ব্যক্তি উদ্যোগে কাঁচা রাস্তা সংস্কার

7
Spread the love

আনোয়ার হোসেন,মণিরামপুর :

বর্ষা মৌসুমে যে কাঁচা রাস্তায় হাঁটার কথা শুনলে চোখে পানি আসে পথচারীদের। যেই কাঁদার স্থানে আসলে পার হওয়ার সময় খানিক দাঁড়িয়ে ভাবেন পথিক; সেই কাঁচা রাস্তায় পথচারীদের ভোগান্তি কমাতে এগিয়ে আসলেন হারুন অর রশীদ নামে উপজেলা কৃষকলীগের এক নেতা। শুক্রবার (১০ জুলাই) সকালে নিজ অর্থায়নে তিনি ট্রাকভর্তি ইট এনে নিজ হাতে রাস্তায় বিছিয়ে দেন।


ইট বিছানোর কাজে স্কুল শিক্ষক দেবাশীষ বিশ্বাসসহ স্থানীয় অনেকেই অংশ নেন।


মণিরামপুর উপজেলার মাহমুদকাটি গ্রামে জিয়ার বাড়ির সামনে থেকে ছবিউল্লাহর দোকান পর্যন্ত এক কিলোমিটারের বেশি কাঁচা রাস্তা বর্ষা মৌসুমে কাঁদায় ভরে যায়। একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তাটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। বহুবছর ধরে রাস্তাটি সংস্কারের দাবি এলাকাবাসীর থাকলেও জনপ্রতিনিধি বা সমাজপতিদের কেউ এগিয়ে আসেননি।


একপর্যায়ে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দুই বছর আগে এই রাস্তায় এলাকাবাসী ধানের চারা রোপন করেন। তারপরও ফল আসেনি। অবশেষে এলাবাসীর ভোগান্তি কমাতে সেই রাস্তাটি সংস্কারের উদ্যোগ নেন উপজেলা কৃষকলীগের সহ সভাপতি মাহমুদকাটি গ্রামের বাসিন্দা হারুন অর রশীদ। তিনি নিজ খরচে ট্রাকভর্তি ইট এনে নিজ হাতে রাস্তায় বিছিয়ে দেন।


এরআগেও করোনা দুর্যোগের শুরুতে তিনি ৭৫-৮০ হাজার টাকা দুস্থদের মাঝে বিলিয়েছেন।
স্থানীয় ভ্যান চালক শাহাজান বলেন, বর্ষার সময় এই রাস্তায় ভ্যান পার করতি খুব কষ্ট হয়। এবার কষ্ট কিছুটা কমবেনে।
কলেজ ছাত্র আলাউদ্দিন জানায়, এই রাস্তা দিয়ে মাহমুদকাটি ও রঘুনাথপুর গ্রামের বহু শিক্ষার্থী স্কুল কলেজে যাতায়াত করে। বৃষ্টির সময় আসলে প্রায়ই বইখাতা নিয়ে আমাদের কাঁদায় পড়তে হয়েছে।
স্বেচ্ছায় রাস্তা সংস্কারকারী হারুন অর রশীদ বলেন, এই রাস্তাটা বহুদিন ধরে অবহেলিত। রাস্তাটি সংস্কারে কাউকে এগিয়ে আসতে দেখিনি। নাম ছড়ানোর জন্য নয়; শুধু জনগণের কথা ভেবে আমি রাস্তাটি সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছি।