সারা খুলনা অঞ্চলের খবর

21
Spread the love

সাতক্ষীরায় র‌্যাবের অভিযানে দুই কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ১

স্টাফ রিপোর্টার

সাতক্ষীরা জেলার সদর থানাধীন মাধবকাঠী গ্রামে অভিযান চালিয়ে ২ কেজি গাঁজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় গোপন সংবাদের মাধ্যমে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার মাদক ব্যবসায়ী হলেন সাতক্ষীরা জেলার সদরের বাবুলিয়া কুচপুকুর গ্রামের রেছাতুল্লাহ সরদারের ছেলে মো. শাহিনুর সরদার (৩১)।

 র‌্যাব-৬ জানায়, গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় সাতক্ষীরা জেলার সদর থানাধীন মাধবকাঠী গ্রামে অভিযান পরিচালণা করে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল। এসময় ওই গ্রামের অন্যের মোড় নামক স্থান থেকে ২ কেজি গাঁজাসহ শাহিনুর সরদারকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা সদর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

প্রবর্তন’র পাপ্পু ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সা. সম্পাদক নির্বাচিত

স্টাফ রিপোর্টার

বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন ২০২০-২১ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সাধারণ সম্পাদক একটি মাত্র পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণ সম্পাদক পদে দৈনিক প্রবর্তনের ফটো সাংবাদিক নাজমুল হক পাপ্পু ১৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। অপরদিকে দৈনিক সময়ের খবরের ফটো সাংবাদিক আর জি উজ্জল পেয়েছেন ০৪ ভোট। খুলনা প্রেসকাবের হুমায়ূন কবির বালু মিলনায়তনে সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ চলে।

এর আগে অন্যান্য পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিতরা হলেন, দৈনিক পূর্বাঞ্চল ও দৈনিক সমকালের ফটো সাংবাদিক মো. জাহিদুল ইসলাম (সভাপতি), দেবব্রত রায় (সহ-সভাপতি), বাহাউদ্দিন বাহার (সহ-সভাপতি), কাজী ফজলে রাব্বী শান্ত (যুগ্ম-সম্পাদক), মো. হেলাল মোল্লা (যুগ্ম-সম্পাদক), সাগর সরকার (কোষাধ্যক্ষ), মোঃ সোহেল রানা (দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক), মাঞ্জারুল ইসলাম (নির্বাহী সদস্য)।

দৈনিক পূর্বাঞ্চলের সিনিয়র রিপোর্টার মো. সাহেব আলী নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া দৈনিক মানব জমিনের খুলনা ব্যুরো প্রধান মো. রাশিদুল ইসলাম এবং এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম কাজল নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

ইশা ছাত্র আন্দোলন খুলনা মহানগরীর প্রশিক্ষণ কর্মশালা

খবর বিজ্ঞপ্তি

বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টায় ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন খুলনা মহানগরীর ব্যবস্থাপনায় শাখা সভাপতি এইচ এম খালিদ সাইফুলাহ এর সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক ইব্রাহিম ইসলাম আবীরের সঞ্চালনায় নগরীর পাওয়ার হাউজ মোড়স্থ দলীয় কার্যালয়ে কর্মী প্রত্যাশী প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির আলোচনা রাখেন ইশা ছাত্র আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় শুরা সদস্য মুহাম্মাদ ইসহাক ফরিদী। প্রধান অতিথি তার আলোচনায় বলেন করোনাকালীন সময়েও নিজেদের মেধাগত যোগ্যতা বৃদ্ধি করতে হবে, সমাজের মানুষকে সচেতন করতে হবে এবং সাংগঠনিক মজবুতি অর্জন করার পাশাপাশি সংগঠন কে এই উদ্ভুত পরিস্থিতির মাঝেও অগ্রগামী করতে হবে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন নগর সাংগঠনিক সম্পাদক ইব্রাহিম ইসলাম আবীর প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাহদী হাসান মুন্না দপ্তর সম্পাদক আব্দুলাহ আল মামুন সাহিত্য সাংস্কৃতি সম্পাদক মুহাম্মাদ আঃ আল মামুন। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এম এম মাহদী হাসান মাঞ্জারুল হুদা বনী আমিন এম এ রাকিব গোলদার রিয়াজ হাওলাদার আলম গাজী ঈমাম হাসান শিহাব উদ্দিন এনায়েত উলাহ ফেরদৌস হাসান আবুল কাশেম আঃ আল মামুন জুবায়ের জাওয়াদ ইউসুফ গাজী মাহবুবুল হক মেশকাত মোঃ ওসামা মোঃ সা’আদ নাহিদ হাসান নুরুজ্জামান সিরাজ মৃধা ওমর ফারুক নাসির হোসেন প্রমুখ।

কমরেড আনোয়ারের মৃত্যুতে মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির শোকসভা

খুলনাঞ্চল রিপোর্ট

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, খুলনা মহানগর নির্বাহী কমিটির সদস্য কমরেড আনোয়ার হোসেন গত ২৭ জুন রাত ১০:৩০ টায় মৃত্যুবরণ করেন। তাঁর স্মরণে শুক্রবার ১৭ জুলাই শুক্রবার বিকেল ৫টায় স্যার ইকবাল রোডস্থ পার্টির কার্যালয়ে স্বাস্থ্যবিধিসম্মতভাবে পার্টির মহানগর সভাপতি কমরেড শেখ মফিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে এক শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়। শোকসভা পরিচালনা করেন মহানগর সাধারণ সম্পাদক কমরেড এস এম ফারুখ-উল-ইসলাম। শোকসভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেনÑপার্টি খুলনা জেলা সম্পাদকম-লীর সদস্য কমরেড দেলোয়ার উদ্দিন দিলু, মহানগর সম্পাদকম-লীর সদস্য কমরেড নারায়ণ সাহা, কমরেড কৌশিক দে বাপী, কমরেড কৃষ্ণ কান্তি ঘোষ প্রমুখ। বক্তারা বলেন, কমরেড আনোয়ার একজন প্রাণোচ্ছল ও পরিশ্রমী নিবেদিত কর্মী ছিলেন। পার্টির প্রতি ছিল তাঁর অটুট বিশ্বাস। সাংসারিক জীবনে অনেক দুঃখকষ্টের মধ্যেও দলীয় কর্মসূচিতে সবসময়ে অংশগ্রহণ করতেন।

করোনার উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অবসর প্রাপ্ত এক ব্যাংক কর্মকর্তাসহ তিন জনের মৃত্যু

খান নাজমুল হুসাইন, সাতক্ষীরা

করোনা উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অবসর প্রাপ্ত এক ব্যাংক কর্মকর্তাসহ তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার ভোর থেকে দুপুর সাড়ে ১২ টার মধ্যে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে তারা মারা যান।

মৃত ব্যক্তিরা হলেন, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বাঁশদহা গ্রামের মৃত মহিবুর রহমানের ছেলে কৃষক বেলাল হোসেন (৫৫), শহরের পুরাতন সাতক্ষীরা এলাকার মৃত রমজান আলীর ছেলে অবসর প্রাপ্ত অগ্রনী ব্যাংক ম্যানেজার গোলাম ইছাহাক (৯০) ও শহরের মুন্সিপাড়ার গহর আলীর ছেলে ইব্রাহীম হোসেন (৬০)।

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ রফিকুল ইসলাম জানান, গত ১২ জুলাই জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি হন কৃষক বেলাল হোসেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার ভোর চারটার দিকে যান তিনি মারা যান। এর আগে গত ১৩ জুলাই তার নমুনা সংগ্রহ করে পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হলেও রিপোর্ট এখনও পাওয়া যায়নি।

এদিকে, গত ১৫ জুলাই জ¦র ও শ^াস কষ্ট নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি হন অবসর প্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা গোলাম ইছাহাক। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে তিনিও মারা যান। গত ১৬ জুলাই তারও নমুনা সংগ্রহ করে পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হলেও রিপোর্ট এখনও পাওয়া যায়নি।

অপরদিকে, শুক্রবার বেলা ১১ টার দিকে জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসোলেশনে ভর্তি হন শহরের মুন্সিপাড়ার ইব্রাহীম হোসেন। এরপর দুপুর সাড়ে ১২টার  দিকে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। মারা যাওয়ার পর তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, স্বাস্থ্য বিধি মেনে ধর্মীয় রীতিনীতি মেনে তাদের লাশ দাফনের প্রস্তুতি চলছে। ইতিমধ্যে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের বাড়ি লক ডাউন করা হয়েছে।

এনিয়ে সাতক্ষীরায় করেনার উপসর্গ নিয়ে আজ পর্যন্ত মারা গেছেন মোট ৩২ জন। আর জেলায় আজ পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরো ১০ জন।

বরগুনা ও মংলায় নৌবাহিনীর টহল অব্যাহত

খবর বিজ্ঞপ্তি

শুক্রবার করোনা ভাইরাসের সংক্রমণরোধে উপকূলীয় অঞ্চলের উপজেলাসমূহে স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তা প্রদান, কোভিড-১৯ প্রতিরোধ সর্ম্পকিত বিভিন্ন ব্যানার স্থাপন, সাধারণ জনগণের মাঝে লিফলেট বিতরণ এবং জনসচেতনতামূলক বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী। চলমান কার্যক্রমের অংশ হিসেবে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে ও বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে মোতায়েনকৃত নৌ কন্টিনজেন্ট মোংলা উপজেলার কচুবুনিয়া, প্রেস কাব, চাঁদপাই, দিগরাজ বাজার, বুড়িরডাঙ্গা, আপাবাড়ি, হাসপাতাল চত্ত্বর, ফেরিঘাট এলাকায় নিয়মিত সচেতনতামূলক টহল প্রদান করে। উপজেলাসমূহের বিভিন্ন স্থানে কোভিড-১৯ প্রতিরোধমূলক লিফলেট বিতরণ করে। চাঁদপাই ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় ৩৬৫টি দরিদ্র পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণে স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তা প্রদান করে। অপরদিকে নৌবাহিনী কন্টিনজেন্ট বরগুনা জেলার পাথরঘাটা, বেতাগী ও আমতলী ইউনিয়নে সচেতনতামূলক টহল পরিচালনা করে। উপজেলাসমূহের বিভিন্ন এলাকায় করোনা প্রতিরোধ সর্ম্পকিত ১৫০টি লিফলেট বিতরণ করে। এছাড়াও করোনা ঝুঁকি এড়াতে বরগুনা জেলা সদরের বিভিন্ন মসজিদে জুম্মা নামাজের পূর্বে ১০% কোরিন মিশ্রিত পানি দিয়ে জীবাণুমুক্ত করে নৌ সদস্যরা। এ সময় নৌ কন্টিনজেন্ট দু’টি করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির প্রতি সহানুভূতিশীল আচরণ, সাধারণ জনগণকে কমপক্ষে ৩ ফুট সামাজিক দূরত্ব নিশ্চতকরণ, গণপরিবহন ব্যবহারের ক্ষেত্রে সরকারী নীতিমালা অনুসরণ এবং করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য স্থানীয় বাসিন্দাদের সচেতন করে।

