মাঠে ময়দানের খবর

5
Spread the love

চার ধাপ পেছালো বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল
ক্রীড়া প্রতিবেদক
বাংলাদেশের মেয়েরা আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বশেষ ম্যাচ খেলেছে ১২ মাস আগে। গত বছর ২০মার্চ নেপালে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনালে ভারতের বিপে ম্যাচের পর আর জাতীয় দলের জার্সিতে মাঠে নামা হয়নি সাবিনা-কৃষ্ণা-মারিয়া মান্ডাদের। দীর্ঘদিন না খেলার নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে ফিফা র‌্যাংকিংয়ে। সর্বশেষ ঘোষিত র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের মেয়েরা পিছিয়েছে চার ধাপ।
অথচ এর আগে গত বছর ১৩ ডিসেম্বর ঘোষিত র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশ ১৩২ থেকে দুই ধাপ অগ্রসর হয়ে উঠেছিল ১৩০ নম্বরে; কিন্তু দুই ধাপ এগিয়ে লাল-সবুজ জার্সিধারী মেয়েরা পিছিয়ে গেলো চার ধাপ। বয়স ভিত্তিক ফুটবলে বাংলাদেশের মেয়েরা দণি এশিয়া এবং কোনো কোনো েেত্র এশিয়া দাপিয়ে বেড়ালেও জাতীয় দলের পারফরম্যান্স হতাশাজনক। এর কারণ, বেশিরভাগ মেয়েই বয়সভিত্তিক দলের। জাতীয় দলের খেলা না থাকায়তো এক সময় র‌্যাংকিংয়ের বাইরে ছিল বাংলাদেশ।
২০১৮ সালের ডিসেম্বরে র‌্যাংকিংয়ে ঢুকে ১২৫তম স্থানে ছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। তখন থেকে এ নিয়ে ৬ বার ঘোষিত ফিফা র‌্যাংকিংয়ে একবার মাত্র এগিয়েছিল বাংলাদেশ। ১২৫, ১২৭, ১৩০, ১৩২, ১৩০ থেকে এখন ১৩৪ নম্বরে। দণি এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবার ওপরে ভারত ৫৫ নম্বরে। এর পর নেপালের অবস্থান ৯৯। শ্রীলংকা ১৪০, মালদ্বীপ ১৪২ এবং ভুটান ১৫৪।
জাতীয় দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনও মনে করেন বেশি বেশি ম্যাচ খেললেই অবস্থার পরির্তন সম্ভব, ‘বেশি বেশি ম্যাচ খেলতে পারলে হয়তো র্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকার সুযোগ হতো। তারপরেও আমরা বয়সভিত্তিক অনেক খেলাই খেলেছি। কিন্তু জাতীয় দলের খেলা হয়নি। এবার তো চার ধাপ পিছিয়েছি। এর আগে তো না খেলার কারণে জাতীয় দলের র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের নামই ছিল না।’
তার পরেও গোলাম রব্বানী ছোটন আশাবাদী, ‘এই বছরের মার্চ ও জুনে ফিফা প্রীতি ম্যাচের সূচি আছে। যদিও করোনাভাইরাসের কারণে মার্চে কোনও ম্যাচ খেলা যায়নি। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে হয়তো সামনের দিকে খেলা হবে। তখন র্যাঙ্কিং বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ থাকবে বলেই আমি আশাবাদী।’

