সারা খুলনা অঞ্চলের খবর

10
Spread the love

খুলনা বিভাগে আরও ২১৪ জনের করোনা শনাক্ত

স্টাফ রিপোর্টার

খুলনা বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ২১৪ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে বিভাগে মোট কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৬ হাজার ৮২০ জনে। বিভাগের রোগীদের ৪৩ শতাংশই খুলনা জেলার। খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) মো. মনজুরুল মুরশিদ আজ শনিবার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে বিভাগে ১১৭ কোভিড–১৯ রোগীর মৃত্যু হয়েছে। অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্য মতে, বিভাগে নতুন করে ২৫৭ জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে সুস্থ হলেন ২ হাজার ৬৫৮ জন। শনাক্ত বিবেচনায় বিভাগে সুস্থ হওয়ার হার প্রায় ৩৯ শতাংশ। খুলনা বিভাগের মধ্যে চুয়াডাঙ্গায় প্রথম কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয় গত ১৯ মার্চ। পরবর্তী ৭৩ দিনে শনাক্তের সংখ্যা ৫০০ ছাড়ায়। গত ৮ জুলাই ১১২তম দিনে এসে রোগীর সংখ্যা ৬ হাজার ছাড়ায়। ১০ জুলাই ১১৪তম দিনে রোগীর সংখ্যা সাড়ে ছয় হাজার ছাড়ায়। নতুন শনাক্ত ২১৪ জনের মধ্যে খুলনা জেলায় ৭৯ জন, বাগেরহাটে ১৪ জন, চুয়াডাঙ্গায় ১৪, যশোরে ২১ জন, ঝিনাইদহে ১২ জন, কুষ্টিয়ায় ৩৮ জন, মাগুরায় ৭, মেহেরপুরে একজন, নড়াইলে ১৩ জন ও সাতক্ষীরায় ১৫ জন আছেন। অধিদপ্তরের দেওয়া হিসেবে, সংক্রমণ ও মৃত্যু দুই সূচকেই বিভাগের মধ্যে খুলনা অনেক এগিয়ে। মোট সংক্রমিত ৬ হাজার ৮২০ জনের মধ্যে ২ হাজার ৯৩৭ জনই খুলনা জেলার। বিভাগের মোট রোগীর ৪৩ শতাংশ খুলনার। এ ছাড়া বাগেরহাটে ২৮৮ জন, চুয়াডাঙ্গায় ২৯২ জন, যশোরে ৯৭৩ জন, ঝিনাইদহে ৩৯০ জন, কুষ্টিয়ায় ৯২৬ জন, মাগুরায় ১৯৩ জন, মেহেরপুরে ৯৮ জন, নড়াইলে ৩৭৪ জন এবং সাতক্ষীরায় ৩৪৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন। বিভাগে মৃতের সংখ্যা এখন ১১৭ জন। মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে খুলনায় সবচেয়ে বেশি ৪৪ জন মারা গেছেন। এ ছাড়া কুষ্টিয়ায় ১৯ জন, যশোরে ১৪ জন, নড়াইলে ৮ জন, মাগুরা ও ঝিনাইদহে ৭ জন করে, মেহেরপুরে ৬ জন, সাতক্ষীরায় ৫ জন, বাগেরহাটে ৪ জন ও চুয়াডাঙ্গায় ৩ জন মারা গেছেন।

মহানবী হজরত মুহাম্মাদ (সঃ) কে কটূক্তি করায় আইম্মা পরিষদ মহানগর শাখার নিন্দা বিবৃতি

খবর বিজ্ঞপ্তি

ফেসবুকে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) কে নিয়ে কটূক্তি করেছে অঞ্জন দাস নামে এক হিন্দু যুবক নগরীর খালিশপুর মোংলা পোর্ট আবাসিক এলাকায় তার বাসা। নেতৃবৃন্দ বলেন আমরা আমাদের জীবন থেকেও নবীকে বেশি ভালোবাসি, মহব্বত করি। নবীর প্রতি এ ভালবাসা আমাদের ঈমান, নবীর অপমান সাধারণ কোনো মুসলমান বরদাস্ত করতে পারেনা। আমরা এ নবীর দুশমনকে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দিতে প্রশাসনের প্রতি আহবান জানাই। বিবৃতি দাতারা হলেন মুফতী গোলামুর রহমান, মাওলানা মুমতাজুল করীম, মুফতী হাফিজুর রহমান, মুফতী আব্দুর রহিম, মুফতী মাহবুবুর রহমান, মুফতী আব্দুল্লাহ ইয়াহইয়া,  মুফতী আলী আহমাদ, মুফতী ফখরুল হাসান কাসেমী, মুফতী জাকির হুসাইন, মুফতী আবু সালেহ, মাওলানা ইলিয়াস মাঞ্জুরী, মাওলানা সিরাজুল ইসলাম, মাওলানা ফজলুল কাদের, মাওলানা আব্দুল কাদের, মুফতী ইমরান হুসাইন, মুফতী জাকির আশরাফ, মুফতী মাহমুদুল হাসান, মাওলানা মনিরুল ইসলাম, মুফতী মাসুম বিল্লাহ, মুফতী শেখ আমীরুল ইসলাম, মুফতী আনোয়ারুল ইসলাম, হাফেজ মাওলানা কবীর হুসাইন, মাওলানা হাফিজুর রহমান, মুফতী আশরাফুল ইসলাম, হাফেজ মাওলানা শরিফুল ইসলাম, মুফতী রবিউল ইসলাম রাফে, মুফতী জাহিদুল ইসলাম।

দিঘলিয়ায় বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসে আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণী

দিঘলিয়া প্রতিনিধি

‘‘মহামারি কোভিড-১৯ কে প্রতিরোধ করি, নারী ও কিশোরীর সুস্বাস্থ্যের অধিকার নিশ্চিত করি’’ শ্লোগানে দিঘলিয়ায় ৩১তম বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন হয়েছে। শনিবার (১১ জুলাই) সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে উপজেলা পরিবার ও পরিকল্পনা বিভাগ।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উপস্থিত ছিলেন খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুস সালাম মূর্শেদী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ মারুফুল ইসলাম। সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাফিজ আল-আসাদ। এসময় অন্যান্যের মধ্য উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মাহাবুবুল আলম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এম এ রেজা বাচা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ শিরীন ময়না, মেডিকেল অফিসার ডা: সুলতানা দিনার। এছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা ও পরিচালনা করেন উপজেলা পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: ফিরোজা পারভীন। অনুষ্ঠান শেষে ৮টি ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠ ৮ জনকে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়।

সাতক্ষীরার তালা থেকে এক গৃহবধু’র ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

খান নাজমুল হুসাইন, সাতক্ষীরা

সাতক্ষীরার তালা থেকে এক গৃহবধু’র ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। উপজেলার খেশরা ইউনিয়নের সোনাবাদল গ্রাম থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত গৃহবধুর নাম নমিতা মন্ডল (৪৩)। তিনি ওই গ্রামের শংকর মন্ডলের স্ত্রী ও এক কন্যা সন্তানের জননী। খেশরা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই ইসমাইল হোসেন নিহতের পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে সাংবাদিকদের জানান, নমিতা-শংকর দম্পতি তাদের একমাত্র মেয়ের বিবাহ বিচ্ছেদের পর থেকে মানসিকভাবে বিপর্যস্থ ছিলেন। এরই জেরে শুক্রবার রাতের কোন এক সময় কাউকে কিছু না জানিয়ে নমিতা রানী ঘরের আড়ায় গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহননের পথ বেছে নেন। শনিবার সকালে তার পরিবারের সদস্যরা পুলিশে খবর দেয়। এরপর পুলিশ গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে। তালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওসি মেহেদি রাসেল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সাতক্ষীরায় নতুন করে চিকিৎসক ও পুলিশ সদস্যসহ আরো ১৫ জন করোনা শনাক্ত, এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্ত ৩৪১ জন

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

গত ২৪ ঘণ্টায় সাতক্ষীরায় নতুন করে চিকিৎসক ও পুলিশ সদস্যসহ আরো ১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।  এ নিয়ে জেলায় আজ পর্যন্ত মোট ৩৪১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্টার থেকে শনিবার পাওয়া নমুনা রিপোর্ট ১৫ জনের করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন সাতক্ষীরার স্বাস্থ্য বিভাগ।

সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডাঃ জয়ন্ত সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ জেলায় আজ পর্যন্ত মোট ৩৪১ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। তিনি আরো জানান, ইতিমধ্যে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের বাড়ি লক ডাউন করে লাল পতাকা টানানো হয়েছে।

ঝিনাইদহে নিখোঁজের ৮ দিন পর গৃহবধু মৌসুমির গলিত লাশ উদ্ধার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহে নিখোঁজের আটদিন পর মৌসুমি খাতুন (২৪) নামে এক সন্তানের জননীর গলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত মৌসুমি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের সমশের উদ্দীনের মেয়ে। শনিবার বিকাল ৫টার দিকে দক্ষিণ রামনগরের পাশে তেতুল বিল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে। গত ২ জুলাই রাতে তার বাবার বাড়ি থেকে সে নিখোঁজ হয়।

পাঁচ বছর আগে কালীগঞ্জ পৌরসভাধীন খয়েরতলা গ্রামে রোকন উদ্দীনের সাথে বিয়ে হয়েছিল মৌসুমি। নিহত মৌসুমির চার বছরের ছেলে সন্তান রয়েছে। তবে স্বামীর সংসারে বনিবনা না হওয়া দির্ঘদিন ধরে বাবার বাড়িতেই বসবাস করছিল নিহত মৌসুমি। মাঝে মাঝে তার স্বামী সেখানে এসে থাকতো।

নিহতের ভাই সুজন হোসেন জানান, গত ২ জুলাই আমাদের এক আত্মীয় অসুস্থ্য থাকায় আমার মা চার বছরের ভাগ্নেকে নিয়ে সেখানে ছিলেন। এছাড়া বাবাও ব্যবসায়ীক কাজে নোয়াপাড়া ছিলেন। বাড়িতে শুধু আমার বোন ও তার জামাই ছিল। ৩ জুলাই আমার ভগ্নিপতি সকালে প্রতিবেশিদের জানায় রাত তিনটার পর থেকে মৌসুমিকে পাওয়া যাচ্ছে না। আমি ঘুমিয়ে ছিলাম। ঘুম থেকে উঠে দেখি সে কোথায় চলে গেছে। এরপর ওই দিন ভগ্নিপতি রোকন নিজেই ঝিনাইদহ সদর থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করে। আমরা সবাই বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজি করি। এই সুযোগে আমার ভগ্নিপতি বাড়ির একটি ছাগল বিক্রি করে টাকা নিয়ে চলে যায়। এরপর থেকে তাকেও আর পাওয়া যাচ্ছে না।

শনিবার বিকালে মাঠে কাজ করতে যাওয়া কৃষকরা বিলের পটের নিচে মৌসুমির মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, এমন একটি ঘটনা জানতে পেরে সেখানে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ পাঠিয়েছি। বিস্তারিত তথ্য তদন্ত সাপেক্ষে জানা যাবে।

দাকোপে করোনার নমুনা সংগ্রহে সুরক্ষা বুথ স্থাপন

দাকোপ (খুলনা) প্রতিনিধি

জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে খুলনার দাকোপে সাধারণ মানুষের করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য চিকিৎসকদের নিরাপদে নমুনা সংগ্রহে স্বাস্থ্য সুরক্ষা বুথ স্থাপন করা হয়েছে।

গতকাল শনিবার বেলা ১২টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আ‘লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অ্যাডঃ গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার এমপি এ বুথ স্থাপন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ‘লীগ সভাপতি সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ¦ শেখ আবুল হোসেন, চালনা পৌর মেয়র সনত কুমার বিশ^াস, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোজাম্মেল হক নিজামীসহ আরো অনেকে।

পাইকগাছায় হাঁস চুরির ঘটনায় দু’দফা মারপিটে উভয়পক্ষের আহত ৩

পাইকগাছা প্রতিনিধি

পাইকগাছায় হাঁস চুরির ঘটনায় দু’দফা মারপিটে উভয়পক্ষের ৩জন আহত। ২জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনাটি ঘটেছে, উপজেলার আলমতলা ও খড়িয়ায়। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সরেজমিনে তথ্যানুসন্ধান ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, খড়িয়া গ্রামে হাঁস চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে কয়েকদিন ধরে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। শুক্রবার সন্ধ্যার পর খড়িয়া গ্রামের আইয়ুব আলী সানার পুত্র মামুন ও ইমরান পাইকগাছা থেকে বাড়ী যাওয়ার পথে আলমতলা গ্রামে পৌছালে স্থানীয় ইমরান ও তার সহযোগীরা প্রতিপক্ষ মামুন ও ইমরানকে গতিরোধ করে মারপিট করে। যাতে মামুনের পা ভেঙ্গে যায়। তারা দু’ভাই আহত অবস্থায় বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওনা দিলে খড়িয়া খালপারের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ব্রীজের পশ্চিমপাশে পৌছালে সাবেক ইউপি সদস্য বাকী বিল্লাহ তাদের গতিরোধ করে ও তাদেরকে মারপিট করে। রাতে মামুনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে বাকী বিল্লাহ মাথায় রক্তাক্ত জখম অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হয়। স্থানীয় মুদি দোকানদার সুব্রত সানা, সেলিনা আক্তার জানিয়েছেন, বাকী বিল্লাহ’র মাথা কাটার ঘটনা আমরা দেখিনি। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উভয়পক্ষ মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

পাইকগাছায় সরকারি পুকুরের মাছ যথেচ্ছা ধরে বিক্রি ও আত্মীয়-স্বজনের বাড়ীতে পাঠানোর অভিযোগ

পাইকগাছা প্রতিনিধি

পাইকগাছায় লস্কর সরকারি দীঘির মাছ যথেচ্ছা ধরে বিক্রি ও আত্মীয়-স্বজনের বাড়ীতে পাঠানো হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ভাই রয়েল প্রতিদিনের ন্যায় মাছ ধরতে থাকে। এ সময় পাইকগাছা থানার এস,আই নিতাই চন্দ্র কুন্ডু শখের বসে হুইল দিয়ে মাছ ধরতে গেলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তাকে জেলা প্রশাসকের অনুমতি ছাড়া মাছ ধরতে বলেন। তবে এ সময় উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তার ভাই রয়েল নৌকা ও জাল নিয়ে মাছ ধরায় ব্যস্ত ছিল। এস,আই নিমাই চন্দ্র কুন্ডু জিজ্ঞাসা করেন, যিনি মাছ ধরছেন উনি কে এবং কার কাছ থেকে অনুমতি নিয়েছেন। এসময় তারা কোন সদুত্তোর দিতে পারেননি। এ ঘটনা স্থানীয়দের কাছে জানতে চাইলে তারা জানায়, পুকুর থেকে প্রায়ই মাছ ধরা হয়। যা বিভিন্ন সময় কাটা মার্কেটে বিক্রি করে বলে জানা যায় ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বাড়ীতে ও স্থানীয়দের খাওয়ার জন্য নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে তহশীলদার এনামুল হক জানান, পুকুরে মাছ ধরে কখনও বিক্রি করা হয় না। অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এ মাছ খেয়ে থাকে। কিছু বিক্রি করে পোনা মাছ ছাড়া হয়।

