সারা খুলনা অঞ্চলের খবর

15
Spread the love

করোনা রোগীদের জরুরী অক্সিজেন সার্পোট প্রদানে মহানগর বিএনপির ২১ সদস্যের আহবায়ক কমিটি গঠন

খবর বিজ্ঞপ্তি

কোভিড- ১৯ (করোনা ভাইরাস) আক্রান্ত রোগীদের জরুরী অক্সিজেন সার্পোট দেওয়ার জন্য খুলনা মহানগর বিএনপি “অক্সিজেন ব্যাংক” চালুর সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছে। এ লক্ষ্যে ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহয়াক কমিটি গঠন করা হয়েছে।

মহানগর বিএনপি’র সিনিয়র সহ সভাপতি সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। করোনা আক্রান্ত রোগীদের বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দ্বারা ২৪ ঘন্টা টেলিফোনে স্বাস্থ্যসেবা, অক্সিজেন, অক্সিমিটার, এ্যাম্বুলেন্স সহ অন্যান্য সেবা প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সভা পরিচালনা করেন মহানগর বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক শফিকুল আলম তুহিন। অন্যান্যের মধ্যে উপ¯ি’ত ছিলেন শেখ খায়রুজ্জামান খোকা, শেখ আমজাদ হোসেন, আজিজুল হাসান দুলু, মাসুদ পারভেজ বাবু, কেএম হুমায়ুন কবির, মাহবুব হাসান পিয়ারু, একরামুল হক হেলাল, মোঃ তৈয়বুর রহমান, আজিজা খানম এলিজা, তারিকুল ইসলাম, মাহাবুব হোসেন, আব্দুল আজিজ সুমন, হেলাল আহম্মদ সুমন, শরিফুল ইসলাম টিপু, শরিফুল ইসলাম শরিফ, আব্দুল মান্নান খান, অহিদুজ্জামান হাওলাদার, সোহরাব হোসেন, মইদুল হক টুকু, বেলাল শাহ, সোনিয়া আক্তার প্রমূখ। সভায় সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজাকে আহবায়ক এবং শফিকুল আলম তুহিনকে সদস্য সচিব করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি করা হয়।

ছাত্র-যুব ইউনিয়নের বিক্ষোভ কর্মসূচিতে বক্তারা: করোনা টেস্ট ফ্রি ও খুলনায় অবিলম্বে নতুন করোনা হাসপাতালের কার্যক্রম শুরুর দাবী

খবর বিজ্ঞপ্তি

করোনা টেস্ট ফ্রি, খুলনায় অবিলম্বে নতুন পর্যাপ্ত শয্যা সম্বলিত করোনা ডেভিকেন্টেড হাসপাতালের কার্যক্রম শুরুসহ বিভিন্ন দাবীতে ছাত্র ইউনিয়ন, যুব ইউনিয়ন, টিইউসি, ক্ষেতমজুর সমিতি, কৃষক সমিতির উদ্যোগে স্বাস্থ্যবিধি মেনে, শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে সংগঠনসমূহের প্রতিনিধিত্বশীল অংশগ্রহণে বুধবার বেলা ১১:৩০টায় খুলনা নগরীর পিকচার প্যালেস মোড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ কৃষক সমিতির খুলনা জেলা সাধারণ সম্পাদক এস এ রশীদের সভাপতিত্বে এবং বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সদস্য ও জেলা সভাপতি এড. নিত্যানন্দ ঢালীর পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে সংহতি প্রকাশ করেন বিশিষ্ট নাগরিক নেতা এড. কুদরত-ই-খুদা, উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মনিরুজ্জামান রহিম, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র মহানগর সাধারণ সম্পাদক ও যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য এড. মোঃ বাবুল হাওলাদার, সিপিবি নেতা মিজানুর রহমান বাবু, সমাজকর্মী শাহ্ মোঃ লায়েক উল্লাহ, ক্ষেতমজুর নেতা নিতাই পাল, টিইউসি নেতা রঙ্গলাল মৃধা, সাইদুর রহমান বাবু, ছায়াবৃক্ষের মাহবুব আলম বাদশা, যুব ইউনিয়ন নেতা প্রভাষক জয়ন্ত মুখার্জী, এড. খান আজরফ হোসেন মামুন, আফজাল হোসেন রাজু, সৈয়দ রিয়াসাত আলী রিয়াজ, উজ্জ্বল বিশ্বাস, শেখ রবিউল ইসলাম রবি, ডাঃ গৌরাঙ্গ সমাদ্দার, বাবুল শরীফ বাবু, ছাত্র ইউনিয়ন নেতা আজিজুল খান আরমান, সোমনাথ দে, জয় দাশ প্রমুখ। সভায় বক্তারা বলেন, করোনা চিকিৎসায় বেসরকারি মেডিকেল কলেজকে জরুরী ভিত্তিতে সরকারের নিয়ন্ত্রণে এনে ফ্রি টেস্ট ও চিকিৎসা, দ্রুত করোনা ডেভিকেন্টেড হাসপাতাল ও বেড সংখ্যা বৃদ্ধি, টেস্ট সংখ্যা বাড়াতে আরও কমপক্ষে ৫টি আর-টি পিসিআর ল্যাব চালু, করোনা চ্যাম্পেল সংগ্রহে খুলনা সিটিতে আরও কমপক্ষে ৮টি বুথ স্থাপন, ফু-কর্নার ও আইসোলেশন ওয়ার্ডের সক্ষমতা বাড়ানো ও সার্বক্ষণিক মেডিকেল বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক সংযুক্তি, চিকিৎসক-নার্স-স্বাস্থ্যকর্মীদের পর্যাপ্ত ও মানসম্মত সুরক্ষা সামগ্রী ও নিরাপত্তা নিশ্চিত, জীবন বাঁচাতে করোনা হাসপাতালে লিকুইড অক্সিজেন প্লান্ট ও ন্যূনপক্ষে ৩টি হাইফোন্যাসাল ক্যানুলা সরবরাহ করতে হবে। অন্যথায় খুলনা মৃত্যুনগরীতে পরিণত হওয়ার সমূহ আশঙ্কা বিদ্যমান। সম্পদ ও ক্ষমতাশালীরা খুলনার বাইরে যেয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করছেন ও পারবেন কিন্তু অসহায় সাধারণ মানুষ চিকিৎসার অভাবে মৃত্যুবরণ করবেন। যা কোনো ভাবেই কাম্য নয়।

করোনার উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাপসপাতালে এক বৃদ্ধের মৃত্যু, নতুন করে করোনা শনাক্ত ৩১জন

খান নাজমুল হুসাইন, সাতক্ষীরা

করোনার উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার সকাল ১০টার দিকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তিনি একজন অবসরপ্রাপ্ত স্বাস্থ্যকর্মী।

করোনার উপসর্গে মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম আমজাদ হোসেন (৬৫)। তিনি শ্যামনগর উপজেলার ঈশ^রীপুর গ্রামের গোলাম সরদারের ছেলে। সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাঃ ভবতোষ কুমার মন্ডল জানান, মঙ্গলবার দুপুরে জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে আইসোলেশনে ভর্তি হন অবসরপ্রাপ্ত স্বাস্থ্যকর্মী আমজাদ হোসেন। বুধবার সকাল ১০টার দিকে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায়  তিনি মারা যান।  মারা যাওয়ার পর তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানান এই চিকিৎসক। তিনি আরো জানান, স্বাস্থ্য বিধি মেনে তার লাশ দাফনের প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় সাতক্ষীরায় নতুন করে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীসহ  নতুন করে৩১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।  এ নিয়ে জেলায় আজ পর্যন্ত মোট ২৭১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়রে (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্টার থেকে বুধবার বিকালে পাওয়া নমুনা রিপোর্টে ৩১ জনের করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন সাতক্ষীরার স্বাস্থ্য বিভাগ। এদের মধ্যে রয়েছেন, শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের চিকিৎসক রীতা রানী মন্ডল, একই স্বাস্থ্য কেন্দ্রের স্বাস্থ্য কর্মী মাহমুদ, গীতা রানী সরকার, সাতক্ষীরা সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ল্যাব টেকনোশিয়ান কিশোর কুমার কর্মকার, পল্লী বিদ্যুৎ কর্মী ইমদাদুল হকসহ ৩১ জন।

সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডাঃ জয়ন্ত সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এনিয়ে জেলায় আজ পর্যন্ত মোট ২৭১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি আরো জানান, ইতিমধ্যে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের বাড়ি লক ডাউন করে লাল পতাকা টানানো হয়েছে।

দেবহাটায় পুলিশ ও র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ৩২৫ বোতল ফেন্সিডিলসহ ২ ব্যবসায়ী আটক

কে.এম রেজাউল করিম, দেবহাটা

দেবহাটায় পুলিশ ও র‌্যাবের পৃথক পৃথক অভিযানে ৩২৫ বোতল ফেন্সিডিলসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে পৃথক ২ টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। দেবহাটায় পুলিশের অভিযানে ২২০ বোতল ফেন্সিডিলসহ এক মহিলা মাদক ব্যবসায়ী আটক হয়েছে। আটককৃতের নাম আরিফা বেগম (৫৫)। আরিফা দেবহাটা উপজেলার খাসখামার এলাকার মৃত মনিরুজ্জামানের স্ত্রী। এ ঘটনায় দেবহাটা থানার এসআই হুমায়ুন কবীর বাদী হয়ে ০৮-০৭-২০২০ ইং তারিখে দেবহাটা থানায় ০৩ নং মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ জানায়, সাতক্ষীরা জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান পিপিএম (বার) এর দিক নির্দেশনায়, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার দেবহাটা সার্কেল শেখ ইয়াছিন আলীর তত্ত্বাবধানে এবং দেবহাটা থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার সাহার নেতৃত্বে দেবহাটা থানা এলাকায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষা, গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল ও বিশেষ অভিযান পরিচালনাকালে ইং ০৭/০৭/২০২০ তারিখ সন্ধ্যার পরে দেবহাটা থানার এসআই হুমায়ুন কবির ও সঙ্গীয় ফোর্স এর সহায়তায় দেবহাটা থানাধীন পলাতক আসামী আরিফা বেগম, স্বামী- মৃত মনিরুজ্জামান, সাং-খাসখামার, থানা-দেবহাটা, জেলা-সাতক্ষীরা এর বসত বাড়ীর দক্ষিন দুয়ারী বসত ঘরের সামনে হাস মুরগী রাখা পাকা ঘরের মধ্যে থেকে ভারতীয় ২২০ (দুইশত বিশ) বোতল ফেন্সিডিল সহ রাবেয়া (৫৫), স্বামী- মৃত জিয়াদ আলী, স্থায়ী ঃ বর্তমানে আরিফা স্বামী-মৃত মনিরুজ্জামান, সাং-খাসখামার, থানা-দেবহাটা, জেলা-সাতক্ষীরা, গ্রাম- গাবুরা (বড় গাবুরা) , উপজেলা/থানা- শ্যামনগর, সাতক্ষীরাকে গ্রেফতার করেন। এছাড়া র‌্যাব-৬ এর পৃথক একটি অভিযানে রাকিব ইসলাম নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে ১০৫ বোতল ফেন্সিডিলসহ আটক হয়। তার বিরুদ্ধে র‌্যাব এর ডিএডি জামিল হোসেন বাদী হয়ে দেবহাটা থানায় ০২ নং মামলা দায়ের করেছে। উভয় আসামীকে থানায় মামলা দায়েরপূর্বক বিচারার্থে ইং-০৮/০৭/২০২০ তারিখ বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

