সারা খুলনা অঞ্চলের খবর

36
Spread the love

সাতক্ষীরায় বিদেশ ফেরত ৩৯৯ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে, বাইরে রয়েছে প্রায় ৮ হাজার ৬ শ’ ৫০ জন
খান নাজমুল হুসাইন, সাতক্ষীরা
সাতক্ষীরায় গত ২৪ ঘন্টায় বিদেশ ফেরত আরো নতুন ২২৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনের আওতায় আনা হয়েছে। এনিয়ে গত ৬ দিনে বিদেশ ফেরত সাতক্ষীরার ৩৯৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে। এছাড়া শ্যামনগরের দাতনিখালী গ্রামের এস.এম সুলতান মাহমুদ সুজনকে সদর হাসপাতাল আইসোলেশানে নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় ৪০ জন, আশাশুনি উপজেলায় ২৮ জন, দেবহাটা উপজেলায় ২৫ জন, কালিগঞ্জ উপজেলায় ৭০ জন, কলারোয়া উপজেলায় ১০৩ জন, শ্যামনগর উপজেলায় ৫৪ জন ও তালা উপজেলায় ৭৮ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে।
যদিও বিদেশ থেকে আগত লোকের সংখ্যা গত ১ মার্চ থেকে ২০ মার্চ পর্যন্ত প্রায় ৯ হাজার ৫০ জন। এর মধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইনের বাইরে রয়েছে প্রায় ৮ হাজার ৬ শ’ ৫০ জন। তবে, সাতক্ষীরা জেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রন কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল জানিয়েছেন, বিদেশ থেকে আসা সকল প্রবাসীদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে আনা হবে। ইতিমধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইনের আওতায় আনার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ। এদিকে, সাতক্ষীরার ভোমরা ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে দুই দেশে আটকে থাকা পাসপোর্ট যাত্রীর পারাপার স্বাভাবিক রয়েছে। যদিও দু দেশেই নতুন করে কোন পাসপোর্ট যাত্রীকে প্রবেশাধিকার না থাকায় যাত্রী সংখ্যা অনেক কমে গেছে।

নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বেশী রাখায় সাতক্ষীরায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে জরিমানা
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সুযোগ কাজে লাগিয়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম উচ্চমূল্যে বিক্রয় করে বাজার অস্থিতিশীল করে তোলা, কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করা ও পণ্যের মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করার অভিযোগে সাতক্ষীরায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৯ ব্যবসায়ীকে ১ লাখ ৭৯ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। শনিবার সকাল ১০ থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত উক্ত ৯ ব্যবসায়ীকে এ জরিমানা করা হয়। জানা যায়, দুপুরে শহরের সুলতানপুর বড়বাজারে সদর উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) আসাদুজ্জামানের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়। এ সময় কাঁচামাল পাইকারী ব্যবসায়ী মেসার্স রনি ভান্ডারের স্বত্ত্বাধিকারী আব্দুল গফফরকে ভূয়া ভাউচার বানিয়ে বেশি দামে পণ্য বিক্রি করার অভিযোগে ৫০ হাজার টাকা ও খুচরা কাঁচামাল ব্যবসায়ী ইশার আলীকে বেশি দামে কাঁচা পণ্য বিক্রির অভিযোগে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া সদর উপজেলা ঝাউডাঙ্গা বাজারের দুই কাঁচামাল ব্যবসায়ীকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এদিকে, তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা ও ত্রিশমাইলে নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট আজহার আলী ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে আরো ছয় ব্যবসায়ীকে ৫৪ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এদিকে, এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জেলায় ভ্রাম্যমান আদালতের এ অভিযান চলছিল বলে জেলা প্রশাসনসূত্রে জানা গেছে।

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় সড়কে প্রাণ গেলো এক ট্রলি চালকের
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় মাটি বহনকারী ট্রাকটরের ধাক্কায় এক ট্রলি চালক নিহত হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলার জয়নগর ইউনিয়নের ধানদিয়া চৌরাস্তা মোড়ে এ দূর্ঘটনাটি ঘটে।
নিহত ট্রলি চালকের নাম আলমগীর হোসেন (৩৫)। তিনি কলারোয়া উপজেলার বসন্তপুর গ্রামের নুর ইসলাম মোড়লের ছেলে। নিহতের স্বজনরা জানান, সকাল সাড়ে দশটার দিকে আলমগীর তার ট্রলিতে কয়েক বস্তা চাউল নিয়ে কলারোয়া বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে ধানদিয়া চৌরাস্তা মোড় এলাকায় পৌছালে ইট ভাটার জন্য মাটি নিয়ে যাওয়া একটি ট্রাকটর পিছন দিক থেকে তার ট্রলিটিকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে ট্রলি চালক আলমগীর ছিটকে ট্রাকটরের চাকায় পড়ে পিষ্ট হয়। স্থানীয়রা তাকে দ্রুত উদ্ধার করে কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার মৃত ঘোষনা করেন। কলারোয়া থানা’র ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মুনীর উল গিয়াস এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

অভয়নগরে আহত যুবলীগ নেতার মৃত্যু
অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি
যশোরের অভয়নগরে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলায় আহত যুবলীগ নেতা মুরাদ হোসেন (২৮) তিনদিন চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় মারা গেছেন। শুক্রবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১১ টার সময় খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। গত মঙ্গলবার দুপুরে তাকে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাত করেছিল চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। উপজেলার ধোপাদী গ্রামের মাহাব্বুল সরদারের ছেলে নিহত মুরাদ হোসেন নওয়াপাড়া পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড যুবলীগের সদস্য ছিল। নিহতের পরিবার জানায়, মঙ্গলবার বেলা আনুমানিক ১২ টার সময় ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে উপজেলার ধোপাদী গ্রামের চিহ্নিত সন্ত্রাসী রফিকুল মজুমদার ও তার বাহিনীর সাথে মুরাদের বাকবিতন্ডা হয়। পরে মুরাদ ধোপাদী নতুন বাজারে তার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পাশে একটি চায়ের দোকানে বসে ছিল। এসময় রফিকুলের নেতৃত্বে তার ছেলে সাকিব মজুমদার, সাকিবের সহযোগি ইউসুফ মজুমদার, খলিল, সোহরাব, মেহরাব, ইলিয়াস, সুফিয়ান, বেল্লাল, আরজু, নাঈম সরদার, মিজানুর, সোহেল, নাছির গাজী ও রফিকুলের স্ত্রী জেসমিন বেগম কোন কিছু না বলে মুরাদকে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা মারাত্মক আহত মুরাদকে উদ্ধার করে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।
নিহতের বাবা বলেন, উল্লেখিত সকলের নাম সহ ১৫ জনকে আসামী করে ঘটনার দিন রাতে অভয়নগর থানায় মামলা দায়ের করেছিলাম। কি অপরাধ করেছিল আমার ছেলে। আমি হত্যাকারী সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই। থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মো. তাজুল ইসলাম মুরাদ হোসেনের মৃত্যু নিশ্চিত করে বলেন, নিহতের বাবা বাদী হয়ে ১৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। সেই মামলা এখন হত্যা মামলায় পরিণত হল। ইতোমধ্যে মামলার ৭ জন আসামীকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। মুলহোতা রফিকুল, তার ছেলে সাকিব ও ইউসুফ সহ ৮ জন পলাতক রয়েছে। পলাতক আসামী আটকে অভিযান অব্যাহত আছে।

পাইকগাছায় চিংড়ি ঘের দখল করতে যেয়ে ৭জন অবরুদ্ধ : পুলিশ কর্তৃক উদ্ধার
পাইকগাছা প্রতিনিধি
পাইকগাছায় একটি চিংড়ি ঘের দখলকে কেন্দ্র করে গণডিডের মালিক ও এলাকাবাসী ৭জনকে অবরুদ্ধ করে রাখে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদেরকে উদ্ধার করেছে। ঘটনাটি উপজেলার দেলুটি ইউনিয়নের মাগুরা-দেলুটি মৌজায়। পুলিশ উভয়পক্ষকে শান্তি-শৃংখলা বজায় রাখার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। জানা যায়, শনিবার দুপুরে এস,এম, মাহবুবুর রহমানের লোকজন দেলুটি মৌজার রবীন্দ্র নাথ সরকার, লাবনী সরকার সহ স্থানীয়দের দখলীয় সম্পত্তি দখল করতে যায়। এ সময় এলাকাবাসী বাধা দিলে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটলে বিপুলা সরকার, নিলিমা সরকার, শিশু লাবনী সরকার আহত হয়। এলাকাবাসী প্রতিপক্ষরা মাহবুবুর রহমানের ৭জন লোককে অবরুদ্ধ করে রাখে। পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে যেয়ে অবরুদ্ধদের উদ্ধার করে এবং উভয়পক্ষকে থানায় আসার জন্য বলে। বিকেলে এ ব্যাপারে বসাবসির এক পর্যায়ে ওসি মোঃ এজাজ শফী বলেন, যেহেতু জায়গায় জমি সংক্রান্ত হওয়ায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দপ্তরে উভয়পক্ষকে দরখাস্ত করেন এবং শান্তি-শৃংখলা বজায় রাখার স্বার্থে যে যে অবস্থানে রয়েছেন সে সেখানেই থাকবেন। এস,এম, মাহবুবুর রহমান বলেন, তারা নিলাম খরিদা মালিকদের কাছ থেকে ডিড নিয়েছেন। সে বুনিয়াদে তারা দখল পেতে ঘটনাস্থলে যায়। অপরদিকে, রবীন্দ্রনাথ সরদার রেকর্ডীয় জমির মালিক দাবী করে বলেন, মাগুরা-দেলুটি মৌজায় ১৭৫ বিঘা জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। যা নিয়ে সাবেক সংসদ সদস্য উভয়পক্ষের মধ্যে সমভাগে জমি বন্ঠন করে দিয়ে দেন। বিষয়টি আদালতে মামলা থাকায় নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত উভয়পক্ষকে স্ব-স্ব অবস্থানে থাকার পরামর্শ দেন। সে মোতাবেক ভোগ দখলে থাকা অবস্থায় প্রতিপক্ষরা যাবতীয় সম্পত্তি পেশী শক্তি বলে জবর দখলে যাওয়ার চেষ্টা করলে সংঘর্ষ বাধে এবং মোস্তফা, মোবারেক, মাহবুব, রহমত সানা, হেলাল উদ্দীন, মাহমুদ, হাফিজুর রহমান সানাকে অবরুদ্ধ করে রাখে।

