গাছ লাগান, মন ভালো রাখবে: প্রধানমন্ত্রী

3
Spread the love

ঢাকা অফিস

পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষরোপণের প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরে দেশবাসীকে গাছ লাগানোর আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, সবাইকে আহ্বান করব যেখানে যতটুক জায়গা আছে আপনার, যা পারেন গাছ লাগান।  শহরে হলে বাসার ছাদে বাগান করেন, না হয় ব্যালকনিতে টবে গাছ লাগান।  যেভাবেই হোক গাছ লাগান, ভালো লাগবে।  মনটাও ভালো লাগবে, আর সেটা নিজের সচ্ছলতা আসবে।  আর নিজেরে হাতের লাগানো গাছের কাঁচা মরিচ খেলেও ভালো লাগবে। তিনি বলেছেন, প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষা করা দরকার। পাশাপাশি আমাদের মানুষের পুষ্টির দরকার।  খাদ্য এবং অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির কথা চিন্তা করে বৃক্ষরোপণ করি।  ৩টা করে গাছ লাগাতে হবে। একটা ফলের গাছ, একটা কাঠের জন্য আর একটা ভেষজ গাছ। বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে তেঁতুল, ছাতিয়ান ও চালতা প্রজাতির তিনটি চারা রোপণের মাধ্যমে এ কর্মসূচির উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশে যাতে বনায়ন এবং সবুজ বেস্টনি সৃষ্টি হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখে এই কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। স্বাধীনতার পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নিজে বৃক্ষরোপণ করে এই কর্মসূচি উদ্বোধন করেন।  কাজেই তাকে স্মরণ করে এই পদক্ষেপ নিচ্ছি। এটা প্রতি বছরই নিচ্ছি। পরিবেশ রক্ষার জন্য বাংলাদেশে বনায়ন সৃষ্টি করতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা ১৯৯৬ সালে যখন সরকার গঠন করি, তখন মাত্র ৭ ভাগ বনায়ন ছিল।  এখন ১৭ ভাগ করতে পেরেছি।  আমাদের লক্ষ্য ২৫ ভাগ বনায়ন করব। সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। আওয়ামী লীগের পক্ষ হতে ১৯৮৪ সাল থেকে প্রতি বছর পহেলা আষাঢ় সমগ্র দেশে বৃক্ষরোপণ করি।  সেটা কৃষক লীগকে দায়িত্ব দেওয়া থাকে।  তাছাড়া আমাদের অন্যান্য সহযোগী সংগঠন এগুলো বাস্তবায়ন করে থাকে।

গণভবনে গাছ লাগানোর কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এবার আমি লাগিয়েছি একটা চালতা গাছ, তেঁতুল গাছ, ছাতিয়ান গাছ।’ ছাতিয়ান গাছ খুব বড় হয়, এর কা- খুব মোটা হয় এবং কাঠ হিসেবে খুব ভালো।  সেজন্য লাগানো হয়েছে।  আর তেঁতুল গাছ বহুগণ সম্পন্ন।  তেঁতুল শরীরের জন্য খুবই উপকারী।  কারও প্রেসার থাকলে প্রেসারের জন্য ভালো, শরীর ঠান্ডা রাখা।  আর চালতে গাছ, চালতের পাতাগুলো খুব সুন্দর দেখতে, ফুলগুলোও আরও সুন্দর।