পাইকগাছা পৌরসভায় করোনায় আক্রান্ত ১৫টি পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী প্রদান

পাইকগাছা প্রতিনিধি

পাইকগাছা পৌরসভায় লকডাউনে থাকা করোনায় আক্রান্ত ১৫টি পরিবারের মধ্যে চাল, ডাল সহ বিভিন্ন প্রকার খাদ্য সামগ্রী প্রদান করা হয়েছে। বুধবার সকালে পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর প্রত্যেকের বাড়ীতে চাল, ডাল, তরি-তরকারি, ফুলমুল ও মসলা জাতীয় ৩০ প্রকারের পণ্য প্রদান করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সচিব মোঃ লিয়াকত হোসেন, প্যানেল মেয়র এস,এম, ইমদাদুল হক, এস,এম, তৈয়েবুর রহমান, সরবানু বেগম, কাজী নেয়ামুল হুদা কামাল, রবিশংকর মন্ডল, পুলিশ কর্মকর্তা কামারুজ্জামান।

পাইকগাছায় মন্দিরের টাকা আত্মসাত করায় ইউএনও দপ্তরে অভিযোগ

পাইকগাছা প্রতিনিধি

পাইকগাছায় মন্দিরের টাকা আত্মসাৎ করায় দু’জনের বিরুদ্ধে ইউএনও দপ্তরে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার স্মরণখালী সার্বজনীন দুর্গা পূজা মন্দিরের উন্নয়নকল্পে ধর্ম মন্ত্রণালয় কর্তৃক ১৫ হাজার বরাদ্দ হয়। উক্ত টাকা মন্দির কমিটির ব্যক্তিদের স্বাক্ষর জাল করে ভুয়া রেজুলেশন দেখিয়ে উপজেলার স্মরণখালী গ্রামের গৌতম বাছাড় ও দিনেশ সরদার উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন মন্দির কমিটির সভাপতি বকুল বাছাড় ও সম্পাদক সুকুমার বাছাড় উপজেলা নির্বাহী অফিসার দপ্তর লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। উক্ত টাকা আদায় ও তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সভাপতি ও সম্পাদক জোর দাবী জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে গৌতম বাছাড় জানান, উক্ত টাকা দিয়ে ইতোমধ্যে আমরা কাজ শুরু করেছি।

আর্থিক ক্ষতিতে বেতন বন্ধের উপক্রম পৌর কর্মচারীদের: মোংলা পৌর ট্রাক টার্মিনাল বন্ধ থাকায় রাস্তার দু’পাশে শত শত ট্রাকের জট: রাস্তার ক্ষতিসহ দুর্ঘটনার আশংকা

মাংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

মোংলা বন্দরের শিল্প এলাকার বিভিন্ন কলকারখার মালামাল পরিবহণকারী গাড়ী পার্কিংয়ের জন্য বন্দরের নিজস্ব জমিতে নির্মিত পৌর ট্রাক টার্মিনালটি হঠাৎ করে বন্ধ করে দেয়ায় ভোগান্তী বেড়েছে বন্দরের শিল্প এলাকা জুড়ে। ফলে বিভিন্ন ফ্যাক্টরীগুলোর গাড়ী এখন রাখতে হচ্ছে রাস্তার দু’পাশে। এতে রাস্তা সংকুচিত হয়ে পড়ায় অন্যান্য যানবাহন চলাচলেও বিঘœ ঘটার পাশাপাশি দুর্ঘটনার আশংকাও বেড়েই চলেছে। রাস্তার উপর ও পাশে গাড়ী রাখায় রাস্তাও ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। স্থানীয় পুলিশের পক্ষ থেকে গত মাসের ৭ তারিখ পৌর ট্রাক টার্মিনালটি বন্ধ করে দেয়ায় শিল্প এলাকায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। যদিও হাইওয়ের টোল আদায়কৃত টার্মিনাল বন্ধের নিদের্শনা থাকলেও ভুল বুঝাবুঝির কারণেই বন্দরের নিজস্ব এলাকায় নির্মিত টার্মিনালটিও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এদিকে টার্মিনাল বন্ধ থাকায় আর্থিক ক্ষতিতে পড়েছে পৌর কর্তৃপক্ষ। টার্মিনালের আয় দিয়ে পৌর কর্মচারীদের বেতনসহ পৌরবাসীর সেবায় ব্যয় করা হতো। অচিরেই টার্মিনালটি চালু না হলে পৌর কর্মচারীদের বেতন দেয়া বন্ধ হওয়াসহ নাগরিক সেবাও বিঘিœত হবে।

খোঁজ খবরে জানা গেছে, বন্দর কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে জমি অধিগ্রহণ করে দিগরাজ এলাকায় প্রায় ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণ করে মোংলা পোর্ট পৌরসভা। ২০১৮ সালে ১লা মে টার্মিনালটির উদ্বোধন পর বন্দর ও শিল্প এলাকার সকল সকল ট্রাক গত তিন বছর ধরে সেখানেই পার্কিং করে আসছিল। এবং সেখান থেকে সিরিয়াল অনুযায়ী বিভিন্ন ফ্যাক্টরীর মালামাল নিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করতো ট্রাকগুলো। ওই টার্মিনাল থেকে বছরে প্রায় ৪০ লাখ টাকা আয়ে হয়ে আসছিল পৌর কর্তৃপক্ষের। আয়ের ওই টাকার একটি অংশ চুক্তি মোতাবেক বন্দর কর্তৃপক্ষ পেতো আর বাকী টাকা দিয়ে পৌর কর্তৃপক্ষ তাদের কর্মচারীদের বেতন পরিশোধসহ জনসাধারণের সুযোগ-সুবিধায় ব্যয় করে আসছিল। মোংলা বন্দরের শিল্প এলাকায় গড়ে ওঠা সিমেন্ট, এলপিজিসহ বিভিন্ন ধরণের ২০ ফ্যাক্টরী এবং বন্দরের ও ইপিজেরে পণ্য পরিবহণে নিয়োজিত প্রায় ৭শ ট্রাকের আসা যাওয়া ও অবস্থান বন্দরের শিল্প এলাকায়। শিল্প এলাকার বন্দরের নিজস্ব এ সড়কের যানজট কমাতে এবং রাস্তার ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে বন্দর কর্তৃপক্ষ ও পৌরসভা যৌথভাবে এ ট্রাক টার্মিনালটি নির্মাণ করে। অথচ গত ৮ জুন পুলিশ টার্মিনালটি বন্ধ করে দেয়।

এ বিষয়ে মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, উর্ধতন কর্তৃপক্ষ ও পরিবহণ মালিক সমিতির দাবীর প্রেক্ষতি যাতে মহাসড়কের কোথাও কোন টোল আদায় না হয় সেজন্য টার্মিনালটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এটা যদি হাইওয়ের বাহিরে এবং বন্দরের নিজস্ব জায়গায় হয়ে থাকে তাহলে তারা কাগজপত্র দেখালে একটা সুরহা করা যেতে পারে।

মোংলা পোর্ট পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মো: জুলফিকার আলী বলেন, বিশ্ব ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে প্রজেক্টের মাধ্যমে টার্মিনালটি করা হয়েছে। এটি বন্ধ করে দেয়ায় কিস্তি দেয়ায় অনিশ্চিত হয়ে পড়বে। এছাড়া এটি হাইওয়য়ের আওতাভুক্ত নয়। বন্দরের নিজস্ব জায়গায় এবং রাস্তাটি বন্দরের নিজস্ব। ভুল বুঝার কারণেই পৌর টার্মিনালটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এতে পৌরসভা আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে। কারণ টার্মিনালের আয় দিয়ে পৌরসভার কর্মচারীদের বেতন ও বিভিন্ন উন্নয়নমুলক কাজ করা হতো। দ্রুত এটি চালু না হলে কর্মচারীদের বেতন দেয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম শাহজাহান বলেন, টার্মিনাল ও বন্দরের শিল্প এলাকার এ রাস্তা বন্দরের নিজস্ব জায়গার উপর এটি হাইওয়ের আওতাভুক্ত নয়। মুলত ভুল বুঝাবুঝিতে পৌর ট্রাক টার্মিনালটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এনিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পৌর কর্তৃপক্ষ ইতিমধ্যে চিঠি দিয়েছে আমরাও চেষ্টা করছি আশা করা যায় স্বল্প সময়ের মধ্যে এটির সুরহা হয়ে যাবে।

খুলনায় অনলাইন কোরবানি হাট অ্যাপের উদ্বোধন

তথ্য বিবরণী

আসন্ন  ঈদ-উল আযহায় সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা বিবেচনা করে খুলনা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বুধবার দুপুরে ‘অনলাইন কোরবানি হাট’ নামে একটি কোরবানি পশু ক্রয়-বিক্রয়ের মোবাইল অ্যাপের উদ্বোধন করা হয়। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালকুদার আব্দুল খালেক অ্যাপটির উদ্বোধন করেন। খুলনা সিটি কর্পোরেশন ও প্রাণিসম্পদ অফিসের সহযোগিতায় অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে।

অনলাইনে জুম অ্যাপের মাধ্যমে ঢাকা থেকে প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি বলেন, করোনাকালীন দেশের এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কোন বিকল্প নেই। করোনার ফলে সারা বিশে^ একদিকে যেমন অনেক মানুষ কাজ হারাচ্ছে, তেমনি তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর অনেক নতুন পেশা ও কর্মসংস্থানেরও সৃষ্টি হচ্ছে।

দেশের এই পরিস্থিতিতে খুলনা জেলা প্রশাসনের এই উদ্ভাবনী উদ্যোগটির প্রশংসা করে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, অনলাইনে কোরবানি পশু বিক্রির সুযোগ সৃষ্টি হওয়ায় অনেক তরুণ খামারি ন্যায্য মূল্যে তাদের গরু-ছাগল বিক্রি করতে পারবেন। মানুষ যাতে প্রতারিত না হয় সেজন্য খুলনা জেলা প্রশাসন, প্রাণিসম্পদ অফিস এবং পুলিশ বিভাগের সমন্বয়ে অনলাইনে কোরবানি পশু ক্রয়-বিক্রয়ের কার্যক্রম তদারকির পরামর্শ দেন। এছাড়া প্রযুক্তিনির্ভর এ সেবাকে সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয় করতে ইউনিয়ন পর্যায়ের ডিজিটাল সেন্টারগুলোকে কাজে লাগানোরও আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে জুম অ্যাপের মাধ্যমে আরও অংশগ্রহণ করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) মোঃ কামাল হোসেন, খুলনার বিভাগীয় কমিশনার ড. মুঃ আনোয়ার হোসেন হাওলাদার।