পাট শিল্প রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদ গঠন

খবর বিজ্ঞপ্তি

পাট ও পাট শিল্প রক্ষায় খুলনায় পাটশিল্প  রক্ষা সম্মিলিত নাগরিক পরিষদ গঠন করা হয়েছে। সম্মিলিত নাগরিক পরিষদ, খুলনা আয়োজিত শনিবার বেলা ১১টায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয় সংগঠনের আহ্বায়ক এড. কুদরত-ই-খুদা’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত নাগরিক মতবিনিময় সভায় পাট ও পাটশিল্প রক্ষায় বৃহত্তর কর্মসূচি গ্রহণের লক্ষ্যে এ কমিটি গঠন করা হয়। এড. কুদরত-ই-খুদা আহ্বায়ক এবং এস এ রশীদকে সদস্য সচিব করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটিতে নাগরিক, কৃষক, শ্রমিক, যুব, ছাত্র প্রতিনিধিদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়। সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট খুলনা জেলা সভাপতি জনার্দন দত্ত নাণ্টুর সঞ্চালনায় ডাঃ মনোজ দাশ লিখিত প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সুতপা বেদজ্ঞ। অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন ও উপস্থিত ছিলেনÑখুলনা নাগরিক সমাজের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এড. আ ফ ম মহসীন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জেলা সভাপতি ডাঃ মনোজ দাশ, কেন্দ্রীয় সদস্য এস এ রশীদ, মহানগর সভাপতি এইচ এম শাহাদৎ, মহানগর সাধারণ সম্পাদক এড. মোঃ বাবুল হাওলাদার, শ্রমিক নেতা মোঃ মোজাম্মেল হক, সিপিবি নেতা সুতপা বেদজ্ঞ, মিজানুর রহমান বাবু, আমরা খুলনাবাসীর সাধারণ সম্পাদক এস এম মাহাবুবুর রহমান খোকন, সাবেক সিবিএ নেতা এম এ কাশেম, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগ নেতা ডাঃ সমরেশ রায়, মোস্তফা খালিদ খসরু, কাজী দেলোয়ার হোসেন, কৃষকনেতা আনিসুর রহমান মিঠু, আইন ও অধিকার বাস্তবায়ন ফোরামের সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন রাজু, যুব ইউনিয়নের জেলা সভাপতি এড. নিত্যানন্দ ঢালী, ইউসিবিএল নেতা রায়হান সিদ্দিকী, বদলী শ্রমিক নেতা আব্দুর রাজ্জাক তালুকদার, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের জেলা সাধারণ সম্পাদক আঃ করিম, খোদেজা ফাউন্ডেশনের খ ম শাহীন, গণসংহতি আন্দোলনের মনির চৌধুরী সোহেল, কৃষক নেতা প্রলয় মজুমদার, আইআরভি’র কাজী খালিদ পাশা জয়, ছাত্র ইউনিয়ন নেতা আজিজুল খান আরমান, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সঙ্গীতা ম-ল প্রমুখ। মতবিনিময় সভায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী ১৪ জুলাই মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন এবং ২০ জুলাই সোমাবর বেলা ১১টায় নগরীর পিকাচার প্যালেস মোড়ে মানববন্ধন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। মতবিনিময় সভায় বক্তারাবন্ধ ঘোষিত ২৫টি রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল রাষ্ট্রায়ত্বে রেখেই আধুনিকায়নের মাধ্যমে চালু রাকার আহ্বান জানান।

কপিলমুনি পুলিশ ফাঁড়ীর সেই এস আই অভিজিতের বদলী ঠেকানোর তদবীর মিশন ব্যর্থ

স্টাফ রিপোর্টার, কপিলমুনি ঃ

কপিলমুনি পুলিশ ফাঁড়ীর আলোচিত ও বহুঅপকর্মের হোতা এস আই অভিজিত রায় এর  বদলী আদেশ স্থগিতের তদবীর মিশন ব্যার্থ হয়েছে। শত চেষ্টা করেও বদলী ঠেকাতে পারেননি তিনি। বৃহস্পতিবার কর্তৃপক্ষ তাকে বদলী চুড়ান্ত করেছে বলে জানা গেছে।

জানাযায়, চলতি বছরের প্রথম দিকে এস আই অভিজিৎ বরিশাল জেলার একটি থানা থেকে খুলনার পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনি পুলিশ ফাঁড়ীতে যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকে একের পর এক নানা অনৈতিক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়তে থাকেন। ঘুষ-দূর্নীতিতে আল্পদিনে বেশ আলোচিত হয়ে ওঠেন। তার বিরুদ্ধে অনৈতিক ওই সব কর্মকান্ডের তথ্যবহুল সংবাদ বিভিন্ন প্রিন্ট ও অনলাইন সংবাদপত্রে প্রকাশিত হতে থাকে। আর বেরিয়ে আসতে থাকে ঘুষ বাণিজ্যের নানা কাহিনী। সংবাদ প্রকাশের পর তার অনৈতিক বিষয়টি আমলে এনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কয়েক দফায় তদন্ত করে চলতি মাসের ১ তারিখে তাকে বদলীর নোটীশ দেয়। কিন্ত নোটিশ পেয়ে তিনি কপিলমুনিতে থাকা জন্য মরিয়া হয়ে ওঠেন, শুরু করেন লবিং। তবে শেষমেষ তার সকল প্রচেষ্টা ব্যার্থ হওয়ায় তাকে দিঘলিয়া থানায় চলে যেতে হয়েছে। অভিজিতের বদলীর খবরটি চুড়ান্ত হওয়ায় ভূক্তভোগীসহ সাধারণ মানুষের মাঝে স্বস্তি আসে।

কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে, অভিজিৎ মাত্র কয়েক মাসের মধ্যে ঘুষ, দূর্নীতি, খামখেয়ালীপনা, অসাদাচারণ ও ক্ষমতার দাপট দেখাতে থাকেন। সবমিলে এলাকার মানুষের কাছে হয়ে ওঠেন এক ভংয়কর পুলিশ কর্মকর্তা। তার  কাছে আর্থিক ক্ষতিগ্রস্ত, হয়রানী, ও নাজেহালের শিকার হন শ্রীরামপুর গ্রামের শরীফা বেগম, ব্যবসায়ী অরুপ দত্ত, ফাঁড়ীর সন্নিকটে এক কস্মেটিক ব্যবসায়ী, কাকড়া ব্যবসায়ী সালাম, কানাইদিয়া গ্রামের অপু-দিপু, চা দোকানী রহিম, বহু মোটর সাইকেল মালিকসহ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অসংখ্য মানুষ।

অভিযোগ রয়েছে, কর্তব্যরত সময়ে টাকা ছাড়া কারো কথা আমলে আনেনি অভিজিৎ। টাকা দিলে কাজ হবে নইলে নয়। ন্যায় অন্যায় বাচ-বিচার না করে যা ইচ্ছে তাই করে গেছেন তিনি। সাধারণ মানুষের সাথে প্রায় সময় নোংরা ভাষার কথা বলতেন তিনি।

কপিলমুনি পুলিশ ফাঁড়ী ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক সঞ্জয় দাশ বলেন, ‘বুধবার তার সিসি দেওয়া হয়েছে, দু’ এক দিনের মধ্যে তিনি দিঘলিয়া থানায় যোগ দেবেন।’

কোভিড নিয়ে খুলনাতে যেন বাণিজ্য না হয়: মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব

তথ্য বিবরনী

কোভিড-১৯ চিকিৎসা নিয়ে খুলনাতে যেন বাণিজ্য না হয় সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে বলেছেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) মোঃ কামাল হোসেন। তিনি শনিবার করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ কমিটির সভায় একথা বলেন।

খুলনার জেলা প্রশাসক মোঃ হেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে তাঁর সম্মেলনকক্ষে আজ সকালে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সচিব আরও বলেন, খুলনার বেসরকারি হাসপাতাল ও কিনিকগুলো যেন কোভিড-১৯ চিকিৎসা নিয়ে প্রতারণার সুযোগ না পায়। বেসরকারি হাসপাতালগুলোর লাইসেন্স নবায়নসহ সরকারি নিয়ম নীতি অনুসরণ করছে কিনা তা নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করতে হবে। সকল দপ্তরের সমন্বয়ে সম্মিলিতভাবে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কাজ অব্যাহত রাখলে খুলনায় সংক্রমণের হার কমে আসবে।

সভায় আলোচনা শেষে আরও কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়: জনসাধারণকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এবং বাইরে বের হলে মাস্ক ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করতে প্রচারের পাশাপাশি আইনের প্রয়োগ ঘটানো হবে। সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করাতে দপ্তর প্রধানের প্রত্যয়পত্র লাগবে। ঈদ-উল-আযহায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কর্মস্থল ত্যাগ করবেন না। আমদানি হলেই খুলনায় আরও একটি করোনাভাইরাস পরীক্ষার পিসিআর মেশিন এবং কোভিড হাসপাতালে হাইফো ন্যাজাল ক্যানোলা সরবরাহ করা হবে। খুলনা স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালকের দপ্তর প্রয়োজন হলে বিভাগের অন্য জেলা-উপজেলা হতে চিকিৎসক ও নার্সদের কোভিড হাসপাতালে পদায়নের ব্যবস্থা করবেন। আগ্রাধিকার ভিত্তিতে শারীরিকভাবে বেশি অসুস্থ্য রোগীদের দ্রুত করোনাভাইরাস পরীক্ষার রিপোর্ট প্রদান করা।

সভায় জেলা প্রশাসক জানান, করোনাভাইরাস সংক্রমণের শুরু থেকে এপর্যন্ত শুধু স্বাস্থ্যবিধি মানাতে এক হাজার ৫১২ জনকে ১৯ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সিভিল সার্জন জানান, খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ১৭ ও ২৪ নম্বর ওয়ার্ড এবং রূপসার আইচগাতি ইউনিয়নে লকডাউনের ফলে গত দুই সপ্তাহে ঐ সকল এলাকায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ অনেকাংশে কমেছে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) হোসেন আলী খোন্দকার, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সরদার রকিবুল ইসালম, পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মুন্সী মোঃ রেজা সেকেন্দার, খুলনা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ, খুলনা স্বাস্থ্য বিভাগের উপপরিচালক ডা. শামীম আরা নাজনীন, খুলনার সিভিল সার্জন ডা: সুজাত আহমেদ, খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিসের উপপ্রধান তথ্য অফিসার  ম. জাভেদ ইকবাল, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আসাদুজ্জামান খান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জিয়াউর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) গোলাম মাঈনউদ্দিন হাসান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইউসুপ আলী, জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এসএম আউয়াল হক, খুলনা প্রেসকাবের সভাপতি এসএম নজরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মামুন রেজাসহ অন্যান্য সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা।

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ইতিহাসবিদ রাবির প্রথম ইমেরিটাস অধ্যাপক এবিএম হোসেনের ইন্তেকাল

খবর বিজ্ঞপ্তি

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ইতিহাসবিদ, বিদগ্ধ প-িত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. এ বি এম হোসেন শুক্রবার দিবাগত রাত ২ টায় রাজধানীর স্পেশালাইজড হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মুত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর। তিনি ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর এমিরেটাস ও ইসলামী শিল্পকলা বিষয়ের বিশেষজ্ঞ। ইসলামী শিল্পকলাসহ ইসলামের ইতিহাসে তাঁকে বলা হয় শিক্ষকদের শিক্ষক, গবেষকদের গবেষক। অগাধ পা-িত্য ও সম্মোহনী ব্যক্তিত্বের অধিকারী ইমেরিটাস প্রফেসর এ বি এম হোসেন সর্বজনশ্রদ্ধেয় হিসেবে ছিলেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অভিভাবক তূল্য। তাঁর শিক্ষাদান শৈলী ও গবেষণার গভীরতা সকলকে মুগ্ধ করতো। তাঁর নিবিড় গবেষণার বিষয়বস্তু ইসলামী শিল্পকলা হলেও তিনি তাঁর মূলধারার বিষয় মধ্যপ্রাচ্যের ইতিহাস বিষয়েও ছিলো অসামান্য লব্ধজ্ঞান। তাঁর লিখিত গবেষণা গ্রন্থের সংখ্যা ১১। এছাড়া তাঁর বহুসংখ্যক নিবন্ধ আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। ১৯৭৭ সালে নরওয়েজিয়ান পার্লামেন্ট তাঁকে নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য গঠিত বোর্ডে তাদের মনোনীত সদস্য নির্বাচিত করেন। তিনি বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি ও বাংলা একাডেমির সম্মানিত আজীবন ফেলো। আজ শনিবার বাদ আসর ঢাকার বাবর মসজিদে জানাজা শেষে মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান তাঁর পরম শ্রদ্ধেয় শিক্ষক ইমেরিটাস অধ্যাপক এ বি এম হোসেনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। গভীর শোকাচ্ছন্ন উপাচার্য বলেন প্রফেসর এ বি এম হোসেন কেবলমাত্র আমার পরমশ্রদ্ধেয় শিক্ষকই ছিলেন না, তিনি ছিলেন একজন অভিভাবক। তাঁর ¯েœহ, তাঁর আদর্শ, তাঁর গভীর অনুপ্রেরণা আমার জীবনের পাথেয় হয়ে রয়েছে। তাঁর মৃত্যুতে জাতি একজন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ইতিহাসবিদকে হারালো। উল্লেখ্য, ঐরংঃড়ৎু ঝড়পরবঃু ঈঁষঃঁৎব: অ.ই.গ. ঐঁংধরহ ঋবংঃংপযৎরভঃ শীর্ষক সম্মাননা গ্রন্থটি তাঁর সাথে তিনি যৌথভাবে সম্পাদনা করেন। তিনি তাঁর মরহুম পরমশ্রদ্ধেয় শিক্ষকের রুহের মাগফেরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। এদিকে আজ বাদ যোহোর খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদে মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

