহ করে এ চিচিঙ্গার চাষ শুরু করেন। ইতোমধ্যে ভালো ফলনও হয়েছে। প্রতিটি চিচিঙ্গা ৯-১০ ফুট লম্বা হয়েছে। প্রতিটির ওজন ৩-৪ কেজি। বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন লম্বা চিচিঙ্গা দেখতে আসছেন। কৃষি বিভাগের কর্মকর্তা ও গবেষকরা ক্ষেত পরিদর্শন করেছেন। চিচিঙ্গার এ চাষ মনিটরিং করছে উপজেলা কৃষি বিভাগ।

কৃষি অফিস জানায়, চিচিঙ্গা মূলত একধরনের সবজি। বছরের বেশিরভাগ সময় এ সবজি পাওয়া যায়। সবুজ রঙের মাঝে সাদা সাদা লম্বা দাগ রয়েছে। চিচিঙ্গা মানবদেহের জন্য খুবই উপকারী। চিচিঙ্গা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। দেশে যেসব চিচিঙ্গার চাষ হয়, তা আকারে তুলনামূলক ছোট হয়। এ ক্ষেত্রে ভারত থেকে বীজ এনে চাষ করা চিচিঙ্গার আকার এবং ওজন দেশীয় চিচিঙ্গার চেয়ে অনেক বেশি।

পৌরসভার সরল গ্রামের কৃষক নিলু সরদার বলেন, ‘আমরা কয়েকজন ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে গিয়েছিলাম। সেখানে ১২-১৩ ফুট লম্বা চিচিঙ্গা দেখে কিছু বীজ নিয়ে এসেছিলাম। এরপর বাড়িতে এসে ক্ষেতে ছোট পরিসরে চাষ শুরু করি। বর্তমানে চাষ করা প্রতিটি চিচিঙ্গা ৯-১০ ফুট লম্বা হয়েছে।’

চিচিঙ্গার ক্ষেত পরিদর্শন করেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর খুলনার উপ-পরিচালক মো. হাফিজুর রহমান, কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. হারুন অর রশিদ, উপজেলা কৃষি অফিসার এএইচএম জাহাঙ্গীর আলম, ডুমুরিয়ার কৃষি অফিসার মোসাদ্দেক হোসেন, কয়রার কৃষি অফিসার মিজান মাহমুদ, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা সুজিত মণ্ডল ও উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মিন্টু রায়।

লম্বা চিচিঙ্গা প্রসঙ্গে উপজেলা কৃষি অফিসার এএইচএম জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘ভারত থেকে বীজ এনে পৌরসভার সরল এলাকার সিআইজি গ্রুপের ১০ জন কৃষক এ বছর প্রাথমিকভাবে চাষ শুরু করেছেন। শুরু থেকেই উপজেলা কৃষি বিভাগ থেকে কৃষকদের পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা এবং সার্বিক মনিটরিং করা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘ফলন ভালো হওয়ায় দেশে লম্বা চিচিঙ্গা চাষের অনেক সম্ভাবনা রয়েছে। প্রতিটি চিচিঙ্গা ১০ ফুট লম্বা এবং ৩-৪ কেজি ওজন হয়। বাংলাদেশে এটি সবচেয়ে লম্বা চিচিঙ্গা বলে ধারণা করছি। ইতোমধ্যে কৃষি বিভাগ ও কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের কর্মকর্তারা ক্ষেত পরিদর্শন করে বীজ সংরক্ষণের নির্দেশনা দিয়েছেন।’