ছঁৎনধহর ঐধঃ কযঁষহধ অ্যাপ ছাড়াও য়ঁৎনধহরযধঃশযঁষহধ.পড়স ওয়েবসাইটেও পশু ক্রয়-বিয়ক্রয়ের সুবিধা রয়েছে। খামারিরা অ্যাপটিতে ইতোমধ্যে ৩০ হাজারের অধিক কোরবানির পশু নিবন্ধিত করেছেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন। অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সরদার রকিবুল ইসলাম, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচাক মোঃ ইকবাল হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জিয়াউর রহমান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইউসুপ আলী, জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এসএম আউয়াল হক, খুলনা প্রেসকাবের সভাপতি এসএম নজরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মামুন রেজা, খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগসহ অন্যান্য সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা এবং খামারিরা উপস্থিত ছিলেন।

সরকার দুস্থদের সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে: তালুকদার আব্দুল খালেক

তথ্য বিবরণী

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ‘মানবিক সহায়তা কর্মসূচির’ আওতায় বুধবার দুপুরে নগরীর ২৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয় চত্বরে ঘরে থাকা দুইশত কর্মহীন নি¤œআয়ের শ্রমজীবী, অসহায়, দুস্থ ও হতদরিদ্রদের মাঝে সাত কেজি করে চাল ও নগদ অর্থসহ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে সিটি মেয়র বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে অনেক দরিদ্র মানুষের পক্ষে খাবার জোগাড় করা কষ্টসাধ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। সরকার তাঁদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করে যাচ্ছে। করোনার কারণে ঘরে থাকা কোন অসহায় মানুষ যেন কষ্ট না পায় সেদিকে নেতাকর্মীদের নজর রাখতে হবে। তিনি বলেন, করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে সঠিকভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা সকলের কর্তব্য।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা, কেসিসি’র সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর মাজেদা খাতুন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ মঈনুল ইসলাম নাসির, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আতাউর রহমান সিকদারসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সকালে সিটি মেয়র নগর ভবন সম্মেলনকক্ষে বহুতল ভবন নির্মাণে কেসিসি’র অনাপত্তি প্রদান কমিটির সপ্তম সভায় সভাপতিত্ব করেন। এসময় কেসিসি’র প্রধান প্রকৌশলী এজাজ মোর্শেদ চৌধুরী, নির্বাহী প্রকৌশলী মশিউজ্জামান, চীফ প্লানিং অফিসার আবির-উল-জব্বারসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা অংশ নেন।

ঝিনাইদহে নতুন করে আরও ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহে নতুন করে আরও ১৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাড়ালো ৩৩৩ জন।

সিভিল সার্জন ডাঃ সেলিনা বেগম জানান, বুধবার সকালে কুষ্টিয়া ল্যাব থেকে ঝিনাইদহে ৩৯ টি রিপোর্ট এসেছে। এর মধ্যে ১৪ টি পজেটিভ। আক্রান্তরা হলেন, সদর উপজেলায় ৪ জন, কালীগঞ্জ উপজেলায় ৫ জন, শৈলকুপা উপজেলায় ৩ জন, কোটচাদপুর উপজেলায় ২ জন। আক্রান্ত ৩৩৩ জনের মধ্যে সুস্থ্য হয়েছেন ১১৬ জন। হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৮ জন। জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৫ জন।

নূর জাহান বেগমের মৃত্যুতে খুলনা চেম্বারের শোক

খবর বিজ্ঞপ্তি

খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সম্মানীত সাধারণ শ্রেনীর সদস্য মেসার্স শারমীন এন্টারপ্রাইজ ১নং, হাজী তমিজ উদ্দিন সড়ক, সোনাডাঙ্গা, খুলনা এর স্বত্ত্বাধিকারী, সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার এ্যান্ড কমার্স ব্যাংক লিঃ এর উদ্যোক্তা সাঃ পরিচালক ও লকপুর গ্রুপের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিশিষ্ট শিল্পপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আমজাদ হোসেনের মাতা আলহাজ্ব নূর জাহান বেগম (১০৫) ৭ জুলাই, মঙ্গলবার আনুমানিক সকাল ০৭:৩০ টায় খুলনাস্থ একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন)। মরহুমা আলহাজ্ব নূর জাহান বেগম অত্যন্ত গুনী, সেবাপরায়ন ও মিষ্টভাষী ছিলেন।

মৃত্যুকালে তিনি অসংখ্য গুণাগ্রাহী রেখে গেছেন। তার এ মৃত্যুতে খুলনার সর্বস্তরের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে খুলনা চেম্বারের সভাপতি কাজি আমিনুল হক, উর্দ্ধতন সহ-সভাপতি শেখ আসাদুর রহমান, সহ-সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বিশ্বাস বুলু, সহ-সভাপতি মোঃ মোস্তফা জেসান ভূট্টো, পরিচালকবৃন্দ গোপী কিষণ মুন্ধড়া, এম এ মতিন পান্না, জেড এ মাহামুদ ডন, এস এম ওবায়দুল্লাহ, আলহাজ্ব মোঃ মফিদুল ইসলাম টুটুল, ঠাকুর মোঃ শাহ্ আলম, জোবায়ের আহমেদ খান (জবা), মোঃ সিরাজুল হক, কাজী মাসুদুল ইসলাম, আলহাজ্ব মোঃ মোশাররফ হোসেন, শেখ আল্লামা ইকবাল তুহিন, মোঃ আবুল হাসান, দীপক কুমার দাস, মোঃ ইসলাম খান, উজ্জল কুমার গাঙ্গুলী, শেখ মোঃ গাউসুল আজম, খান সাইফুল ইসলাম, মোঃ মনিরুল ইসলাম মাসুম, মোঃ মাহবুব আলম ও চৌধুরী মিনহাজ¦-উজ-জামান এবং খুলনা চেম্বারের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ গভীর শোক প্রকাশ করে তার রুহের মাগফেরাত কামনা এবং মরহুমার শোকসন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

ঝিনাইদহে নদীর পাড় থেকে সরকারী ঔষধ উদ্ধার করলো পুলিশ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহ শহরের নবগঙ্গা নদীর পাড় থেকে বিপুল পরিমান সরকারী ঔষধ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুরে পৌর খাজুরা এলাকার নবগঙ্গা নদীর পাড় থেকে এ ঔষধ উদ্ধার করা হয়।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মুহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, শহরের খাজুরা এলাকার নবগঙ্গা নদীর পাড়ে সরকারী ঔষধ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়। সেসময় পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ৯৫ হাজার ২ শত ২৪ টাকা মূল্যের ঔষধ উদ্ধার করে।

স্বাস্থ্যবিভাগের কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে উদ্ধারকৃত ঔষধের ব্যপারে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানায় পুলিশ।

করোনা সুরক্ষায় নৌবাহিনীর সচেতনতামূলক কার্যক্রম ও জীবাণুনাশক বিতরণ

খবর বিজ্ঞপ্তি

বুধবার দেশের করোনা পরিস্থিতি রোধকল্পে এবং উপকূলীয় অঞ্চলের জনগণের সচেতনতার জন্য বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে নৌবাহিনী। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে ও জনগণের মাঝে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে উপজেলাগুলোতে নিয়মিত টহল পরিচালনা করছে নৌ সদস্যরা। জনসমাগম স্থল এড়িয়ে চলা, কমপক্ষে ৩ ফুট দূরত্ব নিশ্চতকরণ, জরুরী প্রয়োজনে বাড়ীর বাহিরে অবস্থানের ক্ষেত্রে মুখে মাস্ক পরিধান, গণপরিবহন ও মসজিদ ব্যবহারের ক্ষেত্রে সরকারী নীতিমালা অনুসরণ করতে সাধারণ জনগণকে বলা হয়। এছাড়া নির্ধারিত সময়ের পর সকল বাজার, দোকান-পাট, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান বাধ্যতামূলকভাবে বন্ধ নিশ্চিতকরণ ও নিয়মিত সাবান দিয়ে হাত ধুতে এবং ঘন ঘন হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার জন্য সাধারণ মানুষকে বোঝানোসহ নানাবিধ কার্যক্রম পরিচালনা করে নৌবাহিনী। করোনা প্রতিরোধে চলমান কার্যক্রমের অংশ হিসেবে মোতায়েনকৃত নৌ কন্টিনজেন্ট মোংলা উপজেলার কানাইনগর, দিগরাজ বাজার, বুড়িরডাঙ্গা, হাসপাতাল চত্ত্বর, ফেরিঘাট বরগুনা জেলা সদর, বামনা ও বেতাগী এলাকায় নিয়মিত সচেতনতামূলক টহল প্রদান করে করে। এসময় জনগণের মাঝে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয় ও বর্জনীয় শীর্ষক ২০০টি লিফলেট বিতরণ করে। কানাইনগর জামে মসজিদে নামাজের পূর্বে জীবাণুমুক্ত করার জন্য বিচিং পাউডার বিতরণ করা হয়। বামনা ও বেতাগী উপজেলায় ৭৩৬টি দরিদ্র জেলে পরিবারের মাঝে ভিজিএফ কার্ড রেজিষ্ট্রেশনে স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তা প্রদান করে। এছাড়াও নৌবাহিনী কন্টিনজেন্ট মোংলা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনায় স্থানীয় জেলা প্রশাসনকে সহায়তা করে।

করোনায় মৃত ব্যক্তির গোসল দাফনে ইসলামী আন্দোলন

খবর বিজ্ঞপ্তি

করোনায় মৃত্যু ব্যক্তির গোসল দাফনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা মহানগরের একটি টিম বুধবার (৮ জুলাই) খুলনার বাগমারায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণকারী খুলনা ডিসি অফিসে কর্মরত মোঃ খাইরুল ইসলামের (৫৬) গোসল সম্পন্ন করা হয় এবং সকাল ৯ টায় জানাজা শেষে নিরালা কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করেন। এসময় গোসল ও দাফন সম্পন্ন কাজে যারা ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা মহানগর সভাপতি ও দাফন কাফন কমিটির প্রধান পরিচালক আলহাজ্ব মুফতী আমানুল্লাহ, মোঃ শোয়েবুর রহমান, মোহাম্মদ নাজমুল হাসান রানা, মোহাম্মদ জামিল আহমদ, ফেরদৌস গাজী সুমন।

