সারা খুলনা অঞ্চলের খবর

17
Spread the love

রূপসায় র‌্যাবের অভিযানে গাঁজাসহ গ্রেফতার ১

স্টাফ রিপোর্টার

খুলনা জেলার রূপসা থানাধীন রামনগর গ্রামে অভিযান চালিয়ে ২৮০গ্রাম গাঁজাসহ এক চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬। সোমবার রাত পৌনে ৯টার দিকে গোপন সংবাদের মাধ্যমে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার মাদক ব্যবসায়ী হলেন খুলনা জেলার রূপসা থানাধীন রামনগর গ্রামের

মো. ইসমাইল হোসেনের ছেলে  মো. আলাল হোসেন (২৯)।

র‌্যাব-৬ জানায়, সোমবার রাত পৌনে ৯টার দিকে খুলনা জেলার রূপসা থানাধীন রামনগর গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল। এসময় ২৮০গ্রাম গাঁজাসহ আলাল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়।তার বিরুদ্ধে  ইতোপূর্বে দুইটি মাদক মামলা রয়েছে। তাকে রূপসা থানায় থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। 

ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা আব্দুর রহমান খাঁ’র মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা

খবর বিজ্ঞপ্তি

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি’র পূর্ণসভ্য ফুলতলা উপজেলা ওয়ার্কার্স পার্টি’র নেতা কমরেড আব্দুর রহমান খাঁ (৭৪) সোমবার রাত সাড়ে ১০টায় দামোদর গ্রামের নিজ বাড়িতে বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যুবরণ করেছেন।

মৃত্যুকালে তিনি ২ স্ত্রী, ৩ ছেলে, ৪ মেয়ে, আত্মীয়-স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় তাঁর নিজ বাড়ির আঙ্গিনায় জানাজা নামাজ সম্পন্ন করে পারিপারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। জানাজায় অংশগ্রহণ করেন ওয়ার্কার্স পার্টি’র জেলা সাধারণ সম্পাদক কমরেড আনসার আলী মোল্লা, জেলা নেতা কমরেড আ. হামিদ মোড়ল, উপজেলা সভাপতি কমরেড সন্দীপন রায়, সাধারণ সম্পাদক কমরেড আরিফুজ্জামান বাবলু, কমরেড আ. লতিফ মহলদার, আ. মজিদ মোল্যা, সিরাজুল ইসলাম, রেজওয়ান আলী খান, প্রভাষক জাহাঙ্গীর আলম, আ. সাত্তার ফরাজী, শেখ রকিব উদ্দিন, মঈন উদ্দিন ময়না, বিলাস চন্দ্র রায়, যুবমৈত্রীর জেলা সভাপতি প্রভাষক রেজোয়ান রাজা, উপজেলা সভাপতি প্রভাষক গৌতম কুমার কু-ুসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন শ্রেণিপেশার অসংখ্য মানুষ।

অপরদিকে কমরেড আব্দুর রহমান খাঁ’র মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে বিবৃতি প্রদান করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পাটি, খুলনা জেলা ও মহানগর কমিটির নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিদাতারা হলেন ওয়ার্কার্স পার্টির খুলনা জেলা সভাপতি কমরেড এড. মিনা মিজানুর রহমান, মহানগর সভাপতি কমরেড শেখ মফিদুল ইসলাম, জেলা সাধারণ সম্পাদক কমরেড আনসার আলী মোল্লা, মহানগর সাধারণ সম্পাদক কমরেড এস এম ফারুখ-উল ইসলাম, জেলা ও মহানগর সম্পাদকম-লীর সদস্য কমরেড দেলোয়ার উদ্দিন দিলু, কমরেড গৌরাঙ্গ প্রসাদ রায়, কমরেড শেখ মিজানুর রহমান, কমরেড মনির আহমেদ, কমরেড খলিলুর রহমান, কমরেড আব্দুস সাত্তার মোল্লা, কমরেড নারায়ণ সাহা, কমরেড আমিরুল ইসলাম, নির্বাহী সদস্য শেখ সাহিদুর রহমান, কমরেড মনিরুজ্জামান, কমরেড সন্দীপন রায়, কমরেড রেজাউল করিম খোকন, কমরেড কৌশিক দে বাপী, কমরেড আঃ হামিদ মোড়ল, কমরেড মোঃ আলাউদ্দিন, কমরেড মনির হোসেন, কমরেড আরিফুর রহমান বিপ্লব, কমরেড আনোয়ার হোসেন, কমরেড এড. কামরুল হোসেন জোয়ার্দ্দার, কমরেড অজয় দে, কমরেড বাবুল আখতার, কমরেড হাফিজুর রহমান, কমরেড গৌরী ম-ল প্রমুখ।

কেশবপুরের কৃতি সন্তান ডাক্তার হাসনাত আনোয়ারের মানবিক সাহায্য প্রদান

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ডাক্তার হাসনাত ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান কেশবপুরের কৃতি সন্তান ডাক্তার হাসনাত আনোয়ারের পক্ষ থেকে অতিদরিদ্রদের মাঝে মানবিক সাহায্য হিসাবে চাউল, ডাউল. আলু ও পেয়াজ প্রদান করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে কেশবপুর শহরের ফাহিম প্লাজায় ডাক্তার হাসনাত ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান কেশবপুরের কৃতি সন্তান ডাক্তার হাসনাত আনোয়ারের পক্ষ থেকে অতিদরিদ্রদের মাঝে মানবিক সাহায্য হিসাবে চাউল, ডাউল. আলু ও পেয়াজ বিতরণ করেন কেশবপুর উপজেলা প্রেসকাবের সভাপতি এস আর সাঈদ।

উল্লেখ্য কেশবপুরের কৃতি সন্তান ডাক্তার হাসনাত আনোয়ার বর্তমানের সিলেট এম.এ.জি. ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে মেডিকেল অফিসার হিসাবে কর্মরত রয়েছেন। সেখান থেকে তিনি করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় কেশবপুর উপজেলা প্রেসকাবের সভাপতি এস আর সাঈদ-এর মাধ্যমে কেশবপুর বাসির জন্য উক্ত মানবিক সাহায্য পাঠিয়েছেন।

তাছাড়া ডাক্তার হাসনাত আনোয়ার করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সারাদেশে চিকিৎসা পরামর্শ দিয়ে আসছেন।

শরণখোলায় বিএনপি নেতার ত্রান বিতরন

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

বাগেরহাট জেলা বিএনপি নেতা কাজী খায়রুজ্জামান শিপনের পক্ষে শরণখোলায় নি¤œ আয়ের লোক ও ছিন্নমুল মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সহায়তা করেছেন স্থানীয় বিএনপি। ৩১ মার্চ (মঙ্গলবার) বিকেল ৫টায় শরণখোলা উপজেলার রায়েন্দা, রাজৈর, কদমতলা ও রাজেশ্বর সহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকার নি¤œ আয়ের প্রায় দু’ শতাধিক পরিবারের প্রত্যেককে ৫ কেজি চাল, ১কেজি ডাল, ২ কেজি আলু, ১টি সাবান ও ১টি করে মাক্স বিতরন করেন। উপজেলা বিএনপি’র আহবায়ক মোঃ ফজলুল হক তালুকদার সাংবাদিকদের বলেন, দেশের চলমান করোনা পরিস্থিতিতে নি¤œ আয়ের মানুষ কর্মহীন হয়ে আজ চরম বিপাকে পড়েছেন। তাই জেলা বিএনপি নেতা কাজী খায়রুজ্জামান শিপনের ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে ভিক্ষুক, দিনমজুর, ভ্যান চালক, প্রতিবন্ধি ও ছিন্নমুল সহ কিছু মানুষকে খাদ্য সহয়তা দেওয়ার উদ্দোগ নেন। তার মতে, দেশের সংকট মুহুর্তে সকলের এগিয়ে আশা উচিত। এ সময় বিএনপি নেতা মোঃ আনোয়ার হোসেন পঞ্চায়েত, ডা.শফিকুল ইসলাম বাবুল, মোল্লা মিজানুর রহমান, যুবদল নেতা নাজমুল আহসান শিমুল গাজী সহ উপজেলা বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপাস্থিত ছিলেন।

