দেশকে সমৃদ্ধশালী করতে কৃষি ও মাছচাষের বিকল্প নেই: সুজিত

1
Spread the love


স্টাফ রিপোর্টার:


মৎস্যখাতের গুরুত্ব দিন দিন আরও বেশি বৃদ্ধি পাবে। আমিষের চাহিদা পূরণ এবং স্বল্পমূল্যে পুষ্টিসমৃদ্ধ খাদ্য যোগাতে বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশের জন্য মৎস্য খাতের কোনো বিকল্প নেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দেশকে অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী করতে হলে মাছ চাষের কোন বিকল্প নেই। মাছ দেশের জাতীয় সম্পদ।

সকলের মাছচাষ করে দেশকে সমৃদ্ধশালী করতে হবে।
শনিবার বেলা ১১টার দিকে খুলনা জেলা আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের আয়োজনে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ ও বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুজিত কুমার অধিকারী এসব কথা বলেন।


সুজিত অধিকারী বলেন, দেশে মাছের উৎপাদন বাড়ছে। কয়েক বছরের মধ্যে দেশ মাছে স্বয়ংসম্পূর্ণ হবে। এছাড়া কৃষি কাজের মাধ্যমে দেশের অর্থনীতির চাকা ঘুরছে। অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ।
মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির আওতায় মৎস্যজীবী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহযোগিতায় খুলনার ডুমুরিয়া ও ফুলতলা উপজেলায় মাছের পোনা অবমুক্তকরণ ও বৃরোপণ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। শনিবার সকালে ডুমুরিয়া উপজেলার মোস্তফার মোড়ে জলাশয়ে বিভিন্ন প্রজাতির মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়। পরে পুকুরপাড় ও মসজিদের আঙিনায় ফলদ, বনজ ও ঔষধি গাছের চারারোপণ করা হয়।


গাছের চারা বিতরণের মধ্যদিয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন জেলা মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি মোল্লা সামছুর রহমান (শাহীন)। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা যুবলীগের প্রচার সম্পাদক মো. জলিল তালুকদার, মৎস্যজীবী লীগের সহসভাপতি কাজী তারিক আহমেদ, বিকাশ চন্দ্র বিশ^াস, মো. তুহিনুল ইসলাম, রাশিদুল হাসান রাজা, বুদ্ধদেব হালদার জুয়েল,

সাধারণ সম্পাদক মো. অহিদুজ্জামান লাবু, অর্থ সম্পাদক শেখ শাকিল হোসেন, শিল্প ও বানিজ্যিক বিষয়ক সম্পাদক মো. তারেক বিশ^াস, শিা ও মানবকল্যাণ সম্পাদক জুলফাত উল্লাহ আগা, মহিলা বিষয় সম্পাদীকা বুলু রাণী ম-ল, সহসম্পাদীকা সঞ্চিতা রায়, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মো. মঈন উদ্দিন মাসুদ রানা, ইউপি আওয়ামী লীগ নেতা শেখ শাহীন, মৎস্যজীবী লীগ নেতা বঙ্কিম অধিকারী, তরিকুল ইসলাম, নিরুপমা গোলদার, রাজু ম-ল, শ্রীদাম বালা, ঝর্ণা রায়, শেখ ফেরদাউস হোসেন প্রমূখ।


কর্মসূচির আওতায় দুইটি উপজেলার ১৮টি ইউনিয়নের প্রতিটি ইউনিয়নে ২০০টি করে গাছের চারা এবং ঘূণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থ ১৫ জন মৎস্য চাষিকে ৩‘শ কেজি মাছের পোনা ও প্রত্যেক চিংড়ি চাষিকে ৩০০০টি করে রেণুরপোনা দেয়া হবে।