সাবেক এমপি নুরুল হক ও আ.লীগ নেতা টিপু’র সুস্থতা কামনায় দোয়া

খবর বিজ্ঞপ্তি

খুলনা-৬ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এ্যাড. শেখ মোঃ নুরুল হক ও পাইকগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং জেলা পরিষদের সদস্য শেখ কামরুল হাসান টিপুর সুস্থতা কামনায় পাইকগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (১৭ জুলাই) বিকাল ৪টায় দলীয় কার্যালয়ে এ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন খুলনা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু, সাবেক সংসদ সদস্য এ্যাড. সোহরাব আলী সানা, আওয়ামী লীগ নেতা ডঃ শেখ শহীদুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার ইকবাল মন্টু, সহ-সভাপতি সমিরন সাধু, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আনন্দ মোহন বিশ্বাস, জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন বাবু, জেলা যুবলীগ নেতা শামীম সরকার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শিহাবুদ্দীন ফিরোজ বুলু, প্রভাষক মইনুল ইসলাম, জি এম ইকরামুল ইসলাম, হেমেশ মন্ডল, কাজল কান্তি বিশ্বাস, ইকবাল হোসেন খোকন,বেনজির আহমেদ বাচ্চু,বিভূতি ভূষন সানা,আনিছুর রহমান মুক্ত, তৃপ্তি রঞ্জন সেন, যুবলীগ নেতা এম এম আজিজুল হাকিম , বাবু জগদীশ চন্দ্র রায়, মোঃআকরামুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা পার্থ প্রতীম চক্রবর্তী, রায়হান পারভেজ রনি প্রমুখ।

দেবহাটায় সোলার স্ট্রিট লাইট স্থাপন কাজের উদ্বোধন

কে এম রেজাউল করিম, দেবহাটা

দেবহাটায় শুক্রবার সকালে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর ঘোষণা গ্রামকে শহর বানানোর লক্ষ্যে মাননীয় সংসদ সদস্য ডাঃ আ.ফ.ম রুহুল হক স্যারের অনুকুলে গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষন প্রকল্প টিআর-কাবিখা এর আওতায় দেবহাটা উপজেলার সখিপুর ইউনিয়নের সখিপুর দিঘিরপাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে, চিনেডাঙ্গা জামে সমজিদের সামনে, তিলকুড়া জামে মসজিদের সামনে ও কামটা কৌশিক সেন গুপ্ত এর বাড়িরে সামনে রাস্তার মোড়ে সোলার স্ট্রিট লাইট স্থাপন কাজের উদ্বোধন করেন ৩নং সখিপুর ইউনিয়ন পরিষদের সুযোগ্য চেয়ারম্যান শেখ ফারুক হোসেন রতন।

পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী মোহাম্মদ আলীর মৃত্যু রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন: আ’লীগের শোক

স্টাফ রিপোর্টার

খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা গাজী মোহাম্মদ আলী ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে …….. রাজেউন)। তিনি দীর্ঘদিন যহ্মা রোগে আক্রান্ত ছিলেন। গত ৫/৭ দিন যাবৎ তিনি জ্বরে আক্রান্ত হন। শুক্রবার বিকাল ৪টার দিকে নগরীর সোনারবাংলা মহল্লার বাসায় তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। সাথে সাথে তাকে গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে বিকাল সাড়ে ৪টায় চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। অপরদিকে গাজী মোহাম্মদ আলীর করোনা পরীক্ষার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নমুনা দেয়া হলে সেখানে করোনা পজেটিভ ধরা পড়েছে। মৃতকালে তিনি স্ত্রী ৩ ছেলে, নাতি নাতনি, আত্মীয় স্বজন ও অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। এদিকে বীরমুক্তিযোদ্ধা গাজী মোহাম্মদ আলীকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। পরে বাদ এশা নগরীর সিদ্দিকীয়া মহল্লা মাদ্রাসায় মরহুমের নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। জানাযা শেষে মরহুমকে বসুপাড়া কবরস্থানে দাফন করা হবে। এদিকে গাজী মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে খুলনা মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ শোকাহতদের পাশে যান। সেখানে নেতৃবৃন্দ কিছু সময় অবস্থান করেন এবং ধৈর্য্য ধারনের জন্য সান্তনা দেন। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত কুমার অধিকারী, কামরুজ্জামান জামাল, মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, শেখ মো. আবু হানিফ, মো. আসাদুজ্জামান রিয়াজ, আবু জাফর সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। পরে নেতৃবৃন্দ মরহুমের নামাজে জানাযা সহ সকল অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

অপরদিকে বীরমুক্তি যোদ্ধা গাজী মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ হারুনুর রশীদ, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত কুমার অধিকারী, জাতীয় সংসদের হুইপ পঞ্চানন বিশ্বাস এমপি, সাবেক মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এমপি, খুলনা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আকতারুজ্জামান বাবু, আব্দুস সালাম মুর্শিদী এমপি, সাবেক সংসদ সদস্য সোহরাব আলী সানা।

॥ শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি’র শোক ॥

খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান বীরমুক্তি  যোদ্ধা গাজী মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন।

॥ সেখ সালাহ্ উদ্দিন জুয়েল এমপি’র শোক ॥

খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান বীরমুক্তি  যোদ্ধা গাজী মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহ্ উদ্দিন জুয়েল।

॥ এস এম কামাল হোসেন ॥

খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান বীরমুক্তি  যোদ্ধা গাজী মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রিয় সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন।

॥ শেখ সোহেল ॥

খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান বীরমুক্তি  যোদ্ধা গাজী মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক শেখ সোহেল।

রাষ্ট্রপতির ছোট ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবদুল হাই’র ইন্তেকালে খুবি উপাচার্যের গভীর শোক

খবর বিজ্ঞপ্তি

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর মহামান্য রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদের ছোট ভাই ও তাঁর একান্ত সচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবদুল হাই করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল ১৬ জুলাই দিবাগত রাত ১টা ১৫ মিনিটে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহে … রজিউন)। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর মহামান্য রাষ্ট্রপতির ছোট ভাই ও তাঁর একান্ত সচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবদুল হাই’র মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোক বার্তায় তিনি বলেন, ব্যাক্তিগতভাবে তিনি ছিলেন অত্যন্ত সদালাপী ও অমায়িক মানুষ। উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার বিকাশ সম্পর্কে তিনি ছিলেন খুবই আগ্রহী। ২০১৫ সালে অনুষ্ঠিত খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ম সমাবর্তনে বিশ্ববিদ্যালয়ের আমন্ত্রণ গ্রহণ করে তিনি তাতে উপস্থিত ছিলেন। উপাচার্য মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে শোক সন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন। অনুরুপভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ এবং রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস গভীর শোক প্রকাশ করেন।

বেনাপোলে জীবানু নাশক ওষুধ ছিটানো অব্যাহতঃ লকডাউন মানছে না: উৎসব মুখর পরিবেশ বাজার

বেনাপোল প্রতিনিধি

সারাদেশে করোনা ভাইরাসের জন্য  মানুষ ঘরবন্দী হয়ে পড়েছে। যশোর জেলাকে ইতিমধ্যে লকডাউন ঘোষনা করার পরও মানুষ লকডাউন মানছে না। প্রশাসন হিম শিম খাচ্ছে এসব মানুষদের ঘরমুখো করতে। সবথেকে বেশী অসুবিধা হচ্ছে সীমান্ত সংলগ্ন শহর বেনাপোলে। সকাল থেকে বেনাপোল বাজারে এতটাই লোক সমাগম হচ্ছে দেখলে মনে হবে এটা যে কোন উৎসবের শহর।

যদিও এই শহর পরিচ্ছন্ন রাখতে বেনাপোল পৌরসভা জীবানু নাশক ওষুধ ছিটাচ্ছে গত এক মাসের বেশী। মেয়র ্আশরাফুল আলম লিটনের উদ্যেগে গত ২৪ মার্চ থেকে শহরের প্রতিটি অলিগলিতে চলছে এই জীবানু নাশক ওষুধ। মানুষকে সচেতন করার জন্যও চলছে বেনাপোল পৌরসভা ও ইউনিয়ন এর পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রচার প্রচারনা।

মানুষ সীমান্ত এলাকা হওয়া সত্বেও কোন ভীত সন্ত্রস্ত না হয়ে উৎসব মুখর পরিবেশে নিয়মিত বাজার করছে। পাশ্ববর্তী রাষ্ট্র ভারত থেকে প্রতিদিন এ পথে আসছে শত শত পাসপোর্ট যাত্রী। এদের বহন করার জন্য রয়েছে প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। সেখান থেকে করোনা নামক জীবানু দেশে প্রবেশ করতে পারে তা এসব মানুষের মাথায় নেই। সরকার যশোরকে মৌখিক ঘোষনা দেওয়া সত্বেও মানছে না এসব বিধি নিষেধ। বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশকে সকাল থেকে মোটর সাইকেল  ইজিবাইক সহ অন্যান্য যানবাহন নিয়ন্ত্রন করতে দেখা গেলেও মানুষ পুলিশের চোখ এড়িয়ে বাজারে  ভরে যাচ্ছে। পোর্ট থানা পুলিশ থানার সামনে বেনাপোল লোকাল বাস ষ্টান্ডে কাচা বাজারের সামনে কর্তব্য পালন করলে ও এদের চোখ এড়িয়ে মানুষ অলি গলির মধ্যে দিয়ে বাজারে ঢুকে পড়ছে। এ ব্যাপারে মন্তব্য চাইলে সাংবাদিক জিএম আশরাফ বলেন, আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বিশেষ তৎপর আছে। তবে বাঙ্গালীতো ভদ্র ভাবে কথা বললে শোনে না। এদের দুই একজনকে  গনধুলাই না দিলে লোক সমাগম নিয়ন্ত্রন হবে না।

বেনাপোল পোর্ট থানা ওসি মামুন খান বলেন, ২৪ ঘন্টা আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা কাজ করে যাচ্ছে। তারপর মানুষ এগুলো উপেক্ষা করে বাজারে লুকিয়ে লুকিয়ে আসছে। বিষেশ করে সকালের দিকে লোকজনের ভীড় লক্ষ করা যায়। এছাড়া পুলিশ এর জনবল ও কম যে প্রতিটি পয়েন্টে পয়েন্টে চেকপোষ্ট বসাবো। তারপরও আমরা কাজ করে যাচ্ছি। মানুষকে নিজে থেকে সচেতন হতে হবে। পুলিশের পাশাপাশি জনপ্রতিনিধিদের ও এগিয়ে আসতে হবে।

বেনাপোল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব বজলুর রহমান বলেন, আমরা মানুষকে সচেতন করার জন্য কাজ করে যাচ্ছি। কিন্তু মানুষ নিজেরা সচেতন না হলে কোন কিছু সম্ভব না। বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন বলেন, আমরা বিভিন্ন ভাবে মানুষকে সচেতন করার জন্য প্রচার চালাচ্ছি। বেনাপোল বাজার সহ এই শহরকে সু-রক্ষা করার জন্য আমি নিজ উদ্যেগে এক মাসের বেশী জীবানু নাশক ওষধ ছিটাচ্ছি। প্রতিটি নাগরিককে সচেতন হতে হবে। কারন এটা সীমান্ত লাগোয়া একটি শহর । রাষ্ট্রের গুরুত্ব পুর্ন প্রবেশদ্বার বেনাপোল।