ডুমুরিয়ায় পল্লীশ্রী কলেজ অধ্যক্ষ’র বিরুদ্ধে সীমাহীন দূর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ: চাকুরী খেয়ে ফেলার হুমকিতে থানায় জিডি
এস রফিক, ডুমুরিয়া
ডুমুরিয়ায় পল্লীশ্রী কলেজের অধ্যক্ষ সুভাষ চন্দ্র সরদারের বিরুদ্ধে সীমাহীন দূর্নীতি,অনিয়ম ও সেচ্ছারিতার অভিযোগ পাওয়া গেছে।শিক্ষা বোর্ডের নীতিমালা উপেক্ষা করে ভর্তি,পরীক্ষা ফি ও ফরম ফিলাপে অর্থ বানিজ্য, শিক্ষক-শিক্ষিকার প্রতি অসাদাচরন,ফাঁদে ফেলে শিক্ষক’র নিকট থেকে অর্থ হাতিয়ে নেয়াসহ নানা অভিযোগ এনে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই কলেজের ইংরেজী বিভাগের প্রভাষক সুকুমার মন্ডল নামের এক শিক্ষক।এদিকে দায়েরকৃত অভিযোগ প্রত্যাহার করা না হলে চাকুরী খেয়ে ফেলা হবে,অধ্যক্ষের দেয়া এমন হুমকীতে থানায় একটি সাধারন ডায়রী করেছেন অভিযোগ দায়েরকারী ওই শিক্ষক,যার নং ৯২৯/২০। জেলা প্রশাসক বরাবর দায়েরকৃত অভিযোগ ও জিডি সূত্রে জানা যায়,পল্লীশ্রী কলেজের অধ্যক্ষ সুভাষ চন্দ্র সরদার শিক্ষা নীতিমালা উপেক্ষা করে ভর্তি ক্ষেত্রে ১‘হাজার টাকার পরিবর্তে তিন হাজার টাকা,অর্ধ বাষিকী ও টেষ্ট পরীক্ষায় ৫‘শ ও ২০১৯ সালের ১২০জন এইচএসসি পরীক্ষার্থীর নিকট থেকে রশিদ ছাড়াই মাথা প্রতি ৬‘হাজার টাকা নেয়া হয়েছে।টেষ্টে অকৃতকার্যদের ক্ষেত্রে আরো বেশী। ডিগ্রী লেবেলেও রয়েছে অনুরুপ অত্যাচার। ছাড় পায়নি এতিম ও হতদরীদ্র শিক্ষার্থীরা উপবৃত্তির বেলায়। উপবৃত্তির সুপারিশ পাঠানোর নামে তাদের নিকট থেকেও নেয়া হয়েছে মাথা প্রতি তিন হাজার টাকা।শিক্ষকদের সাথে আচারন করা হয় বাড়ীর কাজের বুয়ার মতো।ভূয়া বিল তৈরী করে জোর পূর্বক শিক্ষককে স্বাক্ষর করতে বাধ্য করেন।অডিটের ভয় দেখিয়ে ইংরেজী প্রভাষকের নিকট থেকে হাতিয়ে নেয়া হয় ৬০‘হাজার টাকা।অফিস পিয়ন নারায়ন গোস্বামী এক দিনও ডিউটি করে না,প্রতিমাসে তার নিকট থেকে ৪হাজার টাকা নিয়ে তাকে বৈধ করে আসছে।কম্পিউটার ল্যাব পদে ১০লক্ষ টাকা নিয়ে নিয়োগ দিলেও কলেজ ফান্ডে দেয়া হয়নি একটি টাকা।এমনি ভাবে প্রতিটি ক্ষেত্রে রয়েছে তার সীমাহীন দূর্নীতি ও অনিয়ম।কলেজ সূত্রে জানা যায়,চলতি ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান বিভাগে ১৫জন,বাণিজ্য বিভাগে ১৯জন ও মানবিক বিভাগে ১৫১জন শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়েছে।ভর্তি প্রসঙ্গে মাদারতলা এলাকার ১ম বর্ষের বানিজ্য বিভাগের ছাত্রী সুপ্রিয়া মল্লিক,মানবিক বিভাগের ছাত্রী লাবনী মল্লিক,কুলবাড়িয়া এলাকার বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী সাথী বিশ্বাস সহ একাধিক শিক্ষার্থী জানান,ভর্তিফিস হিসেবে তাদের প্রত্যেকের নিকট থেকে ৩হাজার টাকা গ্রহন করা হয়েছে।আপনি একই প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ন ও দূর্নীতির অভিযোগ এনে জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ করলেন কেন এমন প্রশ্নের উত্তরে অভিযোগ কারী শিক্ষক সুকুমার মন্ডল জানান,তিনি একজন হতদরিদ্র পরিবারের ছেলে।মানুষের নিকট থেকে সাহায্য নিয়ে বই-খাতা ক্রয় ও স্কুল-কলেজের বেতন যুগিয়ে লেখাপড়া করেছেন তিনি। গরীবের কষ্ট তিনি হাঁড়ে হাঁড়ে বোঝেন এমনটি উল্লেখ করে তিনি বলেন,কলেজটিতে অধ্যয়নরত ছেলে-মেয়ে ও তার পরিবার এবং শিক্ষকরা অধ্যক্ষের নিকট জিম্মি হয়ে পড়েছে।আশু ব্যবস্থা গ্রহন না করলে প্রতিষ্ঠানটি শেষ হয়ে যাবে। তাই বৃহৎ স্বার্থে এ দূর্নীতির মুখোশ খুলতে অভিযোগ দায়ের করতে বাধ্য হয়েছি।তিনি আরও বলেন,অভিযোগটি তুলে না নিলে কোটি টাকার বিনিময় হলেও তার চাকুরী খেয়ে ফেলা হবে মর্মে হুমকি ও ষড়যন্ত্র অব্যাহত রয়েছে।যেকারনে থানায় একটি সাধারন ডায়রি করা হয়েছে।ঘটনা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অধ্যক্ষ সুভাষ চন্দ্র সরদার নিজেকে নির্দোষ দাবি করে আনিত অভিযোগ অসত্য ও ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেন।

খুলনা প্রেসকাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের ৪র্থ সভা
খবর বিজ্ঞপ্তি
খুলনা প্রেসকাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের ৪র্থ সভা শনিবার বেলা ১১টায় কাবের সাংবাদিক হারুন সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন কাবের সভাপতি এস এম নজরুল ইসলাম এবং সভা পরিচালনা করেন কাবের সাধারণ সম্পাদক মামুন রেজা। সভার শুরুতে করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তি পেতে বিশ্বের সব মানুষের জন্য বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
সভায় আলোচনা শেষে দেশব্যাপী করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকির প্রেক্ষিতে প্রেসকাবের কার্যক্রমে পরিবর্তন আনা হয়েছে। গতকাল থেকে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত বেলা ১১টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত প্রেসকাবের কার্যক্রম সীমিত আকারে চলবে। এ সময়ে জরুরী প্রয়োজন ছাড়া সদস্যদেরকে কাবে আসার ব্যাপারে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। একই সাথে সদস্যদের পরিবার-পরিজন নিয়ে সতর্কতার সাথে বাড়িতে অবস্থান করার আহবান জানানো হয়েছে। এছাড়া সভায় কাবের উন্নয়নসহ বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
সভায় সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ আনিসুজ্জামান, যুগ্ম-সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, কোষাধ্যক্ষ সোহেল মাহমুদ, সহকারী সম্পাদক মাহবুবুর রহমান মুন্না, আহমদ মুসা রঞ্জু ও বিমল সাহা, নির্বাহী সদস্য মকবুল হোসেন মিন্টু, মোহাম্মদ আলী সনি, মোঃ মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, এস এম সাহিদ হোসেন, মোঃ তরিকুল ইসলাম, মোঃ জাহিদুল ইসলাম, রকিব উদ্দিন পান্নু, মোঃ রাশিদুল ইসলাম, হাসান আহমেদ মোল্লা, মোঃ সাঈয়েদুজ্জামান স¤্রাট ও মোঃ আনিস উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় পার্টি জে.পি খুলনা মহানগর শাখা থেকে কাজী মাসুদ কে বহিস্কার
খবর বিজ্ঞপ্তি
জাতীয় পার্টি জেপি খুলনা মহানগর শাখার এক সভা শনিবার বিকেলে সংগঠনের মহানগর শাখার সভাপতি এম,এস, রাশিদা করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কাজী মাসুদের প্রতি পূর্বের দেওয়া কারণ দর্শনোর নোটিশ ও তার এই নোটিশের জবাব পর্যালোচনা করা হয়। পর্যালোচনায় দেখা যায় কাজী মাসুদ গত ৭ইং ফেব্রুয়ারী তথা কথিত ত্রি-বার্ষিক সম্মলনের কোন বৈধতা দেখাতে পারে নাই। উপরোন্তু প্রায়শি পত্র-পত্রিকায় নিজেকে মহানগর জেপির সভাপতি হিসেবে পরিচয় দিয়ে আসছে। এটা পার্টি গঠনতন্ত্র বিরোধী কার্যকলাপ, এই বিশৃঙ্খল কার্যকলাপের জন্যে পার্টির ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে বিধায় তাকে মহানগর জেপি থেকে বহিস্কার করা হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টি জেপি প্রেসিডিয়াম সদস্য শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দন, জেপির জেলা শাখার সভাপতি এ্যাড. আব্দুল মজিদ, জেলার সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোশাররেফ হোসেন হাওলাদার, সিনিয়ার সহ-সভাপতি ড. এস,এম,জাকারিয়া, সাবেক কাউন্সিলর মোঃ নজরুল ইসলাম খান, মহানগর সহ-সভাপতি মোঃ হায়দার আলী হাওলাদার, চৌধুরী হাবিবুর রহমান, শেখ বোরহান আহম্মেদ, সাবেক অতিঃ পুলিশ সুপার মোঃ আব্দুল হালিম মোল্লা, এ্যাড, নাছরিন আক্তার, হাওলাদার ওসমান গণি, ডাঃ রোজিনা আফরোজ, মোসাঃ রাবেয়া খাতুন, শিল্পি, বেগম লাভলী ইয়াছমিন, রানিমা খাতুন, আবু হাসান, আবু হোসেন, মামুন, রনি, নাঈম, মেহেদী, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু জাফর, অর্থ সম্পাদক বাদল মুন্সী, সোহেল শেখ প্রমুখ।

মাগুরায় বিদেশ ফেরতের বাড়িতে লাল পতাকা
মাগুরা প্রতিনিধি
বিশ্বে নভেল করোনাভাইরাস মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ায় মাগুরায় বিদেশ ফেরতদের বাড়ি বাড়ি ওড়ানো হচ্ছে লাল পতাকা। সতর্কতার জন্য বিদেশ ফেরত চিহ্নিত করতে শনিবার জেলার সদর উপজেলার জগদল ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগের এমন ২২টি বাড়ির সামনে লাল পতাকা উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। সরকারি হিসেবে শনিবার পর্যন্ত নভেল করোনাভাইরাসে বাংলাদেশে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে এবং আক্রান্ত হয়েছেন ২৪ জন। এছাড়া,গত কয়েক মাসে দেশে ছয় লাখের বেশি প্রবাসী দেশে ফেরেন বলে তথ্য রয়েছে। তবে গত কয়েক দিনে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়া দেশগুলো থেকে প্রবাসীরা ফিরতে শুরু করলে দেশে আতঙ্ক ছড়ায়। এরই মধ্যে মাদারীপুরের চার এলাকা রুদ্ধ করে রেখেছে প্রশাসন।