বাফুফের মতো স্থগিত মোহামেডানের নির্বাচনও
ক্রীড়া প্রতিবেদক
করোনাভাইরাসের কারণে কিছুদিন আগে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়ে যায় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নির্বাচন। এবার একইপথে হাঁটতে বাধ্য হলো দেশের ঐতিহ্যবাহী কাব মোহামেডান স্পোর্টিং কাব। করোনাভাইরাসের কারণে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করা হলো সাদা কালো জার্সিধারী কাবটির বার্ষিক সাধারণ সভা ও নির্বাচন। গত ১৫মার্চ অনুষ্ঠিত মোহামেডান স্পোর্টিং কাব লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সর্বশেষ বোর্ড সভায় ১৮ এপ্রিল এজিএম ও নির্বাচনের দিন নির্ধারণ করা হয়েছিল।
মোহামেডান স্পোর্টিং কাব লিমিটেড গতকাল রবিবার এক প্রেস রিলিজে এমন তথ্য জানায়। কাবটির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিনের স্বারিত সে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ‘সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশও মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। এ ধরনের পরিস্থিতিতে পূর্ব ঘোষিত কাবের বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) ও নির্বাচন সংক্রান্ত সকল কার্যক্রম পরবর্তী সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত স্থগিত থাকবে।’
কাবটির পরিচালক সারওয়ার হোসেন অবশ্য বলেছেন, ‘১৫ মার্চ আমরা নির্বাচনের তারিখ চূড়ান্ত করলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে সবাইকে জানানোর সুযোগ হয়নি। চেয়ারম্যান গতকাল রবিবার নির্বাচন ও এজিএম স্থগিত করেছেন। দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় তিনি এই সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকতে পারেন। সব মিলিয়ে খুবই সময়োচিত সিদ্ধান্ত হয়েছে।’

ফিফা-এএফসির দিকে তাকিয়ে বাফুফে
ক্রীড়া প্রতিবেদক
সাধারণ সভা ও নির্বাচন স্থগিতের যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) তা ইতিমধ্যে অবহিত করা হয়েছে বিশ্ব ফুটবলের অভিভাবক সংস্থা ফিফাকে। সেই সঙ্গে তার অনুলিপি দেয়া হয়েছে এশিয়ান ফুটবলের অভিভাবক সংস্থা এএফসিকে।
শুক্রবার জরুরি সভায় বাফুফে আগামী ২০ এপ্রিল নির্ধারিত সাধারণ সভা ও নির্বাচন অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ৩০ এপ্রিল শেষ হবে বাফুফের বর্তমান নির্বাহী কমিটির মেয়াদ। এখন নির্বাচন এর পর করতে হলে অনুমোদন লাগবে ফিফা ও এএফসির।

দুই হাজার পরিবারের পাশে সাকিব
ক্রীড়া প্রতিবেদক
‘দ্য সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশন’ নামে নতুন সংস্থা গঠন করে এই সহায়তা দিচ্ছেন বাঁহাতি অলরাউন্ডার। নিজের গড়ে তোলা এই ফাউন্ডেশন দিয়ে দেশ-বিদেশ থেকে অনুদান সংগ্রহ করবেন। যে অর্থ তুলে দিচ্ছেন ‘মিশন সেইভ বাংলাদেশ’ নামক একটি উদ্যোগের মধ্য দিয়ে।
এরই মধ্যে তারা ২০০০ সুবিধাবঞ্চিত পরিবারকে সাহায্য করেছে। সহায়তার হাত আরও বাড়িয়ে দিতে সবাইকে আহ্বান জানিয়েছেন সাকিব নিজে। শনিবার রাতে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে এই ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। ‘সারাদেশ আজ লড়ছে একটি মহামারিকে রুখতে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অসংখ্য সুবিধাবঞ্চিত মানুষ দিন গুনছে কবে তাদের রোজগার আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে।’

সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন ধোনি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
সেই বিশ্বকাপের পর থেকেই ব্যাপারটা চর্বিত চর্বণে রূপ নিয়েছে। সবাই যেন মাথা কুটে একটি প্রশ্নেরই উত্তর খুঁজছেন, কবে অবসর নেবেন ধোনি? এ প্রসঙ্গে ধোনিও কিছু বলেন না, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিসিআই) ইনিয়ে-বিনিয়ে এড়িয়ে যেত এ প্রসঙ্গ। তবে অবশেষে নাকি কৌতূহল মিটছে সবার। কারণ, ধোনিই নাকি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন অবসরের।
ধোনি তাঁর কাছের মানুষদের কাছে বলে দিয়েছেন, জাতীয় দলে আর খেলবেন না। তবে আইপিএলে আরও এক-দুই মৌসুম খেলার ইচ্ছা আছে তাঁর। তাঁর কাছের এক সূত্র স্পোর্টস ক্রীড়াকে জানিয়েছেন, ‘আনুষ্ঠানিকভাবে বোর্ডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে এখনো কথা বলেনি সে কিন্তু কাছের মানুষদের জানিয়ে দিয়েছে। যখন সময় হবে, জানিয়ে দেবে।’ তবে আইপিএলে নিজের ফর্ম দেখেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানোর ইচ্ছার কথাও জানিয়েছে সেই সূত্র, ‘না হলে এত দিনে অবসরের কথা জানিয়ে দিত সে।’

অবশেষে মুক্তি মিললো স্মিথ-ওয়ার্নারের
ক্রীড়া প্রতিবেদক
২৪ মার্চ, ২০১৮ অস্ট্রেলিয়া-দণি আফ্রিকার মধ্যকার কেপটাউন টেস্টের তৃতীয় দিন। খেলার দ্বিতীয় সেশনে ক্যামেরায় ধরা পড়ে অপ্রীতিকর দৃশ্য। অজি ক্রিকেটার ক্যামেরন ব্যানক্রফট বল টেম্পারিং করছেন।
‘স্যান্ডপেপার গেট’ নামক সে কেলেঙ্কারিতে ভুগতে হয়েছে ব্যানক্রফট, সহ অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার ও অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথকে। ২৯ মার্চ, ২০১৮তে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে ১ বছরের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছিলেন স্মিথ-ওয়ার্নার। আর ৯ মাসের নিষেধাজ্ঞা ছিলো ব্যানক্রফটের। গত বছরের বিশ্বকাপের আগে সে নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি পান তিন ক্রিকেটারই। স্মিথ-ওয়ার্নার নিজেদের জাত চিনিয়ে বিশ্ব ক্রিকেটে আবার মর্যাদার আসন দখল করে নেন।

করোনার ত্রাণে বিসিসিআইয়ের ৫১কোটি রূপি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই) করোনা মোকাবিলায় সরকারকে ৫১ কোটি রূপি অনুদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
শনিবার রাতে এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করে বিসিসিআই। এর আগে ভারতীয় ক্রিকেটাররা নিজেদের ব্যক্তিগত উদ্যোগে সরকারের তহবিলে অনুদান করে আসছিলেন। শচীন টেন্ডুলকার, মাহেন্দ্র সিং ধোনী, রোহিত শর্মা, সুরেশ রায়নারা নিজেদের উদ্যোগে সরকারের তহবিলে অনুদান দিয়েছেন। ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা এখন পর্যন্ত ১৯।

বেতন কম নিতে রাজি রোনালদো-দিবালারা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
গোটা বিশ্ব থমকে আছে। করোনার ধাক্কার ওলটপালট অর্থনীতি। বিস্লেষকদের মতে বৈশ্বিক অর্থনীতিতে সামনে বড় ধস আসবে। ক্রীড়াঙ্গনেও চলছে অস্থিরতা। ক্রীড়াঙ্গনের মূল আয় আসে মাঠ থেকে। মহামারী করোনার আঘাতে বন্ধ হয়ে আছে খেলা। ফলে আয়ও একেবারে বন্ধ। এমন অস্থিরতায় ব্যয় মেটাতে খেলোয়াড়দের বেতন কমানোর চিন্তা করেছে ইউরোপের একাধিক কাব।
স্টাফদের বেতন এবং অন্যান্য ব্যয় মেটানোর জন্য কঠিনতম সিদ্ধান্ত নিয়েছে কাবগুলো। বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের খেলোয়াড়রা কাবের প্রস্তাবে রাজী হয়ে বেতনের নির্দিষ্ট অংশ ছাড় দিতে রাজি হয়েছে। বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা অবশ্য কাবের এ প্রস্তাব প্রত্যাখান করেছে। কিন্তু ইতালির কাব জুভেন্টাসের খেলোয়াড়রা এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে।

ইতালিয়ান লিগে খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিক বাতিলের পরিকল্পনা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি বিপর্যস্ত ইতালি। দেশটিতে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে এবং আক্রান্তের সংখ্যান লাখ ছুঁই ছুঁই। প্রতিদিনই লাশের মিছিল। এতবড় বিপর্যয়ে নিকট অতীতে আর কখনো পড়েনি ইতালি।
দেশটির এই বিপর্যয়কর পরিস্থিতি নিজের কাব জুভেন্টাসের কাছ থেকে চার মাসের পারিশ্রমিক তথা প্রায় ৫৫৩ কোটি টাকা নেবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।
তবে, রোনালদো পারিশ্রমিক না নিলেও ইতালিয়ান ফুটবল লিগ সিরি-আ’তে খেলা কোনো ফুটবলারকেই সম্ভবত পারিশ্রমিক দেয়া হবে না। তেমনই সিদ্ধান্ত নিচ্ছে ইতালিয়ান ফুটবল ফেডারেশন ও সিরি-আল লিগ কর্তৃপ। স্প্যানিশ ক্রীঢ়া দৈনিক মার্কা দিয়েছে এ খবর। করোনা ভাইরাসের কারণে বিশাল আর্থিক তির মুখে পড়ে গেছে ইতালিয়ান কাবগুলো। এই আর্থিক তি কাটিয়ে ওঠার ইতালিয়ান ফুটবল ফেডারেশন কয়েকটি বিকল্প চিন্তা-ভাবনা করছে। তাদের এই চিন্তার মূল দিকটাই হলো, যাতে ভবিষ্যতের জন্য ফুটবল সিস্টেমটাই পুরোপুরি ভেঙে না পড়ে।

না ফেরার দেশে অ্যাতলেটিকোর ১৪বছরের স্ট্রাইকার
ক্রীড়া প্রতিবেদক
স্প্যানিশ লা লিগায় খেলার স্বপ্নটা পূরণ হলো না ক্রিশ্চিয়ান মিনচোলা সানচেজের। তার আগেই সবাইকে শোকাচ্ছন্ন করে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের অনূর্ধ্ব-১৪ দলের এ কিশোর স্ট্রাইকার।
শনিবার অ্যাতলেটিকো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে মিনচোলার মৃত্যুর সংবাটি নিশ্চিত করে। মাদ্রিদ ভিত্তিক কাবটি তাদের অফিসিয়াল টুইটারে কিশোর তারকার একটি সাদাকালো ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখে, ‘অনূধ্ব-১৪ দলের খেলোয়াড় ক্রিশ্চিয়ান মিনচোলার মৃত্যুতে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ শোকাচ্ছন্ন।’ তবে কি কারণে ২০০৬ সালে জন্ম নেওয়া মিনচোলার মৃত্যু হয়েছে তা প্রকাশ করেনি অ্যাতলেটিকো।

বার্সায় ফিরতে চান জাভি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রধান কোচ হয়ে বার্সেলোনায় ফিরতে চাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাভি হার্নান্দেজ। গতকাল রবিবার সকালে স্পেনের এক গণমাধ্যমে প্রকাশিত সাাৎকারে এ স্বপ্নের কথা জানান সাবেক কাতালান মিডফিল্ডার। তবে সেই সঙ্গে জাভি ক্যাম্প ন্যুয়ে তার শিষ্য হিসেবে চান নেইমার, জাদোন সাঞ্চো ও সের্গে নার্বির মতো তারকাদের।
কাতারের কাব আল-সাদের প্রধান কোচ ‘লা ভাংগুয়ারদিয়া’ নামের সেই গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি পরিস্কার যে, আমি বার্সেলোনায় ফিরতে চাই, এ জন্য আমি খুব উতলাও। সম্ভবত বছর খানেক আগে আমি নিজেকে কিছু সম্মান দিতে পারতাম, কিন্তু এখন আমি নিজেকে কোচিংয়ে দেখতে চাই।’
৪০ বছর বয়সী বিশ্বকাপজয়ী কিংবদন্তি মিডফিল্ডার আরও বলেন, ‘তবে আমি তাদেরকে এটা পরিস্কার করেছিলাম যে, শূন্য থেকে শুরু হওয়া একটি প্রকল্পে আমি নিজেকে দেখেছিলাম এবং সেসব সিদ্ধান্ত আমার নেওয়ার ছিল।’