ইমেরিটাস অধ্যাপক এবিএম হোসেনর পুরো নাম আবুল বাশার মোশারফ হোসেন। তাঁর জন্ম ১৯৩৪ সালে কুমিল্লা জেলার দেবীদ্বার উপজেলায় ধামতী গ্রামে। দেবীদ্বার হাই স্কুল, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রথম শ্রেণিতে স্নাতক সম্মান ও মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জনের সাফল্যে তৎকালীন পাকিস্তান কেন্দ্রীয় সরকার উচ্চশিক্ষার নিমিত্তে তাঁকে মেধাবৃত্তি দিয়ে লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রেরণ করেন। সেখানে তিনি ১৯৫৮ ও ১৯৬০ সালে ইতিহাস ও ইসলামিক আর্কিওলজিতে যথাক্রমে বিএ অনার্স ও পিএইচ.ডি লাভ করে মেধার স্বাক্ষর রাখেন। ১৯৬০ সালে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা আরম্ভ করেন এবং ১৯৭২ সালে পূর্ণ প্রফেসর পদে উত্তীর্ণ হন। পরবর্তীতে তিনি বিভাগীয় প্রধান, চেয়ারম্যান, কলা অনুষদের ডীন ও প্রশাসনিক বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন হয়েছিলেন। তিনি ২০০১ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম প্রফেসর এমিরিটাস হিসাবে সম্মাননা প্রাপ্ত হন।

খুবির কর্মকর্তা বিমান সাহা এবং সাগর বিশ্বাসের পিতার মৃত্যুতে উপাচার্যের শোক

খবর বিজ্ঞপ্তি

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থ ও হিসাব বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার (বাজেট) বিমান সাহার পিতা বিষ্ণুপদ সাহা গত রাত ১০ টায় কালিয়া উপজেলার বড়দিয়ায় নিজ বাড়িতে বার্ধক্যজনিত কারনে পরলোকগমণ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। তিনি ১ পুত্র ও ৩ কন্যাসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। আজ সকালে স্থানীয় শ্মশানে তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। অপরদিকে, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের সহকারী নেটওয়ার্ক ইঞ্জিনিয়ার সাগর বিশ্বাসের পিতা প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস গত ৭ জুলাই রাত সাড়ে নয় টায় গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে মস্তিস্কে রক্তরক্ষণজনিত কারণে পরলোকগমণ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। তিনি স্ত্রী ও ২ পুত্রসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। গোপালগঞ্জ সদরে স্থানীয় শ্মশানে তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান অর্থ ও হিসাব বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার (বাজেট) বিমান সাহা এবং আইসিটি সেলের সহকারী নেটওয়ার্ক ইঞ্জিনিয়ার সাগর বিশ্বাসের পিতার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি উভয়ের আত্মার শান্তি কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন।

অনুরুপভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস, আইসিটি সেলের পরিচালক প্রফেসর ড. কামরুল হাসান তালুকদার, অর্থ ও হিসাব বিভাগের পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) শেখ মোস্তাক আলীসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তা, কর্মচারীবৃন্দ গভীর শোক প্রকাশ করেন।

সীমান্তে অবৈধ যাতায়াত বেড়েছে, আটক ৩৬

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

করোনা মহামারির এই সময়ে ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্ত এলাকা দিয়ে ভারত ও বাংলাদেশে অবৈধভাবে আসা-যাওয়া বেড়েছে। গেল এক সপ্তাহে সীমান্তের বাঘাডাঙ্গা এবং শ্যামকুড় এলাকা দিয়ে ভারত থেকে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের সময় নারী-পুরুষসহ ৯ জনকে এবং বাংলাদেশ থেকে ভারতে গমনকালে ২৭ জনকে আটক করে বিজিবি। তাদের বিরুদ্ধে পাসপোর্ট অধ্যাদেশ আইনে মামলা করে মহেশপুর থানায় সোপর্দ করা হয়। বিজিবি’র নিয়মিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। ১০ জুলাই রাতে বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাওয়ার সময় ১০ জনকে, ৯ তারিখে ভারত থেকে বাংলাদেশে অবৈধভাবে প্রবেশের সময় ৯ জনকে, ৭ তারিখে বাংলাদেশ থেকে ভারতে গমনকালে ১৪ জনকে এবং ৪ তারিখে ৩ জনকে আটক করে বিজিবি। আটককৃতদের অধিকাংশের বাড়ি ফরিদপুর, মাগুরা ও আশপাশের জেলায়।

ঝিনাইদহ বিজিবি ৫৮ ব্যাটালিয়ন পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল কামরুল আহসান জানান, ভারত থেকে যারা বাংলাদেশে অবৈধভাবে প্রবেশ করেছে হয়তো তারা করোনার কারণে দীর্ঘদিন আটকা থেকে এখন দেশে প্রবেশের চেষ্টা করছে। তাদের বিরুদ্ধে পাসপোর্ট অধ্যাদেশ আইনে মামলা করে মহেশপুর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

 ‘একসঙ্গে বিষ খেয়ে’ স্বামীর মৃত্যু, স্ত্রী হাসপাতালে

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় আত্মহত্যার উদ্দেশ্যে স্বামী-স্ত্রীর এক সঙ্গে বিষপান করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার পৌর এলাকার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। স্বামী সাইফুল ইসলাম (৬৫) মারা গেছেন এবং স্ত্রী লাইলী (৫০) শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সাইফুল ইসলাম মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার ছাচিলাপুর গ্রামের মৃত মইজউদ্দিন শেখের ছেলে। বিয়ের পর থেকে গত ৪০ বছর ধরে তিনি বালিয়াডাঙ্গা গ্রামে বসবাস করছিলেন। সাইফুল ইসলামের মেয়ে মেরিনা খাতুন জানান, প্রায়ই তার মায়ের সঙ্গে বাবার পারিপারিক কলহ লেগেই থাকতো। শুক্রবার রাতেও একই ঘটনা ঘটে। এরই সূত্র ধরে অভিমানে তার বাবা রাত ১০টার দিকে বিষপান করেন। তার দেখাদেখি তার মাও একই কাজ করেন। পরে ঘটনাটি জানাজানি হলে প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে রাত ১২টায় তার বাবা মারা যান। তার মা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, পৌর এলাকায় প্রবীন এক দম্পতির একসঙ্গে বিষপানের ঘটনায় স্বামীর মৃত্যু হয়েছে ও স্ত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

সাংবিধানিক কারণেই করোনার মধ্যে উপনির্বাচনের সিদ্ধান্ত: সিইসি

আলমগীর হোসেন

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, ‘কোনও ব্যক্তি বা দলকে সুবিধা দিতে নয়, সাংবিধানিক কারণেই করোনার মধ্যে উপনির্বাচনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের কাছে নির্বাচন পেছানোর আইনগত কোনও সুযোগ নেই। তবে মহামান্য রাষ্ট্রপতি বিষয়টি সুপ্রিম কোর্টে নিতে পারেন। আমরা রাষ্ট্রপতির কাছে গিয়েছিলাম। তিনিও বলেছেন নির্বাচন না করার কোনও সুযোগ নেই।’

শনিবার (১১ জুলাই) দুপুরে যশোর-৬ কেশবপুর আসনের উপনির্বাচন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত ও প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। কেশবপুর আবু শারাফ সাদেক অডিটরিয়ামে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। আগামী ১৪ জুলাই যশোর-৬ ও বগুড়া-১ আসনের উপনির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। এর আগে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের উদ্দেশে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘করোনা আছে, আরও অনেকদিন থাকবে। এর জন্য সবকিছু বন্ধ রাখা যাবে না। দৈনন্দিন কাজ ও নির্বাচনের মতো কাজ এর মধ্যেই করতে হবে।’ এজন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভোটারদের কেন্দ্রে আসতে প্রচারণা চালানোর জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন তিনি। একইসঙ্গে ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের মাস্ক খুলে পরিচয় নিশ্চিত করতে হবে বলে উল্লেখ করেন সিইসি। জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে সভায় নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী, নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ, যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহমেদ খান, খুলনা বিভাগীয় কমিশনার ড. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, ডিআইজি ড. খন্দকার মহিদ উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

চুয়াডাঙ্গায় কাঁঠালের ভালো ফলন, দাম নিয়ে হতাশ

এম এ মামুন

চুয়াডাঙ্গায় এবার কাঁঠালের বাম্পার ফলন হয়েছে। তবে করোনার কারণে জেলার কাঁঠালের বাজারগুলো ক্রেতা শূন্য। ফলে এ বছর ১০০ টাকার কাঁঠাল বিক্রি হচ্ছে মাত্র ২০ টাকায়। ভালাইপু কাঁঠালের হাট থেকে আলমডাঙ্গা উপজেলার রুইতনপুর গ্রামের তৌহিদ হোসেন নামে এক কাঁঠাল চাষি বলেন, ‘করোনার কারণে হাটে কাঁঠালের ব্যাপারী আসছে না। যে কাঁঠাল গত বছর ১০০ টাকায় বিক্রি করেছি এ বছর ২০ টাকাতেও কিনতে চাই না কেউ।’ দামুড়হুদা উপজেলার রামনগর গ্রামের কাঁঠাল চাষি হারেজ আলী বলেন, ‘হাটে কাঁঠালের ক্রেতা না থাকায় গাছের কাঁঠাল গাছেই পচে যাচ্ছে। এবার ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে আমের ক্ষতি হয়েছিল। মনে করেছিলাম, কাঁঠাল বিক্রি করে আমের লোকসান কাটিয়ে উঠবো। কিন্তু করোনার কারণে কাঁঠালেও লোকসান গুণতে হচ্ছে।’ কাঁঠালের পাইকারি ব্যবসায়ী আক্তার আলী ও জিল্লুর রহমান জানান, এ বছর কাঁঠালের প্রচুর ফলন হয়েছে। কিন্তু করোনার কারণে হাটে ব্যাপারী আসছে না। যারা আসে তারাও পরিবহন সমস্যাসহ করোনার দোহায় দিয়ে ১০০ টাকার কাঁঠাল ১৫ থেকে ২০ টাকা দিয়ে কিনছে। কাঁঠাল তো দ্রুত পচে যায়। তাই চাষিরা কম দামে বিক্রি করে দিচ্ছে।’ হাটে বরিশাল জেলা থেকে আসা রমিজ ব্যাপারী জানান, চুয়াডাঙ্গা জেলার কাঁঠালের স্বাদ ভালো। প্রতিবছর তিনি এই অঞ্চলের বিভিন্ন হাট থেকে কাঁঠাল কিনে ট্রাকে করে নিয়ে যান। এবার কাঁঠালের দাম কম হলেও করোনার কারণে পরিবহন সমস্যা রয়েছে। ভাড়াও বেশি।

চুয়াডাঙ্গা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক জানান, গত মৌসুমে ২৭৫ হেক্টর জমিতে কাঁঠালের আবাদ হলেও চলতি মৌসুমে ২৮৫ হেক্টর জমিতে কাঁঠাল হয়েছে। তিনি বলেন, ‘গত বছরের তুলনায় চলতি বছর কাঁঠালের উৎপাদন ভালো হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা থেকে দেশের দক্ষিণ অঞ্চলসহ বিভিন্ন অঞ্চলে কাঁঠাল নিয়ে বিক্রি করা হয়। কিন্তু এ বছর করোনার কারণে একদিকে যেমন পরিবহন সমস্যা অপরদিকে কাঁঠালের চাহিদাও কম। সব মিলিয়ে কাঁঠাল চাষিরা ক্ষতির মুখে পড়বে। জেলার চাহিদা মিটিয়েও প্রতিবছর কয়েক’শ কোটি টাকার কাঁঠাল বিক্রি হয় দেশের বিভিন্ন জেলায়। কিন্তু এ বছর করোনার কারণে তা হচ্ছে না।’

খুলনায় হিযবুত তাহরীরের এক সদস্য গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার

খুলনার ডুমুরিয়া থানাধীন ভান্ডারপাড়া এলাকায় শুক্রবার ভোররাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে হুমায়ন কবির (২৩) নামে হিযবুত তাহরীরের এক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের এন্টি টেররিজম ইউনিট (এটিইউ)। পুলিশে জানিয়েছে,গ্রেফতারকৃত হুমায়ন কবির হিযবুত তাহরীরের একজন সক্রিয় সদস্য। সে গুলশান থানায় সন্ত্রাস বিরোধী আইন ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একজন এজাহার নামীয় আসামী। গ্রেফতারের সময় তার কাছ হতে ব্যবহৃত একটি মোবাইল ফোন, দুটি মোবাইল সীম কার্ড, ৫ টি জিহাদী বই এবং একটি এনআইডি কার্ড উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত হুমায়ন কবিরকে জিজ্ঞাসাবাদের ১০ দিনের পুলিশ রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

শেখ বেলাল উদ্দিন বাবু’র শশুরের মৃত্যুতে আ’লীগ, প্রতিমন্ত্রী, মেয়র, সংসদ সদস্য, বিসিবি’র শোক

খবর বিজ্ঞপ্তি

বঙ্গবন্ধু’র ভ্রাতুষ্পুত্র শেখ বেলাল উদ্দিন বাবু’র শশুর গোলাম কিবরিয়া খোকন ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে ………… রাজেউন)। গতকাল শনিবার বিকাল ৩টায় ঢাকায় পুলিশ হাসপতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী সন্তান, অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। গোলাম কিবরিয়ার মৃতদেহ রাতে খুলনায় আনা হয়েছে। আজ রবিবার তার জানাযা শেষে টুটপাড়া কবরস্থানে দাফন করা হবে।

এদিকে শেখ বেলাল উদ্দিন বাবু’র শশুর গোলাম কিবরিয়া খোকনের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, শ্রম প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ হারুনুর রশীদ, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত কুমার অধিকারী।

॥ শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি’র শোক ॥

শেখ বেলাল উদ্দিন বাবু’র শশুর গোলাম কিবরিয়া খোকনের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন।

॥ সেখ সালাহ্ উদ্দিন জুয়েল এমপি’র শোক ॥

শেখ বেলাল উদ্দিন বাবু’র শশুর গোলাম কিবরিয়া খোকনের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহ্ উদ্দিন জুয়েল।

॥ এস এম কামাল হোসেন ॥

শেখ বেলাল উদ্দিন বাবু’র শশুর গোলাম কিবরিয়া খোকনের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রিয় সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন।

॥ শেখ সোহেল ॥

শেখ বেলাল উদ্দিন বাবু’র শশুর গোলাম কিবরিয়া খোকনের মৃত্যুতে গভীর শোক, শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক শেখ সোহেল।