করোনাভাইরাস ছড়ানোয় সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ বিদেশ ফেরতরা জানিয়ে জগদল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন, “বিদেশ থেকে বাড়ি ফিরে বেশির ভাগ প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টাইন না মেনে অবাধে চলাফেরা করছেন। যে কারণে উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে জগদল ইউনিয়নে প্রতিটি বাড়ি-বাড়ি গিয়ে গত সাত দিনের মধ্যে বিদেশ থেকে বড়ি ফেরা সবার খোঁজ নেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে। প্রথম দিন আরব আমিরাত, সিঙ্গাপুর, লেবানন, ওমান, কাতার, সৌদি আরব থেকে আসা ২২ জনকে পাওয়া গেছে। যাদের প্রত্যেককে হোম কোয়ারেন্টাইন থাকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে বলে জানান তিনি। “একই সাথে বিদেশ ফেরত সবার বাড়ির সামনে লাল পতাকা টানিয়ে দেওয়া হয়েছে।” এতে করে এলাকাবাসীর পাশাপাশি স্বাস্থ্য বিভাগ, প্রশাসন, স্থানীয় সরকারসহ দায়িত্বরত সংশ্লিষ্ট সবাই সহজে নজরদারি করতে পারে। সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু সুফিয়ান জানান, তারা গ্রামে-গ্রামে তল্লাশি চালিয়ে বিদেশ ফেরতদের চিহ্নিত করে তাদের নাম ঠিকানা তালিকাভূক্ত করছেন এবং তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করছেন।
শনিবার থেকে জগদল ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে প্রথম বিদেশ ফেরতদের বাড়ির সামনের লাল পাতাকা ওড়ানো শুরু হয়েছে। এ কার্যক্রম চলমান থাকবে বলেও জানান তিনি। কোন বিদেশ ফেরত হোম কোয়ারেন্টাইন থাকার নিয়ম না মানলে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কুষ্টিয়ায় ট্রলি উল্টে ২ শ্রমিক নিহত
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় মাটিভর্তি ট্রলি খাদে পড়ে দুই শ্রমিক নিহত হয়েছেন; এছাড়া আহত হয়েছেন আরও দুইজন। কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার পরিদর্শক সঞ্জয় কুমার জানান, শনিবার বেলা দেড়টার দিকে গোস্বামী দুর্গাপুর ইউনিয়নের নান্দিয়া মোড়ে হতাহতের এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন ওই ইউনিয়নের বামুন গ্রামের সুলতান ম-লের ছেলে আজিজুল হক (৩৫) ও একই এলাকার লুৎফর ম-লের ছেলে আব্দুর রশিদ (৩০)। ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান দবির উদ্দিন বিশ্বাস বলেন, ইটভাটার মাটি আনার জন্য সকালে একটি ট্রলি কয়েকজন শ্রমিক নিয়ে যাচ্ছিল। চালক নিয়ন্ত্রণ হারালে ট্রলিটি উল্টে খাদে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই ট্রলির নিচে চাপা পড়ে রশিদ নিহত হন।

এ সময় আরও তিন শ্রমিক গুরুতর আহত হলে তাদের কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে বেলা আড়াইটার দিকে চিকিৎসক আজিজুলকে মৃত ঘোষণা করেন। অন্য দুইজনকে ওই হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তারা হলেন বামুনগ্রামের খয়বার আলীর ছেলে শরিফুল ইসলাম (৩২) ও আক্তার হোসেনের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৩৪)। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ওই হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিদর্শক সঞ্জয় কুমার।

সাতক্ষীরা হাসপাতালে বিদেশ ফেরত তরুণকে নিয়ে চিকিৎসকরা ভয়ে
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
নভেল করোনাভাইরাস নিয়ে বিশ্বব্য্যাপী আতঙ্কের মধ্যে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ভারত থেকে আসা এক তরুণকে নিয়ে নার্স-চিকিৎসকরা ভয়ে আছেন। বুধবার ভর্তি হওয়ার পর এখনও কোনো চিকিৎসক তাকে দেখতে যাননি। নার্স-ব্রাদাররা তাকে দূর থেকে স্ট্রেচার করে খাবার দিচ্ছেন। ২১ বছর বয়সী এই তরুণের বাড়ি জেলার শ্যামনগর উপজেলার দাতনিখালী গ্রামে। তিনি বলেন, তিনি আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স শেষবর্ষের শিক্ষার্থী। বুধবার যশোরের বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে দেশে আসেন। “বাড়ি যাওয়ার আগে আমি স্বপ্রণোদিত হয়ে হাসপাতালে আসি। আমি নিজে থেকেই দুই সপ্তাহের জন্য আলাদা থাকতে চেয়েছি। আমি যেহেতু বিদেশ থেকে এসেছি, সেহেতু দুই সপ্তাহ চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে থাকব। তাতে যদি কোনো ধরনের নেতিবাচক প্রভাব দেখা দেয় তাহলে চিকিৎসা নেব। সমস্যা না হলে বাড়িতে ফিরে যাব।” বাড়িতে তার বাবা-মা ও কিশোরী বোন রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, “আমি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছি কিনা তা নিশ্চিত না হয়ে বাড়ি গিয়ে পরিবার ও সমাজকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলতে পারি না।” তবে তিনি কোনো রকম অসুস্থতা অনুভব করছেন না বলে জানিয়েছেন। হাসপাতালের চিকিৎসক নাজিয়া মুজাহিদ বলেন, “আমি তাকে এখনও দেখিনি। তবে সার্বক্ষণিক খবরাখবর নিচ্ছি। এই তরুণ সুস্থ আছেন। প্রয়োজন হলে অবশ্যই দেখব। “তবে বেদনার বিষয় হল হাসপাতালের চিকিৎসকসহ পুরো টিম তাকে সেবা দিচ্ছে সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে। তাদের নেই কোনো প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য নিরাপত্তার ব্যবস্থা।” হাসপাতালে গিয়ে ওই তরুণকে নিয়ে চিকিৎসাকর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা গেছে। ব্রাদার নারদচন্দ্র ব্রহ্ম বলেন, “ওই তরুণকে আমরা নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে খাবার সরবরাহ করছি। তবে সবাই অত্যন্ত ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছে।”পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, গত ১৮ দিনে সাতক্ষীরায় ৮ হাজার ৮৬৮ জন বিদেশ থেকে এসেছেন। তাদের বেশির ভাগ এসেছেন ভারত থেকে। তাদের ব্যাপারে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

করোনাভাইরাস অতিমাত্রায় ছোঁয়াচে হওয়ায় আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে এলে যে কেউ আক্রান্ত হতে পারেন। ইতোমধ্যে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বন্ধ করা হয়েছে। বন্ধ করা হয়েছে প্রায় সব বিনোদনকেন্দ্র, জাদুঘর ইত্যাদি। সারাদেশে সব প্রেক্ষাগৃহ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও বন্ধ হয়ে গেছে। মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাসে সারা দুনিয়ায় আড়াই লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ১০ হাজারের বেশি। করোনাভাইরাস বিশ্বকে অর্থনৈতিক মন্দার দুয়ারে পৌঁছে দিয়েছে বলে সতর্ক করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস।

শান্তিপূর্ণ পরিবেশে শেষ বাগেরহাট-৪ আসনের নিরুত্তাপ ভোট, তবে নজর কেড়েছে ভোটারদের হাত ধোয়া
মাসুম হাওলাদার, বাগেরহাট
৯৮ বাগেরহাট-৪ (মারেলগঞ্জ-শরণখোলা) আসনের উপনির্বাচন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে শেষ হয়েছে। সকাল নয়টা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত একটানা ভোট চলে এই আসনটিতে। অনুষ্ঠেয় এই ভোটে কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা ভোটারদের ভোট প্রদানের আগে হাত ধোয়ার দৃশ্য সবার নজর কেড়েছে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ভোটারদের জন্য হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখে নির্বাচন কমিশন .এই আসনে ভোটার তিন লাখ ১৬ হাজার ৫১০ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৫৮ হাজার ৭৯১ জন ও এক লাখ ৫৭ হাজার ৭১৯ জন নারী ভোটার রয়েছেন। ভোট কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা নারী-পুরুষ ভোটারদের আনসার বাহিনীর সদস্যরা হাত ধুতে সহযোগিতা করেন। শনিবার সকাল নয়টায় ভোট শুরুর সময়ে ভোট কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। বেলা বাড়ার সাথে সাথে তা কমতে থাকে। দুপুরের দিকে অধিকাংশ ভোট কেন্দ্রই ছিল ফাঁকা। এরপর বিকেলে গড়ালে আবার কিছুটা বাড়ে। এই আসনে প্রাথমিকভাবে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে সংশ্লিষ্ট আসনের রিটার্নীং কর্মকর্তা জানিয়েছেন। তবে ভোট গনণার পর কত শতাংশ ভোট পড়ল তা জানা যাবে। এই আসনের আওয়ামী লীগ ও জাপার মনোনীত প্রার্থীদেরও ভোট নিয়ে ছিল না কোন অভিযোগ।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক ভোটার বলেন, এই আসনের গত পাঁচটি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সাথে জামায়াতের প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়ে আসছে। এই উপনির্বাচনে জামায়াত তাদের কোন প্রার্থী দেয়নি। এখানকার রাজনীতিতে জাপার সাংগঠনিক কোন ভীত নেই। একারনে তাদের ভোটও নেই। তাছাড়া জাপা যাকে প্রার্থী করেছে ওই প্রার্থীর এলাকার কোন মানুষ চেনে না। নির্বাচনে তার কোন পোষ্টার ভোট কেন্দ্রে নেই। তিনি এখানকার সব ভোটারদের কাছে পৌছতেও পারেননি। আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সাথে জাপার প্রার্থীর কোন প্রতিদ্বন্দ্বিতাই হবে না এই আসনে বলে মত দেই ওই ভোটাররা।
জাপার মনোনীত প্রার্থী সাজন কুমার মিস্ত্রী শনিবার সকালে তার বাড়ি রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের কামলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দেন। পরে তিনি তার নির্বাচনী এলাকায় দলের কয়েকজন নেতাকে সাথে নিয়ে বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে যান। তার সাথে যোগাযোগ করা হলে নিনি বলেন আমার নিজের জন্য কোন ভোট চাইনি জাতে সাধারন ভোটারা ভোট দিতে আসতে পারে সে জন্য চেষ্ঠাকরে যাচ্ছি।
মোরেলগঞ্জ উপজেলার দৈবজ্ঞহাটি বিশে^শ^র বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা সরোয়ার হোসেন, মৃনাল সাহাসহ একাধিক ভোটার বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে নির্বাচন কমিশন হাত ধোয়ার প্রস্তুতিটা আমাদের ভাল লেগেছে। এখানে আসা অধিকাংশ ভোটারই স্বাস্থ্য সচেতন না। দরিদ্র দিনমজুর যারা ভোট দিতে এসেছেন তারা বাড়িতে এভাবে হাত ধোয় কিনা তা নিয়ে সন্দেহ আছে। এই নির্বাচনে নির্বাচন কমিশন ভোটারদের হাত ধুয়ে দিয়ে তাদের সচেতন করেছেন। তারা একটু হলেও সচেতন হয়েছেন বলে মতদেন ওই ভোটাররা। এই আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বীর মুক্তিযো এ্যাডভোকেট আমিরুল আলম মিলন এবং জাতীয় পার্টির সাজন কুমার মিস্ত্রী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও বাগেরহাট-৪ আসনের রিটার্নীং কর্মকতা মো. ইউনুচ আলী জানান , বাগেরহাট-৪ আসনের নির্বাচন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে শেষ হয়েছে। কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ভোট কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতিও ছিল সন্তোষজনক। ৪০ শতাংশের মত ভোট পড়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করছি। ভোট নির্বিঘœ করতে দশ প্লাটুন বিজিবি, দুই প্লাটুন কোস্টগার্ড, র‌্যাবের ১০টি টিম নির্বাচনী এলাকায় টহল দিয়েছে। এছাড়াও এই নির্বাচনে ২৩ জন নির্বাহী, দুইজন জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট, পুলিশের ২১টি ভ্রাম্যমাণ টিম এবং দশটি স্ট্রাইকিং ফোর্স মাঠে সার্বক্ষনিক নিয়োজিত ছিল। শান্তিপূর্ণ ভোট উপহার দিতে যা যা করণীয় ছিল তা নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে করা হয়েছিল।
তিনি আরও বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় এই নির্বাচনে ভোটারদের জন্য ১৪৩টি ভোট কেন্দ্রে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান, টিস্যু সরবরাহ করা হয়। ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা উপস্থিত হলে সেখানের আনসার সদস্যরা পানি ও সাবান দিয়ে প্রথমে হাত ধুয়ে দেয়। পরে তাদের বুথে যেয়ে ভোট দেয়ার অনুরোধ করে। এই উদ্যোগ ভোটারদের মধ্যে একটু হলেও সচেতনতা বেড়েছে। গত ১০ জানুয়ারি বাগেরহাট-৪ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য ডা. মোজাম্মেল হোসেনের মৃত্যু হলে আসনটি শূন্য হয়। ৬ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন কমিশন উপ-নির্বাচনের তফসীল ঘোষণা করে। ঘোষিত তফসীল অনুযায়ি ১৯ ফেব্রুয়ারি আওয়ামী লীগম বিএনপি ও জাপার তিন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করে। বিএনপি দলীয় প্রার্থী কাজী খায়রুজ্জামান ঝণ ও কর খেলাপী হওয়ায় তার মনোনয়নপত্রটি বাতিল করে নির্বাচন কমিশন।