চিতলমারীতে ঘরবন্দি দরিদ্র পরিবারের মাঝে শেখ হেলালের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

চিতলমারী প্রতিনিধি

বাগেরহাটের চিতলমারীতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে কর্মক্ষম বেকার হয়ে পড়া ঘরবন্দি দরিদ্র পরিবারের মাঝে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রহী বিতরন শুরু করেছেন বাগেরহাট ১ আসনের সংসদ সদস্য বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুষ পুত্র শেখ হেলাল উদ্দিন। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার বড়বাড়িয়া, কলাতলাসহ ৭টি ইউনিয়নের ঘরবন্দি বেকার পরিবারের মাঝে বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে এনিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেন। ৩২শত গৃহবন্দি কর্মক্ষম মানুষের মাঝে ১০ কেজি চাল, এককেজি ডাল, তেল, এককেজি লবন ও দুই কেজি করে আলু করে দেয়া হয়।

এসব খাদ্য সামগ্রী বিতরনের সময় উপস্থিত ছিলেনচিতলমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অশোক কুমার বড়াল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মারুফুল আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ বাবুল হোসেন খান, সাধারণ সম্পাদক পীযূষ কান্তি রায়, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শেখ মাহাতাবুজ্জামান, সদর ইউপি চেয়াম্যান শেখ নিজাম উদ্দীন,বড়বাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ সরদার,কলাতলা ইউনিয়ন আ’লীগ সাধারন সম্পাদক মো: মেশকাত, আ’লীগ নেতা সেলিম রেজা, উপজেলা প্রেসকাবের সাধারন সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সাফা,ছাত্র লীগ সাধারন সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম রিয়াদ মুন্সি ।

মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পিপিই দিলেন সাংবাদিক নূর আলম

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্য কর্মীদের ব্যবহারের জন্য পারসোনাল প্রোটেকশন ইকুইপমেন্ট (পিপিই) প্রদাণ করেছেন সাংবাদিক মোঃ নূর আলম শেখ। মঙ্গলবার দুপুর একটায় পিপিইগুলো দৈনিক পূর্বাঞ্চল’র মোংলাস্থ নিজস্ব সংবাদদাতা ও সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ নূর আলম শেখ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জীবিতেষ বিশ্বাসের কাছে হস্তান্তর করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ডাঃ মলয় মল্লিক, স্বাস্থ্যকর্মী বাবুল হোসেন ও মোঃ জাহিদ হোসেন প্রমূখ।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জীবিতেষ বিশ্বাস পিপিই বিতরণ করায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, সরকার এবং  জনগণের সমন্বিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে। সাংবাদিক মোঃ নূর আলম শেখ এর আগে চিকিৎসক ছাড়াও সাংবাদিক, ইমাম, মৃতদের দাফনের সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের মধ্যেও করোনাভাইরাস মোকাবেলা করার ড্রেস পিপিই বিতরণ করেছেন।

মণিরামপুরে দুই ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি

যশোরের মণিরামপুরে পৃথক স্থান থেকে দুইটি ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) দুপুরে পুলিশ লাশ দুইটি উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। পৃথক ঘটনায় মণিরামপুর থানায় দুইটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। নিতহ দুই ব্যক্তি হলেন, উপজেলার পাঁচাকড়ি গ্রামের বিকাশ বিশ^াসের ছেলে দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র রাজু বিশ^াস এবং আটঘরা গ্রামের মিজানুর রহমানের স্ত্রী দুই সন্তানের জননী রাবেয়া খাতুন।

নেহালপুর ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুস সাদাত বলেন, তিনদিন আগে রাজুর সাথে তার মায়ের বকাবকি হয়। তখন ছেলের ওপর রাগ করে বাবার বাড়িতে চলে যান তিন। পরে আর তিনি না ফেরায় সোমবার রাতে অভিমান করে নিজ ঘরের আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে রাজু।

মণিরামপুর থানার ডিউটি অফিসার এসআই শাহিনুর ইসলাম জানান, মঙ্গলবার সকালে রাজুর লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এদিকে টাকা পয়সার লেনদেন নিয়ে স্বামীর সাথে অভিমান করে মঙ্গলবার সকালে আটঘরা গ্রামে নিজ ঘরের আড়ার সাথে শাড়ি পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন রাবেয়া বেগম নামে দুই সন্তানের জননী। খবর পেয়ে দুপুরে তার লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান রাজগঞ্জ তদন্ত কেন্দ্রের ইন্সপেক্টর তারিকুল ইসলাম।

মোড়েলগঞ্জে বৃদ্ধার মৎস্য ঘের বসতবাড়ির জমি দখলে মরিয়া একটি মহল

মোড়েলগঞ্জ প্রতিনিধি:

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে খাউলিয়া গ্রামের মাষ্টার পাড়া এলাকার বৃদ্ধা ছায়েদা খাতুন(৬০) এর একটি মৎস্য ঘের  ও ৫২ শতকের বসতবাড়ি দখলে মরিয়া একটি মহল। একের পর এক মারপিট হামলা করছেন তারা। ক্ষতিগ্রস্ত সাহেরা খাতুনের পরিবার একাধিক দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেননা। ন্যায় বিচারের জন্য ঘুরছেন দ্বারে দ্বারে।

প্রাপ্ত অভিযোগে জানাগেছে, খাউলিয়া ইউনিয়নের মাষ্টার পাড়া গ্রামের জালাল খানের স্ত্রী ছায়েদা খাতুনের কবলাকৃত ১১৮নং চালিতাবুনিয়া মৌজায় ৫২ শতক জমি জোর পূর্বক দখল করে নিয়েছেন একই গ্রামের মৃত. শওকত তালুকদারের পুত্র মোতালেব তালুকদার, জামাল হাওলাদারসহ একটি চক্র। সেখানে ছায়েদার তৈরিকৃত বসতঘর ও ঘোয়াল ঘর রাতারাতি দখল করে এখন সেই ঘরে বসবাস করছেন মোতালেব ও তার লোকজন। স্বামী জালাল খান ও স্ত্রী ছায়েদা ঢাকায় ছেলের কাছে বেড়াতে গেলে এ জমি দখলে নেয় তারা। বাড়িতে এসে প্রতিবাদ করলে বৃদ্ধা ছায়েদাকে মারপিট গুরুত্বর জখম করে। পরবর্তীতে ওই বাড়ির সিমানার মেহগনী, চাম্বল ও সিরিজ গাছ জোরপূর্বক কেটে নিয়ে যায় মোতালেব। এ ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন বৃদ্ধা ছায়েদা। সম্প্রতি একই এলাকায় যৌথ মৎস্য ঘের একটি অংশ জোরপূর্বক দখল করে। ঘের থেকে মাছ ধরে নিয়ে যায় এ মহলটি। এ ঘটনায়ও তিনি থানায় পৃথক একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ভূক্তভোগী পরিবারটি এখন আতংকে রয়েছেন।

দাকোপে মহিলা এমপির খাদ্য সামগ্রী বিতরন

দাকোপ (খুলনা) প্রতিনিধি

খুলনার দাকোপে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় সংরক্ষিত ৩০ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডঃ গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার গতকাল মঙ্গলবার উপজেলা সদর চালনা ও বাজুয়া ইউনিয়নে বিভিন্ন এলাকায় অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেছেন। তিনি হতদরিদ্র, দিনমজুর, ভ্যান চালক, চায়ের দোকাদার, সেলুন ব্যবসায়ীদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী হিসেবে চাউল, ডাউল, আলু, তৈল, লবণ ও সাবান বিতরণ করেন। এসময়ে তার সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুনসুর আলী খান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল ওয়াদুদ, উপজেলা আ‘লীগ সভাপতি আবুল হোসেন, থানা অফিসার ইনচার্জ সফিকুল ইসলাম চৌধুরী, চালনা পৌর মেয়র সনত কুমার বিশ^াস, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শেখ আব্দুল কাদের, বাজুয়া ইউপি সদস্য উৎপলসহ আরো অনেকে।

