নিরাপরাধ সালাম ঢালী যেন জাহালমের পুনরাবৃত্তি

4
Spread the love

ঢাকা অফিস

খুলনায় নামের অংশ বিশেষ মিল থাকায় নিরাপরাধ সালাম ঢালীকে জেল খাটানোর বিবৃতি দিয়েছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। বিবৃতিতে  ঘটনায় দায়ী ব্যক্তিদের শাস্তি দাবি করেছে সংস্থাটি। এ ঘটনাকে মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন উল্লেখ করে কমিশনের চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম বলেছেন, ইতোপূর্বে ঘটে যাওয়া জাহালম ঘটনার পুনরাবৃত্তি হয়েছে। মঙ্গলবার (৭ জুলাই) কমিশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা  ফারহানা সাঈদের পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জাননো হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়, একের পর এক এ ধরনের ঘটনা ঘটছে, যা কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। সঠিক যাচাই-বাছাই না করে নিরপরাধ ব্যক্তিকে আটক রোধে যথোপযুক্ত কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা আবশ্যক বলে মনে করে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। ওই ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে দায়ীদের শাস্তি নিশ্চিত করা এবং সংশ্লিষ্ট সব দপ্তরের কর্মকর্তা/ কর্মচারীদের সতর্ক করার জন্য সরকারের বরাবর পত্র পাঠানো হচ্ছে।

এতে আরও বলা হয়, আসামির নাম, বাবার নামের এবং ঠিকানার একাংশের মিল থাকায় বিনা অপরাধে জেলে থাকা সালাম ঢালীকে কমিশনের প্যানেল আইনজীবীর মাধ্যমে আইনি সহায়তা দিয়ে মুক্তির ব্যবস্থা করে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। গণমাধ্যমে ‘আসামি না হয়েও জেল খাটছেন খুলনার সালাম ঢালী’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর কমিশন স্বতঃপ্রণোদিত আমলে নিয়ে বাগেরহাটের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তার মুক্তির জন্য আবেদন করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ৬ জুলাই আদালত সালাম ঢালীকে মুক্তির আদেশ দেওয়া হয়েছে বলেও জানানো হয়। খুলনার শফিজ উদ্দিনের ছেলে মো. আব্দুস সালামের পরিবর্তে জেল খাটছেন মফিজ উদ্দিন ঢালীর ছেলে মো. সালাম ঢালী। গত ৩ জুলাই একটি দৈনিকের অনলাইন ভার্সনে ‘নামের মিল, আসল আসামির পরিবর্তে জেল খাটছেন মুদি দোকানি’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এ ঘটনায়  একাধিক ব্যক্তি ও সংগঠনের পক্ষ থেকে হাইকোর্টে রিটও দায়ের করা হয়েছে।