ফকিরহাটে গাঁজা সহ মাদক সম্রাট আটক

ফকিরহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

বাগেরহাটের ফকিরহাটে গাঁজা সহ সুমন মজুমদার (৩৮) নামক এক মাদক সম্রাট কে আটক করেছে বাগেরহাট  মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।১৬ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেলে গোপন সংবাদ এর ভিত্তিতে কলকলিয়া গ্রামের সুমন মজুমদারের বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে অধিদপ্তরের একটি দল। এসময় সুমন মজুমদারের বসত ঘর থেকে ১ কেজি গাঁজা ও মাদক বিক্রির ১৭ হাজার টাকাও উদ্ধার করা হয়। ফকিরহাট মডেল থানায় ওসি তদন্ত নাজমুল হুসাইন বলেন এ ব্যাপারে মডেল থানায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে। এলাকাবাসী জানিয়েছে, সুমন মজুমদার দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদক ব্যাবসা পরিচালনা করে আসছে।

প্রফেসার ড. এমাজউদ্দিন আহমেদ এর ইন্তেকাল: বিএনপি’র শোক

খবর বিজ্ঞপ্তি

উপমহাদেশের অন্যতম প্রজ্ঞাবান, রাস্ট্রচিন্তক ইংরেজী ও বাংলা ভাষায় রাস্ট্র বিজ্ঞানের অসংখ্য বই এর রচয়িতা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসার ড. এমাজউদ্দিন আহমেদ ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না…..রাজিউন)। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টায় ঢাকার ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর।

তার মৃত্যুতে বাংলাদেশ হারালো একজন প্রজ্ঞাবান ব্যক্তিত্ব, নির্মোহ বুদ্ধিবৃত্তিক একজন অসাধারণ প-িত মানুষকে।  প্রফেসার এমাজউদ্দিন ছিলেন শিক্ষকদের শিক্ষক, বিশেষ করে  রাস্ট্র বিজ্ঞান  আর  এমাজউদ্দিন আহমেদ  বাংলাদেশের প্রেমপটে সমর্থক। যিনি জীবনের ৫০বছরেরও বেশী সময় ধরে কাটিয়েছেন দেশ, সমাজ, শিক্ষা ও রাজনীতি নিয়ে গবেষনা চর্চায়। অজ্ঞাতাধিক অতীব উচ্চমানের গ্রন্থের রচয়িতা, দেশে-বিদেশে শীর্ষস্থানীয় শতাধিক জার্নালে তার গবেষনাধর্মী  লেখা তাকে এক অন্য উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছিল। মগজে, মননে, ধ্যান, জ্ঞান ধারনায় এই রাস্ট্রচিন্তিক ছিলেন একজন শতভাগ দেশপ্রেমিক। জাতীয়তাবাদী সমাজনীতির তিনি ছিলেন একজন বিশ্বস্থ পথপ্রদর্শক ও নির্ভরযোগ্য অভিভাবক। এমনকি তার সুযোগ্য দুই পুত্র এবং দুই কন্যা বিদেশে লেখাপড়া করলেও প্রত্যেকেই তার নির্দেশনার আলোকে দেশেই তাদের কর্মজীবন পরিচালনা করছেন। দেশের প্রতি এটা প্রফেসার এমাজউদ্দিন আহমেদের গভীর মমত্ববোধ ও কমিটমেন্টের এক অনুকরণীয় নজীর।

গণতন্ত্রের প্রতি তার ছিল অপরিসীম শ্রদ্ধাবোধ। তিনি নিজে হিংসা বিদ্ধেষের উর্ধ্বে জীবনযাপন করেছেন। পরমত সহিষ্ণুতাকে তিনি দারুণভাবে গুরুত্ব দিতেন। মতপ্রকাশের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী ড. এমাজউদ্দিন সত্য ভাষনে তিনি অকুতোভয়। জীবনের শেষপ্রাপন্তে শত নাগরিক কমিটি নামক গণতন্ত্র ও সুশাসন এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় উচ্চকন্ঠ একটি বুদ্ধিবৃত্তিক সংগঠনের মাধ্যমে তিনি সর্বদা সেচ্চার থাকার নিরলস কর্মপ্রচেষ্টা চালিয়ে গেছে। জাতীয় নানা সংকটে তার ভুমিকা আমাদের কাছে এক উজ্জ্বল আলোকবর্তিকা। জীবনের শেষমুহুর্ত পর্যন্ত এই বৃদ্ধ বয়সেও গণতন্ত্র ও সুশাসনের জন্য তার সংগ্রামী ভুমিকা জাতীয়তাবাদী চিন্তাচেতনার যে কোন মানুষের জন্য অনুপ্রেরনার এক অফুরন্ত উৎস হিসেবে রয়ে যাবে বহুদিন।

এই মহান মানুষের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা এবং আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন নগর বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দরা হলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ভাষাসৈনিক এম নুরুল ইসলাম, নগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশাররফ হোসেন, জাফরউলাহ খান সাচ্চু, জলিল খান কালাম, সিরাজুল ইসলাম, এড. ফজলে হালিম লিটন, স ম আব্দুর রহমান, শেখ ইকবাল হোসেন, শেখ জাহিদুল ইসলাম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, শেখ আমজাদ হোসেন, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মোঃ মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, এসএম আরিফুর রহমান মিঠু ও ইকবাল হোসেন খোকন প্রমুখ।

বিএনপি নেতা আশরাফ আলির ইন্তেকাল : বিএনপি’র শোক

খবর বিজ্ঞপ্তি

দৌলতপুর থানার ১নং ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফ আলি ঢালী ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না…..রাজিউন)।  বৃহস্পতিবার রাত ৩টায় নিজ বাসভবনে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। খানবাড়ি ঈদগাঁ প্রাঙ্গণে বাদ জুম্মা জানাযা শেষে তাকে মহেশ্বরপাশা কবরস্থানে দাফন করা হয়।

আশরাফ আলি ঢালীর মৃত্যুতে গভীর শোক, শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা এবং আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন নগর বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দরা হলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ভাষাসৈনিক এম নুরুল ইসলাম, নগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশাররফ হোসেন, জাফরউলাহ খান সাচ্চু, জলিল খান কালাম, সিরাজুল ইসলাম, এড. ফজলে হালিম লিটন, স ম আব্দুর রহমান, শেখ ইকবাল হোসেন, শেখ জাহিদুল ইসলাম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, শেখ আমজাদ হোসেন, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মোঃ মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, এসএম আরিফুর রহমান মিঠু ও ইকবাল হোসেন খোকন প্রমুখ।

এমাজউদ্দীনকে শ্রদ্ধাভরে মনে রাখবে দেশ: শোকাহত খুলনা বিএনপি

খবর বিজ্ঞপ্তি

রাষ্ট্রবিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমদ কেবল একজন শিক্ষাবিদই ছিলেন না, একাধারে তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব ও গণতন্ত্রের প্রতীক ছিলেন বলে মনে করেন খুলনা মহানগর বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। তাঁর অবদান জাতি শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ রাখবে বলেও জানান নেতৃবৃন্দ। শুক্রবার অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমেদের ইন্তেকালের খবরে শোক জানিয়ে পাঠানো বিবৃতিতে এসব কথা বলেন। ‘দীর্ঘ প্রায় অর্ধশতাব্দি ধরে তুলনামূলক রাজনীতি, প্রশাসন-ব্যবস্থা, বাংলাদেশের রাজনীতি, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতি, দক্ষিণ এশিয়ার সামরিক বাহিনী সম্পর্কে গবেষণা করেছেন অধ্যাপক এমাজউদ্দীন। এসব ক্ষেত্রে সমগ্র দক্ষিণ এশিয়ায় তিনি বিশেষজ্ঞ হিসেবেও প্রখ্যাত। এমাজউদ্দিন আহমেদের মৃত্যু একটি নক্ষত্রের পতন। তার মৃত্যুতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হলো তা অপূরণীয়।’ বিবৃতিদাতারা মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনাসহ শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। বিবৃতিদাতারা হলেন, খুলনা মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি শেখ খায়রুজ্জামান খোকা, মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোঃ আমজাদ হোসেন, মহানগর বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক শফিকুল আলম তুহিন, মহানগর বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল হাসান দুলু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ পারভেজ বাবু, সহ-প্রচার সম্পাদক কেএম হুমায়ুন কবির, মহানগর যুবদলের সভাপতি মাহবুব হাসান পিয়ারু, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি একরামুল হক হেলাল, মহানগর শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান, মহানগর মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক আজিজা খানম এলিজা, মহানগর যুবদলের সাবেক সহ-সভাপতি মোঃ তারিকুল ইসলাম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক ফারুক হিল্টন, যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি নেহিবুল হাসান নেহিম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি এস এম ময়েজ উদ্দিন চুন্নু, মহানগর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আজিজ সুমন, মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হেলাল আহম্মেদ সুমন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মুনতাসির আল মামুন প্রমূখ। নেতৃবৃন্দ অপর এক বিবৃতিতে দৌলতপুর থানা বিএনপি নেতা আশরাফ আলী ঢালীর মৃত্যুতেও শোক প্রকাশ করেছেন।

খুলনায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে ৪ জন নিহতের ঘটনায় মহানগর বিএনপির নিন্দা

খবর বিজ্ঞপ্তি

খুলনার খানজাহান আলী থানার মশিয়ালী এলাকায় দুপক্ষের সংঘর্ষে ৪জন নিহত হওয়ার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি প্রদান করেছেন খুলনা মহানগর বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘খুলনার খানজাহান আলী থানার মশিয়ালী এলাকায় ১৬ জুলাই রাত সাড়ে ৮টায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে ৪জন নিহত হয়েছেন। প্রকাশ্যে গুলি করে মানুষ হত্যার এ ঘটনা অত্যন্ত হৃদয়বিদারক। নেতৃবৃন্দ এ হত্যাকা-ের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আরও বলেন, দেশে আইন আছে, আদালত আছে। কেউ যদি কোনো অপরাধ করে থাকে তা হলে প্রচলিত আইনে তার বিচার হতে পারে। কিন্তু আইনের কোনো তোয়াক্কা না করে একে অপরের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে মানুষ হত্যা পৈশাচিকতার চরম বহিঃপ্রকাশ। নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করে এ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। একই সাথে সংঘর্ষের ঘটনায় যারা নিহত হয়েছেন তাদের পরিবার-পরিজনদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন। বিবৃতিদাতারা হলেন, খুলনা মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি শেখ খায়রুজ্জামান খোকা, মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোঃ আমজাদ হোসেন, মহানগর বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক শফিকুল আলম তুহিন, মহানগর বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল হাসান দুলু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ পারভেজ বাবু, সহ-প্রচার সম্পাদক কেএম হুমায়ুন কবির, মহানগর যুবদলের সভাপতি মাহবুব হাসান পিয়ারু, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি একরামুল হক হেলাল, মহানগর শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান, মহানগর মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক আজিজা খানম এলিজা, মহানগর যুবদলের সাবেক সহ-সভাপতি মোঃ তারিকুল ইসলাম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক ফারুক হিল্টন, যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি নেহিবুল হাসান নেহিম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি এস এম ময়েজ উদ্দিন চুন্নু, মহানগর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আজিজ সুমন, মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হেলাল আহম্মেদ সুমন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মুনতাসির আল মামুন প্রমূখ।