বাগেরহাটে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন জেলা প্রশাসন
বাগেরহাট প্রতিনিধি
বাগেরহাটে করোনা ভাইরাস বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে বাড়ি, বাড়ি যাচ্ছেন জেলা প্রশাসন। শুক্রবার বিকেলে বাগেরহাট জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা বিভিন্ন গ্রামের বাড়ি বাড়ি ও হাট-বাজারে সচেতনতা মূলক লিফলেট বিতরণ করেন এবং সচেতন হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেন।
এদিন বিকেলে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল ইসলাম বাগেরেহাট সদর উপজেলার পোলঘাট ও বাগমারা গ্রামের বিভিন্ন বাড়িতে যান। তাদের করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষার উপায় সম্পর্কে পরামর্শ দেন এবং পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে বলেন। যারা বিদেশ থেকে আসছেন এবং আসবে তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার বিষয় নিশ্চিত করতে সাধারণ মানুষকে পরামর্শ দেন। এসময় তিনি সকলের মাঝে লিফলেট বিতরণ করেন।
এদিকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ শাহিনুজ্জামানের নেতৃত্বে বাগেরহাট জেলা স্কাউটস‘র একটি টিম খানজাহান আলী মাজার বাজারে সাধারণ মানুষের মাঝে লিফলেট বিতরণ ও জন সচেতনতায় মাইকিং করেছে। এবং জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা বাড়িতে বাড়িতে যেয়ে লিফলেট বিতরণ ও সচেতন হওয়ার পরামর্শ প্রদান করায় সাধারণ মানুষের মাঝে যেমন সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। তেমনি প্রশাসনের প্রতি একধরণের ইতিবাচক ধারণা সৃষ্টি হয়েছে।
পোলঘাট গ্রামের মোঃ শাহজাহান, লাভলু শেখ, মঞ্জিলা বেগমসহ কয়েকজন বলেন, করোনা সম্পর্কে বিভিন্ন কথা শুনেছি। এই লিফলেট পেয়ে করোনা থেকে রক্ষা পাওয়ার বিষয়ে অনেক কিছু জানতে পেরেছি। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক স্যার অনেক ভালভাবে বুঝিয়ে বলেছেন। আমরা খুব খুশি হয়েছি।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল ইসলাম বলেন, করোনা সম্পর্কে অনেকই অবহিত না। বিশেষ করে গ্রামের লোকজন খুবই অসচেতন। তাই আমরা গ্রামে বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের করোনা প্রতিরোধ সম্পর্কে অবহিত করছি। সচেতনা বৃদ্ধির জন্য লিফলেট বিতরণ করছি। এছাড়া মসজিদে, বিভিন্ন হাট বাজারে সাধারণ মানুষের মাঝে লিফলেট বিতরণ ও মাইকিং করা হয়েছে। বাগেরহাটের সিভিল সার্জণ কে এম হুমায়ুন কবির বলেন, বাগেরহাটে ৫‘শ ৬ জনের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করেছি আমরা। সম্প্রতি কয়েকটি দেশ থেকে ৩ হাজার ৩‘শ জন প্রবাসী বাড়িতে আসছেন। তাদেরকে সতর্ক অবস্থায় থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগ সব সময় প্রস্তুত রয়েছে।

চৌগাছায় খাস সম্পত্তি ব্যক্তি মালিকানায় রেকর্ড করে বিক্রিতে তোলপাড়
যশোর অফিস
যশোরের চৌগাছা উপজেলার পাশাপোল ইউনিয়নের কালিয়াকুন্ডি মৌজার খাস সম্পত্তি ব্যক্তি মালিকানায় রেকর্ড করে নেয়ার তথ্য ফাঁস হয়ে পড়েছে। খাস সম্পত্তির সাথে তারা অর্ধশতাধিক ব্যক্তির রেকর্ডিয় সম্পত্তিও দলিল করে নিয়েছে। এঘটনার সাথে স্থানীয় একটি প্রতারকচক্র জড়িত। চক্রের সদস্যরা ওই জমি এক প্রভাবশালী মহলের কাছে বিক্রিও করে দিয়েছে। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ৪৩ বছর পর ফাঁস হয়ে পড়ায় ক্ষোভে ফুঁসছে এলাকাবাসী। এ মহলটি বর্তমানে জমি দখল করতে স্থানীয় একটি সন্ত্রাসীচক্রের সাথে হাত মিলিয়েছে। এলাকাবাসী জমিটি উদ্ধার করে উম্মুক্ত ও জনগনের নামে রেকর্ডকৃত জমি তাদের ফিরিয়ে দেয়ার দাবি জানিয়েছে।
এলাকাবাসী জানিয়েছে, কালিয়াকুন্ডি মৌজায় ৫১ একর ১০ শতক সম্পত্তি রয়েছে। এরমধ্যে ৬২ সালে ৫৯ জনের নামে ২৬ একর ৩শতক জমি রেকর্ডকৃত। বাকী ১ খতিয়ানের ২৫ একর ৭ শতক জমি ৭৭/৭৮ সালে বিভিন্ন এলাকার ১০জন ১২ বছরের জন্য লিজ নেয়। এ লিজের মেয়াদ শেষ হয় ৮৮ সালে। কিন্তু তারা জমিটি নিজেদের করতে নানা তৎপরতা চালায়। একপর্যায়ে সফলও হয়। ৯০/৯১ সালের দিকে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে তাদের ভুল বুঝিয়ে জনগনের নামে ৬২ সালের রেকর্ড করা ২৬ একর ৩শতকসহ ১ খতিয়ানের ২৫ একর ৭শতক জমি তারা নিজেদের নামে রের্কড করে নেন। এতে অনেকের ভিটেমাটি রয়েছে। সম্প্রতি ওই জমির একাংশে মাছ চাষের জন্য নেট পাটা ব্রিজ করে মহলটি অবরুদ্ধ করে দেয়। বিষয়টি নিয়ে গ্রামবাসী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে অভিযোগ করলে নির্বাহী কর্মকর্তা নিজে উপস্থিত থেকে নেটপাটা উচ্ছেদ করে দেন। কিন্তু চক্রটি ঘটনা ভিন্নখাতে নিতে উল্টো জনগনের নামে মামলা করে দেয়। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠে গ্রামবাসী। এরপরই খোঁজখবর নিতে গিয়ে সরকারি জমি লিজের নাম করে নিজেদের নামে রেকর্ড করে নেয়ার ও পরে তারা ওই সম্পত্তি গরিবপুর গ্রামের বর্তমানে ঢাকার বাসিন্দা প্রভাবশালী শিল্পপতি সাইদুর রহমানের কাছে বিক্রি করে দেয়ার তথ্য ফাঁস হয়ে যায়। গ্রামবাসী সংশ্লিষ্ট অফিসে খোঁজ নিয়ে এরমধ্যে ৪জনের নামে দলিল হওয়া নাম ঠিকানা ও দলিল নম্বর উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে। সেগুলো হচ্ছে, যশোর সদরের জামদিয়া গ্রামের সাকাত আলীর ছেলে নুরুজ্জামান দলিল নম্বর ১৪৬৩৩ তারিখ ১৫.০৮.৭৭, আরিচপুর গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে আ: মালেক দলিল নম্বর ১৪৬৩৪, ঝাউদিয়া গ্রামের ইসমাইল বিশ্বাসের ছেলে সামছুদ্দিন বিশ্বাস, দলিল নম্বর ১৪৬৩৫ ও রহমতপুর গ্রামের কুশাই বিশ্বাসের ছেলে ইউনুচ আলী দলিল নম্বর ১৪৬৪০।
কালিয়াকুন্ডি গ্রামের ভুক্তভোগী আইয়ুব হোসেন, ইসমাইল হোসেন, আলী হোসেন, ওমর আলীসহ গ্রামের অনেকে জানান, প্রভাবশালী মহলটি স্থানীয় সন্ত্রাসীচক্রের নেতা জুল হোসেন ও মাদক ব্যবসায়ী মজনুর নেতৃত্বে জমি থেকে তাদের উচ্ছেদের পায়তারা করছে। তারা প্রায়শ প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে জমি ছেড়ে দেয়ার জন্য। পাশাপাশি ৩৫ লাখ টাকা চাঁদাদাবি করেছে সন্ত্রাসীরা। ওই জমি থেকে নেটপাটা ইউএনও উচ্ছেদ করলেও আমাদের নামে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। এতে জমির মালিকরা চরম ভীত সন্ত্রস্থ হয়ে পড়েছে। ভুক্তভোগীরা তাদের নামে রেকর্ডকৃত জমি ফিরিয়ে দেয়ার ও ব্যক্তিমালিকানায় রেকর্ড করা খাস জমি উম্মুক্ত করে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন।

খুবিতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি ব্যাহত
খুবি প্রতিনিধি
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বল্প পরিসরে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি শুরু করেছে রসায়ন বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের শিক্ষার্থীরা। গত বৃহস্পতিবার ৬০ মিলিলিটারের ৩৬ বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করে বিভাগটি। তবে উপযুক্ত বোতল বাজারে না পাওয়ায় উৎপাদন ক্ষমা অনুযায়ী তৈরি করা সম্ভাব হচ্ছে না। রসায়ন ডিসিপ্লিনের ল্যাবে যে কাচামাল আছে তা দিয়ে ৬০ মিলিমিটার পরিমানের আর ৭০০ বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করা যাবে।
স্যানিটাইজার তৈরির কাজ পরিচালনাকারী রসায়ন বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের প্রধান অধ্যাপক ড. হোসনে আরা বলেন, বাজারে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের চড়া মূল্যের কারণে সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে তারা এ কাজের উদ্দ্যোগ নিয়েছেন। প্রতিটি বোতল উৎপাদন খরচ ৭৫ টাকা করে বিক্রি করা হচ্ছে। আর্থিক এবং উৎপাদন স্বল্পতার কারণে প্রাথমিকভাবে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের মাঝে এগুলো সরবরাহ করবেন। তবে কোন প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে আর্থিক সহযোগিতা পেলে তারা বিনামূল্যে বিতরণ করবেন বলে জানিয়েছেন রসায়ন ডিসিপ্লিনের প্রধান অধ্যাপক ড. হোসনে আরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ ফায়েকুজ্জামান বলেন, রসায়ন বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের এ কার্যক্রম সত্যিই প্রশংসানীয়। এ কাজে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সার্বিক সহযোগিতা দেবে।