মহানবী (সাঃ)কে নিয়ে কটুক্তিকারী অঞ্জনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী ইসলামী আন্দোলনের

খবর বিজ্ঞপ্তি

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা মহানগরের নেতৃবৃন্দ গতকাল শনিবার গনমাধ্যমে এক বিবৃতিতে নগরীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) কে নিয়ে কটূক্তি ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য কারী অঞ্জন দাসকে (২২) গ্রেফতার করায় পুলিশকে ধন্যবাদ জানান এবং সাথে সাথে তাকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান, তারা বলেন যদি এব্যাপারে কোন গড়িমসি করা হয় তাহলে মুসলিম জনতাকে সাথে নিয়ে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। বিবৃতিদাতারা হলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা মহানগর সভাপতি মুফতী আমানুল্লাহ, সহ সভাপতি মাওঃ মোজাফ্ফার হোসাইন, মুফতী মাহবুবুর রহমান, সেক্রেটারী শেখ মোঃ নাসির উদ্দিন, জয়েন্ট সেক্রেটারী মাওঃ দ্বীন ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জিএম সজীব মোল্লা, সহ সাংগঠনিক মোল্লা রবিউল ইসলাম তুষার, প্রচার সম্পাদক মোঃ তরিকুল ইসলাম কাবির, সহ প্রচার আব্দুর রশীদ, দপ্তর সম্পাদক মোঃ শরিফুল ইসলাম, সহ দপ্তর মুফতী আমিরুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক মুক্তিযুদ্ধা জিএম কিবরিয়া, সহ অর্থ আলহাজ্ব মোমিনুল ইসলাম, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুফতী ইসহাক ফরীদি, সহ প্রশিক্ষণ মাওঃ হাফিজুর রহমান, ছাত্র ও যুব বিষয়ক মাওঃ ইমরান হোসাইন, শিক্ষা ও সংস্কৃতি ইঞ্জিনিয়ার এজাজ মানসুর, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট কামাল হোসেন, কৃষি ও শ্রম বিষয়ক আলহাজ্ব আমজাদ হোসেন, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুস ছালাম, মহিলা ও পরিবার বিষয়ক ডাঃ মাওঃ নাসির উদ্দিন, সংখ্যালঘু বিষয়ক আলহাজ্ব আবু তাহের, নির্বাহী সদস্য মাওঃ শায়খুল ইসলাম বিন হাসান, মাওঃ সিরাজুল ইসলাম, আলহাজ্ব জাহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

আ’লীগ নেতা জামাল উদ্দিন বাচ্চু অসুস্থ্য নেতৃবৃন্দের সুস্থ্যতা কামনা

খবর বিজ্ঞপ্তি

খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক জামাল উদ্দিন বাচ্চুকে করণারী জনিত কারনে অসুস্থ্য হয়ে নগরীর সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁর এনজিওগ্রাম করা হয়েছে। এনজিওগ্রামে তার করণারীতে ব্লক দেখা দেয়ায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তিনি দলের নেতাকর্মীসহ সকল শুভাকাংখীদের কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছেন। এদিকে জামাল উদ্দিন বাচ্চু’র সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, শ্রম প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহ্ উদ্দিন জুয়েল, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ হারুনুর রশীদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রিয় সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত কুমার অধিকারী। অনুুরুপ বিবৃতি দিয়েছেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সদস্য শেখ সোহেল। তিনি জামাল উদ্দিন বাচ্চু’র সুস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেছেন।

ফকিরহাটে নসিমন খাদে পড়ে চালক নিহত

ফকিরহাট(বাগেরহাট) প্রতিনিধি

বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট উপজেলার মুলঘর এলাকায় নসিমন খাদে পড়ে চালক সৈয়দ স্বাধীন (১৭) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার ১১জুলাই সকালে এই দুর্ঘটনার পর পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে। ফকিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনম খায়রুল আনাম জানান, বাগেরহাট-ফকিরহাট পুরাতন সড়কে ফকিরহাট উপজেলার মুলঘর এলাকায় সৈয়দ স্বাধীন (১৭) নামে এক নসিমন চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে খাদে পড়ে গেলে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট মর্গে পাঠিয়েছে।

ফকিরহাটে একদিনে ০৩  করোনা রোগীর মৃত্যু

ফকিরহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

বাগেরহাটের ফকিরহাটে একই দিনে করোনায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।মৃত্যু বরনকারী তিন জন হলেন উপজেলার সাতবাড়িয়া গ্রামের ইয়াদ আলী (৬০) তার পুত্র বাদশা(২৮) ও গ্রাম পুলিশ আঃ সালাম(৫৫)। শনিবার ১১জুলাই সকাল সাতটার দিকে খুলনা কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইয়াদ আলী মৃত্যুবরন করেন। ১০ ঘন্টার ব্যবধানে বিকাল পাচটার দিকে মৃত্যু হয় ইয়াদ আলীর পুত্র খান জাহান আলী বাদশার। গত ৮ জুলাই ইয়াদ আলী সহ একই পরিবারের ৪জন করোনা সনাক্ত হয়।

অপর দিকে ফকিরহাট সদর ইউনিয়নের আট্টাকী ১নং ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশ আব্দুস ছালাম করোনার উপসর্গ নিয়ে খুলনা কোভিড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার  বিকালে মৃত্যুবরন করেন। এ পর্যন্ত ফকিরহাটে মোট মৃতের সংখ্যা ৫ জন। মোট আক্রান্ত সংখ্যা ৮১জন। এরমধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩৬জন। করোনায় মৃত্যুসহ বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: অসিম কুমার সমাদ্দার। একই দিনে করোনায় তিন জনের মৃত্যুর ঘটনায় ফকিরহাটে শোকাবহ পরিবেশ বিরাজ করছে।

খানজাহান আলী থানা পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে মহিলা সহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক

ফুলবাড়ীগেট(খুলনা) প্রতিনিধি

নগরীর খানজাহান আলী থানাধীন যোগিপোল ৯নং ওয়ার্ড ও শিরোমণি পূর্ব পাড়া লিন্ডা কিনিকের পশ্চিম পাশ^ এলাকা থেকে মহিলা সহ ২ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ। খানজাহান আলী থানার মাদক বিরোধী অভিযান চলাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে যোগিপোল ৯নং ওয়ার্ড রেল লাইনের পাশে^ মনা মিয়ার স্ত্রী আনোয়ারা বেগম আনু’(৪৭) কে ১১ জুলাই শনিবার বেলা পৌনে ২ টায় ৫০ গ্রাম গাঁজা ও গাঁজা বিক্রয়ের নগদ ২৯৭০ টাকা সহ আটক করে । অপরদিকে ১০ জুলাই শুক্রবার রাত সাড়ে ৯ টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শিরোমনি পুর্বপাড়ার ইয়াহিয়া খানের পুত্র মেহেদি হাসান শুভ (১৯) কে ৫’শ গ্রাম গাঁজা সহ  শিরোমণি পূর্ব পাড়া লিন্ডা কিনিকের পশ্চিম পাশ^ এলাকা থেকে আটক করেছে খানজাহান আলী থানা পুলিশ । যার মামলা নং-০৪ ও ০৫ । খানজাহান আলী থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ শফিকুল ইসলাম জানান করোনা দুর্যোগের  সময়ে থানা পুলিশ করোনা প্রতিরোধ সহ নানা কার্যক্রম চালানোর ফাকে তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ীরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে, মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতারে থানা পুলিশের  অভিযান পুনরায় শুরু করা হয়েছে এবং এ ধারা চলমান থাকবে ।  আনোয়ারা বেগম আনু ও মেহেদি হাসান শুভ বিভিন্ন এলাকায় মাদক দ্রব্য পাইকারী ও খুচরা বিক্রয় করে থাকে। মাদক ব্যবসায়ী আনোয়ারা বেগম আনু’র নামে মাদক আইনে একাধিক মামলা রয়েছে।

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ্যাড. সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে শোক

ফুলবাড়ীগেট(খুলনা)প্রতিনিধি

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি মন্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ্যাড. সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা এবং মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন খানজাহান আলা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ আবিদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শেখ আনিসুর রহমান, মোঃ শাকিল আহম্মদ, এফ.এম জাহিদ হাসান জাকির , আবু হেনা বাবলু, মুন্সি আসাদুজ্জামান বাবু, রতন মোল্যা, আঃ ওহাব , বখতিয়ার হোসেন, রুবেল জোমাদ্দার, আফজাল হোসেন, সেকেন্দার আলী, লিয়াকত মুন্সি, শেখ সোয়েব আলী, আবুল কালাম আজাদ, ফিরোজসহ ২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ।

তালা উপজেলা ছাত্রদলের রাজনীতিতে অশনি সংকেতের শঙ্কায় তৃণমুল নেতৃবৃন্দ

পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি

তালা উপজেলা ছাত্রদলের আগামী রাজনীতি নিয়ে অশনি সংকেতের শঙ্কায় ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে তৃণমুল নেতৃবৃন্দের মাঝে। ছাত্ররাজনীতি যে কোনো দলের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় মনে করে কি হতে চলেছে আগামী দিনের তালা উপজেলা ছাত্রদলের কমিটিতে তা নিয়ে তৃণমুল বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের মাঝে তীব্র মিশ্র প্রতিক্রিয়ার জন্ম দিয়েছে।

জানা যায়, ছাত্ররাজনীতির গুরুত্ব উপলদ্ধি করে অতিদ্রুততম সময়ের মধ্যে তালা উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক কমিটি দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। তালা উপজেলা ছাত্রদলের কমিটি বিলূপ্তির পর দায়িত্বছাড়া হয়ে পড়ায় অনেকটা ঝিমিয়ে পড়েছে ছাত্রদলের ত্যাগী নেতাকর্মীরা। দীর্ঘদিন নতুন কমিটি দেয়ার গুঞ্জন শোনা গেলেও বাস্তবত কোনো কমিটি দেয়া হয়নি। অবশেষে তালা উপজেলার বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ নড়েচড়ে বসতেই কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ কমিটি দেয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তবে তালা উপজেলার পরীক্ষিত ত্যাগী, নির্যাতিত, রাজনৈতিক মামলা হামলার শিকার নেতৃবৃন্দ দাবি করেন ছাত্রদলের রাজনীতি দলের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। এতে কমিটি গঠনে কোনো প্রকার ত্রুটি থাকলে আগামী দিনে মাশুল গুনতে হবে বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দের। তারা আরও মনে করেন, তালা উপজেলার রাজনীতিতে যারা বুদ্ধি পরামর্শ দিয়ে দলকে বেগবান করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন কেন্দ্রীয় ও জেলা রাজনীতিবিদদের উচিত তাদের কথার মুল্যায়ন করা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তালা উপজেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ বলেন, ইতোমধ্যে অবৈধ কালো আর বিদেশী টাকার কাছে নত হয়ে পকেট কমিটি দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। এখন শুধুমাত্র নাম প্রকাশের সময়টুকু বাকি। তারা বলেন, আমরা জানতে পেরেছি সিনিয়র নেতারা অবৈধ টাকার কাছে বিক্রি হয়ে সভাপতি হিসেবে হাফিজুর রহমান হাফিজকে এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে রিজভী আহমেদকে মনোনীত করেছেন। কিন্তু এ কমিটি পাটকেলঘাটার রাজনীতিতে কেউ মেনে নেবে না এবং এর জন্য দলকে কঠিন মাশুল দিতে হবে। উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও সম্পাদক প্রার্থীগণ সৈকত, রিপন, সোহেল, রাসেল, জিএম ফারুক, আবির হোসন, সালাম, আলামিন অভিযোগ করে বলেন, স্থানীয় বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের মতের বাইরে কমিটি দিলে তা আমরা কখনই মেনে নেব না। আমরা জানতে পেরেছি মালেশিয়া ফারুকের কাছে অবৈধ কালো টাকায় বিক্রি হয়ে ইতোমধ্যে কমিটি তৈরী হয়ে আছে। তৃণমুল রাজনীতিবিদদের অবজ্ঞা করে সিনিয়র নেতারা কমিটি দিলে আমরা কঠিন হতে কঠোর হতে বাধ্য হবো। বিশেষত রিজভীকে কখনই আমরা মেনে নেব না। কারণ রিজভী শুধুমাত্র ফেসবুক রাজনীতিতে সীমাবদ্ধ। নেই মামলা, হামলা, নির্যাতিত, কারাবরণকারীর মতো গুরুতর অভিযোগ। তাছাড়া অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দকে অবজ্ঞা করে একক রাজনীতিতে তার অবাধ চলাচল। অর্থের কাছে মাথা নত করে কমিটি দিলে তা কখনই মানা হবে না বলে অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে সদ্য বিদায়ী তালা উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি সাইদুর রহমান সাইদ বলেন, কমিটি দেয়ার ব্যাপারে লোক মারফত শুনেছি। আমি চাই কালো টাকার বিনিময়ে যেন কেউ কমিটিতে আসতে না পারে এবং পরীক্ষিত ত্যাগী নির্যাতিতরাই যেন কমিটিতে ঠাই পাই। বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক আনিসুজ্জামান আনিচ বলেন, তালা উপজেলা ছাত্রদলের রাজনীতি বরাবরই প্রধান সেনাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছে। স্থানীয় নেতৃবৃন্দের মতামত না নিয়ে পকেট কমিটি দিলে তা আমরা কখনই মেনে নেব না। প্রয়োজনে যে কোনো দুর্যোগে প্রতিহত করতে পাটকেলঘাটার নেতৃবৃন্দ বদ্ধ পরিকর। সরুলিয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি রাশেদুল হক রাজু বলেন, তালার প্রার্থী নিয়ে আমাদের মাথা ব্যাথা নাই। তবে পাটকেলঘাটা সদর হতে আবিরকে সম্পাদক করার প্রস্তাব দিয়েছি। কেননা আবির নির্যাতিত হয়ে দেশ ত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছিল। তার মতো কর্মঠ, চৌকস, ত্যাগীকে কমিটিতে আনলে দলের ভাবমুর্তি বাড়বে বলে মনে করি। উপজেলা কৃষকদলের সভাপতি আলী হোসেন বলেন, কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের উচিত দলের এই কঠিন দুঃসময়ে অর্থের কাছে বিক্রি না হয়ে স্থানীয়দের মতামতের ভিত্তিতে নেশাহীন, নির্যাতিত ছেলেদের কমিটিতে আনা। তালা উপজেলা যুবদলের সভাপতি হাফিজুর রহমান হাফিজ বলেন, কেন্দ্র হতে জানার পর স্থানীয় ছাত্রদল, যুবদল ও বিএনপির তৃনমুল সকলকে নিয়ে মিটিং করেছিলাম। সকলে সর্বসম্মতিক্রমে সরুলিয়া সদর হতে আবিরকে মনোনীত করেছে। আমাদের সকলের দাবি তাকেই সদস্য সচিবের পদে নিযুক্ত করা হোক। তবেই কোনো গ্রুপিংয়ের কিংবা দ্বিমত থাকবেনা বলে মনে করি। এ ব্যাপারে জেলা ছাত্রদলের সভপতি সজীব ও সম্পাদক চন্দনের মোবাইলে যোগাযোগে পাওয়া যায়নি। তবে তালা উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠন বারংবার স্বজনপ্রীতি আর অবৈধ টাকার কাছে নত হয়ে আসছে বলে মনে করেন তালা উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি শেখ গোলাম মোস্তফা। তিনি বলেন, মাঠ পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের মতামতের ভিত্তিতে কমিটি দিলে দলের জন্য আর্শিবাদ বয়ে আনবে ।

ডুমুরিয়ায় আলোচনা সভা

ডুমুরিয়া প্রতিনিধি

৩০তম বিশ^ জনসংখ্যা দিবস উপলক্ষে গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় ডুমুরিয়া উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসারের কার্যালয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ শাহনাজ বেগমের সভাপতিত্বে মহামারি করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখে সামাজিক দুরত্ব রক্ষা করে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় ‘মহামারি কোভিড- ১৯কে প্রতিরোধ করি, নারী ও কিশোরীর সুস্বাস্থ্যের অধিকার নিশ্চিত করি’ শিরোনামের ওপর বক্তব্যদেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সুফিয়ান রোস্তম, পরিবার পরিকল্পনা সংশ্লিষ্ট মেডিকেল অফিসার ডা. দ্বীন মোহাম্মদ খোকা ও উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শুকলাল বৈদ্য। আলোচনা শেষে ডুমুরিয়া উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রমে বিশেষ অবদানের জন্য সেলিনা পারভিন, শেখ সাইফুল ইসলাম, নিলীমা রানী ও এস.এম সোহরাব হোসেন খুলনা বিভাগীয় পর্যায়ে পুরস্কৃত হওয়ায় উপজেলা অফিস থেকে তাদেরকে উপঢৌকন দেওয়া হয়।

ডুমুরিয়ায় ওমর বিন খাত্তাব (রাঃ) জামে মসজিদ কমিটি গঠন

ডুমুরিয়া প্রতিনিধি

ডুমুরিয়া সদরে ওমর বিন খাত্তাব (রাঃ) জামে মসজিদ কমিটিতে ইউপি চেয়ারম্যান গাজী হুমায়ুন কবির বুলু সভাপতি ও সাংবাদিক মাহাবুবুর রহমান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। গত শুক্রবার বাদজুমা মসিজদ চত্বরে জরুরী সভা শেষে সর্বসম্মতিক্রমে ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি নির্বাচিত হয়। কমিটির অন্যরা হলেন সহ-সভাপতি শেখ ফরহাদ হোসেন, মোঃ মকবুল ফকির ও সোনা সরদার, যুগ্মসম্পাদক আজারুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ সজল আহমেদ, প্রচার সম্পাদক মারুফ বিশ^াস, সহপ্রচার সম্পাদক খায়রুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক রমজান আলী, সদস্য মোহাম্মদ আলী, আবুল হোসেন, আব্দুল মহিত, মোল্যা মফিজুল ইসলাম, ইয়াসিন রহমান ও আলিম।

ডুমুরিয়ায় ইউপি সদস্যের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে সভা

ডুমুরিয়া প্রতিনিধি

ডুমুরিয়ায় মাগুরখালী সাবেক ইউপি সদস্য অনুকুল মন্ডলের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুরে মাগুরখালী ইউনিয়ন পরিষদে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন ইউপি চেয়ারম্যান ও মাগুরখালী ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি বিমল কৃষ্ণ সানা। আসামীকে গ্রেফতারের দাবী জানিয়ে সভায় বক্তব্যদেন সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক সরোজ কুমার রায়, ইউপি সদস্য প্রসাদ কুমার মন্ডল, ভবেন্দ্রনাথ বালা, ইলা রানী বৈরাগী, শিক্ষক অমর কৃষ্ণ মন্ডল, সুব্রত কুমার সরকার, দেবব্রত কুমার মন্ডল, আমুড়বুনিয়া বাজার কমিটির সভাপতি পরিতোষ কুমার জোদ্দার প্রমুখ। উল্লেখ্য, গত ৪ জুলাই সন্ধ্যায় মাগুরখালী ইউনিয়নের আমুড়বুনিয়া বাজারে একটি তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অত্র এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী সজল ওরফে বাবু তার বাহিনী নিয়ে অতর্কিতভাবে সাবেক ইউপি সদস্য ও আ’লীগ নেতা অনুকুল মন্ডলের উপর হামলা করে। এতে সে গুরুতর রক্তাক্ত জখম হয়। এ ঘটনায় আহতের স্ত্রী মিতা রানী মন্ডল বাদী হলে বাবুসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করে।       

নারী স্বাস্থ্য সচেতনতায় কাজ করছে ‘উইথ সি’

খবর বিজ্ঞপ্তি

মেয়েদের ঋতুকালীন স্বাস্থ্যবিধি বাড়াতে কাজ শুরু করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘উইথ সি’। এ সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে কিশোর কিশোরীসহ নানা শ্রেণি পেশার মানুষ। গতকাল শুক্রবার রাত ৯ টায় অনলাইন প্রযুক্তি জুম অ্যাপে ঘণ্টাব্যাপী উইথ ডক্টর’স লাইভ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন তারা। অনুষ্ঠানে ঋতুচক্রের নানা প্রশ্নের উত্তর ও পরামর্শ দেন ডা. সায়মা আসাদ। ‘২০২০ সালে এসেও নারীদের জড়তা রয়ে গেছে। পিরিয়ড চলাকালীন তাদের নানা প্রতিকূলতার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। সমাজের ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি আমাদের দমিয়ে রেখেছে। তাই আমাদের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। সচেতনতা বাড়াতে হবে। তবেই আমরা কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবো।’

‘আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের অধিকার। বাড়াবো সচেতনতা, আনবো পরিবর্তন’ স্লোগানে কাজ করছে সংগঠনের দায়িত্বশীলরা। ২০২৪ সালের মধ্যে দেশের শতভাগ মানুষকে প্রজনন স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে সচেতন করা তাদের লক্ষ্য। সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে বেঙ্গল এইড, প্রোজেক্ট বনলতা, আগুয়ান-৭১, সোশ্যালিকা এবং এন্টি রেপ স্কোয়াড বাংলাদেশ। উল্লেখ্য, কোভিড-১৯ সংক্রমণের শুরু থেকে জরুরি প্রয়োজনে ফেইসবুক পাতা ও নির্দিষ্ট হটলাইনের মাধ্যমে নারীর জরুরি প্রয়োজনে স্যানিটারি ন্যাপকিন পৌঁছে দিচ্ছে উইথ সি। এছাড়াও দেশজুড়ে নারীর প্রজনন স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতনতা তৈরি করতে অনলাইন ও অফলাইনে কার্যক্রম পরিচালনা করে শহর এবং গ্রামের সকল মানুষের মাঝে উদারতা বৃদ্ধিতে কাজ করছে সংগঠনটি।

বাগেরহাটে করোনায় আরো একজনের মৃত্যু

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট উপজেলার শালবাড়ীয়া গ্রামে করোনা আক্রান্ত হয়ে ইয়াদ আলী (৬০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকালে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ফকিরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ নমুনা সংগ্রহের পর গত মঙ্গলবার আইইডিসিআর থেকে জানানো হয় ইয়াদ আলী করোনা পজেটিভ। এরপর তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে বুধবার সকালে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হয়। শনিবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানে তার মৃত্যু হয়। করোনা স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুপুরে ইয়াদ আলীকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। এনিয়ে ফকিরহাট উপজেলায় দুইজনসহ বাগেরহাট জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ৫ জন মারা গেলেন।                 

বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডা. কে এম হুমায়ুন কবির ফকিরহাট উপজেলায় নতুন করে ইয়াদ আলী নামে করোনা আক্রান্ত হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বাগেরহাট জেলায় নতুন করে আরো ৯ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ২৮৩ জনে। এর মধ্যে ১৯০ জন সুস্থ্য ও অন্যরা চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নতুন আক্রান্ত ৯ জনের সবাইকে প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম আইসোলেশন নিশ্চিত করছে স্বাস্থ্য বিভাগ। এছাড়া আক্রান্তদের সংস্পর্শে আসা ব্যাক্তিদের নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে।

বাগেরহাটে সড়ক দুর্ঘটনায় নসিমন চালক নিহত

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের ফকিরহাটে সড়ক দুর্ঘটনায় সৈয়দ স্বাধীন (১৬) নামের এক নসিমন চালক নিহত হয়েছে। শনিবার দুপুরে খুলনা মাওয়া মহাসড়কের ফকিরহাট উপজেলার মুলঘর নামক স্থানে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের একটি ভবনের দেওয়ালে ধাক্কা লেগে স্বাধীণ আহত হয়। স্থানীয়রা উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করেন। নিহত স্বাধীন মূলঘর এলাকার হাফিজুর রহমানের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, ফলতিতা-বটতলা থেকে খুলনা-মাওয়া মহাসড়ক দিয়ে সৈয়দ স্বাধীন নিজেই নসিমন চালিয়ে যাচ্ছিল ফকিরহাট বাজারের দিকে। মূলঘর নামক স্থানে পৌছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তার নসিমন উল্টে যায়। রাস্তার পাশের একটি দেওয়ালের সাথে ধাক্কা লেগে সে মারাত্মক আহত হয়।পরে খুলণা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করেন। ফকিরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু সাইদ মোহাম্মাদ খায়রুল আনাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বাগেরহাটে মাদক ব্যবসায়ী ইউপি সদস্যকে গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের চিতলমারীতে বিধবার জমি দখলের প্রতিবাদ ও আওয়ামী লীগ নেতা দিপুল শেখ হত্যা মামলার আসামী মাদক ব্যবসায়ী ইউপি সদস্য মিজানুর রহমানকে গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। শনিবার (১১ জুলাই) দুপুরে চিতলমারী উপজেলার পরানপুর গ্রামে ঘন্টাব্যাপি এ মানববন্ধনে দুই শতাধিক এলাকাবাসী অংশ নেয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, চিতলমারী উপজেলার বড়বাড়িয়া ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড (পরানপুর) আওয়ামী লীগের সভাপতি ফখরুল আলম, মৃত হানিফ শেখের স্ত্রী হাওয়া বেগম, আওয়ামী লীগ নেতা মৃত দিপুল শেখের ছেলে আল আমিন শেখ, স্ত্রী কামনা বেগম, দিপুলের ভাই মোঃ বাবুল শেখ, ফরিদ শেখ, স্থানীয় নোমান শেখ, এসএম সুমনসহ আরও অনেকে।

বক্তারা বলেন, মিজানুর রহমান একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। ইউপি সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এমন কোন অপরাধ নেই যা তিনি করেননি। ৮ই এপ্রিল মিজানুর রহমান ও তার লোকেরা হামলা চালিয়ে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক দিপুল শেখকে নির্মমভাবে হত্যা করে। এলাকার অনেকেরই জমি দখল করেছে এই মিজান ও তার বাহিনী। থানায় হত্যা, মাদক, জমিদখলসহ কয়েকটি মামলা থাকলেও মিজানকে আটক করে না পুলিশ। মিজানের দাপটে স্থানীয়রা সব সময় আতঙ্কিত থাকেন। মিজানকে আটক করে এলাকায় শান্তি ফিরিয়ে আনার দাবি জানান তারা।

হত্যার শিকার আওয়ামী লীগ নেতা দিপুল শেখের ছেলে আল আমিন শেখ বলেন, ৮ এপ্রিল মাগরিবের সময় মিজান ও তার লোকেরা আমার বাবার উপর হামলা করে। পরে রাতেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আমার পিতা মারা যায়। আমরা হত্যা মামলা করলেও পুলিশ মিজান মেম্বরকে আটক করেনি। বরং মিজান আমাদেরকে হুমকী ধামকি দিচ্ছে মামলা তুলে নিতে।

বিধবা হাওয়া বেগম বলেন, মিজান মেম্বর ও তার লোকেরা জোর করে আমার বাড়ির ১৭ শতক জমি দখল করে নিয়েছে। আমি জমিতে আসতে পারিনা। জমিতে আসলে আমাকে মেরে ফেলবে। আমি থানা পুলিশকে জানালেও কোন ব্যবস্থা নেয়নি তারা। আমি আমার জমি ফেরত চাই। এই অত্যাচারীর হাত থেকে বাঁচতে চাই। শুধু আমার নয় এলাকার অনেকের জমি দখল করেছে মিজান মেম্বর। ভয়ে কেউ মুখ খুলতে পারে না। চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর শরিফুল হক বলেন, মামলার পর থেকে মিজান পলাতক রয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি তাকে আটকের জন্য।

বাগেরহাটে পুরোনো ছাদ ভাঙ্গতে গিয়ে চার শ্রমিক আহত

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের কচুয়ায় ছাদ ভেঙ্গে পড়ে চার শ্রমিক আহত হয়েছেন।শুক্রবার (১০ জুলাই) বিকেলে কচুয়া উপজেলার গোয়ালমাঠ রশিকলাল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পুরোনো ছাদ ভাঙ্গার সময় এ দূর্ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয় স্থানীয়রা। আহতরা হলেন, কচুয়া উপজেলার নরেন্দ্রপুর গ্রামের রশিদ মোল্লার ছেলে আছাদুল মোল্লা (৩০), মোশারেফ মোল্লার ছেলে তারিফুল মোল্লা (২২), সাইদ মোল্লার ছেলে সাব্বির মোল্লা (২২) এবং সোহরাফ শেখের ছেলে সবুজ শেখ (২৪)। আহতদের মধ্যে সাব্বির মোল্লার অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় প্রথমে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত আছাদুল মোল্লা জানান, আমরা চারজন হ্যামার দিয়ে ছাদ ভাঙ্গছিলাম। এক পর্যায়ে আমরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই আমাদের পায়ের নিচে থাকা ছাদের একটি বড় অংশ ভেঙ্গে নিচে পড়ে যায়। আমরাও নিচে পড়ে যাই। ছাদের কিছু অংশ আমাদের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় পড়ে। এতে আমরা চারজনই আহত হয়েছি। তবে এর মধ্যে সাব্বির মোল্লা ও সবুজের অবস্থা একটু বেশি খারাপ। সাব্বিরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। আমরা স্থানীয় কিনিকে চিকিৎসা নিয়েছি। সাব্বিরের চাচা সাবুল মোল্লা বলেন, গুরুত্বর আহত অবস্থায় সাব্বিরকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে নিয়েছিলাম। চিকিৎসকরা দেখে খুলণা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এখানে এখন চিকিৎসা নেওয়া হচ্ছে। অবস্থা খুবই খারাপ। এখানের চিকিৎসকরা বলেছেন রাতের মধ্যে অবস্থার উন্নতি না হলে ঢাকায় নিতে হবে। গোয়ালমাঠ রশিকলাল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক গোপাল চন্দ্র দেবনাথ বলেন, পুরোনো ছাদ ভাঙ্গতে গিয়ে ছাদ থেকে পড়ে চার শ্রমিক আহত হয়েছে। তাদেরকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