বাতিল হতে পারে চলতি ফুটবল মৌসুম
ক্রীড়া প্রতিবেদক
উয়েফা প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্দার সেফরিন জানিয়েছেন, জুনের শেষের দিকে যদি পুনরায় শুরু হতে না পারে তবে বাতিল হয়ে যেতে পারে চলতি ফুটবল মৌসুম। বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে মাঝপথে স্থগিত করা হয়েছে ইউরোপের অধিকাংশ ফুটবল লিগ। তার মধ্যে আগামী জুনে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও ইউরো-২০২০ টুর্নামেন্ট পেছানো হয়েছে এক বছরের জন্য।
সেফরিন জানান, মৌসুম বন্ধ দরজায় বা দর্শক শূন্যভাবে শেষ করা যেতে পারে। উয়েফা প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমরা যদি পুনরায় শুরু করতে সফল না হই, তাহলে সম্ভবত এই মৌসুম বাতিল হতে পারে।’ ২০১৯-২০ মৌসুমে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ম্যাচ বাকি আছে কেবল ৯টি। তবে অন্যান্য লিগে এখনও প্রায় ১১-১২টি ম্যাচ রয়ে গেছে।
হাসপাতালে ভর্তি তুরস্কের গোলরক
ক্রীড়া প্রতিবেদক
বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তুরস্কের কিংবদন্তি গোলরক রুস্তু রেকবারকে। এমনটাই জানিয়েছেন তার স্ত্রী ইসিল।
শনিবার ইসিল ইন্সটাগ্রামে সমর্থকদের উদ্দেশ্য করে তার স্বামীর ডায়াগনোসিসের বিষয়টি পোস্ট করেন। আর ক্যাপশনে লিখেন, ‘সত্যকে সবচেয়ে স্বচ্ছ পন্থায় ভাগ করে নেওয়ার সময় আমি আপনাদের আরও ইতিবাচক সংবাদ দিতে চাই, কিন্তু কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ায় আমার স্বামী রুস্তুকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’

বোল্টের রেকর্ড ভেঙে দিলেন ব্রিটনি স্পিয়ার্স
ক্রীড়া প্রতিবেদক
বোল্ট ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডকে বিদায় জানিয়েছেন। তাঁর রেকর্ড ভাঙতে পারবেন কে সেই আলোচনা দূরে থাক, কেউ তাঁর উত্তরসূরি হতে পারবেন কি না আলোচনা হয় সেটা নিয়ে। কিন্তু কী বিস্ময়কর, বোল্টের সেই রেকর্ডই ভেঙে দিলেন একজন নারী। ১০০ মিটার দৌড়েছেন তিনি ৫.৯৭ সেকেন্ডে।
অবিশ্বাস্য লাগছে তো? সেই নারীর নামটা শুনলে আরও চমকে যেতে হবে আপনাকে। ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডের কেউ নন তিনি। সেই নারী একজন সংগীতশিল্পী, নৃত্যশিল্পী এবং অভিনেত্রীও। তাঁর নাম ব্রিটনি স্পিয়ার্স! ভাবছেন, যুক্তরাষ্ট্রের এই সংগীতশিল্পী আবার কোথায় দৌড়ালেন আর কীভাবেই বা বোল্টের রেকর্ড ভাঙলেন! খবরটি শুনুন ব্রিটনির কাছ থেকেই। সম্প্রতি তিনি নিজের ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি দিয়েছেন, একটি স্টপ ওয়াচে ৫.৯৭ সেকেন্ড লেখা আছে। সেটি দিয়ে লিখেছেন, ‘শুরুতে একটু ভয়ই পাচ্ছিলাম-পারব তো! ভয়ে ভয়ে বোতামটি চাপলাম। ১০০ মিটার শেষে স্টপ ওয়াচ থামালাম। দেখি ৫.৯৭ সেকেন্ড। এই প্রথম আমি ৬ সেকেন্ডের নিচে ১০০ মিটার শেষ করলাম, ওয়াও!’