বিএনপির অভিনন্দন: বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে দৈনিক পূর্বাঞ্চল ও দৈনিক সমকালের ফটো সাংবাদিক মো. জাহিদুল ইসলাম (সভাপতি), দেবব্রত রায় (সহ-সভাপতি), বাহাউদ্দিন বাহার (সহ-সভাপতি), সাধারণ সম্পাদক পদে দৈনিক প্রবর্তনের ফটো সাংবাদিক নাজমুল হক পাপ্পু, কাজী ফজলে রাব্বী শান্ত (যুগ্ম-সম্পাদক), মো. হেলাল মোল্লা (যুগ্ম-সম্পাদক), সাগর সরকার (কোষাধ্যক্ষ), মোঃ সোহেল রানা (দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক), মাঞ্জারুল ইসলাম (নির্বাহী সদস্য) নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন খুলনা মহানগর বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিদাতারা হলেন, খুলনা মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি শেখ খায়রুজ্জামান খোকা, মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মোঃ আমজাদ হোসেন, মহানগর বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক শফিকুল আলম তুহিন, মহানগর বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল হাসান দুলু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ পারভেজ বাবু, সহ-প্রচার সম্পাদক কেএম হুমায়ুন কবির, মহানগর যুবদলের সভাপতি মাহবুব হাসান পিয়ারু, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি একরামুল হক হেলাল, মহানগর শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান, মহানগর মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক আজিজা খানম এলিজা, মহানগর যুবদলের সাবেক সহ-সভাপতি মোঃ তারিকুল ইসলাম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক ফারুক হিল্টন, যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি নেহিবুল হাসান নেহিম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি এস এম ময়েজ উদ্দিন চুন্নু, মহানগর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আজিজ সুমন, মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হেলাল আহম্মেদ সুমন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মুনতাসির আল মামুন প্রমূখ।

করোনা পজিটিভ স্বামীর মৃত্যুর ৪ দিন পর উপসর্গে স্ত্রীর মৃত্যু

যশোর প্রতিনিধি

উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়ার চার দিন পর জানা যায় আলী হোসেন সরদার (৭৫) করোনা পজিটিভ ছিলেন। গত ১২ জুলাই মৃত্যুবরণ করেন চৌগাছা উপজেলার ধুলিয়ানি ইউনিয়নের মুকুন্দপুর গ্রামের আলী হোসেন। ১৬ জুলাই তার ছেলে গ্রাম্য চিকিৎসক আব্দুর রাজ্জাকের মোবাইলফোনে ক্ষুদে বার্তায় জানানো হয় তার বাবা করোনা পজিটিভ ছিলেন। ওই দিনই উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার তত্ত্বাবধানে পরিবারের অন্য পাঁচ সদস্যের নমুনা নেওয়া হয়। দুপুরে নমুনা দেওয়ার পর রাতে আলী হোসেন সরদারের স্ত্রী সুফিয়া খাতুন (৬৫) মারা যান। আব্দুর রাজ্জাক সাংবাদিকদের জানান, এক সপ্তাহ ধরে তার বাবার জ্বর ছিল। সেরে যাওয়ার পর আবার জ্বর আসলে ১১ জুলাই বেলা ১২টার দিকে চৌগাছা শহরের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে নেওয়া হয়। শ্বাসকষ্ট থাকায় অক্সিজেন দেওয়ার পর তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে রেফার করা হয়। সেখানে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি অবস্থায় ১২ জুলাই তিনি মারা যান। তার মৃত্যুর দুদিন পর মোবাইলফোনে জানানো হয় তার বাবা করোনা পজিটিভ ছিলেন। এরপর বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) তার মোবাইলফোনে ক্ষুদে বার্তা (করোনা পজিটিভের রিপোর্ট) আসে। বৃহস্পতিবারই উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার তত্ত্বাবধানে পরিবারের অন্য পাঁচ জনের নমুনা নেওয়া হয়। এরপর রাত ৯টার দিকে তার মা সুফিয়া খাতুন মারা যান।

এদিকে, আলী হোসেন সরদারের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসার পর সুফিয়া খাতুনের মৃত্যু হওয়ায় গ্রামের কেউ সুফিয়ার মরদেহ দেখতেও আসেননি। লাশ নিয়ে সারারাত ছেলে আব্দুর রাজ্জাকসহ পরিবারের সদস্যরা বসে ছিলেন। পরে শুক্রবার সকালে চৌগাছা পৌর মেয়রের নেতৃত্বে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘অগ্রযাত্রা’র সদস্যরা ওই গ্রামে যান। সুফিয়া খাতুনের মেয়ে তার মায়ের লাশের গোসল করানোর পর ‘অগ্রযাত্রা’র সদস্যরা সকাল সাড়ে ৮টায় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করেন। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. লুৎফুন্নাহার বলেন, ‘উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া আলী হোসেনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসার পর বৃহস্পতিবার ওই পরিবারের অন্য পাঁচ জনের নমুনা নেওয়া হয়। এরপর রাতে সুফিয়া খাতুন মারা যাওয়ার সংবাদ পাই। তারও জ্বর ও কাশি ছিল। যিনি গোসল করিয়েছেন ও যারা কবরে মৃতদেহ নিয়েছেন, তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষাগ্রহণ করে সৎকার করতে বলা হয়। যে মেয়েটি গোসল করিয়েছেন তার নমুনা আগে নেওয়া হয়নি। এখন তার নমুনা নেওয়া হবে।’

আট মাসেও খবর নেই সেই ১৯ কেজি সোনার

বেনাপোল প্রতিনিধি

বেনাপোল কাস্টমসের গোপন লকার থেকে চুরি যাওয়া ১৯ কেজি সোনার কোনও খবরই নেই। আট মাস পার হয়ে গেলও এখনও পর্যন্ত এই সোনা উদ্ধার তো দূরের কথা, পুলিশ কোনও তথ্যও জানাতে পারেনি। চুরির অভিযোগে শুধু দুই জনকে আটক করেছে যশোর সিআইডি পুলিশ। সোনা চুরির ঘটনাটি বর্তমানে সিআইডি তদন্ত করছে। এদিকে কাস্টমসের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দফতরে এখনও বহিরাগতদের (এনজিও) দাপট থাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে আবারও প্রশ্ন তুলেছেন সংশ্লিষ্টরা। জানা যায়, বেনাপোলের বিভিন্ন সীমান্তে পাচারকারীদের কাছ থেকে জব্দ করা স্বর্ণ, ডলার, বৈদেশিক মুদ্রাসহ অনান্য মূল্যবান সম্পদ জমা রাখা হয় কাস্টমস হাউজের গোপন লকারে। গত বছরের ৯ নভেম্বর লকার থেকে চুরি হয় ১৯ কেজি সোনা। তবে লকারে থাকা আরও কিছু সোনা, ডলার, বৈদেশিক মুদ্রা ও অন্যান্য সম্পদ অক্ষত অবস্থায় ছিল। এ নিয়ে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ পোর্ট থানায় মামলা করে। চোর সন্দেহে প্রথমে কাস্টমসের ছয় জনকে আটক করা হলেও পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। মামলার কোনও অগ্রগতি না হওয়ায় ২৭ নভেম্বরে মামলাটি চলে যায় সিআইডিতে। বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন বলেন, সিসি ক্যামেরার আওতায় কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে চুরির ঘটনা ঘটেছে। এখন তথ্য-প্রযুক্তির সময় প্রশাসন যদি আন্তরিক হয়ে কাজ করে চোর ধরা কঠিন কোনও কাজ না।

বেনাপোলের ব্যবসায়ীরা বলেন, কাস্টমসে অবৈধ প্রবেশ রোধ করতে হবে। প্রয়োজনে রেজিস্টার ও ফিঙ্গার প্রিন্ট সিস্টেম চালু করা যেতে পারে। কাস্টমসের অবহেলার কারণে সরকারের এ সম্পদ চুরির ঘটনা ঘটেছে। ব্যবসায়ীরা আরও বলেন, নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে সরকারের এত বড় সম্পদ যারা অবহেলায় রেখেছিলেন তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। অপরাধীকে শনাক্ত করতে ব্যর্থ হলে আগামীতে এমন ঘটনা আবারও ঘটবে। বেনাপোল কাস্টমস হাউজের অতিরিক্ত কমিশনার নেয়ামুল ইসলাম বলেন, সোনা চুরির ঘটনা কাস্টমসের সব অর্জনকে ম্লান করে দিয়েছে। চোরকে দ্রুত ধরা দরকার যেন আর কেউ ভবিষ্যতে সরকারের কোনও সম্পদ চুরি করতে সাহস না পায়। বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি মামুন খান  বলেন, এখন পর্যন্ত চুরি হওয়ার স্বর্ণ গুলো উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। তবে মামলাটি পোর্টথানা থেকে সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়েছে। এখন তারা বিষয়টি দেখছেন। যশোর সিআইডি পুলিশের ওসি জাকির হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, গত আট মাস আগে বেনাপোল কাস্টমস হাউজের গোপন লকার থেকে সোনা চুরি গেলেও তা উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। তবে এ ঘটনায় বহিরাগত আজিবর ও শাকিল নামে দুই জনকে আটক করা হয়েছে। তারা বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছে। সোনার কোনও হদিস মেলেনি।

পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্ত্রীকে মেরে ফেলল স্বামী

নাটোর প্রতিনিধি

নাটোরের লালপুরে পুকুর থেকে স্মৃতি বেগম (২০) নামে এক গৃহবধূর রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার মোহরকয়া গ্রাম থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত স্মৃতি বেগম মোহরকয়া গ্রামের আব্দুল জব্বারের স্ত্রী। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, দুপুরে লালপুরের মোহরকয়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের মৃত এলাহী বক্সের পুকুরে একটি মরদেহ ভেসে ওঠে। এ সময় স্থানীয় লোকজন মরদেহটি স্মৃতির বলে নিশ্চিত করেন। স্থানীয়রা জানান, মোহরকয়া পিয়াদাপাড়া গ্রামের তসলুর মেয়ে স্মৃতির সঙ্গে ইংরেজের ছেলে আব্দুল জাব্বারে (৩০) বিয়ে হয়। তাদের ঘরে এক কন্যা সন্তান রয়েছে। কিন্তু জব্বার পরকীয়ার জড়িয়ে পড়ায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকতো। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) রাতের কোনো এক সময় স্মৃতিকে পিটিয়ে হত্যা করে পুকুরে ফেলে দেন জাব্বার। দুপুরে মরদেহ ভেসে উঠলে বিষয়টি জানাজানি হয়।

এ বিষয়ে লালপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা জানান, এ ঘটনায় এখনও কোনো মামলা করা হয়নি। পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে।

