গাজী মোহাম্মদ আলী আওয়ামী লীগের দুর্দিনের কান্ডারী ছিলেন: এমপি বাবু

1
Spread the love


খবর বিজ্ঞপ্তি:


খুলনা-৬ (কয়রা-পাইকগাছা) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু বলেছেন, সদ্য প্রয়াত পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী মোহাম্মদ আলী আওয়ামী লীগের দুর্দিনের কান্ডারী ছিলেন। রাজনৈতিক জীবনে তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সান্নিধ্য পেয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করে তিনি সারাজীবন আওয়ামী লীগের রাজনীতি করেছেন। ৭৩ সালে তিনি ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এরপর বিভিন্ন সময়ে তিনি সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন চেয়েছেন। মনোনয়ন না পেলেও তিনি দলের সঙ্গে কখনো বেইমানী করেননি। নিজের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা দিয়ে দল এবং দলের প্রার্থীর জন্য কাজ করেছেন। জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বও পালন করেছেন। ২০১৯ সালের ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে উপহার হিসেবে নৌকা প্রতীক পান এবং নির্বাচনে ২০ হাজার ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তার মৃত্যুতে আওয়ামী লীগের অপূরণীয় ক্ষতি হলো।

তার শূন্যতা কখনো পুরণ হবার নয়। তিনি দলীয় নেতাকর্মী এবং এলাকাবাসীর কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। প্রয়াত এ চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে পাইকগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন আয়োজিত শোক সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠানে এমপি আক্তারুজ্জামান বাবু এসব কথা বলেন। বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) সকালে দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার ইকবাল মন্টুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুল হাসান টিপুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত শোক সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সাবেক সংসদ সদস্য এ্যাডঃ সোহরাব আলী সানা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সমীরণ সাধু, যুগ্ম-সম্পাদক আনন্দ মোহন বিশ্বাস, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ রশীদুজ্জামান, জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুল মান্নান গাজী, ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বিশ্বাস, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শিয়াবুদ্দীন ফিরোজ বুলু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপিকা ঢালী, আওয়ামী লীগনেতা জিএম ইকরামুল ইসলাম, প্রভাষক ময়নুল ইসলাম,

দীপক কুমার মন্ডল, এসএম রেজাউল হক, শেখ বেনজির আহমেদ বাচ্চু, শেখ ইকবাল হোসেন খোকন, হেমেশ চন্দ্র মন্ডল, আজমল হোসেন, বিভূতি ভূষণ সানা, নির্মল অধিকারী, ডাঃ শংকর দেবনাথ, আরশাদ আলী বিশ্বাস, কাজল কান্তি বিশ্বাস, শেখ আনিছুর রহমান মুক্ত, এসএম শামছুর রহমান, তৃপ্তি রঞ্জন সেন, ¯েœহেন্দু বিকাশ, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান কৃষ্ণপদ মন্ডল, মাসুমা বেগম, ময়না বেগম, শেখ জুলি, জেলা যুবলীগ নেতা শামীম সরকার, যুবলীগ নেতা শেখ শহীদ হোসেন বাবুল, এমএম আজিজুল হাকিম, শেখ জিয়াদুল ইসলাম জিয়া, শেখ আবুল কালাম আজাদ, প্রাণ কৃষ্ণ দাশ, অসীম দাশ, শফিকুল ইসলাম, বিমল পাল, আকবর হোসেন, শেখ মাসুদুর রহমান, মোস্তাফিজুর রহমান পিন্টু, আজিজুল গাজী, সামাদ সরদার, দীজেন্দ্রনাথ মন্ডল, আকরামুল ইসলাম, জগদীশ চন্দ্র রায়, ছাত্রলীগ নেতা মৃণাল কান্তি বাছাড়, পার্থপ্রতীম চক্রবর্তী, মাসুদ পারভেজ রাজু, রায়হান পারভেজ রনি ও সাব্বির হোসেন। দোয়া অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, হাফেজ মাওঃ জালাল উদ্দীন।