এলাকাবাসী করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণকারীর পাশে দাড়ানোয় ইসলামী আন্দোলনকে স্বাগতম জানান ও তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং তারা বলেন যারা এই দুঃসময়ে মানুষের পাশে দাঁড়ায় তারাই প্রকৃত বন্ধু মানুষ।

আমির হোসেন আমু ১৪ দলের মুখপাত্র হওয়ায় ওয়ার্কার্স পার্টির অভিনন্দন

খবর বিজ্ঞপ্তি

প্রবীণ রাজনীতিবিদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ-এর উপদেষ্টাম-লীর সদস্য আমির হোসেন আমু ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র হওয়ায় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, খুলনা জেলা ও মহানগর কমিটির নেতৃবৃন্দ স্বাগত ও অভিনন্দন জানিয়ে বিবৃতি প্রদান করেছেন। বিবৃতিদাতারা হলেনÑখুলনা জেলা সভাপতি কমরেড এড. মিনা মিজানুর রহমান, মহানগর সভাপতি কমরেড শেখ মফিদুল ইসলাম, জেলা সাধারণ সম্পাদক কমরেড আনসার আলী মোল্লা, মহানগর সাধারণ সম্পাদক কমরেড এস এম ফারুখ-উল ইসলাম, জেলা ও মহানগর সম্পাদকম-লীর সদস্য কমরেড দেলোয়ার উদ্দিন দিলু, কমরেড গৌরাঙ্গ প্রসাদ রায়, কমরেড শেখ মিজানুর রহমান, কমরেড মনির আহমেদ, কমরেড খলিলুর রহমান, কমরেড আব্দুস সাত্তার মোল্লা, কমরেড নারায়ণ সাহা, কমরেড আমিরুল ইসলাম, নির্বাহী সদস্য শেখ সাহিদুর রহমান, কমরেড মনিরুজ্জামান, কমরেড সন্দীপন রায়, কমরেড রেজাউল করিম খোকন, কমরেড কৌশিক দে বাপী, কমরেড আঃ হামিদ মোড়ল, কমরেড মোঃ আলাউদ্দিন, কমরেড মনির হোসেন, কমরেড আরিফুর রহমান বিপ্লব, কমরেড এড. কামরুল হোসেন জোয়ার্দ্দার, কমরেড অজয় দে, কমরেড বাবুল আখতার, কমরেড হাফিজুর রহমান, কমরেড গৌরী ম-ল প্রমুখ।

চিকিৎসক নেতা আকতারুজ্জামানের মেয়ে, সাবেক ছাত্র নেতা মিঠু ও বিএনপি নেতা মুসার ইন্তেকাল : বিএনপি’র শোক

খবর বিজ্ঞপ্তি

ড্যাব খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল শাখার সভাপতি ও বিএমএর সাবেক সাধারণ সম্পাদক ডা. শেখ আকতারুজ্জামানের মেয়ে শেখ ঐশী বিনতে জামান (৩২), এম এম সিটি কলেজের সাবেক জনপ্রিয় ছাত্র নেতা রেজাদৌল্লাহ মিঠু (৪৫) ও  ১৯নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদ হাসান মুছা (৫২) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না…..রাজিউন)।

মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় টুটুপাড়ায় নামাজে জানাযা শেষে ঐশীকে টুটপাড়া সরকারি কবরস্থানে দাফন করা হয়। মঙ্গলবার বাদ আসর বাগমারা এমদামুল মাদ্রাসায় মিঠুর নামাজে জানাযা শেষে তাকে নিরালা সরকারি কবরস্থানে দাফন করা হয়। তার জানাযায় নগর বিএনপি’র সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জুসহ এলাকার বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন। গতকাল বুধবার ন্যাশনাল স্কুল প্রাঙ্গণে মুছার নামাজে জানাযা শেষে তাকে বসুপাড়া সরকারি কবরস্থানে দাফন করা হয়।

ঐশী, মিঠু ও মুছার ইন্তেকালে তাদের রুহের মাগফেরাত কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন নগর বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দরা হলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ভাষাসৈনিক এম নুরুল ইসলাম, নগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশাররফ হোসেন, জাফরউলাহ খান সাচ্চু, জলিল খান কালাম, সিরাজুল ইসলাম, এড. ফজলে হালিম লিটন, স ম আব্দুর রহমান, শেখ ইকবাল হোসেন, শেখ জাহিদুল ইসলাম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, শেখ আমজাদ হোসেন, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মোঃ মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, এসএম আরিফুর রহমান মিঠু ও ইকবাল হোসেন খোকন প্রমুখ।

পদ্মায় নৌকা ডুবি: লাশ মিললো ৩ জনের

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার চরসাদিপুর এলাকায় পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ চার শ্রমিকের মধ্যে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা। এখনও জুয়েল শ্রমিক নদীতে নিখোঁজ রয়েছে। বুধবার (০৮ জুলাই) রাত ৮টায় তিনজনের মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবুর রহমান।

মৃতরা হলেন ভেড়ামারা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউননিয়নের জামালপুর গ্রামের রঞ্জিতের ছেলে জুবায়ের ওরফে জুবা (৩২), একই এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে শরিফুল ইসলাম এবং নজুর ছেলে জাকির (২৫)। বুধবার (০৮ জুলাই) দুপুরে থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত মরদেহ তিনটি উদ্ধার করে পাবনা ফায়ার সার্ভিস।

পাবনা ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক সাইফুজ্জামান জানান, মঙ্গলবার (০৭ জুলাই) সকালে পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ চারজনের মরদেহ উদ্ধারে ডুবুরি দলসহ ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা কাজ করছে। বুধবার দুপুর ১টায় শরিফুল ইসলাম নামের একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। বেলা তিনটার দিকে প্রথম মরদেহ থেকে প্রায় ২০০ গজ দূর থেকে জুবা নামের আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সন্ধ্যায় জাকির নামের আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবুর রহমান জানান, তিনজনের মরদেহ উদ্ধারের মধ্য দিয়ে আজকের উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার আবারও উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করা হবে। এখনও একজন নিখোঁজ রয়েছেন। মঙ্গলবার (০৭ জুলাই) সকালে পদ্মানদীর চর সাদিপুর এলাকায় নৌকাডুবে যাওয়ার ঘটনায় ১৩ জনের মধ্যে নয়জন শ্রমিক সাঁতরে এবং স্থানীয়দের সাহায্যে উদ্ধার হন। সাঁতার না জানায় চারজন পানিতে ডুবে নিখোঁজ হয়। ঘটনার পর থেকেই নিখোঁজদের উদ্ধারে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারী দল। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন ভেড়ামারা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের হারান শেখের ছেলে জুয়েল (৩০) ।

সম্মিলিত নাগরিক পরিষদ-এর মতবিনিময় সভা পাট শিল্প রক্ষায় বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে

খবর বিজ্ঞপ্তি

পাট ও রাষ্ট্রায়ত্ব পাট শিল্প রক্ষায় আন্দোলন গড়ে তোলার লক্ষ্যে সম্মিলিত নাগরিক পরিষদ, খুলনা’র উদ্যোগে এক মতবিনিময় সভা বুধবার বেলা ১২টায় সংগঠন কার্যালয় অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের আহ্বায়ক এড. কুদরত-ই-খুদা’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের কৃষক সমিতি’র খুলনা জেলা সাধারণ সম্পাদক এস এ রশীদ, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের জেলা সভাপতি জনার্দন দত্ত নাণ্টু, যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য এড. মোঃ বাবুল হাওলাদার, সিপিবি নেতা মিজানুর রহমান বাবু, ক্ষেতমজুর সমিতির জেলা সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নিতাই পাল, টিইউসি নেতা রঙ্গলাল মৃধা, সাইদুর রহমান বাবু, যুব ইউনিয়নের জেলা সভাপতি এড. নিত্যানন্দ ঢালী, আইন ও অধিকার বাস্তবায়ন ফোরামের সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন রাজু, যুব ইউনিয়ন নেতা প্রভাষক জয়ন্ত মুখার্জী, সৈয়দ রিয়াসাত আলী রিয়াজ, ছাত্র ইউনিয়ন নেতা আজিজুল ইসলাম আরমান, সোমনাথ দে, জয় দাশ প্রমুখ। মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, রাষ্ট্রায়াত্ব শিল্প-কারখানা বেসরকারি খাতে ছেড়ে দেয়ার অভিজ্ঞতা আমাদের ভালো নয়। রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল নিয়ে কর্পোরেট বাণিজ্য চলবে না। প্রয়োজনে রাষ্ট্র-শ্রমিক মালিকানায় চালানো যেতে পারে। পুঁজিবাদী লুটেরাদের হাতে রাষ্ট্রীয় মহামূল্যবান সম্পদ ছেড়ে দিয়ে লুটপাটতন্ত্রকে উৎসাহিত করা চলবে না। রাষ্ট্র তার সম্পদ ব্যক্তিমালিকানা খাতে ছেড়ে দিয়ে রাষ্ট্র সম্পদহীন হলে, রাষ্ট্রের নাগরিকদের মৌলিক চাহিদা পূরণে ব্যর্থ হবেÑএটাই স্বাভাবিক। মতবিনিময় সভায় খুলনার সকল নাগরিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে ঐক্যবদ্ধ করে পাট ও পাটশিল্প রক্ষায় বৃহত্তর আন্দোলন কর্মসূচির ঘোষণা হবে। বক্তারা রাষ্ট্রীয় সম্পদ রক্ষায় সচেতনমহলকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান।

সাতক্ষীরা বিএনপি নেতা ও পৌর মেয়র তাসকিন আহমেদের আশু আরোগ্য কামনা       

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

সাতক্ষীরা পৌর মেয়র ও জেলা ছাত্রদলের সাবেক সফল সভাপতি,  বিএনপির  সাংগঠনিক সম্পাদক জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক তাজকিন আহমেদ চিশতি করোনায় আক্রান্ত হয়ে নিজ বাসায় চিকিৎসাধীন আছেন। তার দ্রুত অরোগ্য কামনা করে সাতক্ষীরা জেলা জাসাস বিবৃতি দিয়েছেন, জেলা জাসাসের সভাপতি এড্যাঃ ইখলেছার আলী বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন,  জাসাস নেতা মুকুল রেজা, ফিরোজ হোসেন, জাম্বু সহ নেতৃবৃন্দ।             