বাগেরহাটের বাজারে রুপচাদার নাম বলে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ পিরানহা

বাগেরহাট প্রতিনিধি

নিষিদ্ধ ‘পিরানহা’কে দেশীয় সুস্বাদু রূপচাঁদা মাছ বলে বিক্রি করা হচ্ছে বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার গ্রামে গ্রামে। এটি রাক্ষুসে স্বভাবের মাছ হিসেবে পরিচিত এবং বাংলাদেশের পরিবেশের সাথে অসংগতিপূর্ণ। দেশীয় প্রজাতির মাছ ও জীববৈচিত্র্যের জন্য হুমকি স্বরূপ। সে কারনে সরকার ২০০৮ সালের ফেব্রুয়ারী থেকে পিরানহার পোনা উৎপাদন, চাষ,বংশ বৃদ্ধিকরণ, ক্রয়-বিক্রয় সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছেন। সরকারী সকল নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে করোনার চলতি ক্রান্তিকালে অবাদে বিক্রি হচ্ছে পিরানহা ।

মাছের ফেরিওয়ালার এমন হাঁক-ডাকে রাস্তায় ছুটে যান গ্রামের ক্রেতারা। তারা মাছের চেহারা দেখেন। পিরানহার ’হা’ বেড় করে দাত দেখান বিক্রেতা। দেড় থেকে দুইশ টাকায় প্রতিকেজি রূপচাঁদা কিনতে পেরে খুশি হন ক্রেতারা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিক্রেতা জানান, চিতলমারী উপজেলা সদরের মাছের আড়ৎ হতে এই মাছ তিনিসহ অন্যান্য ফেরিওয়ালারা সংগ্রহ করেন।

এ ব্যাপারে চিতলমারী উপজেলার মৎস্য কর্মকর্তা জিল্লুর রহমান রিগ্যান জানান, সরকারী নিষেধাজ্ঞা যারা অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ইতোমধ্যে পিরানহা ও বিদেশী মাগুর মাছ চাষাবাদ ও ক্রয়-বিক্রয় না করার জন্য উপজেলার মাছের আড়ৎ ও ডিপোগুলোতে জানানো হয়েছে।

বাগেরহাটে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মালামাল চুরি: মালামাল উদ্ধার হলেও মামলা না হওয়ায় এলাকায় উত্তেজনা

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটে ডুমুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মালামাল চুরি হওয়ার প্রায় দুই সপ্তাহ অতিক্রম হলেও মামলা না এলাকায় সাধারন মানুষের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। মামলা না হওয়ায় প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষককে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে চলছে আলোচনা সমালোচনা। এলাকার একাধীক ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন, স্কুলের মালামাল স্থানীয় ডুমুরিয়া গ্রামের কিশোর চৌধুরী, শেখর চৌধুরী , অনন্ত চৌধুরী ও রশো চৌধুরীর নিজ বাড়িতে প্রতিষ্ঠানের চুরি হওয়া ইট,রড,টিন,জানালা,দরজাসহ বিভিন্ন মালামাল উদ্ধার করে। প্রায় দুই সপ্তাহ পার হলেও প্রধান শিক্ষক কোন অদৃশ্য ক্ষমতায় বলে এখনও মামলা করেন নি। যাদের বাড়িতে চুরিকৃত মালামাল পাওয়া গেছে তাদের বিরুদ্ধে এলাকায় চুরি,ডাকাতি, চাদাবাজি,ঘের দখল,জমিদখলসহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে। প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষককে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান এলাকাবাসী।

এদিকে অত্র প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য সরদার মোজাফ্ফর হোসেন,মোঃ আজমল ,প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক লুহো ইসলাম বাবু,বিদ্যেৎসাহী সদস্য জুলফিকার আলী (জুলহাস) সহ একাধিক সদস্য অভিযোগ করে বলেন,প্রতিষ্ঠানের মালামাল চুরি হওয়ার পর জরুরী মিটিংয়ে মালামাল চুরির জন্য মামলা দায়েরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পরের দিন প্রধান শিক্ষক রাজেন্দ্রনাথ মন্ডল চিতলমারী থানায় এজাহার দায়ের করেন। পরবর্তীতে প্রধান শিক্ষক এজাহারের কপি তুলে আনেন। প্রধান শিক্ষককে মামলা করার জন্য অনুরোধ করা হলেও প্রধান শিক্ষক কোন কর্নপাত করছেন না । তারা অভিযোগ করে আরো বলেন যারা এ ধরনের চুরির সাথে সংশ্লিষ্ট তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে পূর্বে বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত। প্রধান শিক্ষক কোন স্বার্থে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করছেন না তা আমাদের বোধগম্য নয়। তারা উক্ত ঘটনার সঠিক তদন্ত করে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান।

এ বিষয়ে অত্র প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সরদার টিটো বলেন, মালামাল চুরির পরই আমি প্রশাসনের বিভিন্ন স্থানে বিষয়টি অবহিত করি ও স্কুলে জরুরী মিটিংয়ের আয়োজন করি। মিটিংয়ে যাদের বাড়িতে চুরিকৃত মালামাল রয়েছে তাদেরকে আসামী করে প্রধান শিক্ষককের উপর মামলা করার সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়। প্রধান শিক্ষক মামলা না করার সঠিক কোন ব্যখ্যা আমি পাই নাই। তিনি আসামীদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের আহবান জানান।

এ বিষয়ে অত্র প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক রাজেন্দ্রনাথ মন্ডল বলেন,স্কুলের বিভিন্ন মালামাল চুরি হয়েছে। বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মিমাংশার চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।     

বাগেরহাটে আর্থিক প্রণোদনা ও সহজ শর্তে ঋণের দাবিতে কিন্ডার গার্টেনের মানববন্ধন

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটে করোনা ভাইরাসের মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্থ কিন্ডার গার্টেন ও সমমানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আর্থিক প্রণোদনা ও সহজ শর্তে ঝণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ কিন্ডার গার্টেন ঐক্য পরিষদ। শনিবার বেলা এগারোটা থেকে বারোটা পর্যন্ত কিন্ডার গার্টেন এডুকেশন সোসাইটির সহযোগিতায় বাগেরহাট প্রেসকাবের সামনে কিন্ডার গার্টেনের প্রায় তিন শতাধিক শিক্ষক এই মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নেন। মানববন্ধন শেষে তারা বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশিদের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি স্মারকলিপি জমা দেয়।

কর্মসূচি চলাকালে শিক্ষক নেতারা বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পর সরকার যেদিন থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে আমরা সেদিন থেকে বন্ধ রেখেিেছ। শিক্ষার গুনগত মান উন্নয়নে সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি কিন্ডার গার্টেন ভূমিকা রেখে চলেছে। সারাদেশে প্রায় এক কোটি শিশু এসব প্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা করছে। এতদিন বেসরকারি উদ্যোগে আমরা এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালিয়ে আসছি। আমরা কখনো সরকারের কাছে কোন ধরনের আর্থিক সাহায্য বা প্রণোদনা চাইনি। এখন দেশে মহামারি চলছে। স্কুলগুলো বন্ধ থাকায় প্রতিষ্ঠানের শতশত শিক্ষককে বেতন ভাতা দেয়া সম্ভব হচ্ছেনা। তারা সবাই মানবেতন জীবনযাপন করছেন। তাই দুর্যোগ মোকাবেলা এবং কিন্ডার গার্টেনগুলোকে বাঁচিয়ে রাখতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আর্থিক প্রণোদনা ও সহজ শর্তে ঋণ চাইছি। বেসরকারি এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে বাঁচিয়ে রাখতে সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে সেই দাবি জানাচ্ছি।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ কিন্ডার গার্টেন এডুকেশন সোসাইটির জেলা সভাপতি সাংবাদিক মো. দেলোয়ার হোসেন, জেষ্ঠ্য সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর সবুর, সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির হোসেনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কোভিড-১৯ চিকিৎসায় নিয়োজিত ডাক্তার ও সংশ্লিষ্টদের সাথে মতবিনিময় সভা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কোভিড-১৯ চিকিৎসায় নিয়োজিত ডাক্তার ও সংশ্লিষ্টদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে শনিবার দুপুরে মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মিলনায়তনে উক্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাতক্ষীরা-১, তালা-কলারোয়া আসনের সংসদ সদস্য  এ্যাড. মুস্তফা লুৎফুলাহ। সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ কাজী হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব ইউসুফ হারুন। এ সময় সেখানে আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) জিয়াউর রহমানসহ মেডিকেল কলেজের চিকিৎসক, নার্সসহ জেলা প্রশাসনের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ। বক্তারা এসময়, জেলার ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের জন্য হাই ফো ন্যাসাল ক্যানুলা, আরটি পিসিআর ল্যাব স্থাপন, পর্যাপ্ত চিকিৎসা সুরক্ষা সামগ্রী নিশ্চিত করার বিষয়ে ফলপ্রসু আলোকপাত করেন। এছাড়া চিকৎসক ও নার্স সংকট দূরীকরণে আরো চিকিৎ্সক ও নার্স পদায়নের বিষয়ে নিয়ে আলোচনা করেন তারা।

ঝিনাইদহ জেলা কালচারাল অফিসারের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতা ও ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহ জেলা কালচারাল অফিসার জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতা, ক্ষমতার অপব্যবহার ও নীতি বর্হিভূত কাজ করা অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে ফুঁসে উঠেছে জেলার সাংস্কৃতিক অঙ্গনের নেতৃবৃন্দ। সাংস্কৃতিক নেতৃবৃন্দদের উপেক্ষা করে নিজের ইচ্ছামত কাজ করছেন তিনি বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। জেলার একাধিক সাংস্কৃতিক কর্মী অভিযোগ করেছেন, জেলা কালচারাল অফিসার বিগত ৬ বছর ঝিনাইদহে কর্মরত আছেন। এক স্থানে দীর্ঘদিন থাকার সুযোগে নানা অনিয়মও করছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সাংস্কৃতিক কর্মী অভিযোগ করেন, গত মঙ্গলবার সাংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে করোনার কারণে অস্বচ্ছল ঝিনাইদহে ১’শ সাংস্কৃতিক কর্মীদের ৫ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদাণ করা হয়। এই অনুদানে স্বচ্ছল ও পাওয়ার অযোগ্যদের তালিকাভুক্ত করেছেন কালচারাল অফিসার জসিম উদ্দিন। নিজের ইচ্ছামত পোষ্য কয়েকজন ও তার পছন্দের লোকদের এ তালিকায় অর্ন্তভুক্ত করেছেন তিনি। যে কারণে ঝিনাইদহের প্রকৃত অস্বচ্ছল সাংস্কৃতিক কর্মীরা সরকারের এই সহযোগিতা পাননি।

বঞ্চিত সাংস্কৃতিক কর্মী বিপ্লব বিশ্বাস অভিযোগ করে বলেন, বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যন্ত্র বাজিয়ে আমার সংসার চলে। করোনার কারণে অনুষ্ঠান বন্ধ থাকায় এখন সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছি। আর্থিক সহযোগিতার জন্য কালচারাল অফিসারকে বললে তিনি তালিকায় নাম না দিয়ে উল্টো আমাকে বলেছেন, আমি নাকি শিল্পী না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিল্পী বলেন, অনেক স্বচ্ছল শিল্পী আছেন, যাদের ঢাকায় ফাট আছে, ঝিনাইদহে বাড়ি আছে। প্রতি মাসে তাদের হাজার হাজার টাকা আয়। তাদের এই তালিকায় নাম দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আমাদের মত অনেক শিল্পী এই সহযোগিতা থেকে বঞ্চিত হয়েছে।

এদিকে বিভিন্ন সময় শিল্পকলা একাডেমীতে আয়োজিত অনুষ্ঠান ও কর্মসূচী সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীদের জানানো হয় না বলেও অভিযোগ উঠেছে।

জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক বাবুল আক্তার লাল্টু বলেন, সাংস্কৃতিক কর্মীদের সহযোগিতার ব্যাপারে আমাকে কিছু জানানো হয়নি। যারা পাওয়ার যোগ্য তারা বঞ্চিত হয়েছে।

ঝিনাইদহ ঝংকার শিল্পী গোষ্টির প্রতিষ্ঠাতা শান্ত জোয়ার্দ্দার বলেন, কালচারাল অফিসার এখানে চাকুরি করে। কে স্বচ্ছল, কে অস্বচ্ছল সে কিভাবে জানবে। তার উচিত ছিল সাংস্কৃতিক সংগঠনের যারা নেতৃত্ব দেয় তাদের সাথে কথা বলে তালিকা তৈরী করা। কিন্তু তা না করে জসিম উদ্দিন নিজের পরিচিত লোক, যারা তাকে তেল দিয়ে চলেন তাদের নাম অর্ন্তভূক্ত করেছেন। এর তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।

জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সদস্য একরামুলক লিকু বলেন, ১’শ জনের মধ্যে ৫০ জনের তালিকার বিষয়টি আমি জানি, কিন্তু বাকি ৫০ জনের তালিকা কিভাবে হয়েছে সেটা আমি জানি না।

অনুসন্ধানে জানা যায়, সাংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রনালয় থেকে ২০১৯-২০ অর্থবছরে জেলার ৮৯ জন সংস্কৃতিসেবীদের মাসিক কল্যাণ ভাতা প্রদাণ করা হয়। এ তালিকাভুক্ত ১০ জন গত মঙ্গলবার দেওয়া বিশেষ অনুদানও পেয়েছেন। তাছাড়াও সরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত, ছাত্র, সাংস্কৃতিক কর্মী না এমন লোককে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে জেলা কালচারাল অফিসার জসিম উদ্দিন বলেন, ৫০ জনের তালিকা জেলা শিল্পকলা একাডেমীর এডহক কমিটির মাধ্যমে করা হয়েছে। বাকি ৫০ জনের তালিকা বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী থেকে পাঠানো হয়েছে। তালিকার মধ্যে স্বচ্ছল ব্যক্তিদের নাম কিভাবে আসলো এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে যেভাবে তালিকা দিয়েছে আমি সেভাবেই করেছি। এর বেশি আমি কিছু বলতে পারব না। তবে আমি সঠিক ভাবেই কাজটি করেছি।