একই পরিবারের ৪ জনকে কুপিয়ে হত্যা: কুড়াল উদ্ধার

খুলনাঞ্চল রিপোর্ট

টাঙ্গাইলের মধুপুরে একই পরিবারের চার জনকে গলা কেটে ও কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় একটি কুড়াল উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (১৭ জুলাই) দুপুরে ঘটনাস্থল থেকে কুড়ালটি উদ্ধার করা হয়। টাঙ্গাইল জেলা পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় এ তথ্য নিশ্চিত করেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় সাংবাদিকদের জানান, নিহত গনি মিয়া ভ্যানের ব্যবসা করে পরিবারের ভরন পোষণ করতেন। কী কারণে এবং কেন তাদের এভাবে হত্যা করা হতে পারে সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। নিহতদের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে রক্তমাখা একটি কুড়াল উদ্ধার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে সেটি দিয়েই তাদের চারজনকে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া সিআইডি, র‌্যাব ও জেলা পুলিশের সদস্যরা বাড়িটি ঘিড়ে রেখে অন্যান্য আলামত সংগ্রহ করেছে। নিহতদের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। দ্রুততম সময়ের মধ্যেই এই হত্যাকা-ে জড়িতদের খুঁজে বের করা হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। উল্লেখ্য, শুক্রবার (১৭ জুলাই) সকাল ৯টার দিকে মধুপুর পৌর এলাকার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তরা আবাসিক এলাকার (মাস্টারবাড়ি) একতলা একটি বাসা থেকে গনি মিয়া (৪৫), তার স্ত্রী তাজিরন বেগম বুচি (৩৭), ছেলে তাজেল (১৩) ও মেয়ে সাদিয়ার (৯) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এর আগে গত তিন থেকে চারদিন ধরে তাদের কোনো সাড়া শব্দ পাওয়া যায়নি। এছাড়া বাড়ির বাইরে থেকে বাসার গেট তালাবদ্ধ থাকায় সন্দেহ হয় স্থানীয়দের। শুক্রবার সকালে বাড়ির ভিতর থেকে তীব্র দুর্গন্ধ আসা শুরু হলে তারা বিষয়টি পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ গিয়ে তালা ভেঙে ভিতরে চার জনের লাশ দেখতে পায়।

একটু ঘুরে দাঁড়াতেই আবার দুর্যোগ, অস্তিত্ব সংকটে উপকূলের মানুষ

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

‘আমারগো আর এ এলাকায় বাস হবে না। ভিটেমাটি ছেড়ে ছেলেপুলে নে বাইরির দিক গেবরাতি হবেনে (চলে যেতে হবে)। ঝড় আর তুপান আলিই নদীর পানিতে সব ভাসে যায়। ঘুরে দাঁড়াতি দাঁড়াতি আবার বাঁধ ভাঙে পানিতে তলিয়ে যাতি হয়।’ সত্তোরোর্ধ্ব রোকসানা খাতুন কথা শেষ না করেই হাতের ইশারায় ইঙ্গিত করেন সমুদ্রের জলরাশি থেকে তাঁদের রক্ষাকারী উপকূল রক্ষা বাঁধের দুরবস্থার দিকে। দ্বীপ ইউনিয়ন গাবুরাকে ঘিরে রাখা চারপাশের উপকূল রক্ষা বাঁধের চরম জরাজীর্ণ দশা প্রতিটি মুহূর্তে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে বলে দাবি করেন রোকসানার প্রতিবেশী আজিজুল মোল্যাও। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, সিডর, আইলা, বুলবুল কিংবা আম্পানের মতো প্রাকৃতিক কোনো দুর্যোগ এলেই কেবল কর্তাব্যক্তিদের তৎপরতা চোখে পড়ে। কিন্তু কোনো রকমে বিপদ কেটে গেলেই ভীতিকর পরিস্থিতির কথা তাঁরা বেমালুম ভুলে যান। প্রায় অভিন্ন অভিযোগ করে শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালিনী গ্রামের প্রভাষক পরীক্ষিত ম-ল জানান, ঘূর্ণিঝড় আম্পান আঘাতের পর প্রায় দুই মাস অতিক্রান্ত হতে চলল, কিন্তু এখন পর্যন্ত তাঁদের এলাকায় টেকসই উপকূল রক্ষা বাঁধ তৈরির কোনো তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না। কেবল ভেঙে যাওয়া তিনটি স্থানে নামকাওয়াস্তে রিং বাঁধ নির্মাণ করা হয়েছে। বুড়িগোয়ালিনী গ্রামের বিধবা জহুরা বেগম ও কেয়া খাতুন জানান, গত ২০ মে খোলপেটুয়া নদীর বাঁধ ভেঙে অন্যান্য পরিবারের মতো তাঁরাও দীর্ঘদিন জোয়ার–ভাটার মধ্যে বসবাস করেছেন চরম দুর্ভোগের মধ্যে। ভাঙনকবলিত দুর্গাবাটি এলাকায় রিং বাঁধ স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে নির্মাণ হওয়ার পর তাঁরা ক্ষতবিক্ষত বাস্তুভিটায় ফিরেছেন। বিধ্বস্ত ভিটায় দোচালা তুলে বসবাস শুরু করেছেন। কিন্তু উঁচু টেকসই বাঁধ নির্মাণ না হলে সামান্য জলোচ্ছ্বাসে আবার তাঁরা গৃহহীন হবেন ছেলেমেয়ে নিয়ে। এভাবে চলতে থাকলে তাঁদের বংশধরদের পরিচয় ও ঠিকানা হারিয়ে যাবে। গোলাখালী গ্রামের আবুল হোসেন ও দুর্গাবাটি গ্রামের নীলকান্ত রপ্তান জানান, ষাটের দশকে নির্মিত শ্যামনগরের আওতাভুক্ত ৫ ও ১৫ নম্বর পোল্ডারের জীর্ণশীর্ণ বাঁধ নিয়ে সুন্দরবন ও বঙ্গোপসাগরের তীরবর্তী এ উপজেলায় বসবাসকারী প্রতিটি পরিবারই আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে একসময় গোটা এলাকা মানুষের বসবাসের অনুপযোগী হয়ে পড়বে। গাবুরা, পদ্মপুকুর, বুড়িগোয়ালিনী কৈখালী, কাশিমাড়ীসহ গুরুত্বপূর্ণ জনপদ রক্ষা করতে হলে আইলার পর ২০১০ সালে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী এ অঞ্চলে টেকসই প্রযুক্তিতে নতুন করে উপকূল রক্ষা বাঁধ নির্মাণ করতে হবে। সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্র জানায়, শ্যামনগরের গাবুরা, পদ্মপুকুর, কাশিমাড়ী, বুড়িগোয়ালিনী, মুন্সিগঞ্জ, রমজাননগর, কৈখালী ইউনিয়নসহ উপজেলায় প্রায় দুই কিলোমিটার পাউবোর বাঁধ রয়েছে। এসব বাঁধ অধিকাংশ ষাটের দশকে নির্মাণ করা। বর্তমানে ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ বাঁধ ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। কাশিমাড়ী, গাবুরা ও বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নের কয়েকটি এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, আম্পান আঘাতের পর গোটা উপকূল রক্ষা বাঁধ যেন সরু আইলে পরিণত হয়েছে। গাবুরার তিনটিসহ দাতিখালী, দুর্গাবাটি ও কাশিমাড়ীর অংশে রিং বাঁধ নির্মাণ করে আপাতত নদীর পানি লোকালয়ে ঢোকা আটকানো হয়েছে। তবে আবার বড় ধরনের কোনো জলোচ্ছ্বাসে তা নিমেষেই বিলীন হয়ে যেতে পারে। পরিবেশ আন্দোলনের নেতা আশেক-ই-এলাহি জানান, আম্পানের আঘাতে লন্ডভন্ড হওয়ার পর থেকে উপকূলবর্তী শ্যামনগর ও আশাশুনির মানুষ ‘ত্রাণ নয়, টেকসহ বাঁধ চাই’ দাবি জানালেও এখনো পর্যন্ত পাউবো কর্তৃপক্ষের কোনো অগ্রগতি দেখা যাচ্ছে না। আম্পানের দুই মাস হয়ে গেলেও রিং বাঁধ দেওয়া ছাড়া কিছুই হয়নি। চলতি বর্ষা মৌসুমে যেকোনো সময় বাঁধ ভেঙে আবার এসব এলাকা পানিতে তলিয়ে মানুষ সম্বলহীন হয়ে পড়তে পারেন। এ বিষয়ে সাতক্ষীরা পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল খায়ের জানান, প্রাথমিকভাবে রিং বাঁধ দিয়ে লোকালয়ে পানি ঢোকা বন্ধ করা হয়েছে। এখন এসব বাঁধে মাটি দিয়ে দেওয়া হবে। এসব বাঁধ নতুন করে নির্মাণ ও সংস্কার করার জন্য প্রকল্প করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন হলে কাজ হবে।

সাংবাদিক জনির জন্ম দিন উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ

খবর বিজ্ঞপ্তি

বৃক্ষরোপণ ও কেক কাটার মধ্য দিয়ে পালিত হল খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রচার ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা এস এম নূর হাসান জনি’র জন্ম দিন। শুক্রবার সকালে বেলা ১১টায় খালিশপুর লাল হাসপাতাল প্রাঙ্গণে ২০টি চারা গাছ রোপন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মুন্সী মাহাবুব আলম সোহাগ, খুলনা মহানগর যুবলীগের আহবায়ক সফিকুর রহমান পলাশ, খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারন সম্পাদক মোঃ শাহ আলম, সিনিয়র সহ সভাপতি হুমায়ুন কবির, কেন্দ্রীয় বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলার প্রেসিডিয়াম সদস্য হাসান মোঃ হাফিজুর রহমান, খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি তালুকদার মশিউর রহমান, খুলনা মহানগর যুবলীগের সদস্য শেখ মহিদুল ইসলাম মিলন, যুবলীগ নেতা আশরাফুল ইসলাম মুন, সাংবাদিক মোহম্মদ মিলন, হাসানুর রহমান তানজির, শেখ শান্ত ইসলাম, নুরুল আমিন, আলামিন, জহিরুল ইসলাম জয়, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কামাল বেপারী, মুহসিন কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক এজিএস এম এম মাসুদুর রহমান, যুবলীগ নেতা আসিফ ইকবাল টনি, যুব নেতা এনায়েত হোসেন, রবিউল ইসলাম রবি, মহানগর ছাত্রলীগ নেতা শাহ আরাফাত রাহিব, মিজানুর রহমান হাসান, সাইদুর রহমান বাপ্পি, সোহাগ, সাবেক ছাত্র নেতা আশিক এলাহি রানা, সাগর শিকদার, হাফিজুর রহমান, খালিশপুর থানা ছাত্রলীগ নেতা শেখ শ্ওান বাবু, জসিম উদ্দীন, সাইফুল ইলাম রাব্বি, সাজিদ হোসেন প্রমুখ।

যশোরে ছুরিকাঘাতে ক্ষতবিক্ষত তরুনের লাশ উদ্ধার

যশোর অফিস

যশোরে আলাউদ্দিন কলু (১৮) নামে ছুরির আঘাতে ক্ষতবিক্ষত এক তরুণের লাশ উদ্ধার হয়েছে। সে যশোর শহরতলীর আরবপুর মোড় এলাকার শুকুর আলীর ছেলে।

শুক্রবার সকাল দশটা ৩৫ মিনিটের সময় মৃত অবস্থায় তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে আনেন কয়েক ব্যক্তি। মৃতের শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন খান জানান, আলাউদ্দিনকে কয়েক যুবক মৃত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তার বুকসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

কোতয়ালী থানার ইনসপেক্টর (অপারেশন) শেখ আবু হেনা মিলন বলেন, হত্যার শিকার ওই যুবকের লাশ বারান্দি মোল্লাপাড়া লিচুতলা এলাকা থেকে উদ্ধার হয়। খুনের কারণ জানা যায়নি। খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।