কেশবপুরে ধান-চাল ক্রয়ে লক্ষ্যমাত্রা পূরণে সংশয়

আলমগীর হোসেন,কেশবপুর

শোরের কেশবপুরে সরকারি খাদ্যগুদামে ধান-চাল ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। বাজার মূল্য থেকে সরকারের নির্ধারিত মূল্য কম হওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে ১৩ হাজার ৩৫০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ হয়। যা থেকে ৯১ হাজার ৯৩৮ মেট্রিক টন ধান উৎপাদন হয়েছে। উৎপাদিত এই ধান থেকে প্রতি কেজি ২৬ টাকা দরে সরকার ২ হাজার ৫৫৩ টন ধান স্থানীয় ২ হাজার ৫৫৩ জন কৃষকের নিকট থেকে খাদ্য গুদামের মাধ্যমে ক্রয় করবে। এ লক্ষে গত ২০ মে ক্রয় কমিটির সভাপতি কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুসরাত জাহান বোরো ধান ও চাল ক্রয়ের উদ্বোধন করেন। সরকার প্রতি মন ধানের মূল্য ১ হাজার ৪০ টাকা নির্ধারণ করলেও খোলা বাজারে প্রতি মন ধান বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৫০ টাকা থেকে ১১শ টাকায়। যে কারণে কৃষক খাদ্য গুদামে ধান বিক্রি করতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছে। এ পর্যন্ত খাদ্য গুদাম মাত্র ৩৬ টন ধান ক্রয় করতে সক্ষম হয়েছে। অনুরূপভাবে ৫৫ জন মিলার এক হাজার ৬৩৪ টন চাউল সরবরাহের চুক্তিপত্র করলেও এ পর্যন্ত মাত্র ১শ ৭৫ টন চাউল সরবরাহ করেছেন। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অনেক কম। যার ফলে এবার সরকারের ধান-চাল ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ না হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।কেশবপুর উপজেলা খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা আলী হাসান জানান, শুরু থেকে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও করোনা মহামারির কারণে কৃষকরা তাদের ধান সরবরাহ করতে পারেনি। তা ছাড়া চিকন চাল গুদামে এক হাজার ৪০ টাকা করে ক্রয়ের সিদ্ধান্ত হওয়ায় বাজারমূল্য কৃষকরা বেশি পাচ্ছে। এজন্য কৃষকরা ধান গুদামে বিক্রি করার আগ্রহ হারাচ্ছে। তবে ৫৫ জন মিলার আগামী ৩১ আগস্টের ভিতর তাদের চাল সরবরাহ করতে পারবেন।

মোড়েলগঞ্জে উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে খাদ্যসহায়তা বিতরণ

এম.পলাশ শরীফ,মোড়েলগঞ্জ

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে করোনা ভাইরাসে কর্মহীন হয়ে পড়া বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষের মাঝে উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে খাদ্যসহায়তা প্রদান করেছেন। বুধবার বিকেলে জিউধরা ইউনিয়নে কাকড়াতলী বাজারে পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়ে ৫০জন পরিবারের মাঝে এ খাদ্যসহায়তা প্রদানকালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট শাহ-ই্ আলম বাচ্চু।

বিশেষ অতিথি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. দেলোয়ার হোসেন, বাগেরহাট জেলা পরিষদের সদস্য জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অধ্যাপিকা আফরোজা আক্তার লিনা, ভাইস চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক মোজাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাহিমা খানম, ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম বাদশা, এলজিইডি দপ্তরের সজল হালদার। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন সচিব ঢালী মাহবুবুর রহমান, যুবলীগ নেতা খান হাসিবুর রহমান, নাজমুল হাসান সুমন, আবিদ হোসেন মধু, ইউপি সদস্য শিমুল কান্তি মিস্ত্রী ও আসালতা মন্ডল।

এ সময় প্রধান অতিথি এ্যাড. শাহ-ই আলম বাচ্চু বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসে কোন মানুষ অভূক্ত থাকবে না। কর্মহীন হয়ে পড়া প্রতিটি পরিবারের জন্য সরকারিভাবে বিভিন্ন সহায়তা মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। ব্যক্তি উদ্যোগে দলীয় নেতাকর্মীরাও এ মুর্হুতে সাধারণ মানুষের পাশে রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত এক মাস ধরে উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে ১৬টি ইউনিয়নের ৯শ’ পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, তেল, লবনসহ বিভিন্ন খাদ্যসহায়তা বিতরণের সমাপনী দিনে জিউধরার ৫০ পরিবারের মাঝে খাদ্যসহায়তা প্রদান করা হয়।

মোড়েলগঞ্জে কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের মানববন্ধন

 মোড়েলগঞ্জ প্রতিনিধি

করোনা মহামারির মহাদুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ কিন্ডারগার্টেন স্কুলগুলোর জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আর্থিক অনুদান কিংবা সহজ শর্তে ঋণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন বাগেরহাট জেলার আঞ্চলিক শাখা মোড়েলগঞ্জ। বুধবার সকালে মোড়েলগঞ্জ প্রেস কাবের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন দি লাইসিয়াম একাডেমীর অধ্যক্ষ মো. শাহাবুদ্দিন তালুকদার, কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মো.আব্দুল ওয়াহাব, আমিরুন্নেছা মেমোরিয়াল একাডেমীর অধ্যক্ষ আব্দুল হাকিম মৃধা, শহীদ তীতুমির একাডেমীর অধ্যক্ষ মো. বেলায়েত হোসেন,  শুভ বিদ্যানিকেতনের মো. ছগির হোসেন, কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের প্রচার সম্পাদক দেব কুমার হাওলাদার, মিয়া ফুয়াদ ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের রফিকুল ইসলাম কিচলু, ভাসানী কিন্ডারগার্টেনের উত্তম কুমার প্রমুখ।  মানববন্ধন কর্মসূচিতে ২১ টি কিন্ডারগার্টেন এর শিক্ষক অংশগ্রহন করেন।

সাতক্ষীরায় বিধবার সংবাদ সম্মেলন

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

সাতক্ষীরায় সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে ইউপি সদস্য জুলফিকার আলী জুলু কর্তৃক সদর উপজেলার কাথন্ডা উত্তর মাঠে আরো একটি গভীর নলকূপ বসাচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসকাবের আব্দুল মোতালেক মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন সদর উপজেলার কাথন্ডা গ্রামের মৃত শহিদুল ইসলামের স্ত্রী মোছাঃ নাজমুন্নাহার।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, কাথন্ডা গ্রামের উত্তর মাঠে আমার স্বামীর দুইটা গভীর নলকূপ ছিল। স্বামীর মৃত্যুর আগে একটি গভীর নলকূপ আমার দুই মেয়ের নামে এবং অপরটি দেবর ও ভাসুরের নামে দিয়ে যায়। স্বামীর মৃত্যুর পর ওই নলকূপের পানি পার্শ্ববর্তী বিলে সরবরাহ করে তা দিয়ে উপার্জিত অর্থ দিয়ে কোন রকমে দুই মেয়েকে নিয়ে সংসার নির্বাহ করে আসছি। কিন্তু পারিবারিক শত্রুতার জের ধরে কাথন্ডা গ্রামের মৃত আফসার আলী দফাদারের ছেলে স্থানীয় ইউপি সদস্য জুলফিকার আলী ওরফে জুলু ও তার ক্যাডার বাহিনীর সদস্যরা সরকারি নীতিমালা উপেক্ষা করে একই বিলে জোর করে আরো একটি গভীর নলকূপ বসাচ্ছেন।

নাজমুন্নাহার আরো বলেন, সরকারি নীতিমালায় আছে যে, সেচ কমিটির অনুমোদন ছাড়া এবং যেখানে একটি গভীর নলকূপ রয়েছে তার ৮শ’ মিটারের মধ্যে আরা দ্বিতীয় কোন গভীর নলকূপ বসানো যাবে না। সরকারি এই নীতিমালা উপেক্ষা করে ইউপি সদস্য জুলফিকার আলী জুলু আমাদের গভীর নলকূপ থেকে আনুমানিক ১৫০ মিটারের মধ্যে আরেকটি গভীর নলকূপ বসানোর কাজ শুরু করে। এসময় আমি দ্রুত সেচ কমিটির সভাপতি, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাতক্ষীরা বিএডিসি সহকারি প্রকৌশলী বরাবার লিখিত অভিযোগ করে জরুরী ভিত্তিতে ব্যবস্থা গ্রহণের আবেদন জানাই। আমার অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ৭ জুলাই সকাল ১০ টার দিকে বিএডিসির একটি প্রতিনিধি দল সরেজমিনে তদন্তে ঘটনাস্থলে এসে আমার অভিযোগের সত্যতা পান। এসময় তাঁরা কাথন্ডা গ্রামের উত্তর মাঠে নতুন করে নলকূপ স্থাপন ব›দ্ধ রাখার জন্য জুলুকে বলে ওই এলাকায় লাল ফাগ স্থাপন করে চলে যান।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, লাল ফাগ স্থাপন করে সরকারি কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল থেকে চলে যাওয়ার পরপরই জুলফিকার আলী ওরফে জুলু ও তার লোকজন লাল প্লাগটি তুলে ফেলে দিয়ে আবারও কাজ শুরু করে। একই সাথে জুলফিকার আলী জুলু ও তার লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে আমার বাড়ির চারপাশে গিয়ে আমাদেরকে বিভিন্নভাবে হুমকি ধামকি দিচ্ছে। ফলে জুলু গংদের ভয়ে বর্তমানে দুই মেয়েসহ পরিবারের সদস্যদের নিয়ে আমি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। যে কোন মুহুর্ত্বে জুলু গংরা আমাদের যানমালের ক্ষয়ক্ষতি করতে পারে।

তিনি সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে ইউপি সদস্য জুলফিকার আলী জুলু কর্তৃক কাথন্ডা গ্রামের উত্তর মাঠে আরেকটি গভীর নলকূপ বসানো বন্ধ করেত প্রয়োজনী পদক্ষেপ গ্রহনে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে মোছাঃ নাজমুন্নাহার এর পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।

কয়রায় করোনা প্রতিরোধে ডাঃ খান আহম্মেদ হেলালীর পক্ষে মাাস্ক বিতরণ

কয়রা প্রতিনিধি

কয়রায় করোনা প্রতিরোধে সচেতনাতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ভ্যান, মোটর সাইকেল চালক, দিনমজুর ও পথচারীদের মাঝে খান সাহেব কোমরউদ্দীন মডেল কলেজের সভাপতি ও খুলনা শিশু হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ খান আহম্মেদ হেলালীর পক্ষে মাস্ক বিতরণ করা হয়। বুধবার সকাল ১০ থেকে আমাদী মোটর সাইকেল ও ভ্যান স্টা›ড, খান সাহেব কোমরউদ্দীন কলেজ মোড়, চাঁদালী মোটর ও ভ্যাান স্টান্ড, ইসলামপুর চৌরাস্তা মোড় স্টান্ড, বাগালী ইউনিয়ন পরিষদ মোড়, সরদার বাড়ী মোড়, দেয়াড়া বাজার, অন্তাবুনিয়া বাজার, কালনা বাজার, গ্রাজুয়েটস মোড়, ফুলতলা বাজার, দালাল বাড়ী নসিমন স্টান্ড, কয়রা বাস স্টান্ড, ও কয়রা মোটর সাইকেল স্টান্ডের ভ্যান চালক, মোটর সাইকেল চালক, দিনমজুর ও পথচারীদের মাঝে ডাঃ খান আহম্মেদ হেলালীর পক্ষে ১০০০ মাস্ক বিতরণ করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক ও খান সাহেব মডেল কলেজরে প্রভাষক মোঃ শাহাবাজ আলী। এসময় তিনি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকা, বাইরে বের হওয়ার সময় ও বাইরে থেকে এসে ২০ সেকেন্ড সময় ধরে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, বাইরে গেলে মাস্ক পরিধান করা, নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল সহ জনগণকে সতর্ক হওয়ার আহান জানান। এ সময় তার সাথে ছিলেন, খান সাহেব মডেল কলেজের প্রভাষক সুকুমার সরকার। ডাঃ খান আহম্মেদ বলেন, করোন ভাইরাস নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করতেই প্রচারণা চারানো হচ্ছে। এ ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত হওয়া যাবে না। বরং সবাইকে সচেতন হতে হবে। ভ্যান চালক, দিনমজুর ও পথচারী সাধারণ মানুষের সচেতনাতা বৃদ্ধির লক্ষে তাদের হাতে মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

ফুলতলা উপজেলা আওয়ামীলীগের  সাধারণ সম্পাদকের রোগ মুক্তি কামনা        

খবর বিজ্ঞপ্তি

ফুলতলা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার সাহাবুদ্দিন জিপ্পী    গুরুতর অসুস্থ হয়ে খুলনার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তাঁর আশু রোগ মুক্তি কামনা করে বিবৃতি  দিয়েছেন ডুমুরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিদাতারা হলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এম পি, সাধারণ সম্পাদক শাহানাজ হোসেন জোয়ার্দার,  মোকলেছুর রহমান বাবলু,  এ বি এম শফিকুল ইসলাম, এড. রবিন্দ্রনাথ মন্ডল    সহ-সভাপতি মোস্তফা কামাল খোকন, আবু সাইদ সরদার, নাজিবুর রহমান নাজু, আলহাজ্ব শেখ হেফজুর রহমান, শোভা রানী হালদার,   সরদার,  আবু সালেহ, প্রভাষক ফারুক হোসেন, কাজী আলমগীর হোসেন, গোপাল চন্দ্র দে, গাজী তৌহিদ, আবু বক্কার খান, সরদার আব্দুল গনি,    মোল্লা সোহেল রানা,  এস এম জাহাঙ্গীর আলম,শেখ হাবিবুর রহমান,    আছফার হোসেন জোয়ার্দার,  শওকত হোসেন প্রমুখ।      

করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে এএসডি’র ত্রাণ বিতরণ

খবর বিজ্ঞপ্তি

বেসরকারি সংস্থা অ্যাকশন ফর সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট- এএসডি’র উদ্যোগে মহামারি করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত কর্মহীন, দুস্থ-অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। বুধবার (৮ জুলাই) বিকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুরে বেগম নূরজাহান মেমোরিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এ ত্রাণ বিতরণ করা হয়। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংস্থার ক্ষুদ্রঋণগ্রহীতা করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ ৩শ পরিবারের হাতে এসময় চাল, ডাল, তেল, আলু, পেঁয়াজ, লবন, মাস্ক এবং সাবান তুলে দেয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন এএসডি এর কাইমেট চেঞ্জ এন্ড ডিজেষ্টার রেসপন্স কোঅর্ডিনেটর, এম এ করিম, ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচির প্রকল্প কর্মকর্তা নূর মোহাম্মদ, এ্যাকউন্ট এন্ড এ্যাডমিন অফিসার সুজন মাহ্মুদ ও বেগম নুরজাহান মোমোরিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আলাউদ্দিন, সহাকারী প্রধান শিক্ষক মো: শামীম হোসাইন প্রমূখ।

এ সময় এএসডি’র এমএ করিম বলেন, করোনাভাইরাস চোখে দেখা না গেলেও মানুষে জীবন শেষ করে দিচ্ছে। এ ভাইরাস প্রতিরোধে আমাদেরকে সচেতন থাকতে হবে, যথা সম্ভব ঘরে থাকার চেষ্টা করতে হবে। আজকের ধারাবহিকতায় বৃহস্পতিবার আরও ৩শ ক্ষুদ্রঋণ গ্রহীতার মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হবে।

শরণখোলায় শিক্ষকের আশ্বাসে ঘুষ প্রদান চাকুরী না পেয়ে দেশ ছাড়ার পরিকল্পনা আসাদুলের

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি ঃ

আসাদুল শিকদার (৩১) উপজেলার দক্ষিণ রাজাপুর গ্রামের বাসিন্দা কৃষক হাবিবুর রহমানের ছেলে। পারিবারিক  অভাব অনটনের কারণে খুব বেশি পড়ালেখা হয়নি তার। ২০০৭ সালে স্থানীয় একটি কলেজ থেকে এইচ.এস.সি. পাশ করেন তিনি। পরবর্তীতে ২০১৭ সালে  ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচীর আওতায় উপজেলার বাংলাবাজার এলাকায় অবস্থিত জনতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গত দু’ বছর ধরে অফিস সহকারীর পদে দায়িত্ব পালন করতে থাকেন আসাদুল। এ সময় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাকে আশ্বস্ত করেন ওই পদে লোক নেয়া হলে তাকেই নিয়োগ দেয়া হবে। সম্প্রতি  বিদ্যালয়ের অফিস সহকারি পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হলে এতে আসাদুলের সহ ৯টি আবেদন জমা পড়ে। তখন প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবিদুর সহ চর্তুথ শ্রেনীর কর্মচারী জাফর হোসেনের মাধ্যমে আসাদুলের কাছে স্কুলের ওই পদে নিয়োগের জন্য ৫লাখ টাকা ঘুষের প্রস্তাব পাঠান। তাই নিজের একটি স্থায়ী কর্মসংস্থান তৈরীর জন্য আসাদুল তার বৃদ্ধ পিতার হাতে পায়ে ধরে ফসলী ১০কাঠা জমি সহ বসত বাড়ীর বিভিন্ন প্রজাতির শতাধিক গাছ বিক্রি করেন এবং সুদ সহ ধার দেনার মাধ্যমে ৫লাখ টাকা জোগাড় করেন।

পরে নিয়োগ পরীক্ষার ৪দিন আগে উক্ত টাকা থেকে প্রধান শিক্ষককে খরচ বাবদ ১ লাখ টাকা ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে নগদ ৫০ হাজার টাকা দেন আসাদুল। কিন্তু প্রধান শিক্ষক ও মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা অন্য প্রার্থীর কাছ থেকে মোটা অংকের উৎকোচ গ্রহন করেন এবং ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিকে ভুল বুঝিয়ে কমিটির অন্য সদস্যদের বিষয়টি অবগত না করে প্রশ্ন পত্র ফাঁসের মাধ্যমে গত ৬ জুলাই সর্বোচ্চ ঘুষ প্রদানকারী ওই প্রার্থীকে নিয়োগ দেন। আসাদুল বলেন, হেড় স্যারের কথা অনুযায়ী ধার-কর্য করে টাকা জোগাড় করি, তার নির্দেশে শিক্ষা অফিসারকে আইড়িয়াল স্কুলের সামনে বসে একদিন সন্ধ্যায় নগদ ৫০হাজার টাকা দেই। জমিজমা বিক্রি করেও চাকরী পেলাম না, ওই স্কুলের হেড স্যার আমার সাথে এত বড় প্রতারনা করবেন, বুঝলে ঝুঁকি নিতাম না।

এখন পরিবার পরিজন নিয়ে দেশ ছেড়ে যাওয়া ব্যাতীত অন্য কোন পথ খোলা নাই বলে হতাশা ব্যক্ত করেন আসাদুল। অপরদিকে, নিয়োগে নানা অনিয়মের ঘটনায় বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির ৫জন সদস্য গত ৭জুলাই একযোগে পদত্যাগ করেন এবং উপজেলা নির্বাহী কর্তকর্তার কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ম্যানেজিং কমিটির সদস্য সহ বঞ্চিত প্রার্থীরা বির্তকিত ওই নিয়োগ বাতিল করে স্বচ্ছ নিয়োগের দাবি জানান। এব্যাপারে ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মোঃ কামাল বয়াতী, জালাল ফরাজী, শাহাজাদা, মুজিবর রহমান ও আঃ সবুর গাজী সহ অনেকে বলেন, উপজেলা সদর রায়েন্দা বাজারের বাসিন্দা মোঃ শহিদুল ইসলাম আকন, ২০১৭ সালে অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ পেয়ে নানা অনিয়ম দুর্নীতি শুরু করেন।

গত ৩ বছর ধরে কোন হিসাব না দেয়া সহ স্কুলের কয়েক লাখ টাকার গাছ বিক্রি করে উক্ত টাকা আত্মসাৎ করেন। অভিযোগকারীরা স্বচ্ছ নিয়োগ সহ নুতন ম্যানেজিং কমিটি গঠনের দাবী জানান। তবে, স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ শহিদুল ইসলাম তার বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগ কাল্পনিক দাবী করে বলেন, ম্যানেজিং কমিটির কতিপয় বিপদগামী সদস্যরা একজোট হয়ে আসাদুলকে ব্যবহার করে নানা মুখী ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছেন এবং তিনি কাউকে নিয়োগ দেননি। এছাড়া স্কুলের  বর্তমান সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিয়োগ দেয়ার মালিক সে। তাই এখানে কোন অনিয়ম হয়েছে কি না, সে বিষয়ে আপনারা ইউএনওর কাছে জানতে পারেন বলে মন্তব্য করেন। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ নুরুজ্জামান খান বলেন, ঘুষ সহ অনিয়মের বিষয়টি সম্পূর্ণ গুজব, এখানে যোগ্য প্রার্থীকেই নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এছাড়া বিদ্যালয়ের সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহিন জানান, নিয়োগে কোন অনিয়ম হয়নি । তবে, কেউ কোন অনৈতিক সুবিধা গ্রহন করে থাকলে প্রমান সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

রামপালের একটি রাস্তার বেহাল দশা ঃ জনদূর্ভোগ চরমে

রামপাল (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

রামপালের শোলাকুড়া দক্ষিনপাড়ার একমাত্র সংযোগ সড়কটি বেহাল দশায় ভোগান্তিতে পড়েছেন হাজার গ্রামবাসী। একদিকে সদ্য খননকৃত রেকর্ডিয় খালে ভাঙ্গনে রাস্তার বেশকিছু অংশ নদীগর্ভে বিলীন। তার উপর লাগাতর বৃষ্টির কারনে নদীর পানির স্তর বেড়ে কাদাজলে একাকার জনদূর্ভোগ চরমে।