মোড়েলগঞ্জে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে বাড়িতে হাজির ইউএনও

মোড়েলগঞ্জ প্রতিনিধি

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে করোনা ভাইরাসে নিজ গৃহে অবস্থানকারি ঘরমুখী দিনমজুর শ্রমজীবি প্রতিবন্ধী, ভূমিহীন পরিবারের বাড়িতে বাড়িতে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে হাজির হচ্ছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামরুজ্জামান। মঙ্গলবার সকাল ১১টায় সদর ইউনিয়নের বাদুরতলা, পশ্চিম বিশারীঘাটা গ্রামের দিনমজুর হাসিনা বেগম(৫২), প্রতিবন্ধী সিদ্দিক শেখ(৪৮), বিশারীঘাটা গ্রামের বিবি ফাতেমা (৫৫), পশ্চিম বিশারীঘাটা দিনমজুর এমমাদুল হক(৭০)সহ একাধিক বাসিন্দাদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে সরকারের দেওয়া খাদ্য সামগ্রী নিয়ে তাদের হাতে তুলে দেন ইউএনও। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদ আলী, তার সাথে উপস্থিত ছিলেন। একই দিনে উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক মোজাম প্রতিটি পরিবারের সদস্যদের মাঝে মাক্স বিতরণ করেন।

এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, ইতোমধ্যে মোড়েলগঞ্জ উপজেলায় ১৬টি ইউনিয়নে ৭শ’ পরিবার সরকারিভাবে বরাদ্ধকৃত ১৪ মেট্রিকটন চাল পর্যাক্রমে বিতরণের কার্যক্রম চলছে। এ সব খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে প্যাকেজ আকারে রাখা হয়েছে চাল, ডাল ও তেল।  এছাড়াও সরকারের সামাজিক উন্নয়ন প্রকল্পের চলমান প্রক্রিয়ায় ১৬ ইউনিয়নের ৩ হাজার ৩শ ১৬ হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে দেওয়া হয়েছে ৩০ কেজি করে ৯৯.৪৮০ মেট্রিকটন ভিজিডি চাল, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় ১০ টাকা দরে ৩০ কেজি করে চাল বিতরণ কার্যক্রমের আওতায় ২৬ হাজার ৪শ’ ৫৪ পরিবার ৭শ’ ৯৩.৬২০ মেট্রিকটন, ইতোমধ্যে নতুন করে বরাদ্ধ এসেছে জেলে পেশায় মানুষের জন্য ঝাটকা আহরন থেকে বিরত থাকা ২৬শ’ জেলে পরিবার মার্চ ও এপ্রিল দু’ মাসে ৮০ কেজি করে ২শ’ ৯.১২০ মেট্রিকটন চাল শ্রিঘই বিতরণ কার্যক্রম শুরু হবে। সোমবার থেকে তিনি এ করোনা ভাইরাসে সহায়তা খাদ্য সামগ্রী বিতরণ শুরু করেছেন বলে জানান।

বটিয়াঘাটায় নি¤œ আয়ের মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, বটিয়াঘাটা

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় বটিয়াঘাটায়ও সারা দেশের ন্যায় লকডাউন চলাকালিন সময়ে কর্ম সংকটে থাকা নি¤œ আয়ের মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন উপজেলা প্রশাসন। বটিয়াঘাটা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ এমদাদুল হক এ প্রতিবেদককে জানান, উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে মোট ২৫ মেঃ টন চাউল বরাদ্দ এসেছে। যা বিতরণে স্ব স্ব ইউনিয়ন পরিষদকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে তালিকা প্রস্তুত করার জন্য। এ উপজেলায় আসা ২৫ মেঃ টন চাউল মোট ২৫শ লোকের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম সুরখালী, ভান্ডারকোট, বালিয়াডাঙ্গা, আমিরপুর ইউনিয়নে ১০ কেজি চাল, ডাল, আলু, তেল, বিস্কুট, সাবান সহ বিভিন ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছেন। উল্লেখ্য ১০ কেজি চাল বাদে বাকি অন্যান্য ত্রাণ সামগ্রী স্ব স্ব ইউনিয়ন পরিষদকে কিনে পরবর্তী মূল্য নির্ধারণ করা হবে বলে জানিয়েছে প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস। অপর দিকে আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে জনপ্রতিনিধিরা দলীয়করণ, আত্মীয়করণ ও দুর্নীতির আশ্রয় গ্রহণ করার দাবী উঠেছে। এতে করে প্রকৃত কর্ম সংকটে থাকা নি¤œ আয়ের মানুষেরা বাদ পড়েছে। অন্য দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ নজরুল ইসলাম ও থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ রবিউল কবির এর নেতৃত্বে থানা পুলিশের সকল এসআই, এএসআই ও পুলিশ সদস্য মিলে বিদেশ ফেরতদের তালিকা করে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার জন্য অনুরোধ করে বাড়ীতে একটি করে কার্ড ঝুলিয়ে দিয়েছে। পাশাপাশি অসাধু ব্যবসায়ীরা যাতে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদীর মূল্য বেশি নিতে না পারে, সে জন্য ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে জরিমানা আদায় অব্যাহত রয়েছে। এ ব্যাপারে সেনাবাহিনীর সদস্যরা সার্বিক সহযোগিতা করছে। নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম জানান এ ক্ষেত্রে কেউ যদি দুর্নীতি করে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি আরও জানান, আরও ত্রাণ আসার সম্ভাবনা রয়েছে, সেগুলো আসলে বাকিদেরও তালিকা প্রস্তুত করে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হবে। এছাড়া জলমা ইউনিয়নের ভূমি ব্যবসায়ী সহ বিত্ত্ববানদের এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছে।

ভাইস চেয়ারম্যান তুহিনের শশুর গুরুতর অসুস্থ : সুস্থতায় দোয়া কামনা

ফুলবাড়ীগেট(খুলনা)প্রতিনিধি

 ফুলতলা উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান এম জিয়া হাসান তুহিনের শশুর ও আটরা মাধ্যমিক বিদ্যালয় বাইতুর রহমান জামে মসজিদের সেক্রেটারী আলহাজ্ব শেখ সিরাজুর রহমান(৭০) গুরুতর অসুস্থ হয়ে নিজ বাস ভবনে চিকিৎসাধীন আছেন। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে তিনি দির্ঘ্যদিন ধরে ডায়াবেটিস সহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে গুরুতর অসুস্থ। তার পরিবারের পক্ষ থেকে সকলের নিকট দোয়া চেয়েছেন। শেখ সিরাজুর রহমানের আশু সুস্থতা কামনা করেছেন আটরা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও বাইতুর রহমান জামে মসজিদের সভাপতি বেগ আব্দুর রাজ্জাক রাজ, সৈয়দ কিসমত আলী, সরদার আলী আহম্মদ, অধ্যাপক ওয়াহিদুজ্জামান, সাংবাদিক গাজী মাকুল উদ্দীন,আটরা শ্রীনাথ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক মোঃ মহসিন বিশ্বাসসহ বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক ,শিক্ষিকা ও শিক্ষার্থীবৃন্দ। 

৯ নং ওয়ার্ডে বাবুল রানার মানবিক সাহায্য প্রদান

খবর বিজ্ঞপ্তি

কর্মহীন অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী, মাস্ক, সেনিটাইজার সহ মানবিক সাহায্য প্রদান করেছেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা। গতকাল মঙ্গলবার ৯নং ওয়ার্ডে বাস্তুহারায় কৃষক লীগ নেত্রী হালিমার পক্ষে এ মানবিক সাহায্য প্রদান করা হয়। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. খসরুল আলম, সাধারণ সম্পাদক মো. হায়দার আলী, ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাহফুজুর রহমান লিটন, ফয়েজ আহমেদ, কাউন্সিলর মনিরুজ্জামান, মাসুদুর রহমান, আইয়ুব আলী সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। পরে তিনি ২১ নং ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করেন। বিকালে ২৯ নং ওয়ার্ডে পরিস্কার কর্মসূচি ও সেনিটাইজার বিতরণ করেন। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা কাউন্সিলর ফকির মো. সাইফুল ইসলাম, আব্দুল হাই পলাশ, এমরানুল হক বাবু, এ্যাড. শামীম মোশাররফ, সেলিম মুন্সি, আব্দুল কাদের, কাজী নজরুল ইসলাম, কে এম চঞ্চল, ইলিয়াছ হোসেন লাবু সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

শেখ সোহেলে পক্ষে ২৬নং ওয়ার্ডে মানবিক সাহায্য প্রদান

খবর বিজ্ঞপ্তি

বিসিবি’র পরিচালক শেখ সোহেলে পক্ষে মানবিক সাহায্য কর্মহীন মানুষের মাঝে প্রদান করেছেন ২৬ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি মো. শওকাত হোসেন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টায় আমতলায় মানবিক এ সাহায্য প্রদান করা হয়। এসময়ে উপস্থিত খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, মহানগর যুবলীগের আহবায়ক মো. সফিকুর রহমান পলাশ, আওয়ামী লীগ নেতা শেখ আব্দুল আজিজ, রবিউল ইসলাম বাবু, মো.  সরফরাজ, কামরুল ইসলাম পল্টু, মাহমুদুর রহমান রাজেস, আসাদুজ্জামান বাবু, মো. শামীম আহমেদ, মো. সেলিম, মাসুম হাবিলদার, আরাফাত হোসেন শুভ সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

তালায় ৩০০ পরিবারকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা উপকরণ বিতরণ

তালা প্রতিনিধি

তালায় জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির পক্ষ থেকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা উপকরণ বিতরণ কার্যক্রম করা হয়েছে। সাতক্ষীরা জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির উদ্যোগে মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) তালা উপজেলার আটারই, খানপুর ও খলিলনগর এলাকার দলিত ও নিম্ন আয়ের ৩০০ পরিবারকে  সাবান, ব্লিচিং, মাস্ক, বেবী ফুডস বিতরণ করা হয়।  তালা শহীদ মুক্তিযোদ্ধা মহাবিদ্যালয় ও জাতপুর সমকাল মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠ চত্বরে উক্ত বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসনের সংসদ সদস্য এড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফাহিমুল হক কিসলু, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য উপাধ্যক্ষ মহিবুল্লাহ মোড়ল, তালা উপজেলার ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি অধ্যাপক সরদার রফিকুল ইসলাম, তালা সদর ইউপি চেয়ারম্যান সরদার জাকির হোসেন, তালা প্রেসকাবের সভাপতি ও খলিলনগর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান প্রভাষক প্রণব ঘোষ বাবলু, ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা মফিজুল হক জাহাঙ্গীর. মনোজিৎ ঘোষ প্রমুখ।

তালায় ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় পিতা-পুত্রের ওপর হামলা

তালা প্রতিনিধি

তালায় ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় মারধরের শিকার হয়েছেন এক বৃদ্ধসহ তার পুত্র। মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকালে উপজেলার খলিলনগর ইউনিয়নের উত্তর নলতা গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে। আহত হয়েছে উত্তর নলতা গ্রামের বৃদ্ধ সিরাজ মোড়ল (৭৫) ও তার ছেলে সাত্তার মোড়ল (৩৮)। বর্তমানে বৃদ্ধ সিরাজ মোড়ল তালা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স চিকিৎসাধীন আছে। এ ঘটনায় তালা থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

অভিযোগে জানাযায়, উত্তর নলতা গ্রামে সামছুর রহমান মোড়লের ছেলে সুমন মোড়ল (২২) দীর্ঘদিন ধরে সাত্তার মোড়লের ৮ম  শ্রেণীর স্কুল পড়–য়া মেয়ে (১৪) স্কুলে যাওয়া আসার পথে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। এ ঘটনায় ২০১৯ সালের ১৩ অক্টোবর  তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে মেয়ে নিজে বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ করেছিল। পরে খলিলনগর ক্যাম্পে ২০১৯ সালের ১৬ নভেম্বর দু’পক্ষকে ক্যাম্প ইনচার্জ ডেকে এক আপোষনামার মাধ্যমে নিস্পত্তি করে দেয়। আপোষনামায় সুমন মোড়ল আর এ ধরণের কাজ করবে না বলে অঙ্গীকার করে। সম্প্রতি আবরো সুমন মোড়ল বিভিন্নভাবে ঐ মেয়েটিকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। মঙ্গলবার সকালে মেয়ের বাড়ির সামনে মেয়ে উত্ত্যক্ত করার সময় মেয়ের দাদা সিরাজ মোড়ল এসে বাঁধা দেয়। পরে সুমন গংরা মেয়ের বাড়িতে এসে হামলা চালায়। এ সময় বৃদ্ধ সিরাজ মোড়ল ও তার ছেলেকে পিটিয়ে  জখম করে তারা। পরে স্থানীয়রা এসে তাদেরকে উদ্ধার করে তালা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।  বর্তমানে বৃদ্ধ সিরাজ মোড়ল তালা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স চিকিৎসাধীন রয়েছে।

তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল জানান, ওখানে একটি মারামারির ঘটনা তিনি শুনেছেন। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

করোনা প্রতিরোধে: ফকিরহাটে হাঙ্গার প্রজেক্টের উদ্যোগে উপকরন বিতরন

ফকিরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের ফকিরহাটে বেসরকারী সামাজিক উন্নয়ন সংস্থা দি হাঙ্গার প্রজেক্টের উদ্যোগে নোভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সবাই মিলে সফত করি করোনা মুক্ত গ্রামগড়ি এই শ্লোগানকে সামনে নিয়ে উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে গ্রাম উন্নয়ন ট্রিমের সদস্য নারী নেত্রী ইউএথ লিডার ও উজ্জিপকবৃন্দদের মাধ্যমে লিফলেট হ্যান্ডওয়াশ মাক্স ও সাবান বিতরন করা হয়েছে। প্রতিনিয়ত স্বেচ্ছব্রতীরা গ্রামের সাধারন মানুষের পরিস্কার পরিছন্নতার বিষয়ে খবর নিচ্ছেন। তারা উপজেলার বেতাগা লখপুর পিলজংগ শুভদিয়া বাহিরদিয়া ও ফকিরহাট সদর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের একার্যক্রম পরিচালনা করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন সমন্বয়কারী সাধন কুমার দাশ, মনিরা বেগম, রোজিনা খাতুন সহ বিভিন্ন গ্রাম উন্নয়ন ট্রিমের সদস্য নারী নেত্রী ইউএথ লিডার উজ্জিপকবৃন্দ।

জলমা ইউনিয়নে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতির উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টার

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে লকডাউন থাকায় ১নং জলমা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে ২০০ অসহায় পরিবারের মাঝে খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এস এম তানজির রহমান উষানের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন

লবণচরা থানার অফিসার ইনচার্জ  মো. আবুল খায়ের।

ছাত্রনেতা উষান ১নং জলমা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড এলাকায়  অসহায় শ্রমজীবী মানুষের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে খাদ্যদ্রব্য বিতরণ  করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জিরোপয়েন্ট ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক অভিজিৎ রায় অভি, ১নং জলমা ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক এস এম তানভীর রহমান অপু, ডুমুরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মো. শাওন শেখ, ৬নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দীক প্রমুখ।

ফকিরহাটে ট্রাক চাপায় তিন যুবক এখন খুমেকে

ফকিরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের ফকিরহাটে ট্রাক চালকের খামখেয়ালীপনার কারনে মটরসাইকেল চালক সহ দুই আরোহী এখন মুত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে খুমেক হাসপাতালে। গ্যারেজে থাকা ট্রাক নিয়ে তার চালক ইচ্ছামত রাস্তা কিয়ার না দেখে সড়কে উঠে পড়ায় মটরসাইকেল আরোহী তিন যুবককে চাপা দিলে এঅবস্থার সৃষ্টি হয়। মঙ্গলবার সকালে খুলনা বাগেরহাট মহাসড়কের টাউন নওয়াপাড়া জমিদার বাড়ির সামনে এর্দুঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানান, জমিদার বাড়ির সামনে একটি গ্যারেজে থাকা ট্রাক (ঢাকা-ট ১৮-০৪৫৫) কোন হেলফারের সংকেত ছাড়াই হঠাৎ রাস্তায় উঠে পড়ে। এসময় খুলনা হতে বাগেরহাটগামী একটি মটরসাইকেলে খুলনার খালিশপুরের আলমনগর এলাকার মাহাম্মুদ হাসান সহ তার দুই সহযোগী যাচ্চিল। সে সময় ট্রাকের চালক গাড়ী নিয়ে হঠাৎ রাস্তায় উঠে তাদের তিনজনকে চাপা দেয়। এসময় তারা তিনজন গুরুত্বর আহত হয়ে রাস্তায় পড়ে থাকেন। পরে উপস্থিত প্রত্যাক্ষদর্শীরা ও কাটাখালী হাইওয়ে থানা পুলিশ তাদের উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। তারা সেখানে মুত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। পুলিশ ট্রাকটি আটক করলেও চালক পালিয়ে গেছে।

খুলনার ২৪ নং ওয়ার্ডের দুঃস্থদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

খবর বিজ্ঞপ্তি

করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাবে বিপর্যস্ত দুঃস্থ ও অসহায় মানুষদের সহযোগীতায় এগিয়ে এসেছেন নগরীর বিশিষ্ট সমাজসেবক ও দুদকের পিপি এ্যাডভোকেট শেখ সেলিম আল আজাদ। মঙ্গলবার নগরীর ২৪ নং ওয়ার্ডের হতদরিদ্র মানুষের মাঝে নিজ উদ্যোগে তিনি ত্রাণ বিতরণ করেন। ৫ শতাধিক পরিবারকে চাল,ডাল,আলু,সাবান ও অন্যান্য সামগ্রী প্রদান করেন তিনি।

মঙ্গলবার বিকেলে নগরীর নিরালা মোড়ে এ ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন খুলনা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাডভোকেট মোঃ সাইফুল ইসলাম। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দুদকের পিপি এ্যাডভোকেট খন্দকার মুজিবর রহমান,শেখ খোকন,মনির হোসেন,উজ্জল,আজিম,সোহাগ,ফরহাদ সুমন প্রমূখ। অনুষ্ঠানে এ্যাড.সাইফুল ইসলাম জাতীর এ ক্রান্তিলগ্নে অসহায় মেহনতি মানুষদের সহযোগীতায় এগিয়ে আসার জন্য আয়োজকদের সাধুবাদ জানান। তিনি এ মূহুর্তে হত দরিদ্র মানুষের পাশে এসে দাড়ানোর জন্য সমাজের বিত্তবানদের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।

এ ত্রাণ কার্যক্রমের আয়োজক এ্যাডভোকেট শেখ সেলিম আল আজাদ জানান,২৪ নং ওয়ার্ডের প্রতিটি বস্তিতে ঘরে ঘরে যেয়ে আমরা ত্রাণ সামগ্রী পৌছে দিবো। এ মূহূর্তে ৫ শতাধিক পরিবারকে এ ত্রাণ সামগ্রী দেওয়া হবে। তবে সাধ্য অনুসারে এ কার্যক্রম অব্যহত থাকবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। ইতোপূর্বে তিনি ওই ওয়ার্ডের সকল মসজিদে মুসল্লিদের করোনা প্রতিরোধের জন্য সাবান বিতরণ করেছেন।

শরণখোলায় বখাটে হামলায় যুবলীগ নেতা আহত

মাসুম হাওলাদার, বাগেরহাট

শরণখোলার উপজেলায় এক যুবলীগ নেতা গুরুতর আহত হয়ে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছেন। ২৯,মার্চ (রবিবার) সকালে উপজেলার উত্তর আমড়াগাছিয়া গ্রামে এ  ঘটনা ঘটে। আহতের পরিবার জানায়, শরণখোলার উপজেলা উত্তর আমড়াগাছিয়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত: মজিদ খানের ছেলে ও খোন্তাকাটা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি আঃ রাজ্জাক খান (৫০), করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে  এ মুহুর্তে ভারত থেকে দেশে লোক আনতে নিষেধ করলে একই গ্রামের বাসিন্দা মামুন হাওলাদার (৩০), ইলিয়াছ  হাওলাদার (৩৯), লোকমান মৃধা (৪৮), সোহরাপ তালুকদার (৫৫), হাফিজা বেগম (২৫) ও তাদের সহযোগি সোহাগ মৃধা (২৭), ফারুক সেপাই (৫০), সহ ১২/১৫জন বখাটে একজোট হয়ে রাজ্জাকের উপর হামলা চালায় । ওই সময় তার ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে বখাটেরা পালিয়ে যায়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় রাজ্জাককে উদ্ধার করে শরণখোলা স্বাস্থ্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন তার স্বজনেরা । এ ঘটনায় আহতের ভাই শাহবাজ খান বাদি হয়ে ১২ জনের বিরুদ্বে শরণখোলা থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাজ্জাক বলেন ,  হামলাকারীরা  ভারতে লোক পাচারকারী।  করোনা ভাইরাসের কারনে দেশে লোক আনতে নিষেধ করায় তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমার উপর হামলা করেছেন। তবে, অভিযুক্তদের মধ্যে স্থানীয় বাসিন্দা  মোঃ মামুন অর-রশিদ হাওলাদার বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে দেশের সকল  স্থানে সব ধরনের জমায়েত সরকারি ভাবে নিষেধ থাকলে ও তা উপেক্ষা করে ওই যুবলীগ নেতা ক্ষমতার অপ-ব্যাবহার করে এলাকায় শালিস বৈঠক করায় স্থানীয়দের সাথে রাজ্জাকের সামান্য হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। এখন অহেতুক গ্রাম বাসীদের ফাঁসাতে গুজব রটাচ্ছেন রাজ্জাক । তবে,কোন প্রকার যাচাই-বাচাই ছাড়াই মামলা রেকর্ডের বিষয়টি পুলিশের পেশাদার আচারনের পরিপহ্নী বলে তিনি মন্তব্য করেন ওই কর্মকর্তা ।শরণখোলা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস.কে আব্দুল্লাহ আল-সাঈদ জানান, আহতের ভাইয়ের অভিযোগটি  মামলা হিসাবে রেকর্ড করা হয়েছে। এখন অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তবে, নিরপরাধ কোন ব্যাক্তি যাতে হয়রানি শিকার না হন সে দিকে নজর রাখা হবে।

ডুমুরিয়ায় ঘরে থাকা নি¤œ আয়ের মানুষদের মাঝে জেলা প্রশাসনের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