শুক্রবার যশোর সাতক্ষীরা মাগুরার ৫৬ নমুনা পজেটিভ

যশোর অফিস

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় জেনোম সেন্টার আজ তিন জেলার ৫৬ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত করেছে।

বৃহস্পতিবার মোট ১৪৮টি নমুনা পরীক্ষা শেষে শুক্রবার এই ফলাফল প্রকাশ করা হয়। এদিন নেগেটিভ রেজাল্ট দিয়েছে ৯২টি নমুনা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের এনএফটি বিভাগের চেয়ারম্যান ও পরীক্ষণ দলের সদস্য ড. শিরিন নিগার জানান, এদিন তাদের ল্যাবে যশোরের ৫১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ১৬টি পজেটিভ ফল দেয়।

এছাড়া মাগুরার ৫২টি নমুনা পরীক্ষা করে ২২টি এবং সাতক্ষীরার ৪৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৮টিকে পজেটিভ হিসেবে শনাক্ত করা হয়। পরীক্ষা সংক্রান্ত সব তথ্য সংশ্লিষ্ট তিন সিভিল সার্জন অফিসে পাঠানো হয়েছে। এরপর স্থানীয় প্রশাসন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের বাড়ি লকডাউনসহ পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে।

যশোরে পজেটিভ হওয়া নমুনাগুলোর মধ্যে কতটি নতুন আর কতটি ফলোআপ তা জানাতে পারেনি স্বাস্থ্য বিভাগ। তবে আক্রান্তদের মধ্যে বাঘারপাড়ার চারজন, কেশবপুরের ছয়, অভয়নগরের দুই এবং শার্শার তিনজন রয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

স্বাস্থ্য বিভাগের হিসেব অনুযায়ী বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত যশোর জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে শনাক্ত ছিলেন মোট এক হাজার ২১০ জন। এদের মধ্যে মারা গেছেন ১৭ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬২৮ জন।

যশোরের শার্শায় ৩ ডাকাত আটক, অস্ত্র উদ্ধার

যশোর অফিস

যশোরের শার্শার নাভারনে একটি বাড়িতে ডাকাতির সময় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার ভোরে নাভারন রেল বাজারের পাশে শাওন গাজীর বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

আটককৃত আসামিরা হলো, শার্শার যাদবপুর গ্রামের হৃদয় হোসেন (২৮ ), একই গ্রামের বিল্লাল হোসেন, নাটোর জেলার সদর থানার বাসিন্দা সাদ্দাম হোসেন (৩০)।

শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম বলেন, ‘নাভারন রেল বাজার রেল লাইনের পাশে শাওন গাজীর বাড়িতে ডাকাতির সময় ৩জনকে আটক করা হয়েছে। এসময় ১টি রাম দা, ১টি চাকু, ১টি খেলনা পিস্তল ও ২টি মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে শার্শা থানার মামলা হয়েছে। তাদেরকে যশোর কোর্টে সোপর্দ করা হবে।

 জেলা প্রশাসক এর মাধ্যমে ২০ জুলাই প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্বারকলিপি প্রদান সহ নতুন কর্মসুচী ঘোষনা

মহসেন জুট মিলের চুড়ান্ত পাওনা পরিশোধের দাবিতে শ্রমিক জনসভা

ফুলবাড়ীগেট(খুলনা) প্রতিনিধি

খুলনার শিরোমণি শিল্পাঞ্চলের ব্যক্তিমালিকানাধীন মহসেন  জুট মিলের  শ্রমিক কর্মচারীদের পিএফ, গ্রাচুইটি সহ  চুড়ান্ত পাওনা পরিশোধের দাবিতে ঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে শুক্রবার  বিকাল ৪ টায় মিল এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল শেষে মহসিন জুট মিলস শ্রমিক কলোনিতে শ্রমিক জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন মোঃ এরশাদ আলী। বক্তৃতা করেন মহসেন জুট মিল ওয়াকার্স ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক  গোলাম রসুল খান, মোড়ল আব্দুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহাতাব উদ্দিন, কাগজী ইব্রাহিম, ইঞ্জিল কাজী, ডাঃ ফরিদ হোসেন, ক্বারী আছহাব উদ্দিন, মোঃ হাসেম আলী, আমির মুন্সি, মঙ্গল, শাহজাহান , রবিন দাস প্রমুখ। সভায় নেতৃবৃন্দরা বলেন ছাটাইয়ের ৭ বছর অতিবাহিত হলেও   শ্রমিক কর্মচারীদের যাবতীয় পাওনাদি পরিশোধ করা হয়নি।   আগামী ২১  জুলাই মঙ্গলবার  সকাল ১১ টায় খুলনা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মাননীয়  প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্বারকলিপি এবং ২৪ জুলাই শুক্রবার  মহসেন জুট মিলের শ্রমিক কলোনিতে  শ্রমিক জনসভার মাধ্যমে  কঠিন আন্দোলনের  কর্মসূচী ঘোষনা করা হবে।

সাতক্ষীরার মাধবকাটি এলাকা থেকে দুই কেজি গাঁজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

সাতক্ষীরার মাধবকাটি এলাকা থেকে দুই কেজি গাঁজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটেলিয়নের (র‌্যাব) সদস্যরা। শুক্রবার ভোরে সদর উপজেলার মাধবকাটি অন্যের মোড় নামক স্থানের পাকা রাস্তার উপর থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক মাদক ব্যবসায়ীর নাম শাহিনুর সরদার (৩১)। তিনি সদর উপজেলার বাবুলিয়া কুচপুকুর গ্রামের রেছাতুল্লাহ সরদারের ছেলে। র‌্যাব জানায়, সদর উপজেলার মাধাবকাটি এলাকায় কতিপয় ব্যক্তি মাদক দ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় করার উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তি র‌্যাব-৬ এর সাতক্ষীরা ক্যাম্পের অধিনায়ক সিনিয়র এ.এস.পি বজলুর রশিদের নেতৃত্বে একটি আভিযানিক দল সেখানে অভিযান চালায়। এ সময়  মাধবকাটি অন্যের মোড় নামক স্থানের জনৈক আতাউর মেম্বরের বাড়ির পিছনে পশ্চিম পাশের পাকা রাস্তার উপর থেকে দুই কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী শাহিনুর সরদারকে হাতেনাতে আটক করা হয়। র‌্যাব সাতক্ষীরা ক্যাম্পের অধিনায়ক সিনিয়র এ.এস.পি বজলুর রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আটক মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

বন্ধুদের সামনে বকা দেয়ায় কিশোর রাজিবের আত্মহত্যা!

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাপ-ছেলের একটি মোটর সাইকেল। ওই মোটর সাইকেলে পালা করে ভাড়ায় যাত্রী পরিবহন করাই তাদের পেশা। সন্ধ্যায় ছেলে রাজিব ওরফে হৃদয় পহলানের (১৬) যাত্রী নিয়ে যাওয়ার কথা, কিন্তু সে না গিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডায় মেতে ছিলো। এসময় বাবা রাগ মাথায় বন্ধুদের সামনে ছেলেকে বকাঝকা করে। এতে ওই কিশোর ক্ষোভে-লজ্জায় রাতে বাড়িতে গিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাতে বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের খুঁড়িয়াখালী গ্রামে। পুলিশ বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই বাড়ি থেকে কিশোরের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। নিহত রাজিব ওরফে হৃদয় ওই গ্রামের বেল্লাল পহলানের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, মোটর সাইকেল চালাতে না গিয়ে রাজিব খুঁড়িয়াখালী বাজারের পাশে নদীর পাড়ে বসে বন্ধুদের নিয়ে আড্ডা দেওয়ায় তার বাবা বকাবকি করে। সেই ক্ষোভে হয়তো আত্মহত্যা করেছে। এছাড়া, বছর খানেক আগে রাজিবের বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করে এবং এক মাস আগে তার মাকে তালাক দেয়। ওরা তিন ভাইবোন সৎ মায়ের কাছে থাকতো। এনিয়েও রাজিব মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলো।

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসকে আব্দুল্লাহ আল সাইদ জানান, লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ছেলেটি কি কারণে আত্মহত্যা করেছে তা জানা যায়নি। স্থানীয়দের অভিযোগের বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখা হবে।

বাগেরহাটে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ১, সুস্থ ২৩

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাট জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছেন মাত্র ১ জন। এ নিয়ে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত জেলায় করোনা রোগীর সংখ্যা দাড়ালো ৩৬১ জনে। নতুন করে সুস্থ হয়েছেন ২৩ জন। বর্তমানে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা দাঁড়ালো ২২৮। বাগেরহাট সিভিল সার্জন কেএম হুমাউন কবির জানান, পিসিআর ল্যাব থেকে মাত্র  ১ জন শনাক্ত হওয়ার তথ্য দিয়েছে।

কেশবপুরে করোনায় গৃহবধূর মৃত্যু

আলমগীর হোসেন, কেশবপুর

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যশোরের কেশবপুর উপজেলায় জাহিদা বেগম (৫০) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) দুপুরে মৃত্যু হয় তার। সে উপজেলার মজিদপুর গ্রামের আব্দুল বারিকের স্ত্রী। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার আলমগীর জানান, গত ১২ জুলাই ওই নারী করোনা উপসর্গ নিয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। ১৩ জুলাই চিকিৎসারত অবস্থায় তার নমুনা সংগ্রহ করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জিনোম সেন্টারে পাঠানো হয়। ১৪ জুলাই তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হলে তিনি কোথাও চিকিৎসার জন্য ভর্তি না হয়ে পার্শ্ববর্তী কলারোয়া উপজেলার কেড়াগাছি ইউনিয়নের দমদম বাজারে বাবার বাড়িতে যান। ১৫ জুলাই তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পৌঁছায়। এরপর গত বৃহস্পতিবার দুপুরে বাবার বাড়িতে তার মৃত্যু হয়। এ খবর জানতে পেরে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার আলমগীর কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করেন। সেখানে দাফনের ব্যবস্থা করতে না পেরে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা জাহিদা বেগমের মরদেহ বাবার বাড়ি থেকে শ্বশুর বাড়ি কেশবপুর উপজেলার মজিদপুর গ্রামে দাফন সম্পান্ন হয়।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ৬ জুলাই কেশবপুরের কালিয়ারই গ্রামের এসবিএল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অবসরপাপ্ত প্রধান শিক্ষক নূরুল ইসলাম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। এ পর্যন্ত কেশবপুরে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬৩ জন ও সুস্থ হয়েছেন ৪৩ জন মৃত্যুবরণ করেন ২জন।

কেশবপুর উপজেলা মাইক লাইট মালিক ও শ্রমিক কল্যান সমিতি গঠন

কেশবপুর প্রতিনিধি :