করোনা ভাইরাসে সুন্দরবন ট্যুরস ব্যবসায়ে ধ্বস: ক্ষতি ৪ কোটি টাকা
রশীদ হারুন
বিশ্বের একক বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনের জীববৈচিত্র উপভোগ করতে বছর জুড়েই পর্যটকদের আসা-যাওয়া থাকে। শীতের মৌসুমে দেশের সর্ব দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের অববাহিকায় গড়ে ওঠা এলাকায় পর্যটকদের ভিড় বাড়তে থাকে। অক্টোবর থেকে শুরু হয় এই মৌসুম আর শেষ হয় ৩১ মার্চ পর্যন্ত। এই ৬ মাস চলে ট্যুরস ব্যবসা। করোনা ভাইরাসের কারণে এই ব্যবসায়ে ধ্বস নেমেছে। এতে ক্ষতি প্রায় ৪ কোটি টাকা। গত ১৯ মার্চ বন বিভাগ থেকে চিঠি দেয়া হয়েছে সুন্দরবন ভ্রমণ না করার জন্য। এই চিঠির আলোকে খুলনার ট্যুরস ব্যবসায়ীরা বুকিং বাতিল করেছেন।
খুলনায় রয়েছে ট্যুরস অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব সুন্দরবন টিওএএস নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এর আওতায় রয়েছে ৬৫ জন সদস্য। এছাড়াও কয়েকজন অপারেটর রয়েছে। প্রত্যেকের নিজস্ব জাহাজ রয়েছে। এর পাশাপাশি ৪টি জাহাজ রয়েছে ভাড়া। সব ক’টি জাহাজ ৪ ও ৫নং ঘাটে ভৈরব নদে নোঙ্গর করা রয়েছে। প্রত্যোক জাহাজে রয়েছে শ্রমিক ও কর্মচারী। এদের বেতন ভাতা দিতে হচ্ছে। এই খাতে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে ২৫ হাজার লোকের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছিল । তাদের বেতন ভাতা দিতে হিমসিম খেতে হচ্ছে। ইতোমধ্যে অনেক কর্মচারী ছাটাই করা হচ্ছে। আগাম বুকিং নেয়া টাকা ফেরত দেয়া হয়েছে।
ট্যুরস ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, গত নভেম্বর মাসে ঘুর্ণিঝড় বুলবুলে তাদের ক্ষতি হয়েছে। এখন আবার করোনা ভাইরাসের কারণে সরকারি নিষেধাজ্ঞা। ফলে তারা চরম বিপর্যের মধ্যে রয়েছে।
সূত্র জানান, পর্যটকদের চাপ সামলাতে সুন্দরবনে এরই মধ্যে গড়ে উঠেছে বেশ কয়েকটি ট্যুরিজম সেন্টার।
অন্যান্য দর্শনীয় স্থানগুলোর চেয়ে সুন্দরবন ভ্রমণ একটু আলাদা। তাই সুন্দরবন ভ্রমণের আগে জেনে নিন, কখন যাবেন, কীভাবে যাবেন, কোথায় থাকবেন বা কাদের সাথে যাবেন। ভ্রমণ পিপাসু পাঠকদের কথা ভেবে সুন্দরবন ভ্রমণের খুঁটিনাটি তুলে ধরা হলো।
সুন্দরবনে রয়েল বেঙ্গল টাইগার, চিত্রল হরিণ, বন্যশূকর, বানর, কুমির, ডলফিন, কচ্ছপ, উদবিড়াল, মেছোবিড়াল ও বন বিড়ালসহ রয়েছে ৩৭৫ এর অধিক প্রজাতির বন্যপ্রাণী। সেই সাথে সুন্দরবন জুড়ে জালের মতো জড়িয়ে থাকা ৪৫০ টি ছোট-বড় নদী-খাল ভ্রমণের অপার সুযোগ পাবেন ভ্রমণ পিপাসুরা।
বন্যপ্রাণীর বৃহত্তম আবাসস্থল সুন্দরবন জুড়েই পর্যটকদের জন্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখার অপার সুযোগ রয়েছে। এর মধ্যে শরণখোলার টাইগার পয়েন্ট হিসেবে পরিচিত কটকা, কচিখালীর অভয়ারণ্য কেন্দ্র, করমজল বন্যপ্রাণী ও কুমির প্রজনন কেন্দ্র, কলাগাছিয়ায় ইকোট্যুরিজম সেন্টার, হিরণ পয়েন্ট খ্যাত নীলকমল অভয়ারণ্য, দুবলারচর, মানিকখালী, আন্দারমানিক ও দোবেকী এলাকায় পর্যাটকদের আনাগোনা বেশি থাকে।
ট্যুরস অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব সুন্দরবন সাবেক সভাপতি ও এভার গ্রীণ ট্যুরস’র সত্বাধিকারী জেড এম কচি বলেন, তার প্রতিষ্ঠানের একটা সুনাম রয়েছে, তিনি আগাম নেয়া ৬ লাখ ৩০ হাজার টাকা ফেরৎ দিয়েছেন। বন বিভাগ অনির্দিষ্ট কালের জন্য সুন্দরবন ভ্রমণ নিষেধ করে চিঠি দিয়েছেন। সে আলোকে তারা ট্যুরস ব্যবসা বন্ধ করে দিয়েছেন। তারা লোকশান গুনছেন। প্রতিটি জাহাজের কর্মচারীদের বেতন দিতে হচ্ছে।
নিউ রেইনবো ট্যুরস’র সত্বাধিকারী শেখ আ. কুদ্দুস বলেন, ইতোমধ্যে অনেক কর্মচারী ছাটাই দিতে হয়েছে। এই মৌসুমে আর ব্যবসা করা হবে না। এর পর আর আবহাওয়া অনুকূলে থাকবে না। তিনি ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা যাত্রীদের কাছ থেকে নেয়া ফেরৎ দিয়েছেন।
সুন্দরবন ট্যুরস বিডি’র সত্বাধিকারী আতিয়ার রহমান বাবুল বলেন, ঘুর্ণিঝড় বুলবুলে তাদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। সে ক্ষতি এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেনি। আগামী ২৬ মার্চ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত এই দিন সরকারি ছুটির কারণে তাদের যাত্রী বেশী হতো। সে ভাবে তাদের বুকিং নেয়া ছিল। ট্যুরিসদের কাছ থেকে নেয়া সাড়ে ৩ লাখ টাকা ফেরৎ দেয়া হয়েছে। জাহাজের কর্মচারীদের বসিয়ে বেতন ভাতা দিতে হচ্ছে।

কপিলমুনি ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতির শয্যাপাশে সংসদ সদস্য বাবু
খবর বিজ্ঞপ্তি
ব্রেনস্ট্রোকে আক্রান্ত্র হয়ে খুলনা মহানগরীর শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন পাইকগাছার কপিলমুনি ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও কপিলমুনি ইউনিয়ন পরিষদের ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বর) মোঃ ইউনুছ আলী মোড়লকে (৪৫) দেখতে শনিবার (২১ মার্চ) সন্ধ্যায় হাসপাতালে যান খুলনা-৬ (কয়রা-পাইকগাছা) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু। এ সময় তিনি তার শয্যাপাশে কিছু সময় অবস্থান করেন ও কর্তব্যরত চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসার খোঁজ-খবর নেন এবং তার আশু-সুস্থতা কামনা করেন। এছাড়া শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রূপসার আইচগাতি নিবাসী ও সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্রনেতা মোঃ নাসিরের পিতা বৃক্ষপ্রেমী বশির আহমেদ এবং পাইকগাছার লস্কর ইউনিয়নের খড়িয়া নিবাসী বিকাশ চন্দ্র ঢালীর শয্যাপাশে কিছু সময় অবস্থান করেন ও তাদের চিকিৎসার খোঁজ-খবর নেন সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু। এ সময় উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জসীম উদ্দিন বাবু, যুবলীগ নেতা শামীম সরকার, হারুন আর রশীদ, খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মোঃ আবু সাঈদ খান, ছাত্রলীগ নেতা রবিউল ইসলাম রবি, এএইচএম কামাল, শেখ মোঃ শাকিল, মীর ছদরুল আমিন, নজির আহমেদ, রাজীব সরকার রাহুল, মুহাইমিন আল মাহিন, মোঃ রাসেল, রবিউল ইসলাম রিদয় প্রমুখ।

মণিরামপুরে শিলাবৃষ্টি,বোরোসহ আমের ক্ষতি
মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি
চৈত্রের শুরুতে যশোরের মণিরামপুরে শিলাবৃষ্টি হয়েছে। শনিবার (২১মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে সাটটা থেকে ৮টা পর্যন্ত আধঘন্টাধরে উপজেলার পূর্ব ও দক্ষিণ-পূর্ব অঞ্চলের মনোহরপুর, নেহালপুর, কুলটিয়া ও দূর্বাডাঙ্গা ইউনিয়নে হালকা ঝড়হাওয়াসহ শিলাবৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া রাত সাড়ে আটটা থেকে উপজেলার অন্যান্য এলাকায় হালকা বৃষ্টি শুরু হয়েছে। শিলাবৃষ্টিতে বোরো ফসলসহ আমের মুকুলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে। নেহালপুর এলাকার সাংবাদ কর্মী রিপন হোসেন সাজু জানান, সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা থেকে আধঘন্টা ধরে বৃষ্টি ও বড়বড় শিল সমান হারে পড়েছে। প্রতিটি শিলের ওজন হবে প্রায় ৫০ থেকে ১০০ গ্রাম।
মণিরামপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হীরক কুমার সরকার বলেন, নেহালপুর, কালিবাড়ী, কুলটিয়া ও দূর্বাডাঙ্গা এলাকায় শিলাবৃষ্টি হওয়ার খবর পেয়েছি। শিলাবৃষ্টিতে বোরো ধানের তেমন ক্ষতি না হলেও আমের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। রাত হওয়ায় উপস্থিত ক্ষতির পরিমান নির্ধারণ করা যাচ্ছে না।

করোনা প্রতিরোধে ছাত্র ইউনিয়নের উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ

খবর বিজ্ঞপ্তি

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, খুলনা জেলা সংসদ আজ সকাল ও বিকেলে খুলনা সদর হাসপাতালে ডোম কলোনী, হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়ন (১২১২)-এর শ্রমজীবী ও নি¤œ আয়ের লোকদের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয় এবং তাদেরকে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতনতা লক্ষ্যে করণীয় বিষয় তথ্য প্রদান করা হয়। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সদস্য ও খুলনা জেলা সভাপতি উত্তম রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক সৌরভ সমাদ্দার, ছাত্রনেতা সোমনাথ, অর্চি দেবনাথ, চন্দন দাস, জাকির হোসেন, সৌমিত্র ম-ল, শ্রমিক নেতা সোহেল আহমেদ প্রমুখ।