তথ্য বিবরনী

খুলনায় করোনাভাইরাস সংক্রমণরোধে ঘরে থাকা নি¤œ আয়ের মানুষদের মাঝে খুলনা জেলা প্রশাসন খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ‘মানবিক সহায়তা কর্মসূচির’ আওতায় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন সোমবার রাতে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার হতদরিদ্র, অসহায়, শ্রমিক, দিনমজুর, ভ্যান চালক ও কর্মসংকটে থাকা পরিবারগুলোতে ঘরে ঘরে যেয়ে চাল, ডাল, তেল, আলু, সাবানসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। করোনাভাইরাস সংক্রমণরোধে জনসমাগম এড়াতে খুলনা জেলা প্রশাসন এ ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ গ্রহণ করে। ডুমুরিয়া উপজেলায় তিন হাজার দরিদ্র মানুষের মাঝে  নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হবে।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জিয়াউর রহমান, ডুমুরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এজাজ আহমেদ এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ শাহনাজ বেগম উপস্থিত ছিলেন।

খুলনায় কর্মহীনদের মাঝে আ’লীগের সা.সম্পাদকের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

খবর বিজ্ঞপ্তি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক করোনার প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন মানুষদের মাঝে খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুজিত অধিকারী নিজস্ব অর্থায়নে বিভিন্ন এলাকায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) বটিয়াঘাটার ও ডুমুরিয়ার বিভিন্ন এলাকায় প্রায় ৫০০ কর্মহীন দুঃস্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন। খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে ছিল, পাঁচ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, দুই কেজি আলু, একটি সাবান ও একটি মাস্ক। দুপুরে তিনি বটিয়াঘাটার গঙ্গারামপুর ইউনিয়ন, সুরখালি ইউনিয়ন ও বালিয়াডাঙ্গা, ভান্ডারকোট এলাকায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন। এসময়ে তার সাথে উপস্থিত ছিলেন বটিয়াঘাটা উপজেলার চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আশরাফুল আলম খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দীলিপ কুমার হালদার, দৈনিক প্রবর্তনের সম্পাদক মোঃ মোস্তফা সরোয়ার, অধ্যাপক শ্যামল দাশ, মোঃ রকিব উদ্দীন, শেখ মোহাম্মদ রকিবুল ইসলাম লাবু, যুবলীগ নেতা ওয়াজিদ বিশ্বাস, শেখ রেজাউল করীম রেজা, জিল্লু মুন্সী, তাপস বিশ্বাস, জেলা যুবগীল নেতা কামাল বাশার, মনির হোসেনসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

এর আগে সকালে তিনি ডুমুরিয়ার কৈয়া বাজার এলাকায় দুঃস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন। এরপর ডুমুরিয়া সদরের ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবীর বুলুকে সাথে নিয়ে ওই এলাকার বিভিন্ন বস্তিতে ঘরে ঘরে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন। সেখান থেকে ডুমুরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে যান। সেখানে কিছুক্ষণ অবস্থান করার পরে চুকনগরে যান। চুকনগরে গিয়ে আটলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রতাপ রায়কে সাথে নিয়ে বাজার এলাকায় ভ্যান চালক ও দিন মুজুরদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন। এসময়ে তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক অশোকসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। এরপর কাঠালতলা বাজার এলাকায় ডুমুরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুককে সাথে নিয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। ডুমুরিয়ার সব এলাকায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কালে তার সথে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক প্রবর্তনের সম্পাদক মোঃ মোস্তফা সরোয়ার। সরকারের নির্দশনা মোতাবেক নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে শৃঙ্খলার সকলের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এছাড়াও খুলনার বাকি সাতটি উপজেলায়ও কর্মহীদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হবে।

বাড়ি গিয়েছিলেন ত্রাণ দিতে, ফেরার পথে মৃত্যু

যশোর প্রতিনিধি

করোনার কারণে এলাকার নিম্ন আয়ের মানুষের মধ্যে গতকাল বিতরণ করেছেন ত্রাণ। আজ সকালে সেখান থেকে ফেরার পথে মারা গেলেন নূরজামাল গাজী (৪০) নামে যশোর শহরের একজন কিনিক মালিক।  মঙ্গলবার সকালে গ্রামের বাড়ি থেকে শহরে ফেরার পথে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় তিনি মারা যান।  যশোর সদরের বাগেরহাট বাজারে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। যশোর কোতোয়ালি থানার ইন্সপেক্টর শেখ তাসমীম আলম দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। নিহত নূরজামাল গাজী যশোরের মণিরামপুর উপজেলার ডুমুরখালী এলাকার শামসুদ্দিনের ছেলে। তিনি যশোর শহরের জেল রোড এলাকায় বন্ধন নামে একটি কিনিকের মালিকদের একজন।

স্থানীয় লোকজন ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে নূরজামাল তার মণিরামপুরের বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে করে যশোরে ফিরছিলেন। পথে যশোর সদরের বাগেরহাট বাজারে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাককে সাইড দিতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারান এবং সেখানে দাঁড়িয়ে থাকা অপর একটি ট্রাকে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। 

জানতে চাইলে মণিরামপুরের ঝাঁপা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই সাহাবুল আলম বলেন, সকালে খবর পাই তিনি অ্যাক্সিডেন্ট করেছেন। এরপর ঘটনাস্থলে এসে শুনি, তিনি ঘটনাস্থলেই মারা গেছেন। গতকাল তিনি তার এলাকায় নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন।   

লকডাউন: খেটে খাওয়া মানুষেরা বিপাকে

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

করোনাভাইরাস ইস্যুতে চুয়াডাঙ্গা জেলা লকডাউন করে দিয়েছে প্রশাসন। খুব প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হচ্ছেন না কেউ। ফলে বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া ছিন্নমূল মানুষ।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) লকডাউন নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তায় নেমেছেন মানুষরা। তাদের অভিযোগ, প্রশাসন সবকিছু লকডাউন করলেও এখনও পর্যন্ত যে ধরনের সাহায্য-সহযোগিতা করছে তা একেবারেই অপ্রতুল। ফলে পরিবার ও বেঁচে থাকার তাগিদে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই বাইরে বের হতে হচ্ছে তাদের।

হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা ছেলে ও মেয়ের বিয়ে দিলেন ইউপি চেয়ারম্যান!

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

সরকারের নির্দেশনাকে উপেক্ষা করে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা দুই ছেলে- মেয়ের বিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে সাতক্ষীরার কুশখালী ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শ্যামল ও সাবেক সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা গোলাম মোর্শেদের বিরুদ্ধে। তবে ছেলের দাদার দাবি, তার নাতি ভারতে থাকাকালীন বিয়ে করেন, দেশে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার সময় তাদের আবারও বিয়ে দেওয়া হয়। এ বিয়েতে ভোজও খেয়েছেন ওই দুই জনপ্রতিনিধি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি বলেন, কুশখালী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মারফত উল্লাহ গাজীর ছেলে মাসুম গাজী, মাসুম গাজীর স্ত্রী ফাইজুন্নাহার ও ছেলে ইলিয়াস গাজী কয়েক বছর আগে কাজের জন্য অবৈধভাবে ভারতে গিয়েছিলেন। গত ২৬ মার্চ কেড়াগাছী সীমান্ত দিয়ে তারা আবারও অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন। তবে তারা সঙ্গে করে নিয়ে আসেন ১৭ বছরের এক কিশোরীকে। এরপর বিষয়টি জানতে পেরে স্থানীয় গ্রাম পুলিশের সদস্যরা মাসুম গাজীর বাড়িতে লাল পতাকা টানিয়ে দিয়ে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার পরামর্শ দেন। মাসুম গাজীও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার অঙ্গীকার করেন। তারা আরও জানান, ভারত থেকে সঙ্গে করে নিয়ে আসা মেয়েটির পরিচয় জানতে চাইলে তারা একেকজন একেক উত্তর দেন। এতে গ্রামবাসীর সন্দেহ হয়। স্থানীয়রা বলেন, হঠাৎ গত ২৯ মার্চ রাতে আমরা শুনতে পাই সরকারের নিষেধাজ্ঞাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে সাতক্ষীরা সদরের কুশখালী ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শ্যামল ও সাবেক সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম মোরশেদ হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা ইলিয়াস গাজী ও ভারত থেকে সঙ্গে আনা ওই মেয়েটির বিয়ে দিচ্ছে। সোমবার সকালে জানতে পারি গতরাতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়ে গেছে।