যশোরের কেশবপুরে ডেকোরেটর ব্যবসার সাথে জড়িত মাইক লাইট মালিক ও শ্রমিকদের নিয়ে বৃহ¯পতিবার সকালে মাইক লাইট মালিক ও শ্রমিক কল্যান সমিতিগঠন করা হয়েছে। যশোর জেলা মাইক লাইট মালিক ও শ্রমিক কল্যান সমিতির উদ্যেগে উপজেলার ত্রিমোহিনী ইউনিয়ন পরিষদের হল রুমে অনুষ্ঠিত মাইক, লাইট মালিক ও শ্রমিক কল্যান সমিতি গঠন উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ডেকোরেটর ব্যবসায়ী মশিয়ার রহমানের সঞ্চলনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, যশোর জেলা মাইক, লাইট মালিক ও শ্রমিক কল্যান সমিতির সভাপতি বাবু গোলক চন্দ্র দত্ত। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন যশোর জেলা মাইক, লাইট মালিক ও শ্রমিক কল্যান সমিতির সহ-সভাপতি ইদ্রিস আলী, সাধারন স¤পাদক মুরাদ হোসেন প্রমূখ। আলোচনা শেষে রবিঊল ইসলামকে সভাপতি ও জি,এম, হাসানকে সাধারন স¤পাদক করে  ১৩ সদস্য বিশিষ্ট  একটি কমিটি গঠন করা হয় । কমিটি অন্যান্য সদস্যরা হলেন সহ-সভাপতি আব্দুল আজিজ, বাবু শ্যামল কুমার, সহ-সাধারন স¤পাদক সুলাইমান, জিলুর রহমান, সাংগাঠনিক স¤পাদক বাবু তপন কুমার, সহ-সাংগাঠনিক স¤পাদক তবিবুর রহমান, মুকুল হোসেন, কোষাধ্যক্ষ বাবু শংকর পাল, সহ কোষাধ্যক্ষ বাবু তারক দেবনাথ, সুশান্ত কুমার মলিক, আনন্দ মজুমদার।

রামপালে বিমানবন্দরের অধিগ্রহনকৃত জমির মালিকদের মাঝে জেলা প্রশাসকের চেক হস্তান্তর

রুশাদ হোসেন অনিক, রামপাল

চলমান করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে জনভোগান্তি লাঘবে রামপালে বিমানবন্দরের অধিগ্রহনকৃত জমির মালিকদের হাতে অর্থের চেক পৌছে দিলেন বাগেরহাট জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) কামরুল ইসলাম। উপজেলার ঝালবাড়ি এলাকায় শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১ টায় এ কার্য্যক্রম সম্পন্ন করা হয়। এ দিন সর্বোমোট দুই কোটির অধিক মূল্যের চেক হস্তান্তর করেন তিনি। বাগেরহাট অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) কামরুল ইসলাম বলেন, সামনে ঈদ ও করোনা পরিস্থিতির কারণে ঘর থেকে মানুষ বের হতে পারছে না। মানুষ এক ধরণের অর্থ সংকটে রয়েছে। তাই আমরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ জমির মালিকদেরকে এসব অর্থের চেক বিতরণ করছি। আমাদের সুজগ্য জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে এ কাজটি করছি এবং এটি অব্যাহত থাকবে। সেবা প্রত্যাশীদের দূর্ভোগ লাঘবে এবং দালালদের দৌরাত্ম কমাতে এ উদ্যোগ নিয়েছি। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন এলএও মন্জুরুল আলম, কানুনগো নাইম উদ্দিন খান, সার্বেয়ার ইমরান হোসেন, স্থানিয় ব্যাক্তিবর্গ, সাংবাদিক প্রমুখ।

বাগেরহাটের রামপালে এলাকায় প্রস্তাবিত খান জাহান আলি বিমান বন্দর নির্মানের অধিগ্রহণকৃত ভূমির মালিকদেরকে চেক হস্তান্তর করা হচ্ছে। ধাপে ধাপে এসব চেক  বাড়ি বাড়ি গিয়ে পৌঁছে দিচ্ছে বাগেরহাট জেলা প্রশাসন।

ডুমুরিয়ায় করোনা উপসর্গ নিয়ে এক মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু

ডুমুরিয়া প্রতিনিধি    

ডুমুরিয়ায় করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালের আইসোলেশনে এক বীর মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধা ফারুক মোড়ল(৬৭) মাগুরাঘোনা ইউনিয়নের আরশনগর গ্রামের মৃত গহর আলী মোড়লের ছেলে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই কন্যা ও এক পুত্র সন্তান, আত্মীয়-স্বজনসহ বহুগুনগ্রাহী রেখে গেছেন। গতকাল শুক্রবার সকাল ১১টায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় গার্ড অব অনার দিয়ে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভুমি) ডা. সঞ্জীব দাশ ও থানা অফিসার ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম বিপ্লব।   

মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুরুল ইসলাম মানিক জানান, মুক্তিযোদ্ধা ফারুক মোড়ল করোনা উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরার একটি হাসপাতালে ভর্তি হন। এরপর অবস্থা বেগতিক হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউ ইউনিটে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসারত অবস্থায় সন্ধ্যা ৭টার দিকে তার মৃত্যু হয়। মৃত ফারুক মোড়ল মুক্তিযুদ্ধের ৯নং সেক্টরের অধিনায়ক মেজর এমএ জলিলের তত্বাবধায়নে ছিলেন।   

ডুমুরিয়ায় ৪ প্রতিষ্ঠানে অর্থদন্ড

ডুমুরিয়া প্রতিনিধি  

ডুমুরিয়ায় ভ্রাম্যমান আদালতে সরকারি আদেশ অমান্য করে সন্ধ্যা ৭টার পর দোকান খোলা রাখা, স্বাস্থ্যবিধি না মানা, অযৌক্তিক জনসমাগম ঘটানোসহ বিভিন্ন অপরাধে ৪ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অর্থদন্ড প্রদান করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ৯টায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট ডা. সঞ্জীব দাশ। জানা যায়, করোনা ভাইরাসের কমিউনিটি সংক্রমণ রোধকল্পে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ১৮৮, ২৬৯ ধারায় গুটুদিয়া মোড়ে মুদি ব্যবসায়ী কাজী আসলামকে ২ হাজার টাকা, তৈয়েবুর রহমানকে ২ হাজার টাকা ও চা দোকানদার ফেরদৌসকে ১ হাজার টাকা এবং ডুমুরিয়া বাজারে স্যানিটারি ব্যবসায়ী সেলিম মোড়লকে ১ হাজার ৫’শ টাকা জরিমানা করা হয়।

পাইকগাছায় ডাকাতি প্রস্তুতি কালে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র সহ ৬ ডাকাত আটক

পাইকগাছা প্রতিনিধি

পাইকগাছায় ডাকাতি প্রস্তুতি কালে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র সহ ৬জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় থানায় ডাকাতি মামলা হয়েছে।

মামালার বিবরণে জানা যায়, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ২০/২৫জন আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য শিববাটী ব্রীজের পার্শ্ববর্তী ইবরাহিম গার্ডেনের পতিত ঘরের পাশে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওসি এজাজ শফী’র নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স সেখানে হানা দেয় এবং ঘটনাস্থল থেকে ৬জনকে আটক করে। আটককৃতরা হলো, গোপালপুর গ্রামের সামছুদ্দীন গাজীর ছেলে মিজান গাজী (৪২), ঘোষাল গ্রামের রফি গাজী ছেলে রবিউল গাজী (৪০), লক্ষ্মীখোলা গ্রামের মোক্তার মোল্লার ছেলে টুটুল মোল্লা (৪০), উত্তর সলুয়ার মৃত ইমান আলী গাজীর ছেলে জাহিদুল গাজী (৩৭), নাছিরপুর গ্রামের আলী আহসানের ছেলে ছালাম বিশ্বাস, সরল গ্রামের মান্নান জোয়াদ্দারের ছেলে ফয়সাল জোয়াদ্দার। এ ঘটনায় মোট ১৭জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৫/৭জনের নামে মামলা হয়েছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে ডাকাতির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ওসি এজাজ শফী জানান, সঙ্গবদ্ধ চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় অপরাধমূলক কর্মকান্ড করে আসছিল। এদের নামে পাইকগাছা থানা সহ বিভিন্ন থানায় মামলা রয়েছ। সঙ্গবদ্ধ চক্রের অন্যান্য সদস্যদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনতে পারলে এ ধরণের অপরাধ প্রবণতা দ্রুতই কমানো সম্ভব হবে।

দৈনিক যুগান্তর ও যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম বাবুল-এর রুহের কামনা দোয়া মাহফিল

পাইকগাছা প্রতিনিধি

দৈনিক যুগান্তর ও যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম বাবুল-এর রুহের কামনা করে খুলনার পাইকগাছার গোপালপুর পূর্বপাড়া নূর জামে মসজিদে জুম্মা নামাজ দোয়া ও মিলাদ অনুষ্ঠিত হয়েছে। দৈনিক যুগান্তর পাইকগাছা উপজেলা প্রতিনিধি জি,এম, মিজানুর রহমানের উদ্যোগে আয়োজিত মিলাদ মাহফিলে দোয়া পরিচালনা করেন মোঃ ফারুক হোসেন।

ঝিনাইদহে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মাসব্যাপী বৃক্ষরোপন অভিযানের উদ্বোধন

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মাসব্যাপী বৃক্ষরোপন অভিযানের উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার পৌর এলাকার মোশাররফ হোসেন ডিগ্রি কলেজ এলাকায় গ্রীণ এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট জেলা শাখার উদ্যোগে এ বৃক্ষরোপন অভিযানের উদ্বোধন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক, গ্রীণ এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট জেলা শাখার সভাপতি এ্যাড. আব্দুল খালেক সাগর, জেলা কৃষকলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এম এস উজ্জল, পৌর আওয়ামীলীগের ৩ নং ওয়ার্ড সভাপতি ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোশাররফ হোসেন বল্টু বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাশেদুল ইসলাম, বিশিষ্ট সমাজ সেবক জাহিদ হাসান, জেলা ছাত্রলীগের উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক মিশান রহমান, ছাত্রলীগ নেতা সোহাগ হোসেন, মেহদি হাসান, হিমেল প্রমুখ।

এসময় গ্রীণ এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট জেলা শাখার সভাপতি এ্যাড. আব্দুল খালেক সাগর বলেন, জেলার প্রত্যেকটি উপজেলায় ৫ হাজার ফলজ, বনজসহ বিভিন্ন ধরনের গাছ রোপন করার উদ্বোধনী দিন আজ। এছাড়াও জেলা সদরের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিশেষ করে যে সকল স্থানে মানুষের চলাচল ও বিশ্রামাগারসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বৃক্ষরোপন করা হবে।

শৈলকুপায় ৮ মামলার আসামী ইয়াবা সহ গ্রেফতার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় অস্ত্র, অপহরণ ও মাদক সহ ৮টি মামলার আসামী তালুক মন্ডল (৩৮) কে ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ী উপজেলার হাকিমপুর ইউনিয়নের খুলুমবাড়ী গ্রামের মৃত গোলাম মন্ডলের ছেলে। শৈলকুপা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম জানান, উপজেলার খুুলুমবাড়ী এলাকায় মাদক বেচাকেনা চলছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে থানার এসআই শামছুর রহমান ও এএসআই শাহাবুদ্দিন (পিপিএম) সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে ১০৬ পিচ ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী তালুককে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে। তিনি আরো জানান, আসামী তালুকের বিরুদ্ধে ১টি অস্ত্র মামলা, ১টি অপহরণ মামলা ও ৬টি মাদক মামলা রয়েছে।

ঝিনাইদহে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ব্যাংক কর্মকর্তার মৃত্যু