রামপালের গিলাতলা মেইন রোড এর দেয়ালডাঙ্গা সংলগ্ন তেতুলতলা এলাকা থেকে প্রায় ৩/৪ কিঃমি ভিতরে বাইনতলা ইউনিয়নে অবস্থিত শোলাকুড়া দক্ষিনপাড়া গ্রাম। কয়েক হাজার গ্রামবাসীর জন্য এই একটি মাত্র সংযোগ রাস্তা হলেও কোনো কালেই রাস্তাটি বাস্তবায়িত হয়নি। দেখাগেছে, গ্রামবাসীরা নিজেরা কিছু স্থানে মাটি ভরাট করেছিলো কিন্তু সদ্য খনন করা রেকর্ডিয় খালে ভাঙ্গনের কারনে রাস্তার অনেকাংশই নদীগর্ভে বিলীন। এখন সেখানে পারাপারের একমাত্র মাধ্যম নৌকা।

মোঃ হাফিজুর রহমান, শেখ আবু তাহের,ইসমাইল হোসেন,তৈয়েব,মোসলেম মল্লিক,আনিছ মল্লিক,আবু হান্নান সহ আরো ২০/৩০ গ্রামবাসী আক্ষেপ করে বলেন, এই গ্রামে ৩/৪ হাজার লোকের বাস। রাস্তার কারনে আমাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় বাজার করে চলাচল করতে পারিনা। মসজিদ, মাদ্রাসা বিদ্যালয়ে যাতায়েত করতে এবং পানি আনতে গেলে আমাদের একরকম পানিতে সাতার কেটে যাওয়া লাগে। বর্ষাকালে এলাকার ছেলেমেয়েদের স্কুল-কলেজে যাতায়েত এর মাধ্যম নৌকা।

বাইনতলা ইউপি চেয়ারম্যান ফকির আব্দুল্লাহর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই রাস্তাটির ব্যাপারে আমি নিজে অবগত আছি এবং কয়েকবার পরিদর্শনে গিয়েছি। তবে এই রাস্তার জন্য যে ফান্ড প্রয়োজন তা আমার ইউনিয়ন পরিষদের নেই। বিষয়টি আমি খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আঃ খালেক ও বন পরিবেশ উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার মহোদয়কে বিষয়টি জানিয়েছি।

রামপাল উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ গোলজার হোসেন জানান, এই মূহূর্তে আমাদের চলমান কোনো প্রকল্প নেই। যদি প্রকল্প আসে তখন আমরা অগ্রাধিকারভিত্তিতে এই রাস্তাটি করে দিতে পারবো।

এই রাস্তাটি দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য রামপালের সংসদ সদস্য ও গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বন পরিবেশ ও জলবায়ু উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহারের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন এলাকাবাসী।

রামপালে আজ নতুন ৩ করোনারোগী সনাক্ত ঃ সর্বমোট আক্রান্ত ২১

রামপাল (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

রামপালে নতুন আরো ৩ জনের করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তরা হলেন, উপজেলার বড়দিয়া গ্রামের মৃতঃ আজিজ মোল্লার পুত্র এম.এ সবুর রানা (৫০) ও তার স্ত্রী আয়সা বেগম (৩০)। অপর জন উপজেলার গৌরম্বার মোঃ রেজাউল গাজী (৪৫), উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ সুকান্ত কুমার পাল বুধবার (০৮ জুলাই) বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ০৫ জুলাই খুলনা মেডিকেলে ৯ জনের নমুনা পাঠানো হয়েছিলো। তাদের পরীক্ষার রিপোর্টে ৩ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। আক্রান্তরা বর্তমানে হোম আইসোলেশনে আছেন। এ পর্যন্ত সর্বমোট রামপালে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তর সংখ্যা ২১ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছে ৮ জন।

কালিগঞ্জ-জীবননগর আঞ্চলিক মহাসড়কে গাছের লগ ফেলে রাস্তা দখল: ঘটছে দূর্ঘটনা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার কালিগঞ্জ-জীবননগর আঞ্চলিক মহাসড়কের শিশুতলা ফতেপুর বাসষ্টান্ডে রাস্তার দুইপাশে অবৈধভাবে গাছের গুড়ি ও লগ ফেলে রাখা হয়েছে। যে কারনে রাস্তা সরু হয়ে গেছে। এতে প্রতিনিয়তই ঘটছে বিভিন্ন ধরনের ছোট-বড় দুর্ঘটনা। এলাকাবাসী জানায়, ‘স’ মিল মালিক ও কাঠ ব্যবসায়ীদেরকে বার বার বললেও তারা কোন কর্ণপাত করছে না। রাস্তার পাশ থেকে গাছের লগ ও গুড়ি অপসারনে জেলা প্রশাসক ও মহেশপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে ভূক্তভোগিরা। এ ব্যাপারে মহশেপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান শ্বাশতী শীল বলেন, বিষয়টি জানা ছিল না। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে অবগত করে অপসারণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মণিরামপুরে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রসহ তিন জনের করোনা সনাক্ত

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি :

যশোরের মণিরামপুরে নতুন তিনজনের করোনা সনাক্ত হয়েছে। বুধবার (৮ জুলাই) সকালে যশোর সিভিল সার্জন অফিস থেকে এই তথ্য জানানো হয়। আক্রান্তদের মধ্যে শিশু, বিশ্ববিদ্যালয় পেরিয়ে আসা এক যুবক ও এক জুটমিলের ম্যানেজার রয়েছেন। মণিরামপুর উপজেলা স্বস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. অনুপ কুমার বসু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ডা. বসু বলেন, গত সোমবার (৬ জুলাই) মণিরামপুর হাসপাতাল থেকে সাত জনের নমুনা সংগ্রহ করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জিনোম সেন্টারে পাঠানো হয়। আজ (বুধবার) সকালে তাদের মধ্যে উপজেলার খড়িঞ্চি গ্রামের এমএ মুহিত (১২) নামে এক শিশু ও মোবারকপুর গ্রামের শামীম আল মামুন (২৮) নামে দুই জনের ফলাফল পজেটিভ আসে। এছাড়া গত রোববার (৫ জুলাই) আম্রুঝুটা গ্রামের সংকর কুমার (৫০) নামে একজন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নমুনা দেন। তার ফলাফলও পজেটিভ এসেছে। সংকর নওয়াপাড়ার আকিজ জুটমিলের ম্যানেজার।

আক্রান্ত তিনজনই জ্বর, কাশাঁ বা গলাব্যাথা উপসর্গ নিয়ে নমুনা দেন। তবে এখন তারা স্বাভাবিক রয়েছেন। আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউনের জন্য প্রশাসনকে তালিকা পাঠানো হয়েছে , বলেন ডা. বসু।

করোনা পজেটিভ শামীম আল মামুন মোবাইল ফোনে বলেন, তিনি সদ্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাবলিক হেল্থ এ- ইনফরমেশন্স বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নিয়ে গ্রামে ফিরেছেন। ১৫ দিন আগে তার জ্বর, কাঁশি ও গা ব্যাথা শুরু হয়। এরপর তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের পরামর্শে কোয়ারেন্টাইনে থেকে চিকিৎসা নেন। সন্দেহ দূর করার জন্য গত সোমবার তিনি মণিরামপুর হাসপাতালে নমুনা দেন। এখন তিনি স্বাভাবিক আছেন বলে জানিয়েছেন। করোনা পরীক্ষার জন্য আজ (বুধবার) পর্যন্ত মণিরামপুর হাসপাতাল থেকে ৩৩৭ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এছাড়া যশোর সদর হাসপাতালসহ খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এই অঞ্চলের অনেকেই নমুনা দেন। এইপর্যন্ত এই উপজেলায় ৪৩ জনের করোনা সনাক্ত হয়েছে; যাদের ২৫জন ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন।

ঝিনাইদহে করোনা উপসর্গ নিয়ে ইজিবাইক চালকের মৃত্যু

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় করোনা উপসর্গ নিয়ে রতন মুন্সী নামে এক ইজিবাইক চালকের মৃত্যু  হয়েছে। গেল রাতে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তার মৃত্যু হয়। রতন মুন্সী কালীগঞ্জ উপজেলার ফয়লা দাসপাড়া এলাকার ইউসুফ মুন্সীর ছেলে।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডাঃ অরুণ কুমার সাহা জানান, মঙ্গলবার সন্ধায় শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয় রতন মুন্সী। শ্বাসকষ্ট বেশি হওয়ায় তাকে অক্সিজেন দেওয়া হয়। রাত ৮ টার দিকে তার মৃত্যু হয়। গত এক সপ্তাহ ধরে তিনি জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন। মৃত্যুর  পর তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

ঝিনাইদহে মুজিববর্ষ উপলক্ষে বৃক্ষরোপন ও বিতরণ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহ সদর উপজেলা কৃষি অফিসের আয়োজনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্ম শতবার্ষিকী “মুজিব বর্ষ” উদযাপন উপলক্ষ্যে সাধারণ মানুষের মাঝে বিনামূল্যে শতাধিক গাছের চারা বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে একটি আমলকি ও একটি হরিতকি গাছের চারা রোপনের মাধ্যমে শতাধিক বৃক্ষ রোপন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড্যভোকেট মোঃ আব্দুর রশিদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বদরুদ্দোজা শুভ, ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ রাশিদুর রহমান রাসেল, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আরতী দত্ত, উপজেলা কৃষি অফিসার মুহঃ মোফাকখারুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার মোঃ রোকনুজ্জামান ও মুহাম্মদ জুনাইদ হাবীব প্রমুখ।

উপজেলা কৃষি অফিসার মুহঃ মোফাকখারুল ইসলাম জানান, মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে আম, জাম, কাঁঠাল, পেয়ারা, লেবু, আমড়া, জলপাই, আমলকি, হরিতকি, মেহগনি ইত্যাদি জাতের শতাধিক ফলদ, বনজ ও ঔষধী জাতের গাছের চারা বিনা মূল্যে বিতরণ করা হয়েছে। গাছের চারা গ্রহণকারী কৃষকরা যেন সঠিক পদ্ধতিতে চারা রোপন করতে পারে সে বিষয়ে ব্রিফিং দেওয়া হয়েছে। গাছকে প্রকৃতির অমূল্য সম্পদ উল্লেখ করে চারা রোপনের পাশাপাশি বেড়ে ওঠা পর্যন্ত যতœবান হওয়ার জন্য তিনি সকলকে আহবান জানান।

ঝিনাইদহে ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

‘মুজিববর্ষের আহ্বান, তিনটি করে গাছ লাগান’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ঝিনাইদহে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী পালন করেছে ছাত্রলীগ।