স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, যখন গোটা বাংলাদেশ করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত তখন শুধু বিদেশ ফেরত নয় সন্দেহভাজন সকলকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দিচ্ছে সরকার আর তা তদারকির দায়িত্ব স্থানীয় সরকার ও প্রশাসনের, ঠিক তখন চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে এমন কাজ খুবই দুঃখজনক। আমরা সরকারের নিয়মনীতি অমান্যকারী এমন চেয়ারম্যানের বহিষ্কারের দাবি জানাচ্ছি।

সাতক্ষীরা সদরের কুশখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম বলেন, সকালে শুনেছি চেয়ারম্যান শ্যামল ও চেয়ারম্যান (সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান) মোরশেদ  গতরাতে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা দুই ছেলেমেয়ের বিয়ে দিয়ে সেখানে ভোজ খেয়েছেন। মেয়েটা নাকি ভারতীয়। যাচাই ছাড়া এমন বিয়ে দেওয়া তাও এই সময়ে মোটেও উচিত হয়নি। সাতক্ষীরা সদর থানা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ক্বারী মিজানুর রহমানও এ ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

এ ব্যাপারে কুশখালী ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শ্যামলের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় কথা বলা যায়নি। তবে ছেলের দাদা মারফত উল্যাহ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমার পোতার (পুত্রের পুত্র) আগে বিয়ে হয়েছিল, এই আর একবার হলো। চেয়ারম্যান শ্যামল ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মোর্শেদ উপস্থিত থেকে বিয়ের আয়োজন করেন এবং রান্নাবান্না করে খাওয়া-দাওয়া করেন।

ভান্ডারিয়ায় জ্বরে স্কুলছাত্রের মৃত্যু, ১৫০ বাড়ি লকডাউন

পিরোজপুর প্রতিনিধি

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার পূর্ব ধাওয়া গ্রামে সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হয়ে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় করোনাভাইরাস সন্দেহে ওই স্কুলছাত্রে বাড়িসহ গ্রামটির ১৫০ বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করেছে প্রশাসন। মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) দুপুরে ওই স্কুলছাত্রে মৃত্যু হয়। নিহত ওই স্কুলছাত্র এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল। পিরোজপুর জেলা প্রশাসক (ডিসি) আবু আলী মোহাম্মাদ সাজ্জাদ হোসেন বলেন, সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হয়ে নিহত স্কুলছাত্রটি মৃত্যু করোনায় আক্রান্ত হয়ে হয়েছে কি-না বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ আছে। তবুও এর প্রভাব বিস্তারের ঝুঁকি এড়াতে সেখানকার লোকজনকে কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ভান্ডারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নাজমুল আলম বলেন, সর্দি-জ্বরে স্কুলছাত্রের মৃত্যুতে করোনা সন্দেহে ওই স্কুলছাত্রের বাড়িসহ আশপাশের বাড়ির লোকজনকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ওই স্কুলছাত্র অসুস্থ হওয়ার পর সম্ভাব্য যেসব বাড়িতে ঘোরাঘুরি করেছে সেসব বাড়ির লোকজনকেও একইভাবে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়েছে। মৃত স্কুলছাত্রের পরিবারের প্রয়োজনীয় সব বাজার উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হবে। আর স্কুলছাত্রটির নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন না আসা পর্যন্ত এ প্রক্রিয়ায় ওই গ্রাম চলবে। তবে ফলাফল নেগেটিভ হলে হোম কোয়ারেন্টিন উঠিয়ে নেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে ওই উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এইচএম জহিরুল আলম বলেন, গত চারদিন আগে সর্দি-জ্বর ও কাশিতে আক্রান্ত হয় ওই স্কুলছাত্র। মঙ্গলবার সকালে তার পরিবারের পক্ষ থেকে ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে বিষয়টি জানানো হলে চিকিৎসকরা তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসার জন্য পরামর্শ দেন। কিন্তু তার পরিবার তাকে বাড়িতে রেখে স্থানীয়ভাবে সাধারণ চিকিৎসা করান। দুপুরে হঠাৎ তার মৃত্যুর খবর পাই। তবে স্কুলছাত্রটির মৃত্যু করোনার কারণে কি-না তা এখনো নিশ্চিত হওয়ার জন্য তার নমুনা সংগ্রহ করে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ঝুঁকি এড়াতে মৃত স্কুলছাত্রের বাড়িসহ পার্শ্ববর্তী বাড়িগুলো লকডাউন করাসহ স্থানীয় সবাই কোয়ারেন্টিনে রাখার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. ছিদ্দিকুর রহমান টুলু বলেন, দুপুরের পর উপজেলা প্রশাসেনের কর্মকর্তারাসহ পুলিশ এসে গ্রামটির পূর্ব মোল্লার খাল থেকে জানালার খাল পর্যন্ত প্রায় ১৫০ বাড়ি লকডাউন করে দিয়েছে।

ভান্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মিরাজুল ইসলাম বলেন, ওই বাড়ির ও আশপাশের বসতি এলাকা লকডাউন করে সবাইকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। এসময় তিনি লকডাউনের আওতায় থাকা পরিবারের সব খাবার সরবরাহের দায়িত্ব নেন।  

যশোরে ন্যাড়া হওয়ার হিড়িক!

যশোর প্রতিনিধি

করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কের মধ্যে অনেকে চুল ফেলে মাথা ন্যাড়া করে ফেলছেন। সেই ছবি আবার তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও দিচ্ছেন। এসব ছবির মধ্যে যশোর এলাকার মানুষই বেশি বলে দেখা যাচ্ছে। মাথা ন্যাড়া করেছেন ও ফেসবুকে ছবি প্রকাশ করেছেন এমন কয়েকজন যশোরবাসী জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে এখন সবাইকে গৃহবন্দী থাকতে হচ্ছে। কত দিন পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে, তারা স্বাভাবিক কর্মজীবনে ফিরবেন, তার নিশ্চয়তা নেই। এই সুযোগে মাথা ন্যাড়া করে নিচ্ছেন। বাইরে বের না হওয়ায় সামনা-সামনি কোনো বিরূপ মন্তব্য শোনার বা কারো মাধ্যমে বিরক্ত হওয়ার আশঙ্কা নেই। তা ছাড়া সরকারি নির্দেশনায় এখন অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মতো সেলুনগুলোও বন্ধ। দীর্ঘদিন সেলুনে যেতে না পারায় মাথায় চুল বেড়ে যাচ্ছে। তাই বাড়িতে বসেই মাথা ন্যাড়া করে ফেলছেন। যারা এভাবে ন্যাড়া করেছেন, তাদের একজন মাইকেল মধুসূদন ডিবেট ফেডারেশনের চেয়ারম্যান জহির ইকবাল। যশোর সদর উপজেলার কাশিমপুর গ্রামের এই বাসিন্দা বলেন, ‘চুল পড়ে যাচ্ছে। শুনেছি, মাথা ন্যাড়া করলে চুল পড়া বন্ধ হয়। করোনাভাইরাসের কারণে বাড়িতেই থাকছি। ভাবলাম, এই সুযোগে মাথা ন্যাড়া করে ফেলি। যদি সুফল পাওয়া যায়। তাই চুল ফেলে দিলাম।’ যশোর শিক্ষা বোর্ড স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক মাহবুব উল্লাহও মাথা ন্যাড়া করেছেন। তিনি কর্মস্থল বন্ধ থাকায় এই কটা দিন যশোর শহরের খোলাডাঙ্গা এলাকার বাড়িতেই আবদ্ধ। তিনি বলেন, ‘চুল বেড়ে যাওয়ায় গরমে ঘেমে মাথা চুলকাচ্ছিল। এদিকে সেলুন সব বন্ধ। তাই বাড়িতেই মাথা ন্যাড়া করে নিলাম।’