শ্রেষ্ঠ কর্মী ও প্রতিষ্ঠানদের পুরষ্কার প্রদানের মধ্য দিয়ে খুলনায় বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত

খবর বিজ্ঞপ্তি

বিশে^র অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও  বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে খুলনা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে যথাযথ মর্যাদায় বিশ^ জনসংখ্যা দিবস ২০২০ পালন করা হয়। এবারের জনসংখ্যা দিবসের প্রতিপাদ্য ছিল “মহামারি কোভিড-১৯ কে প্রতিহত করি, নারী ও কিশোরীর সুস্বাস্থ্যের অধিকার নিশ্চিত করি“।

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এর  কারণে বিশ^ জনসংখ্যা দিবস উদযাপনের প্রথম অধিবেশন  ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) সৈয়দ রবিউল আলম,  বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিবার পরিকল্পনা, খুলনা বিভাগীয় পরিচালক ও যুগ্ম সচিব মো: হাবিবুল হক খান, অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সরকার, খুলনার উপ-পরিচালক মো: ইকবাল হোসেন, অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন খুলনা জেলার উপ-পরিচালক, পরিবার পরিকল্পনা মো: আব্দুল আলিম, অধ্যক্ষ, আরপিটিআই, মো: রেজাউল করিমসহ অন্যান্য বেসরকারী সংস্থার নির্বাহী এবং গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানে বক্তারা পরিকল্পিত পরিবার গঠনে পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচীর ভূমিকা, বাল্য বিবাহের খারাপ দিকসহ গর্ভবতী মায়েদের সুস্বাস্থ্য এবং নিরাপদ প্রসব সেবা সম্পর্কে আলোচনা হয়।

অনুষ্টানের দ্বিতীয় পর্বে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে পরিবার পরিকল্পনা, মা ও শিশু স্বাস্থ্য কার্যক্রমে বিশেষ অবদানের জন্য বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের ১০ ক্যাটাগরীতে বিভিন্ন কর্মী/ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

পুরষ্কার প্রাপ্তরা হলেন শ্রেষ্ঠ পরিবার কল্যাণ সহকারী হিসেবে সেলিনা পারভীন, পরিবার কল্যাণ সহকারী, ২/খ ইউনিট, ওয়ার্ড নং ০২, মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন, ডুমুরিয়া, খুলনা। শ্রেষ্ঠ পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা হিসেবে মিসেস জেসমিন আরা পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা জালালপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, তালা, সাতক্ষীরা। শ্রেষ্ঠ পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক হিসেবে শেখ সাইফুল ইসলাম, পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক, মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন, ডুমুরিয়া, খুলনা। শ্রেষ্ঠ উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার হিসেবে এস এম সোহরাব হোসেন, উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার, মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, ডুমুরিয়া, খুলনা। শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র হিসেবে জালালপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র

ইউনিয়ন: জালালপুর, তালা, সাতক্ষীরা। শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদ জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদ তালা, সাতক্ষীরা। শ্রেষ্ঠ উপজেলা পরিষদ কুষ্টিয়া সদর, কুষ্টিয়া। শ্রেষ্ঠ মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র হিসেবে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র, মাগুরা। শ্রেষ্ঠ বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা (সিবিডি) হিসেবে সূর্যের হাসি নেটওয়ার্ক , দিঘলিয়া, খুলনা।  শ্রেষ্ঠ বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা (কিনিক) সূর্যের হাসি নেটওয়ার্ক ঝিনাইদহ  সদর, ঝিনাইদহ।

অভয়নগরে আরও ৯ জন করোনা শনাক্ত

অভয়নগর প্রতিনিধি

যশোরের অভয়নগর উপজেলা করোনায় আরও নতুন শনাক্ত ৯জন। অভয়নগর উপজেলায় এ পর্যন্ত ভাইরাসটিতে আক্রান্তের সংখ্যা দাড়ালো ১৯৯ জন। ১১ জুলাই শনিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা ইউনিটের দায়িত্ব প্রাপ্ত মেডিকেল অফিসার। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে আজ আক্রান্তরা হলেন, পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের আনিস (৩৯), ৯ নং ওয়ার্ড নজরুল ইসলাম (৬০), ৭ নং ওয়ার্ড সিরাজুল ইসলাম (৫৭), ৬ নং ওয়ার্ড মিজানুর রহমান (৫৪), এহসানুল হক (৩৯), ফজিলা খাতুন (৪৯), ৪ নং ওয়ার্ড বাবুল (৩৮), ২ নং ওয়ার্ড তাসমীম (৫), বাঘুটিয়া গ্রামের আশীষ (সিএইচসিপি)।

কয়রায় নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেশ বিশ্বাসের যোগদান

কয়রা প্রতিনিধি

খুলনার কয়রা উপজেলায় নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেশ বিশ্বাস ১০ জুলাই কর্মস্থল কয়রায় যোগদান করেন এবং ১২ জুলাই দায়িত্ব গ্রহন করবেন। যশোর জেলার এ কৃতি সন্তান ইতিমধ্যে ঝিনাইদহ জেলার হরিনাকুন্ড উপজেলায় সহকারী কমিশনার (ভুমি) হিসাবে কর্মরত ছিলেন। ৩৩ তম বিসিএস প্রশাসনের এ কর্মকর্তা পদোন্নতি পেয়ে গত ২ জুলাই কয়রা উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে খুলনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যোগদান করেন।  এর আগে তিনি সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলায় সহকারী কমিশনার (ভুমি) হিসাবে সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করেছেন। নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেশ বিশ্বাস সরকারি দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে পারে তার জন্য তিনি কয়রার সকল শ্রেনী পেশার মানুষের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

সুন্দরবনে অবৈধ ভাবে মাছ ধরার অভিযোগে ৭ জেলে আটক

কয়রা প্রতিনিধি

সুন্দরবনের পাটকোষ্টা টহল ফাঁড়ির অধিনস্থ মোরগখালী এলাকায় অবৈধভাবে কাঁকড়া ও মাছ ধরার অপরাধে ১ টি ইঞ্জিন চালিত ট্রলার, ৫ টি ডিঙ্গি নৌকা সহ ৭ জেলেকে আটক করেছে বন বিভাগ। জানা গেছে গত শুক্রবার  রাত ১০ টার দিকে খুলনা রেঞ্জের সহকারি বন সংরক্ষক (এসিএফ) মোঃ আবু সালেহ এর নির্দেশে নলিয়ান স্টেশন কর্মকর্তা শেখ মোঃ আনিছুর রহমানের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে মোরগখালী খাল এলাকা থেকে কাঁকড়া ও মাছ ধরার সরঞ্জাম ট্রলার,নৌকা সহ তাদেরকে আটক করা হয়। এ ব্যাপারে বন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এদেরকে কয়রা উপজেলা সিনিয়র জুডিশশিয়াল ম্যাজিস্ট্রট আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

শৈলকুপায় জমি নিয়ে বিরোধের জের, মুক্তিযোদ্ধার পরিবারকে হুমকি ॥ থানায় জিডি

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মুক্তিযোদ্ধার জমি দখল করে বিল্ডিং নির্মাণ করার বিষয়ে বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরই জের ধরে প্রতিপক্ষরা বিভিন্ন ভয়ভীতি হুমকি ধামকি দিচ্ছে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে। এ ব্যাপারে শৈলকুপা থানায় নিরাপত্তা চেয়ে একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে মিজানুর রহমান মজনু। যার জিডি নং ৫২৮। তারিখ ১১/০৭/২০২০ইং।

প্রাপ্ত অভিযোগে জানা যায়, শৈলকুপা উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের আলমডাঙ্গা বাজারে মুক্তিযোদ্ধা মৃত নুরুল ইসলামের জমি জোরপূর্বক দখল করে বিল্ডিং নির্মাণ করছেন প্রতিপক্ষ বিবাদী বাবুল হোসেন ও নাছির হোসেনসহ বেশ কয়েকজন। শৈলকুপা উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের চরগোলকনগর গ্রামের মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধার ছেলে মিজানুর রহমান মজনু অভিযোগ করে বলেন, আমার ৯নং আলমডাঙ্গা মৌজায় যার সাবেক দাগ নং- ৯৫৩, ৯৫৬, ৯৫৭, ৯৬০ ও ৯৬১ এবং হাল দাগ- ৪৮৯ নং এ ১ একর ৪৬ শতকের মধ্য ১৯ শতক রেকর্ড পেয়েছি। কিন্তু সরেজমিনে দখল পেয়েছি প্রায় ৩ শতক জমি। এর ভিত্তিতে গত ১৮ ফ্রেবুয়ারি ২০২০ ইং তারিখে দেওয়ানি মোকদ্দমা করি। যার নং- ৪৬/২০।

তিনি আরও অভিযোগ করে বলেন, মির্জাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ফিরোজ হোসেন ও একই ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সভাপতি আবু বক্কর ও সাধারণ সম্পাদক আতিয়ার রহমানের নেতৃত্বে ক্ষমতার দাপটে আইনকে অমান্য করে বিবাদী প্রতিপক্ষ বাবুল হোসেন ও নাছির হোসেনকে ওই জমিতে বিল্ডিং নির্মাণের সহযোগিতা করছে এবং আমাকে ও আমার পরিবারকে বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি ধামকি দিচ্ছে। এতে করে আমি চরম নিরাপত্তা হীনতায় দিন কাটাচ্ছি।

মহেশপুরে সমাজ সেবক মিন্টু খানসহ আরো ২জন করোনায় আক্রান্ত

মহেশপুর(ঝিনাইদহ)প্রতিনিধি

ঝিনাইদহের মহেশপুরে বিশিষ্ঠ সমাজ সেবক মিন্টু খানসহ আরো ২জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এনিয়ে মহেশপুর উপজেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ২৩ জনে। নতুন করে আক্রান্ত হলেন- মহেশপুর পৌর এলাকার জলিলপুর গ্রামের সমাজ সেবক ও প্রথম শ্রেণীর ঠিকাদার মনিরুল আলম খান মিন্টু ও জীবননগর মধুমতি ব্যাংকের কর্মকর্তা মহেশপুরের যাদবপুর এলাকার নজিমউদ্দীন। আক্রান্তরা নিজ বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনে চিকিৎসাধীন আছেন। মহেশপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আঞ্জুমানার বেগম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, তাদের শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার জন্য কুষ্টিয়া ল্যাবে পাঠানো হলে সেখানে পরীক্ষার পর গতকাল শনিবার সকালে তাদের করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আমাদের হাতে আসে।

মহেশপুরে  ফেন্সিডিল ও গাজাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী আটক

মহেশপুর(ঝিনাইদহ)প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহের মহেশপুর থানা পুলিশ গত শুক্রবার রাতভোর অভিযান চালিয়ে ৭৫ বোতল ফেন্সিডিল ও ৭০০ গ্রাম গাজাসহ ৩ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে।

মহেশপুর থানার এস আই রাকিবুল ইসলাম জানান, শুক্রবার রাতে মহেশপুরের বাঘাডাঙ্গা সীমান্ত এলাকা থেকে বাঘাডাঙ্গা গ্রামের মুছা ম-লের ছেলে মাদক ব্যবসায়ী আদিল ম-লকে(২৮) ৭৫ বোতল ফেন্সিডিলসহ আটক করে। একই সময় অভিযান চালিয়ে মহেশপুরের মান্দারতলা-যাদবপুর সড়কের রাস্তা থেকে গয়েশপুর গ্রামের ইয়াকুব দেওয়ানের ছেলে গাজা ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম (৪০) ও একই গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে গাজা ব্যবসায়ী আশিকুর রহমাকে (২২) ৭০০ গ্রাম গাজাসহ আটক করা হয়।

মহেশপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) মোহাম্মদ মোর্শেদ হোসেন খান জানান, আটক কৃত মাদক ব্যবসায়ীদেরকে ঝিনাইদহ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান অব্যহত থাকবে। কোন মাদক ব্যবসায়ীকে ছাড় দেওয়া হবেনা।

মোড়েলগঞ্জের নিশানবাড়িয়ায় ইউনিয়নে ৫শ’ পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ

মোড়েলগঞ্জ প্রতিনিধি

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নে করোনা ভাইরাসে কর্মহীন হয়ে পড়া হতদরিদ্র ৫শ’ পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে এ সব চাল বিতরণ করেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাচ্চু। ইউনিয়ন ট্যাগ অফিসার যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা রতন কুমার দাস। এ সময় অন্যান্য ইউপি সদস্যগন উপস্থিত ছিলন।

চাল বিতরণকালে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাচ্চু বলেন, করোনা ভাইরাসে কর্মহীন মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এর দেওয়া ১০ কেজি করে চাল প্রতিটি অসচ্ছল পরিবার পাচ্ছেন। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্থানীয় সংসদ সদস্যে এ্যাড. আমিরুল আলম মিলন মহোদয়কে নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নবাসীর পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

মোড়েলগঞ্জে সংসদ সদস্য স্বাস্থ্য বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন

 মোড়েলগঞ্জ প্রতিনিধি

বাগেরহাট-৪,মোড়েলগঞ্জ-শরণখোলা আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট আমিরুল আলম মিলন বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় মোড়েলগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন তারা হলেন উপজেলা মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ মনসুর আলী শেখ, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আল-আমিন শেখ, সহ-সভাপতি মোঃ হেলাল উজ্জামান কাজী।

অপরদিকে পৌর সভাপতি কাজী নাসির উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মো. মনিরুজ্জামান মল্লিক,হোগলাবুনিয়া ইউনিয়ন সভাপতি মো. শাহ আলম ফরাজী, জিউধরা ইউনিয়ন সভাপতি মো. মোশারফ হোসেন খান, পঞ্চকরণ ইউনিয়ণ সভাপতি মোঃ সরোয়ার মৃধা, পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ড সভাপতি সোহেল শেখ প্রমুখ।

মোড়েলগঞ্জে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসে আলোচনা ও পুরস্কার বিতরণ