স্বল্পমূল্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিক্রির সিদ্ধান্ত কেরু অ্যান্ড কোম্পানির

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

করোনা ভাইরাস থেকে নিরাপত্তার জন্য স্বল্পমূল্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে চুয়াডাঙ্গার একমাত্র ভারী শিল্প প্রতিষ্ঠান কেরু অ্যান্ড কোম্পানি। উৎপাদিত হ্যান্ড স্যানিটাইজার জনগণের কাছে সহজলভ্য করতে স্বল্পমূল্যে বিক্রি করার পরিকল্পনা নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। শনিবার (২১ মার্চ) কেরু অ্যান্ড কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাহিদ আলী আনসারী এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

কেরু এন্ড কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক জানান, সারাদেশে নভেল করোনা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এই মুহূর্তে দরকার প্রত্যেককে ভালোভাবে নিজের হাতসহ বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ জীবাণুমুক্ত রাখা। বাজারে যেসব জীবাণুমুক্ত করার হ্যান্ড স্যানিটাইজার রয়েছে তার সবই স্পিরিট থেকে তৈরি। অন্যদিকে কেরু অ্যান্ড কোম্পানির স্পিরিট বিশ্বব্যাপী সমাদৃত। এজন্যই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে জনগণের হাতের নাগালে স্বল্পমূল্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদনের।

উৎপাদনের পর বাজারে কেমন মূল্য হতে পারে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, প্রতি ১০০ মিলি বোতলের দাম পড়বে মাত্র ৬০ টাকা। রবিবার সকাল থেকে পরীক্ষামূলকভাবে উৎপাদনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। সোমবার প্রাতিষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধনের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে ও মঙ্গলবার থেকে বাজারজাত করার পরিকল্পনা রয়েছে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন খুলনা জেলা নতুন কমিটি গঠন

খবর বিজ্ঞপ্তি

বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন খুলনা জেলা কমিটিতে আলহাজ্ব শেখ আব্দুল্লাহ, গভর্নর (সদর দপ্তর)-কে প্রধান উপদেষ্টা করে প্রকৌশলী রফিকুল আলম সরদাকে সভাপতি ও বেলায়েত হুসাইন জিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী নতুন কমিটি কেন্দ্র হতে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। কমিটির অন্যান্যরা হলেনÑনির্বাহী সভাপতি মোঃ জুলফিকার আলী, মেয়র, মংলা পৌরসভা; সিনিয়র সহ-সভাপতি শাহ্ মামুনুর রহমান তুহিন, সহ-সভাপতি খাদিজা আক্তার, এ্যাড. অলোকানন্দা দাস, এ্যাড. শেখ হাফিজুর রহমান, মোঃ রফিকুল ইসলাম আলম, মিসেস তাসলিমা বেগম, ডাঃ ওয়াছিউর রহমান, মল্লিক আবুল কালাম আজাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাজিব আহমেদ কবির, এ্যাড. শেখ সোহেল পারভেজ, মোঃ মনিরুল ইসলাম, ডাঃ জাকির হুসাইন, মোঃ আনোয়ার হোসেন, শেখ আরিফ হোসেন অনি, অর্থ সম্পাদক মোঃ বাদল মুন্সী, সাংগঠনিক সম্পাদক হাসিব মোঃ হাসনাইন অপু, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ নাজমুল হুদা, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. খান মনিরুজ্জামান, এ্যাড. আরজিনা সুলতানা, রোজলিন সরকার, এ্যাড. ইব্রাহিম খলিল, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক লুৎফুন্নেসা, শারমিন আক্তার ¯েœহা, লতিফুন্নেছা, ফাহমিনা আফসানা, ফারজানা আফসানা, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মোঃ ফয়জুল হক রুবেল, মোঃ বাদল সেফাই, মোঃ মুক্তার হোসেন জীবন, রেহেনা বেগম, রোজিনা পারভীন, আন্তর্জাতিক সম্পাদক রাজদ্বীপ কবিরাজ, দপ্তর সম্পাদক নিলয় সাহা, মোঃ তুহিনুল ইসলাম হাসান, ইমন জয়ধর জয়, সাংস্কৃতিক সম্পাদক উত্তম কুমার ম-ল, মোঃ হাসিব কামাল, সৈয়দ আসাদুর রহমান, নির্বাহী সদস্য মিলন কর্মকার, এ কে এম সাদেকুর রহমান, পলাশ কর্মকার, ফজলে মাকসুদ রুবেল, এস এম এমরান আলী, শেখ আসিকুর রহমান, ধনঞ্জয় সাহা, রাজন কুমার বিশ্বাস কিমন, মোঃ মাসুম হাওলাদার, গৌতম কুমার শীল।

ফকিরহাট বাজারে করোনা প্রতিরোধ বিষয়ক সভা

ফকিরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের ফকিরহাট সদর বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির আয়োজনে করোনা প্রভাবে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি বিষয়ক জরুরী সভা শনিবার সকাল ১০টায় বাজার চান্দিনায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) রহিমা সুলতানা বুশরা। সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও বাজার কমিটির সভাপতি শিরিনা আক্তার এর সভাপতিত্বে বিশেষ অথিথি ছিলেন মডেল থানার পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু সাঈদ মোঃ খায়রুল আনাম। ইউপি সদস্য মোঃ শহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শেখ হেমায়েত উদ্দিন, বাজার কমিটির সাধারন সম্পাদক খান হারুন অর রশিদ। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক চেয়ারম্যান আঃ রশিদ শেখ, বাজার কমিটির নেতা শেখ সৈয়দ আলী, শেখ মোসলেম উদ্দিন, সত্য রঞ্জন চক্রবর্তী, প্রশান্ত কুমার সাহা, সিরাজুল ইসলাম, প্রশান্ত মোদক, আনন্দ দে ও কার্ত্তিক দত্ত সহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। ##

মরন ব্যাধি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের গণসচেতনতার জন্য লিফলেট বিতরন

খবর বিজ্ঞপ্তি

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসারদের সংগঠন বন্ধনের উদ্যোগে অদ্য বিকাল ৫.০০ টায় নিরালা ১নং রোডের মসজিদের মুসল্লিসহ এলাকাবাসির মধ্যে  মরন ব্যাধি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের সচেতনতা মূলক লিফলেট বিতরন এবং সকলকে স্বান্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য অনুরোধ করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বন্ধনের সভাপতি আবদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এস,এম মোহাম্মদ আলী, উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য শেখ শারাফাত আলী, আবু সালেহ মোঃ পারভেজ, জি,এম আনিসুর রহমান, সিনিয়র সহ-সভাপতি  কাজী ফেরদাউস বাবু, মোঃ আতিয়ার রহমান, মোঃ আব্দুর রহমান(অ:হি:), মোঃ রবিউল ইসলাম, মোঃ সাইফুল ইসলাম, শেখ আফছার উদ্দিন, মোঃ সফিকুল ইসলাম, মোঃ নাসির জাহাঙ্গীর, মোঃ জসিম উদ্দীন, হারুনর রশিদ, শামীম রহমান, কামরুজ্জামান তুহিন প্রমুখ।

কপিলমুনিতে চালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধি, ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা আদায়!

পলাশ কর্মকার, কপিলমুনি ঃ

খুলনার কপিলমুনিতে চালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মুল্য বৃদ্ধি ও দোকানে মূল্য তালিকা না রাখার  কারণে একাধিক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে জরিমানা আদায় করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার বেলা ১১ টায় উপজেলার বৃহত্তর বাজার কপিলমুনিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জুলিয়া সুকায়না ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) , নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আরাফাতুল আলম অভিযানের নের্তৃত্ব দেন। এ সময় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ও মুল্য তালিকা না থাকার অপরাধে কপিলমুনি বাজারের চাউল ব্যাবসায়ী কামরুলকে ৩ হাজার, কীটনাশক ব্যবসায়ী গোপাল সাধুকে ১ হাজার ৫ শ টাকা, চাউল গোপাল সাধুকে ১ হাজার ৫শ, ও রবি সাধুকে ৫ হাজার, লক্ষী সাধুকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

ভ্রাম্যমান আদালত চলাকালে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা স্যানীটারী কর্মকর্তা উদয় মন্ডল, কপিলমুনি ইউপি চেয়ারম্যান কওসার আলী জোয়ার্দার, নির্বাহী আদালতের পেশকার দিপংকর মল্লিক, উপজেলা সার্ভেয়ার মোঃ সাকিরুল ইসলাম, কপিলমুনি ইউ এল ও মোঃ জাকির হোসেন। এ ছাড়া দুবাই থেকে আসা চয়ন মন্ডল ও ভারত থেকে আসা বিভুতি মিশ্রকে বাড়ীর বাইরে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারী করে হোম কোয়ারান্টাইনে থাকার নির্দেশ জারি করেন ভ্রাম্যমান আদালত।

কপিলমুনিতে আজ ঐতিহ্যবাহী মহা বারুনী ¯œান, করনোর কারণে হচ্ছে না অনুষ্ঠানিকতা

পলাশ কর্মকার, কপিলমুনি

কপিলমুনিতে আজ ৪‘শ বছরের ঐতিহ্যবাহী মহা বরুণী ¯œানের দিন। জানাযায়, কোন এক চৈত্র মাসের মধুকৃৃষ্ণা ত্রয়োদশীতে মহামুনি কপিলদেব কপিলমুনির কপোতাক্ষ ঘাটে সাধনায় মা গঙ্গার সাক্ষাৎ পেয়ে সিদ্ধি লাভ করেন। এ কারণে তাঁর সিদ্ধিলাভের দিনটিকে স্মরণ রাখতে ও নিজেকে পাপ মুক্ত করতে ধর্ম প্রাণ হিন্দু ভক্তরা কপোতাক্ষ নদের কপিলমুনি নামক স্থানের কালীবাড়ী ঘাটে গঙ্গা ¯œান বা বারুণী ¯œান উৎসব পালন করে আসছেন। গতকাল শনিবার রাত ৮ টা থেকে ¯œান শুরু হয়েছে, আর শেষ হবে আজ সকাল ১০ টায়।

প্রবীনরা জানান, মধুকৃষ্ণা ত্রয়োদশী তিথিতে গঙ্গার জল এই স্থানে প্রবাহিত হয়। বরুণ জলের দেবতা, বরুণের স্ত্রী বারুণী, বারুণী আর এক নাম গঙ্গা। তাই বারুণী ¯œান মানেই গঙ্গা ¯œান। তবে এ বছর স্বাড়ম্বরে এ ¯œান হচ্ছে। করোনা ভাইরাসের প্রদুর্ভাবের কারণে ¯œানের অনুষ্ঠানিকতা বন্ধ রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে কালী মন্দিরের সভাপতি যুগোল কিশোর দে বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের কারণে আজ ¯œানের দিন থাকলেও জনস্বার্থে এবছর ¯œানের অনুষ্ঠানিকতা হচ্ছে না।