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মো. ইউনুচ আলী। বিশ্ববিদ্যালয় ছুটি হওয়ায় যশোরের চৌগাছা উপজেলার হুগোলডাঙ্গা গ্রামের বাড়িতে আছেন। তিনি বলেন, ‘অনেক দিনের ইচ্ছা ছিল মাথা ন্যাড়া করার। কিন্তু লোকলজ্জার কারণে এত দিন ন্যাড়া করতে পারিনি। বিশ্ববিদ্যালয় অনেক দিন ছুটি। তাই বাড়িতে এসেই আমরা তিন বন্ধু একসঙ্গে মাথা ন্যাড়া করে ফেলেছি। মাথা ন্যাড়া করা ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে দিয়েছি। গরমে মাথা থেকে চুল ফেলে দিয়ে ভালোই লাগছে।’ যশোর শহরের চারখাম্বা মোড়ের সীমা হেয়ার কাটিং সেলুনের স্বত্বাধিকারী নিরঞ্জন রায় বলেন, ‘সেলুন এখন বন্ধ। সংসার চালাতে খুব কষ্ট হয়ে যাচ্ছে। সরকারি সহায়তাও তো পাচ্ছি না। বাড়ি গিয়ে চুল ছাঁটানোর জন্য দু-একজন ফোন দিচ্ছেন। পরিচিত মানুষ হলে বাড়িতে গিয়ে চুল কেটে দিয়ে আসছি।’

তালায় ৩০০ পরিবারকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা উপকরণ বিতরণ

তালা প্রতিনিধি

তালায় জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির পক্ষ থেকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা উপকরণ বিতরণ কার্যক্রম করা হয়েছে। সাতক্ষীরা জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির উদ্যোগে মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) তালা উপজেলার আটারই, খানপুর ও খলিলনগর এলাকার দলিত ও নিম্ন আয়ের ৩০০ পরিবারকে  সাবান, ব্লিচিং, মাস্ক, বেবী ফুডস বিতরণ করা হয়।  তালা শহীদ মুক্তিযোদ্ধা মহাবিদ্যালয় ও জাতপুর সমকাল মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠ চত্বরে উক্ত বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসনের সংসদ সদস্য এড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফাহিমুল হক কিসলু, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য উপাধ্যক্ষ মহিবুল্লাহ মোড়ল, তালা উপজেলার ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি অধ্যাপক সরদার রফিকুল ইসলাম, তালা সদর ইউপি চেয়ারম্যান সরদার জাকির হোসেন, তালা প্রেসকাবের সভাপতি ও খলিলনগর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান প্রভাষক প্রণব ঘোষ বাবলু, ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা মফিজুল হক জাহাঙ্গীর. মনোজিৎ ঘোষ প্রমুখ।

তালায় ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় পিতা-পুত্রের ওপর হামলা

ইলিয়াস হোসেন, তালা

তালায় ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় মারধরের শিকার হয়েছেন এক বৃদ্ধসহ তার পুত্র। মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকালে উপজেলার খলিলনগর ইউনিয়নের উত্তর নলতা গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে। আহত হয়েছে উত্তর নলতা গ্রামের বৃদ্ধ সিরাজ মোড়ল (৭৫) ও তার ছেলে সাত্তার মোড়ল (৩৮)। বর্তমানে বৃদ্ধ সিরাজ মোড়ল তালা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স চিকিৎসাধীন আছে। এ ঘটনায় তালা থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

অভিযোগে জানাযায়, উত্তর নলতা গ্রামে সামছুর রহমান মোড়লের ছেলে সুমন মোড়ল (২২) দীর্ঘদিন ধরে সাত্তার মোড়লের ৮ম  শ্রেণীর স্কুল পড়–য়া মেয়ে (১৪) স্কুলে যাওয়া আসার পথে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। এ ঘটনায় ২০১৯ সালের ১৩ অক্টোবর  তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে মেয়ে নিজে বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ করেছিল। পরে খলিলনগর ক্যাম্পে ২০১৯ সালের ১৬ নভেম্বর দু’পক্ষকে ক্যাম্প ইনচার্জ ডেকে এক আপোষনামার মাধ্যমে নিস্পত্তি করে দেয়। আপোষনামায় সুমন মোড়ল আর এ ধরণের কাজ করবে না বলে অঙ্গীকার করে। সম্প্রতি আবরো সুমন মোড়ল বিভিন্নভাবে ঐ মেয়েটিকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। মঙ্গলবার সকালে মেয়ের বাড়ির সামনে মেয়ে উত্ত্যক্ত করার সময় মেয়ের দাদা সিরাজ মোড়ল এসে বাঁধা দেয়। পরে সুমন গংরা মেয়ের বাড়িতে এসে হামলা চালায়। এ সময় বৃদ্ধ সিরাজ মোড়ল ও তার ছেলেকে পিটিয়ে  জখম করে তারা। পরে স্থানীয়রা এসে তাদেরকে উদ্ধার করে তালা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।  বর্তমানে বৃদ্ধ সিরাজ মোড়ল তালা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স চিকিৎসাধীন রয়েছে।

তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল জানান, ওখানে একটি মারামারির ঘটনা তিনি শুনেছেন। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

নগরীতে নি¤œ আয়ের মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

খবর বিজ্ঞপ্তি

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন শ্রমজীবীনি¤œ আয়ের অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী ওয়ার্ড পর্যায়ে বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ও বিকেলে ১৭, ১৮ ও ২৯নং ওয়ার্ড বিএনপি’র পক্ষ থেকে  খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও নগর বিএনপি’র সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু। এর আগে নগর যুবদলের উদ্যোগে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে জীবানুনাশক ওষুধ স্প্রে মাস্ক বিতরণের উদ্বোধন করেন তিনি। এসময় তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপি প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস প্রকট আকার ধারণ করছে। আমরা তার বাইরে না। এই ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে হলে সকলকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। দরিদ্র-অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী পৌছে দিতে হবে। সকলকে মাস্ক, সাবান পানি দিয়ে হাত ধোয়াসহ সর্ববিষয়  জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করতে হবে। সর্বপরি তিনি সকলের সাহায্য-সহযোগিতা কামনা করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, আরিফুজ্জামান অপু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, মো. শাহজাহান, ইউসুফ হারুন মজনু, গিয়াস উদ্দিন বনি, একরামুল হক হেলাল, হাফিজুর রহমান মনি, বদরুল আলম, শেখ ফারুক হোসেন, মেজবাহ উদ্দিন মিজু, রবিউল ইসলাম রবি, আব্দুল আলিম, আনিসুর রহমান আরজু, নিপুন হোসেন, জাকির ইকবাল বাপ্পি, আলতাফ হোসেন, নাজমুল হাসান নাসিম, সাইাফুল ইসলাম বকসী, মুশফিকুর রহমান অভি, ইমরান হোসেন, মিজানুর রহমান বাবু, মাহফুজুর রহমান, রফিকুল ইসলাম শান্ত, রিয়াজুল কবির, ফারুক খান, অরিফুজ্জামান সোহেল, কাজী নজরুল ইসলাম, আব্দুল আহাদ শাহীন, লিপু মল্লিক, জাহাঙ্গীর হোসেন, শেখ আলামিন আরজু, শাহআলম, সুজন শিকদার, মো. আনিচ, হাসান আক্তার, সোহেল হাওলাদার, আবুল কালাম, মাহবুব হোসেন, শরিফুল ইসলাম বাদল, আতিয়ার রহমান বাবু, নজরুল ইসলাম সুজন, সাঈদ আহমেদ রাজু, কালাম প্রমুখ।