মোংলা বন্দরে কে থাকবে, কে থাকবেনা তার ইজারা জনগণ কাউকে দেয়নি: খুলনা বিএনপি

8
Spread the love



খবর বিজ্ঞপ্তি


মোংলা বন্দরের শ্রমিক কল্যাণ ফান্ডের ৬০লাখ টাকা ত্রাণ হিসেবে বন্টনে মংলা বন্দর বাথশীপ অপারেটর সংগঠনের অনিয়মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ সাধারণ শ্রমিকদের দাবি করায় ষড়যন্ত্রমূলকভাবে পৌরসভা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক ও যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জনপ্রিয় শ্রমিকনেতা মাহবুবুর রহমান মানিক ও শ্রমিকনেতা সাহাবুদ্দিনসহ চারজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের, সন্ত্রাসী লেলিয়ে সাহাবুদ্দিনকে মারপিট করে ধরে পুলিশে সোপর্দের পর একটি সাজানো ত্রানচুরির মিথ্যা মামলা আদালতে চালান দেয় এবং শ্রমিকনেতা মাহবুবুর রহমান মানিককে প্রাণনাশের হুমকির ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছে খুলনা মহানগর বিএনপি নেতৃবৃন্দ। বুধবার একবিবৃতিতে এ প্রতিবাদ জানানো হয়।


প্রতিবাদলিপিতে নেতৃবৃন্দ দীর্ঘদিন সরকারি দল কর্তৃক শ্রমিক সংঘ দখল করে প্রকৃত শ্রমিকদের নেতৃত্ব দানকারী মোংলা বন্দর শ্রমিক কল্যাণ সংঘের পে মহামান্য হাইকোর্টের আদেশ থাকার পরও খুলনা বিভাগীয় শ্রম কর্মকর্তা কর্তৃক সরকারি দলের পরে কাছে নতি স্বীকার করে অবৈধ সংগঠনের পে সাফাই গাওয়ায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।


প্রতিবাদ লিপিতে আরো বলা হয়, শ্রমিক কল্যাণ ফান্ডের টাকা বাথশীপ অপারেটর সংগঠনের সদস্যদের মাঝে বন্টন করা বেআইনী। একইসাথে করোনাভাইরাসের কারণে বন্টন করা অর্থ শ্রমিকদের রক্ষিত টাকায় কেনো? বিবতিতে নেতৃবৃন্দ মিডিয়ায় দেয়া খুলনার শীর্ষ নেতাদের বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, মোংলা বন্দরে কে থাকবে কে থাকবেনা তার ইজারা জনগণ কাউকে দেয়নি। হুমকি ও ভয় দিয়ে মিথ্যা মামলা ও হামলা চালিয়ে মংলা বন্দরের পরিবেশ নষ্ট না করার জন্য আহবান জানিয়ে নেতৃবৃন্দ মংলা বন্দর কর্তৃপকে সাহসিকতার সাথে অনিয়ম দুর্নীতি বন্ধের কার্যকরী সিদ্ধান্ত গ্রহনের আহবান জানান।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে শ্রমিক নেতৃবৃন্দের নামে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে পুলিশ প্রশাসন নিরপেভাবে শ্রমিকনেতা সাহাবুদ্দিন ও মানিকের পর্যাপ্ত নিরাপত্তার জোর দাবি জানান। বিবৃতিদাতারা হলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ভাষাসৈনিক এম নুরুল ইসলাম, নগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশারফ হোসেন, জাফরউলাহ খান সাচ্চু, জলিল খান কালাম, সিরাজুল ইসলাম, এড. ফজলে হালিম লিটন, অধ্য তারিকুল ইসলাম, শেখ আমজাদ হোসেন, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, এসএম আরিফুর রহমান মিঠু ও ইকবাল হোসেন খোকন প্রমুখ।