ডুমুরিয়ায় ফেন্সিডিলসহ দু’মাদকসেবী  আটক

ডুমুরিয়া প্রতিনিধি

ডুমুরিয়া থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৪ বোতল ফেন্সিডিলসহ দু’মাদকসেবীকে আটক করেছে।গত শুক্রবার রাতে উপজেলার পল্লীবিদ্যুৎ জোনাল অফিসের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়।পুলিশ জানায়,গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঘটনার রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ডুমুরিয়া সদরে গ্রামপুলিশ সৈয়দ কারিমুলের ছেলে সৈয়দ সাব্বির হোসেন (২০) ও চুকনগর এলাকার মালেক গাজীর ছেলে সাগর গাজী (১৯) কে আটক করা হয়।এসময় তল্লাশী চালিয়ে তাদের কাছে থাকা ৪ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। ওসি মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় মাদক আইনে মামলা হয়েছে এবং আসামীদের জেল-হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

ডুমুরিয়া থানায় করোনা প্রতিরোধে হাতধোয়া কর্মসূচী গ্রহন

ডুমুরিয়া প্রতিনিধি

ডুমুরিয়ায় থানা পুলিশের উদ্দ্যোগে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে“আতঙ্ক,গুজব,ভয় নয়,সচেতনতাই প্রতিরোধের সর্বোত্তম উপায়”শ্লোগানকে সামনে রেখে হাতধোয়া কর্মসূচী গ্রহন করা হয়েছে।গতকাল শনিবার সকালে থানা প্রবেশে গেটের সামনে সাবান,স্যানেটরী প্যাড ও পানির ট্যাব স্থাপনের মধ্যদিয়ে এ কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন অফিসার ইনচার্জ মোঃ আমিনুল ইসলাম।উদ্বোধনী সভায় তিনি বলেন,পুলিশ ও সেবা প্রত্যাশী সকলেই করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্য সম্মত উপায়ে হাত ধুয়ে থানায় প্রবেশ করবে। এছাড়া প্রতিটি ক্ষেত্রে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করনীয় নির্দেশনা মেনে চলতে সকলের প্রতি আহবান জানান তিনি।

ডুমুরিয়ায় যুবলীগ নেতার ইন্তেকাল

ডুমুরিয়া প্রতিনিধি

ডুমুরিয়ায় ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে ওলিয়ার রহমান (৩৬) নামের এক যুবলীগ নেতার মৃত্যু হয়েছে।গত শুক্রবার দিবাগত রাতে খলশি গ্রামস্থ নিজ বাড়িতে তার মৃত্যু হয়।(ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহী রাজিউন-আমরা তো আল্লাহর এবং আল্লাহর কাছেই ফিরে যাবো)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী,মাতা,২কন্যাসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন।মরহুমের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়,উপজেলার খলশি গ্রামস্থ মৃত দাউদ শেখের ছেলে শেখ ওলিয়ার রহমান রাত ১১টার দিকে ডুমুরিয়া বাজার থেকে বাড়ি ফোর পথিমধ্যে হঠ্যাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন।পরে স্থানীয় তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।গতকাল শনিবার জোহর নামাজ বাদ খলশি ঈদগাহ মাঠে জানাজা নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

খুলনা জেলা আ’লীগের পক্ষে রেলস্টেশনে করোনা সংম্পার্কিত লিফলেট বিতরণ

খবর বিজ্ঞপ্তি

খুলনা জেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে গতকাল শনিবার রেলস্টেশানে জনগণকে সচেতনতার লক্ষে করোনা ভাইরাস সম্পার্কিত হ্যান্ডওয়াশ ব্যবহার ও লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আ’লীগের সাবেক সিনি: সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ কামরুজ্জামান জামাল, সাবেক উপ-দপ্তর সম্পাদক এ্যাডঃ শাহ আলম, জেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক সরদার জাকির হোসেন, দপ্তর সম্পাদক আসাদুজ্জামান খান রিয়াজ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক জামিল খান, জেলা সৈনিকলীগের সভাপতি এসএম ফরিদ রানা, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোসেন, সাবেক ছাত্রনেতা আজিজুর রহমান, বিধান চন্দ্র রায়, মহিলা আ’লীগনেত্রী পাপিয়া সরোয়ার শিউলী, যুবলীগনেতা আরিফ চৌধুরী, রাকিবুজ্জামান ইমন, আহসান আহম্মেদ পাভেল, রাকিব মাহমুদ, ছাত্রলীগনেতা মিথুন সরদার, শাহরুজ্জামান, রাকিব মাহমুদ, জহিরুল ইসলাম প্রমূখ। আ’লীগনেতা জামাল ওই রাতেই  হতাহতদের সার্বিক খোজ-খবর ও সহযোগীতার চেষ্টা করেন।

খুলনা জেলা সৈনিকলীগের করোনা ভাইরাস সম্পার্কিত লিফলেট বিতরণ

খবর বিজ্ঞপ্তি

জনগণকে সচেতনতা করার লক্ষে বিভিন্ন স্থানে খুলনা জেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের উদ্যোগে শুক্র ও শনিবার করোনা ভাইরাস থেকে প্রতিকার ও করণীয় সম্পার্কিত লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। বটিয়াঘাটার সুখদাড়া বাজার, গাওঘরা, গরিয়ারডাঙ্গা, কোদলা, বারোআড়িয়া বাজার, কোদলা, শুম্ভনগর, সুন্দরমহল, হাটবাটি বাজার ও ডুসুরিয়া উপজেলার শরাফপুর বাজারে এই লিফলেট বিতরণ করা হয়। ্সকলস্থানে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা সৈনিকলীগের সভাপতি, সাবেক ছাত্রনেতা এসএম ফরিদ রানা, ডাঃ দেবাশীস মন্ডল, অলোক মলিক, আজিজুর রহমান, এসএম শাহিন আলম, ডাঃ সুব্রত মন্ডল, মোঃ কাবেদুল ইসলাম, ফারুক গাজী, বিষ্ঞুপদ মন্ডল, নিখিল মন্ডল, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক শেখ আল-আমিন ও সুজিৎ রায়, যুবলীগনেতা মৃত্যুঞ্জয় মন্ডল, ইউনুচ শেখ, সৈনিকলীগ নেতা এসএম সৌরভ, মিন্টু, সাহাবুদ্দীন, মহব্বত প্রমূখ।

মোড়েলগঞ্জের নিশানবাড়িয়া ও জিউধরা ইউনিয়নে প্রচন্ড রৌদ্রে নারী পুরুষের দীর্ঘ লাইন

মোড়েলগঞ্জ প্রতিনিধি

বাগেরহাট-৪, মোড়েলগঞ্জ-শরণখোলা আসনের উপনির্বাচনে শনিবার সকাল ৯টা থেকে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে। কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। করোনা আতঙ্ক থাকলেও কেন্দ্রগুলোতে নারী পুরুষ সমানে সমান দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে আছেন ভোট প্রদানের জন্য। আওয়ামীলীগ প্রার্থী এ্যাড.আমিরুল আলম মিলন  সকাল ৯ টায় আব্দুল আজিজ মেমোরিলায় বিদ্যালয়ে ভোট প্রদান করেন। জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাজন কুমার মিস্ত্রী জিলবুনিয়া কেন্দ্রে ভোট প্রদান করেন। মোড়েলগঞ্জ-শরণখোলা আসনের উপনির্বাচনে শনিবার সকাল ৯টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। করোনা আতঙ্ক থাকলেও কেন্দ্রগুলোতে নারী পুরুষ সমানে সমান দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে আছেন ভোট প্রদানের জন্য। সকাল সাড়ে ১০টায় নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের হোগলপাতি মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন নিশানবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীহের সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাচ্চু। এ কেন্দ্রটিতে মোট ভোটার সংখ্যা ২ হাজার ৭১, পিজাইডিং অফিসার প্রভাষ কুমার মন্ডল ১০টা ৪০ মিনিটে জানিয়েছেন কাস্ট হয়েছে ১৭৫ ভোট।

অপরদিকে  সকাল ১১ টায় জিউধরা ইউনিয়নের ৬৭ নং ডুমুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম বাদশা ভোট প্রদান করেন। ভোটার রয়েছে ১৫৮৮, কাস্ট হয়েছে ৩৫০ ভোট। প্রচন্ড রোদের মাঝেও নারী পুরুষের দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। সব মিলিয়ে উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট গ্রহন চলছে। কথা হয় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম বাদশা বলেন, স্বাধীনতার পরবর্তী  থেকে এ আসনটি আওয়ামী লীগের জিউধরা ইউনিয়ন হচ্ছে ভোট ব্যাংক। বিজয়ের  ক্ষেত্রে শতভাগ আশাবাদী।    একই সাথে জিউধরা ইউনিয়নের ভোট কেন্দ্র নং ৬৯ বটতলা চন্দনতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মোট ভোটার ২৭৯২, দুপুর সোয়া ১২টায় কাষ্ট হয়েছে ৬৮০। ওই কেন্দ্রটিতে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন  একই চিত্র।  আওয়ামী লীগ নেতা মো. মিজানুর রহমান খান, ইউপি মেম্বর আব্দুল হাকিম মৃধা বলেন, নির্বাচনের চিত্রপট পাল্টে গেছে আজকে তার প্রমান। নারী ভোটাররা দীর্ঘ পথ হেটে এসে ভোট তার আঙ্খাকিত প্রার্থীকে ভোট দিচ্ছেন। একই ইউনিয়নের সোমাদ্দারখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটারদের দেখা গেছে করোনা ভাইরাজ প্রতিরোধে হাত ওয়াস করে ভোট কেন্দ্রের বুথে যাচ্ছেন। ভোট দিতে আসা ৭নং ওয়ার্ড ইউপি মেম্বর মো. সাইদুর রহমান বলেন, করোনা আতংকে কিচুই নেই, ভেঅটাররা সচেতন যথেষ্ট। আশা করছি নৌকার বিজয় হবে।

দেবহাটায় করোনা সতর্কতা সভায় ইউএনওর সকল গরুরহাট বন্ধের সিদ্ধান্ত

দেবহাটা প্রতিনিধি

দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরীনের উদ্যোগে শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস কক্ষে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাজিয়া আফরীন। সভায় উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা অধীর কুমার গাইন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল হাই রকেট, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা রাকিব ইসলাম, উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী জুয়েল হোসেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শফিউল বশার, উপজেলা প্রানী সম্পদ অফিসের ভিএস তহিদুর রহমান, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন কর্মকর্তা শওকত হোসেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একাডেমিক সুপারভাইজার মিজানুর রহমান, উপজেলা সহকার প্রোগ্রামার ইমরান হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সভায় ইউএনও উপজেলার সকল গরুরহাট পরবর্তী সিদ্ধান্ত না দেয়া পর্যন্ত বন্ধের সিদ্ধান্ত জানান। এছাড়া উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের করোনা মোকাবেলায় বিদেশ ফেরত ব্যক্তিদের কমপক্ষে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করনে ইউনিয়ন মনিটরিং কমিটি গঠন করেন। পরে ইউএনও উপজেলার বিভিন্ন বাজারে বাজার মনিটরিং করেন এবং চিনেডাঙ্গা গ্রামে সুন্নতে খৎনা ও বৌভাতের অনুষ্ঠান বন্ধ ও সরকারের নির্দেশনা অমান্য করায় ২ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