বুধবার সকালে সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এ কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু। এসময় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রানা হামিদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরাফাত আব্দুল্লাহ এপি, আল ইমরান, কেসি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক রিপন, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি খায়রুল ইসলাম টিটনসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পরে টিটিসি, পিটিআই, সিদ্দিকীয়া কামিল মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রাঙ্গণে ২ শতাধিক ফলজ, বনজ ও ঔষধিসহ বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষরোপণ করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। আগামী ৩ মাসের মধ্যে জেলার ৬ টি উপজেলায় ২০ হাজার গাছের চারা রোপন করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রানা হামিদ।

পাটকেলঘাটার কুমিরায় সচেতনতামুলক মাস্ক, সাবান, স্যানিটাইজার সামগ্রী বিতরণ

এস.এম মফিদুল ইসলাম, পাটকেলঘাটা

“করোনায় ভয় নয়, সচেতনতায় জয়”- প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে পাটকেলঘাটার কুমিরায় পালিত হলো মাস্ক,সাবান, হ্যান্ড স্যানিটাইজার সামগ্রী বিতরণ। বুধবার সকাল ৯ টায় কুমিরা বাবুর পুকুর মোড়ের মাইকেল সড়কের উপর দিনব্যাপী চলমান বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এ্যাডঃ স্বরাজ চ্যাটার্জীর ব্যক্তি উদ্যোগে অনুষ্ঠিত পূর্ব আলোচনায় প্রধান অতিথি হিসেবে গুরুত্বপুর্ণ বক্তব্য রাখেন কুমিরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ আজিজুল ইসলাম। এ্যাডঃ স্বরাজ চ্যাটার্জীর সঞ্চালনায় এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ৬ নং ওয়ার্র্ডের ইউপি সদস্য আলাউদ্দীন, সাংবাদিক এসএম মফিদুল ইসলাম, কুমিরা পাইলট মাধ্যঃ বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক মিহির কুমার প্রমুখ। অতিথিবৃন্দ তাদের বক্তব্যে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতা সৃষ্টি করে, মাস্ক ব্যবহার ও জনসমাগম এড়িয়ে দুরত্ব বজায় রেখে অবস্হানের আহবান জানান। পরে প্রধান অতিথি জনসাধারণের মাঝে মাস্ক, সাবার বিতরণ উদ্বোধন করে কার্যক্রম চলমান রাখেন।

পাটকেলঘাটায় ট্রাকের ধাক্কায় এক কিশোরের মৃত্যু

পাটকেলঘাটা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি

পাটকেলঘাটায় ট্রাকের ধাক্কায় এক কিশোরের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে পাটকেলঘাটা ওভারব্রীজের উপরে। এঘটনায় ঘাতক ট্রাকটিকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

সূত্রে জানা যায়, সোমবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে পাটকেলঘাটা ওভারব্রীজের উপর খুলনা থেকে আসা সাতক্ষীরা-ট-১১-০১১০ এর ধাক্কায় সাইকেল আরোহী কিশোর বারাত গ্রামের ফোরকান বিশ্বাসের পুত্র শারাফাত বিশ্বাসের (১৬) ঘটনাস্থলে নিহত হয়। এঘটনায় হাইওয়ে পুলিশ ঘাতক ট্রাকটি আটক করেছে।

পাটকেলঘাটায় বিভিন্ন অপরাধে গ্রেফতার-৪

পাটকেলঘাটা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি

পাটকেলঘাটায় বিভিন্ন অপরাধে ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সূত্রে জানা যায়, বুধবার ভোরে পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মামলা নং ০৩(৭)২০২০ এর মামলায় কালিগঞ্জ থানার মৌতলার শেখ নজরুল ইসলামের পুত্র মোস্তাফিজুর রহমান, খবিরুদ্দিনের পুত্র নজরুল ইসলাম(৬০) ও নজরুল ইসলামের স্ত্রী মর্জিনা বেগম (৫০) কে পাটকেলঘাটা থানায় মামলা নং ৩/৪৭।এছাড়া জি আর ১০১/১৭ এর মামলায় ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী থানার খোর্দ্দ মীরপাড়ার মৃত আব্দুল ওয়াদুদের পুত্র মীর শফিকুল ইসলাম কে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

বটিয়াঘাটায় বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা শীর্ষক এক সেমিনার

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধি

 “জেনে বুঝে বিদেশে যাই, অর্থ সম্মান দুটোই পাই” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে বটিয়াঘাটা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বুধবার সকাল ১০টায় স্থানীয় পরিষদ মিলনায়তনে প্রবাসী কল্যান ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রনালয়ের অর্থায়ন ও তত্ত্বাবধানে বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা শীর্ষক এক সেমিনার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আশরাফুল আলম খান, জেলা শ্রম ও কর্মসংস্থান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকীর স্বাগত বক্তৃতা ও যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মোনায়েম খান এর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠিত সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন ভাইস-চেয়ারম্যানদ্বয় নিতাই গাইন ও চঞ্চলা ম-ল, প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ বঙ্কিম চন্দ্র হালদার, অধ্যক্ষ অমিতেষ দাশ, ওসি (তদন্ত) উজ্জ্বল দত্ত। বক্তৃতা করেন কৃষি কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নারায়ন চন্দ্র মন্ডল, সমাজ সেবা কর্মকর্তা অমিত কুমার সমাদ্দার, উপজেলা প্রেসকাবের সভাপতি প্রতাপ ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ হাবিবুর রহমান, পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা সরদার রফিকুল ইসলাম, পিআইও এমদাদ হোসেন, পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা প্রসেনজিৎ প্রনয় মিশ্র, ইউপি চেয়ারম্যান মনোরঞ্জন ম-ল, শেখ হাদিউজ্জামান হাদী, আলহাজ¦ শেখ আশিকুজ্জামান আশিক, প্রধান শিক্ষক তপন কুমার বিশ^াস, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সন্তোষ কুমার মন্ডল, সাংবাদিক মোঃ মনিরুজ্জামান, সাংবাদিক শাহীন বিশ^াস, সাংবাদিক এ্যাডঃ প্রশান্ত বিশ^াস, সাংবাদিক শাওন হাওলাদার প্রমুখ।

উল্লেখ্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনী ইশতেহার ২০১৮ এর ঘোষনা অনুযায়ী আগামী ৫ বছরে ১ কোটি ২৮ লক্ষ কর্মসংস্থান সৃজনের পরিকল্পনা অনুযায়ী দেশের প্রতিটি উপজেলা হতে ১ হাজার জন যুব বা যুব মহিলাকে বিদেশে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করাই মূলতঃ এই সেমিনারের লক্ষ্য।

তালা হাসপাতালের প্রথম করোনায় আক্রান্ত চিকিৎসকের করোনা জয়ঃ লকডাউন তুলে নিলো পুলিশ

ইলিয়াস হোসেন, তালা

তালা হাসপাতালের প্রথম করোনায় আক্রান্ত চিকিৎসক মোঃ রায়হান ইসলাম (৩১) করোনা জয় করে এখন সুস্থ্য। ৮ জুলাই(বুধবার) তার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগিটিভ আসায় তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডাক্তার ফারাহ ফেরদৌস মোঃ রায়হান ইসলাম কে করোনা মুক্ত ঘোষনা করেন। এদিকে খবর পেয়ে তালা থানার এসআই মেহেদী হাসানসহ তার সঙ্গীয় ফোর্স চিকিৎসক রায়হানের বাড়ী যেয়ে তার পরিবারকে লকডাউন মুক্ত করেন।

তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ- সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোঃ রায়হান ইসলাম এ প্রতিবেদক কে বলেন, গত ২১ জুন করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দিয়ে আসার পর ২৫ জুন আমার করোনা রিপোর্ট পজেটিভ  আসে। আক্রন্ত হওয়ার পর কোয়ারেন্টাইনে থেকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা নিয়ে সকলের দোওয়া ও আল্লাহর রহমতে এখন সুস্থ্য আছি।

তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডাক্তার ফারাহ ফেরদৌস এ প্রতিবেদক কে বলেন, তালা হাসপাতালের উপ- সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোঃ রায়হান ইসলাম প্রথম করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর আমরা খুব উদ্বিগ্ন ছিলাম। ৮ জুলাই(বুধবার) তার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগিটিভ আসায় আমরা তালা থানার অফিসার ইনচার্জ কে তার বাড়ীর লকডাউন তুলে নেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছি এবং মোঃ রায়হান ইসলামের শারীরিক অবস্থার খোজ খবর নিয়েছি। বর্তমান তিনি সুস্থ্য আছেন।

কালীগঞ্জে ফসলের সাথে শত্রুতা

ঝিনাইদহ  প্রতিনিধি

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার এক কৃষকের ক্ষেতের পেপে গাছ কাটার ৪ দিন পরেই অন্য আরেক ভ’মিহীন কৃষকের প্রায় ১৫ শতক জমির ধরন্ত করলা গাছ কেটে দিয়েছে দূবৃর্ত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাতে কালীগঞ্জ পৌর এলাকার ফয়লা মাঠে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক আবু সাঈদ ওই গ্রামের তাকের হোসেনের ছেলে। কৃষক আবু সাঈদ জানান, আমার নিজের কোন জমি নেই। গ্রামের লুৎফর রহমানের ৫২ শতক জমির একটি লিচু বাগান দেখাশুনার চুক্তিতে আমি ওই জমিতে বিভিন্ন ধরনের সবজির চাষ করে আসছি। একপাশে আমি প্রায় ১৫ শতকের মত করলার চাষ করেছিলাম। বেশ পয়সা খরচও করেছি। ক্ষেতের করলা বর্তমান দামের বাজারে কয়েক দিন বিক্রি করে কিছু খরচ উঠাতে পেরেছি। কিন্ত আমার সেই ধরন্ত করলার ক্ষেত কেটে দিয়েছে।

ওই জমির মালিক লুৎফর রহমান জানান, ছেলেটির কোন জমি নেই। তাই আমার ওই লিচু বাগানটি দিয়েছি মাঝদিয়ে সবজি চাষ করার জন্য। এ জন্য আমি কোন পয়সা নিই না। আবু সাঈদ রাতদিন খুব পরিশ্রম করে ওই বাগানে বিভিন্ন সবজির চাষ করে সংসার চালায়। কিন্তু তার ধরন্ত করলা গাছগুলো কেটে দিয়েছে শুনলাম।

কালীগঞ্জ থানার ওসি মুহাঃ মাহাফুজুর রহমান মিয়া জানান, এমন ঘটনা নিয়ে থানায় এখনও কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সূবর্ণা রানী সাহা জানান, ঘটনাটির কথা আমি শুনেছি। ওই কৃষককে বলেছি একটি লিখিত অভিযোগ দিতে। এরপর তিনি ব্যবস্থা নিবেন।

উল্লেখ্য, একইভাবে গত শুক্রবার রাতে উপজেলার মল্লিকপুর গ্রামের কৃষক মাজেদুল ইসলামের ধরন্ত ৩ শতাধিক পেপে গাছ কে বা কারা কেটে সাবাড় করে দেয়।