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০২০ উপলক্ষ্যে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের উদ্যোগে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকাল ১১টায় উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. দিলদার হোসেন-এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. শাহ-ই আলম বাচ্চু, বিশেষ অতিথি ভাইস চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক মোজাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাহিমা খানম, প্রেসকাব সভাপতি মেহেদী হাসান লিপন। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রেসকাবের সহ-সভাপতি সংবাদ প্রতিনিধি গনেশ পাল ও অর্থ ও দপ্তর সম্পাদক ঢাকা প্রতিদিন প্রতিনিধি এম.পলাশ শরীফ।

“মহামারী কোভিট-১৯ কে প্রতিরোধ করি নারী ও কিশোরীর সু-স্বাস্থ্যের অধিকার নিশ্চিত করি” এ প্রতিপাদ্য বিষয়ের ওপর অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন বেসরকারি সংস্থা আই পাস, আর এইচ স্টেপ ফিল্ড কো অডিনেটর প্রণব কুমার দাস। এবারে এ উপজেলায় শ্রেষ্ট এফডব্লিউএ নির্বাচিত হন সুলতানা রিমি, এফপিআই মহিউদ্দিন মিঠু, এফডব্লিউভি আজমেরী খানম, এসএসসিএমও আফরোজা পারভিন, শ্রেষ্ঠ পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র রামচন্দ্রপুর ইউনিয়ন ও শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন হিসবে সদর ইউনিয়ন নির্বাচিত হয়েছে। উল্লেখ্য, বাগেরহাট জেলায় এবারে মোড়েলগঞ্জ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা সকল কার্যক্রমে শ্রেষ্ঠ হিসেবে নির্বাচিত হয়

বটিয়াঘাটা সদর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আর নেই

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধি

বটিয়াঘাটা সদর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মোঃ সিরাজুল ইসলাম (সিরাজ) আর নেই। (ইন্না…রাজেউন)। তিনি গত শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে মহানগরীর শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যু বরন করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৪৮ বছর এবং ২ স্ত্রী, ২পুত্র ও ১ কন্যা সন্তান সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী ও আতœীয় স্বজন রেখে গেছেন। গতকাল শনিবার জোহরবাদ বাজার সদরে জানাজা শেষে কেন্দ্রীয় গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এদিকে তার রুহের মাগফিরাত ও শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন খুলনা জেলা ও বটিয়াঘাটা উপজেলা বিএনপি এবং সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। প্রদত্ত বিবৃতিদাতারা হলেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আমীর এজাজ খান, উপদেষ্টা সদস্য জিয়াউর রহমান জিকু, ত্রাণ, পুনর্বাসন ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদ, উপজেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুল ইসলাম জনি খান, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার ফারুক হোসেন, জাহিদুর রহমান রাজু, এজাজুর রহমান শামীম, সাইফুর রহমান, হায়দার আলী, আঃ সালাম, রুহুল মোমেন লিটন, ওলিয়ার রহমান, ইমরান হোসেন, হাসান তারেক জাকির, আছাবুর রহমান, নাসির হোসেন, বোরহান সেখ, খাইরুল মেম্বর, বাহাদুর মুন্সী, বাদল, সোহাগ, মামুন, ইসমাইল, বায়েজিদ, মোস্তাকিন সহ অন্যান্য সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

খুলনায় করোনা আক্রান্ত-উপসর্গ নিয়ে ৫ জনের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার

খুলনায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একজন ও উপসর্গ নিয়ে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। মারা যাওয়া দু’জনের বাড়ি খুলনায়, দু’জনের বাড়ি বাগেরহাট ও একজনের বাড়ি সাতক্ষীরায়। এছাড়া খুলনা মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর ল্যাবে নতুন করে আরও ১১০ জনের নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে। গতকাল শনিবার ভোর ৫টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টার মধ্যে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা সাসফেক্টেড ফু কর্নার ও করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে এ পাঁচজনের মৃত্যু হয়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, বিকেল সাড়ে ৪টায় করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে বাদশা (২৭) নামে এক যুবক মারা যান। তিনি বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার সাতবাড়িয়া গ্রামের মৃ. ইয়াদ আলীর ছেলে। গত ৮ জুলাই রাত ৯টায় তিনি করোনা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডা. শেখ ফরিদ উদ্দীন আহমেদ তার মৃত্যুর তথ্য নিশ্চত করেছেন। এদিকে ভোর ৫টায় ডুমুরিয়া উপজেলার মিকশিমিল গ্রামের ফাতেমা (৫৫), সকাল পৌনে ৬টায় সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জের মন্দকাঠি গ্রামের মরিয়ম (৫০), পৌনে ৯টায় নগরীর খানজাহান আলী থানার মশিআলী এলাকার হালিমা বেগম (৭৮), বিকেল পৌনে ৪টায় বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার আকবাটি গ্রামের আব্দুস সালাম (৫০) করোনা উপসর্গ নিয়ে খুমেকের ফু কর্নারে মারা যান।

ফু কর্নারের ফোকাল পার্সন (আরএমও) ডা. মিজানুর রহমান তাদের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তারা করোনা আক্রান্ত ছিলেন কিনা পরীক্ষার পর তা জানা যাবে। এছাড়া এদিন খুলনা মেডিক্যাল কলেজের পিসিআর ল্যাবে নতুন করে ১১০ জনের নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে।

খুমেকের উপাধ্যাক্ষ ডা. মেহেদি নেওয়াজ জানান, ল্যাবে ২৮২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তার মধ্যে খুলনার নমুনা ছিল ২৪২টি। পরীক্ষার পর ১১০টি নমুনায় পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। যার মধ্যে খুলনার ৯৮টি, যশোরের তিনটি, বাগেরহাটের চারটি, নড়াইলের দু’টি, বরিশালের একটি, বরগুনার একটি ও ঢাকার একটি নমুনা রয়েছে।

নগরীতে পুলিশের অভিযানে মাদকসহ গ্রেফতার ৯

স্টাফ রিপোর্টার

মহানগর পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে ২৭পিস ইয়াবা ও ৬৫৫ গ্রাম গাঁজা সহ ৯ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার মাদক ব্যবসায়ীরা হলেন নগরীর ৯০, খানজাহান আলী রোডের শেখ আশরাফ হোসেনের ছেলে শেখ তওহীদ হোসেন (১৯), ৯৫, খানজাহান আলী রোডের সৈয়দ আব্দুর রশিদের ছেলে আবু হাসান (২১), ৭২, গগণবাবু রোডের কাজী মাহমুদ আলমের ছেলে কাজী আফসান মাহামুদ পার্থ (২২), খালিশপুর প্লাটিনাম জুট মিলের ২নং গেটের সামনে সুরমার বাড়ির ভাড়াটিয়া রফিক বিশ্বাসের ছেলে মো. তরিকুল ইসলাম বায়েজিত (২৭), খালিশপুর মুন্সিবাড়ী নয়াবাটি রেলক্রস রোডের মো. নজরুল ইসলামের ছেলে মো. আশিকুর জামান আশিক (১৮), ২৬৩, খালিশপুর হাউজিং নতুন কলোনীর প্রিন্সদের বাড়ির ভাড়াটিয়া মো. ইমনের ছেলে মো. রিয়াদ হোসেন (১৭), শিরোমনি পূর্বপাড়া লিন্ডা কিনিকের পশ্চিম পাশের বাসিন্দা মো. ইয়াহিয়া খানের ছেলে খান মেহেদী হাসান ওরফে শুভ (১৯), সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ থানার খুপদিপুর গ্রামের মো. গফফার গাজীর ছেলে  মো. বিল্লাল গাজী (৩৬) ও  আশাশুনি থানার সনাতন কাঠী গ্রামের এলাহী বক্স সানার ছেলে মো. ইলিয়াছ সানা (২৪)। 

কেএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) কানাই লাল সরকার জানান, গত ২৪ ঘন্টায় নগরীর বিভিন্ন থানা এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে মহানগর পুলিশ। এসময় ২৭পিস ইয়াবা ও ৬৫৫ গ্রাম গাঁজাসহ ৯জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় ৭টি মাদক মামলা রুজু করা হয়েছে।

ছাত্রলীগ নেতা ইমনের ভাই শুভ আঁধাকেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার

আটরা গিলাতলা  প্রতিনিধি  

খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের  সহ সভাপতি খান মোসাদ্দেক হোসেন ইমনের ছোট ভাই ও শিরোমনি পুর্বপাড়ার ইয়াহিয়া খানের পুত্র মেহেদি হাসান শুভ (১৯) কে আঁধাকেজি গাজাসহ  গ্রেফতার করেছে খানজাহান আলী থানা পুলিশ ।

খানজাহান আলী থানা অফিসার ইনচার্জ মো. শফিকুল ইসলাম জানান, মাদক বিরোধী অভিযান চলাকালে শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে শিরোমনি লিন্ডা কিনিক এলাকা থেকে শুভকে আঁধাকেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায়  মাদকদ্রব্য আইনে মামলা হয়েছে যার নং- ০৪ তাং ১০-০৭-২০ ইং।

তিনি আরো বলেন করোনা দুর্যোগের  সময়ে থানা পুলিশ করোনা প্রতিরোধ সহ নানা কার্যক্রম চালানোর ফাঁকে তালিকাভুক্ত মাদক ব্যাবসায়িরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে, মাদক ব্যাবসায়িদের গ্রেফতারে থানা পুলিশের অভিযান পুনরায় শুরু করা হয়েছে  এবং এ ধারা চলমান থাকবে ।

শ্রেষ্ঠ কর্মী ও প্রতিষ্ঠানদের পুরষ্কার প্রদানের মধ্য দিয়ে খুলনায় বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত

বিজ্ঞপ্তি

বিশে^র অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও  বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে খুলনা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে যথাযথ মর্যাদায় বিশ^ জনসংখ্যা দিবস ২০২০ পালন করা হয়। এবারের জনসংখ্যা দিবসের প্রতিপাদ্য ছিল “মহামারি কোভিড-১৯ কে প্রতিহত করি, নারী ও কিশোরীর সুস্বাস্থ্যের অধিকার নিশ্চিত করি“। 

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এর  কারণে বিশ^ জনসংখ্যা দিবস উদযাপনের প্রথম অধিবেশন  ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেনঅতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) সৈয়দ রবিউল আলম,  বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিবার পরিকল্পনা, খুলনা বিভাগীয় পরিচালক ও যুগ্ম সচিব মো: হাবিবুল হক খান, অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সরকার, খুলনার উপ-পরিচালক মো: ইকবাল হোসেন,অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন খুলনা জেলার উপ-পরিচালক, পরিবার পরিকল্পনা মো: আব্দুল আলিম, অধ্যক্ষ, আরপিটিআই, মো: রেজাউল করিমসহ অন্যান্য বেসরকারী সংস্থার নির্বাহী এবং গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানে বক্তারা পরিকল্পিত পরিবার গঠনে পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচীর ভূমিকা, বাল্য বিবাহের খারাপ দিকসহ গর্ভবতী মায়েদের সুস্বাস্থ্য এবং নিরাপদ প্রসব সেবা সম্পর্কে আলোচনা হয়।

অনুষ্টানের দ্বিতীয় পর্বে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে পরিবার পরিকল্পনা, মা ও শিশু স্বাস্থ্য কার্যক্রমে বিশেষ অবদানের জন্য বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের ১০ ক্যাটাগরীতে বিভিন্ন কর্মী/ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

পুরষ্কার প্রাপ্তরা হলেন শ্রেষ্ঠ পরিবার কল্যাণ সহকারী হিসেবে সেলিনা পারভীন, পরিবার কল্যাণ সহকারী, ২/খ ইউনিট, ওয়ার্ড নং ০২, মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন, ডুমুরিয়া, খুলনা। শ্রেষ্ঠ পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা হিসেবে মিসেস জেসমিন আরাপরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকাজালালপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, তালা, সাতক্ষীরা। শ্রেষ্ঠ পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক হিসেবে শেখ সাইফুল ইসলাম, পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক, মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন, ডুমুরিয়া, খুলনা। শ্রেষ্ঠ উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার হিসেবে এসএম সোহরাব হোসেন, উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার, মাগুরাঘোনা ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, ডুমুরিয়া, খুলনা। শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র হিসেবে জালালপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র

ইউনিয়ন: জালালপুর, তালা, সাতক্ষীরা। শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদজালালপুর ইউনিয়ন পরিষদতালা, সাতক্ষীরা। শ্রেষ্ঠ উপজেলা পরিষদকুষ্টিয়া সদর, কুষ্টিয়া। শ্রেষ্ঠ মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র হিসেবে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র, মাগুরা। শ্রেষ্ঠ বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা (সিবিডি) হিসেবে সূর্যের হাসিনেটওয়ার্ক , দিঘলিয়া, খুলনা। শ্রেষ্ঠ বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা (কিনিক) সূর্যের হাসি নেটওয়ার্ক ঝিনাইদহ  সদর, ঝিনাইদহ।

বিপিজে, খুলনা শাখার নির্বাচনে ৮টি পদে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত

স্টাফ রিপোর্টার

বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এ্যাসোসিয়েশন (বিপিজে) খুলনা শাখার দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে (২০২০-২০২১) ৯টি পদের মধ্যে ৮টি পদেই প্রার্থীরা বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। শুধুমাত্র সাধারণ সম্পাদক পদে দুইজন প্রার্থী থাকায় আগামী ১৭ জুলাই উক্ত পদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। শনিবার নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান মো. সাহেব আলী এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি আরও জানান, বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন- সভাপতি মোঃ জাহিদুল ইসলাম (দৈনিক পূর্বাঞ্চল ও দৈনিক সমকাল), সহ-সভাপতি দেবব্রত রায় (দৈনিক জন্মভূমি) ও এস এম বাহাউদ্দিন (দক্ষিণাঞ্চল প্রতিদিন ও দৈনিক নওয়াপাড়া), যুগ্ম সম্পাদক কাজী ফজলে রাব্বী শান্ত (দৈনিক জন্মভূমি) ও মো: হেলাল মোল্লা (পাঠকের পত্রিকা), কোষাধ্যক্ষ সাগর সরকার (দৈনিক তথ্য), দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক সোহেল রানা (দৈনিক খুলনাঞ্চল) ও নির্বাহী সদস্য মাঞ্জারুল ইসলাম (বার্তা ২৪ ডট কম)। এছাড়া সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক পাপ্পু (দৈনিক প্রবর্তন) ও আর জি উজ্জ্বল (সময়ের খবর) পদে দুইজন প্রার্থী থাকায় ১৭ জুলাই সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত উক্ত পদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।