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কোভিড হাসপাতালে (শিশু হাসপাতাল) চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওয়াজিউল্লাহ নামের এক ব্যাংক কর্মকর্তার মৃত্যু হয়েছে। সে আরাপপুর চানপাড়ার মৃত আব্দুল কাদেরের ছেলে। তিনি শৈলকুপা উপজেলার গাড়াগঞ্জ সোনালী ব্যাংক শাখায় অফিসার পদে কর্মরত ছিল। স্বাস্থ্য বিভাগের  দেওয়া তথ্য মতে জানা যায়, করোনায় আক্রান্ত হয়ে কয়েকদিন আগে ভর্তি হয় তিনি। গতকাল বিকেলে ঝিনাইদহ কোভিড-১৯ হাসাপাতালে তিনি মারা যান।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মো: আব্দুল হামিদ খান জানান, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত ব্যক্তির লাশ গেল রাতে জানাজা শেষে পৌর এলাকার আরাপপুর চানপাড়া গোরস্থানে দাফন সম্পন্ন করে ইফা গঠিত কমিটি। উল্লেখ্য এ পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ২৫ জন মৃত ব্যক্তি লাশ দাফন করেছে এই কমিটি।

যুব ইউনিয়ন রূপসা আঞ্চলিক কমিটির কর্মীসভা

খবর বিজ্ঞপ্তি

বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন রূপসা আঞ্চলিক কমিটির এক কর্মীসভা আজ বিকেলে সংগঠনের আহ্বায়ক উজ্জ্বল বিশ্বাসের সভাপতিত্বে স্বাস্থ্যবিধিসম্মতভাবে অনুষ্ঠিত হয়। কর্মীসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র মহানগর সভাপতি এইচ এম শাহাদৎ এবং প্রধান বক্তা ছিলেন সাধারণ সম্পাদক ও যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য এড. মোঃ বাবুল হাওলাদার। বিশেষ অতিথি ছিলেনÑযুব ইউনিয়ন জেলা সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক জয়ন্ত মুখার্জী ও যুবনেতা আফজাল হোসেন রাজু। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেনÑশ্রমিক নেতা মোঃ আব্দুস সাত্তার, যুব নেতা মোঃ শাজাহান খান, মোঃ খলিল সিকদার, সরোয়ার হোসেন, বাবুল গাজী, শাহীন খান প্রমুখ। বক্তারা পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবীতে আগামী ২০ জুলাই সোমবার বেলা ১১টায় অনুষ্ঠেয় নগরীর পিকচার প্যালেস মোড়ের মানবপ্রাচীর সফল করার আহ্বান জানান। অপর এক প্রস্তাবে রূপসা শিল্পাঞ্চলে অসহনীয় জলাবদ্ধতা নিরসনে কর্তৃপক্ষের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানান।

তালায় পোল্ট্রি ব্যবসায়ীর টাকা ছিনতাই

ইলিয়াস হোসেন,   তালা প্রতিনিধিঃ

তালার শ্রীমন্তকাঠি নতুন বাজারের পোল্ট্রি মুরগির ব্যসায়ী ইব্রাহিম শেখ ছিনতাইকারীদের কবলে পড়েছে। ছিনতাইকারীরা ইব্রাহিম’র কাছ থেকে অর্ধ লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নেয় এবং পিটিয়ে আহত করে। ঘটনাটি ঘটেছে, বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার শুভংকরকাঠি এলাকায়। ক্ষতিগ্রস্থ ইব্রাহিম শেখ তেঘরিয়া গ্রামের মৃত. ইজাহার আলী শেখ’র ছেলে।

ক্ষতিগ্রস্থ ইব্রাহিম শেখ জানান, বৃহস্পতিবার রাতে বেচাকেনা শেষে দোকানের টাকা এবং পোল্ট্রি মুরগি কেনার জন্য পাশ^বর্তী ব্যবসায়ীর কাছ থেকে টাকা ধার করে সবমিলিয়ে ৪৫ হাজার টাকা নিয়ে সে বাড়ি ফিরছিল। পথিমধ্যে শুভংকরকাঠি এলাকায় পৌছলে শুভংকরকাঠি গ্রামের মফেজ মোড়ল’র ছেলে আজিজুল মোড়ল সহ ৩জন ছিনতাইকারী তার পথরোধ করে এবং টাকা ছিনিয়ে নেয়। এসময় বাঁধা দিলে ছিনতাইকারীরা ইব্রাহিমকে পিটিয়ে আহত করে। পরে এলাকার লোকজন এগিয়ে এসে ইব্রাহিমকে গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করে তালা হাসপাতালে ভর্তি করে। আজিজুল মোড়ল’র বিরুদ্ধে ইতোপূর্বে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে সূত্রে জানা গেছে। এঘটনায় ছিনতাই’র শিকার ইব্রাহিম শেখ শুক্রবার তালা থানায় ছিনতাইকারীদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এবষিয়ে তালা থানার ওসি মো. মেহেদী রাসেল বলেন, ঘটনার তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জনতা ব্যাংক লি. তালা শাখা ব্যবস্থাপক’র বিদায়ী সম্বর্ধনা প্রদান

তালা প্রতিনিধি

জনতা ব্যাংক লিমিটেড তালা শাখার সফল ব্যবস্থাপক মো. শাহিনুর রহমান’র বদলিত জনিত বিদায়ী এবং নবাগত ব্যবস্থাপক মো. আব্দুস সবুরকে সম্বর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালে সামাজিক দুরুত্ব নিশ্চিত করে জনতা ব্যাংক লি. তালা শাখার আয়োজনে, ব্যাংক কার্যলয়ে সম্বর্ধনা সভার আয়োজন করা হয়। জনতা ব্যাংক লি. তালা শাখার সহকারী ব্যবস্থাপক মো. শাহানুর রহমান’র সভাপতিত্বে এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ব্যাংকের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (সাতক্ষীরা এরিয়া ইনচার্জ) মো. জাকির হোসেন। শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন, তালা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার।

ব্যাংকের গ্রামীন ঋন বিষয়ক কর্মকর্তা শাহিনুর রহমান’র পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, জনতা ব্যাংক লি. তালা শাখার বিদায়ী ব্যবস্থাপক মো. শাহিনুর রহমান, নবাগত ব্যবস্থাপক মো. আব্দুস সবুর, ভূমিজ ফাউন্ডেশন’র সমন্বয়কারী অচিন্ত্য সাহা, ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান রাজু, সাবেক চেয়ারম্যান এস.এম লিয়াকত হোসেন, উইমেন জব ক্রিয়েশন সেন্টার’র নির্বাহী পরিচালক আশা, ব্যাংকের কর্মকর্তা গাজী নজরুল ইসলাম, সত্যকী ঘোষ, প্রিয়াঙ্কা মন্ডল, উদয় কুমার আইচ, সাংবাদিক বি.এম. জুলফিকার রায়হান, নজরুল ইসলাম, সেলিম হায়দার ও আকবর হোসেন প্রমূখ।

সভা শেষে, জনতা ব্যাংক লি. তালা শাখার বিদায়ী ব্যবস্থাপক মো. শাহিনুর রহমানকে তাঁর সফলতার জন্য ব্যাংকের গ্রাহক, বিভিন্ন এনজিও, ব্যবসায়ী ও ব্যাংক কর্মকর্তাদের পক্ষ থেকে বিদায়ী শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করা হয়।

উল্লেখ্য, তালার হাজরাকাঠি গ্রামের সন্তান ব্যাংকার মো. শাহিনুর রহমান জনতা ব্যাংক লিমিটেড তালা শাখার ব্যবস্থাপক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহনের পর থেকে নিরলস পরিশ্রম করে তিনি ব্যাংকের অত্র শাখাকে লাভজনক শাখায় পরিনত করেছেন এবং সেবা প্রদান করে বৃহত্তর সংখ্যক গ্রাহকদের আস্থার কেন্দ্র হিসেবে রুপ দিয়েছেন।

তালায় নতুন করে ৩ জনের করোনা পজিটিভঃ মোট আক্রান্ত ৫৪

তালা প্রতিনিধি

তালায় ঔষুধ কোম্পনীর প্রতিনিধি, গৃহবধূসহ নতুন করে ৩ জনের শরীরে করোনা পজিটিভ এসেছে। তারা হলেন স্কয়ার কোম্পানীর প্রতিনিধি তালা সদরের বোরহান উদ্দীন (৪২), খেশরা ইউনিয়নের হরিহরনগর গ্রামের আব্দুল জব্বারের পুত্র রফিকুল ইসলাম (৫৫) এবং ধানদিয়া ইউনিয়নের মানকিহার গ্রামের গৃহবধূ নাসরিন খাতুন (৩৪)।  এছাড়া উপজেলার ডাংগানলতা গ্রামের মোঃ বিল্লাল হোসেন (৩৪) নামের এক যুবকরে ফের করোনা পজিটিভ এসেছে। শুক্রবার (১৭ জুলাই) বিকালে তালা স্বাস্থ্য বিভাগ ও পুলিশ প্রশাসন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ ফারাহ ফেরদৌস বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ পর্যন্ত উপজেলায় ১৩ নারীসহ মোট ৫৪ জন করোনা পজিটিভ রোগি সনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে দুইনারীসহ ৭ জন ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল ও পাটকেলঘাটাা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কাজী ওয়াহিদ মুর্শেদ জানান, থানা পুলিশের কুইক রেসপন্স টিমের সদস্যরা করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের বাড়িসহ আশেপাশের বেশ কয়েকটি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করেছে। এ সময় এলাকাবাসী কে আতঙ্কিত না হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার এবং সাতক্ষীরা জেলা পুলিশকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানানো হয়।

এদিকে সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. জয়ন্ত সরকার জানান, শুক্রবার (১৭ জুলাই) জেলায় মোট ১৯ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এরমধ্যে তালার মোঃ বিল্লাল হোসেন (৩৪) নামের এক যুবকরে ফের করোনা পজিটিভ এসেছে। শুক্রবার পর্যন্ত এ জেলা থেকে মোট ৩ হাজার ১৬১ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়। ইতিমধ্যে ২ হাজার ২২৩ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট সিভিল সার্জন কার্যালয়ে এসে পৌছেছে। এর মধ্যে ৪৬৮ জন করোনা পজিটিভ ও বাকীদের সব নেগোটভ রিপোর্ট এসেছে। এদিকে জেলায় করেনায় মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের। আর জেলায় করোনার উপসর্গ নিয়ে এ পর্যন্ত মোট ৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান’র এর মৃত্যুতে ডুমুরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের শোক         

খবর বিজ্ঞপ্তি

পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি এড. গাজী মোহাম্মদ আলী’র মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন ডুমুরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিদাতারা হলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এম পি, সাধারণ সম্পাদক শাহানাজ হোসেন জোয়ার্দার,  মোকলেছুর রহমান বাবলু,  এ বি এম শফিকুল ইসলাম, এড. রবিন্দ্রনাথ মন্ডল    সহ-সভাপতি মোস্তফা কামাল খোকন, আবু সাইদ সরদার, নাজিবুর রহমান নাজু, আলহাজ্ব শেখ হেফজুর রহমান, শোভা রানী হালদার,   সরদার আবু সালেহ, প্রভাষক ফারুক হোসেন, কাজী আলমগীর হোসেন, গোপাল চন্দ্র দে, আবু বক্কার খান, মোল্লা সোহেল রানা,  এস এম জাহাঙ্গীর আলম, আছফার হোসেন জোয়ার্দার,  শওকত হোসেন প্রমুখ।