পরিস্কার পরিচ্ছন্ন অভিযানের অংশ হিসেবে খালিশপুর বিভিন্ন মোড়ের দোকানে ছোট ডাস্টবিন বিতরণ

খবর বিজ্ঞপ্তি

করোনা ভাইরাস সচেতনতামূলক প্রচারণা ও পরিস্কার পরিচ্ছন্ন অভিযানের অংশ হিসেবে গতকাল শনিবার সকালে নগরীর খালিশপুর মানষীবিল্ডিংসহ বিভিন্ন মোড়ের দোকানে ময়লা ফেলার (ছোট বিন) ডাস্টবিন বিতরণ করা হয়। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সহযোগিতায় মানষীবিল্ডিং মোড়ের যুবসমাজের উদ্যোগে এ ডাস্টবিন বিতরণ করা হয়। এ সময় অতিথি ছিলেন প্রবীন শ্রমিক নেতা সরদার মোতাহার উদ্দীন। অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন খালিশপুর থানা আ’লীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য মোল্যা মুরাদ হোসেন রিপন, ১১নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি জাকির হোসেন, সাঃ সম্পাদক সরদার আলী আহমেদ, বিটিভি শিল্পাঞ্চল প্রতিনিধি মিজানুল ইসলাম, আবুল কাশেম, সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজন খালিশপুর থানা কমিটির সম্পাদক খলিলুর রহমান সুমন, দৈনিক সময়ের খবর পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার মোহাম্মদ মিলন,হুসাইন আল মামুন মুন্না, খালিশপুর ফুটবল একাডেমির সভাপতি কাজী নিয়ামুল হক মিঠু, সাঃ সম্পাদক কামাল হোসেন, কামরুজ্জামান সেলিম,  মমিনুর রহমান, ফুটবলার আঃ রাজ্জাক,লিটন, আঃ আজিজ, শেখ আহমেদ গুড্ডু, মিলন মুন্সী, সুমন, আইয়ুব আলী প্রমূখ। অনুষ্ঠানে অর্ধশত বিন বিতরণ করা হয়।

তালায় পূর্বশত্রুতার জেরে মারপিট ঃ মামলা করেও চরম নিরাপত্তাহীনতায় পরিবারটি

পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি

তালার আটারই পূর্বশত্রুতার জেরে এক হিন্দু পরিবারকে  মারপিট করলে নিরাপত্তার কারণে মামলা করে বিপাকে পড়েছে একটি পরিবার। বর্তমানে তারা বাড়িছাড়া হয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিনাতিপাত করছে বলে জানা যায়। মামলার বিবরণে জানা যায়, তালার আটারই গ্রামে সুনীল দাসের পরিবারটি শান্তিতে বসবাস করে আসছিল। পূর্বশত্রুতার জেরে একই গ্রামের মৃত তফেজ গাজীর পুত্রগণ ও তাদের সহযোগীরা এই পরিবারটিকে বিভিন্ন সময় নাজেহাল করে আসছে। এরই সূত্র ধরে ২৬ অক্টোবর ২০২০ সালে পূর্বপরিকল্পিতভাবে ছোট একটি বিষয়কে কেন্দ্র করে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে তাদের উপর চড়াও হয়। এতে সুনীল দাসের পুত্র রিপন দাস (১৮) কে নিজ বাড়িতে এসে মারপিট করে মাথা ফাটিয়ে দেয় এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের গুরুতর আহত করে চলে যায়। শুধু মারপিট করেই ক্ষান্ত না হয়ে বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শন করতে থাকে। পরে নিরাপত্তার স্বার্থে ঐ পরিবারটি তালা থানায় একটি মামলা করে। মামলায় আটারই গ্রামের মৃত তফেজ গাজীর পুত্র আব্বাস গাজী (৪৮), আহাদ গাজী (৩০), মৃত হারান দাসের পুত্র বিষ্টু দাস (৫০) ও বিলূ দাসীর নাম উল্লেখ করে। তালা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ঘোষ সনত কুমার উভয় পরিবারকে মিমাংসার আশ্বাস দিলে তার কথা অমান্য করে একটি কল্পকাহিনী বানিয়ে মিথ্যাভাবে আদালতের মাধ্যমে মামলা করে। বর্তমানে মামলার বোঝা মাথায় নিয়ে সুনীল দাসের পুত্রদ্বয় গৌতম দাস, রিপন দাস ও সাদ্দাম দাস পিতা সুনীল দাশ  মাতা কচি দাস সহ পুরো পরিবারটি এখন অসহায়ত্ব জীবন যাপন করছে। আইনের দ্বারস্থ হয়েও সনাতন ধর্মালম্বী হওয়ায় বাদীপক্ষের অর্থের কাছে বারবার হেরে গিয়ে নির্ঘুম রাত যাপন করছে। তাই সুশীল সমাজ এবং আইনের প্রতি শ্রদ্ধা করে হেনস্থা আর মামলার হয়রানি থেকে বাচতে প্রশাসন এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিদের প্রতি সহায়তা কামনা করেছেন পরিবারটি।

পাটকেলঘাটায় অতিরিক্ত মুল্যে নিত্যপণ্য বিক্রির দায়ে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা আদায়

পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি

পাটকেলঘাটায় অতি মুনাফা লাভের আশায় অধিক মুল্যে নিত্যপণ্য বিক্রির অভিযোগে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে জরিমানা আদায় করা হয়েছে। শনিবার বেলা ১১ টায় জেলা প্রশাসকের নির্দেশে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আজহার আলীর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়। এতে অতিরিক্ত মুল্যে চাউল ও পেয়াজ বিক্রির দায়ে ইসমাইল হোসেনকে ৩০ হাজার টাকা, সুশান্ত, আহাম্মাদ, বাবু প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা, ব্যবসায়ী অশোক কে ৩ হাজার টাকা করে ৬ জনকে মোট ৫৩ হাজার টাকা আদায় করে। এসময় আদালত পরিচালনাকারী আজহার আলী বলেন, এখন থেকে নিত্যপণ্যের অধিক মুনাফা লাভের আশায় পণ্য মজুদ করে চড়া দামে কেউ কিছু বিক্রি করলে জেল এবং জরিমানা প্রদান করা হবে। পাশাপাশি আমাদের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

চিতলমারীতে হোম কোয়ারেন্টাইনে না থাকায় ২জনের জরিমানা

চিতলমারী প্রতিনিধি

বাগেরহাটের চিতলমারীতে সম্প্রতি ওমান থেকে ফিরেআশা দুই যুবককে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মারুফুল আলম দুজনকে সাত হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছেন।সাথে সাথে তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান উপজেলার চরবড়বাড়িয়া গ্রামের মাখন বৈরাগীর ছেলে আকাশ বৈরাগী ( ৪০) ও চিংগড়ী গ্রামের বেলায়েত শেখের ছেলে এরশাদ শেখ ( ৩৫) গত ৪/৫দিন ওমান থেকে বাড়িতে এসে অবাদে ঘুরাফেরা করছিল।খবর পেয়ে ওই এলাকায় গিয়ে তাদের দুই জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার সরকারী আদেশ অম্যন্য করায় একজনকে ৫জাহার ও আপর জনকে ২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। সাথে সাথে তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টানে থাকার নির্দেশ প্রধান করা হয়েছে।

চিতলমারীতে মোটরসাইকেল চাপায় কৃষক নিহত

চিতলমারী প্রতিনিধি

বাগেরহাটের চিতলমারীতে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার আমতলা গেটের কাছে মোটরসাইকেল চাপায় হিরামন গাইন (৩২)নামে এক কৃষক নিহত হয়েছেন। নিহত হিরামন উপজেলার খড়িয়া গ্রামের বিধান গাইনের ছেলে ।

ইউপি সদস্য পরিতোষ মন্ডল জানান, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় হিরামন গাইন বাড়ির কাছের একটি চিংড়ি ঘেরে খাবার দিয়ে ফিরছিল। এ সময় খুলনা থেকে চিতলমারীর উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা দ্রুতগতির একটি মোটর সাইকেল তাকে চাপা দিলে গুরুতর আহত হয়। তাকে উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী ফকিরহাট স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সাংবাদিক বাবুল সরদারের মায়ের মৃত্যুতে প্রেসকাবের শোক বিবৃতি

চিতলমারী প্রতিনিধি:

বাগেরহাট প্রেসকাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক জনকন্ঠের স্টাফ রিপোর্টার বাবুল সরদারের মাতা রমা রানী(৮০) গতকাল শনিবার সকাল ১০টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরলোক গমন করেন। তাঁর মৃত্যুতে চিতলমারী উপজেলা প্রেসকাবের পক্ষ থেকে শোক বিবৃতি জানানো হয়েছে। বিবৃতি দাতারা হলেন, প্রেস কাবের সভাপতি পংকজ ম-ল, সহসভাপতি তাওহিদুর রহমান বাবু, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শাফা, সদস্য এস এস সাগর, শেখর ভক্ত, কপিল ঘোষ, প্রদীপ ম-ল, দেবাশিষ বিশ্বাস দেব , পংকজ রায়,টিটব,সোহেল সুলতান মানু ,হাফিজ খান প্রমূখ।

দাকোপে বিদেশ ফেরত ৪৫ ব্যক্তি হোম কোয়ারেন্টাইনে

দাকোপ (খুলনা) সংবাদদাতা

খুলনার দাকোপে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বিদেশ ফেরত ৪৫জন ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এছাড়া উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সতর্ক থাকার জন্য ইতি মধ্যে জনসাধারণের মাঝে করা হয়েছে মাইকিং। বিতরণ করা হয়েছে সতেনতা মূলক লিফলেট। বিদেশ ফেরত এসব ব্যক্তিরা সম্প্রতি অল্পদিন আগে ইতালি, দুবাই, ওমান, দক্ষিণ কোরিয়া, সৌদি আর, কানাডা, ভারতবসহ বিভিন্ন দেশ থেকে এলাকায় এসেছেন। তবে এদের মধ্যে দুইজনের ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইন শেষ হয়েছে বলে জানা গেছে।

এপ্রসঙ্গে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোজাম্মেল হক নিজামী জানান বিদেশ ফেরতদের সন্ধেহ জনক হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এখানে এখনো পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে কেউ আক্রান্ত হয়নি। তাছাড়া আক্রান্ত হলে এখানে কোন চিকিৎসার ব্যবস্থা নেই। সে রকম রোগী আসলে সাথে সাথে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠাবেন। এছাড়া ভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা বাড়াতে প্রত্যেক ইউনিয়নে জনপ্রতিনিধি, ইউনিয়নের সচিব, গ্রাম পুলিশ ও শিক্ষকদের সমন্বয় কমিটি করে দেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

এব্যাপারে উপজেলা ইউএনও আবদুল ওয়াদুদ বলেন করোনা ভাইরাসে আতংকিত হওয়ার কিছু নেই। তিনি এলাকার লোকজনকে করোনা সম্পর্কে সতর্ক থাকার নির্দেশনা দিয়েছেন। এজন্য তিনি বিভিন্ন এলাকায় মাইকিং করেছেন এবং সচেতনতা মূলক লিফলেট বিতরণ করেছেন। এছাড়া হোম কোয়ারেন্টাইন নিয়ম না মানায় উপজেলার কামনিবাসি এলাকার এক ব্যক্তিকে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা করেছেন বলে জানান।

মণিরামপুরে হোম কোয়ারেন্টাইনে ২৬ জন

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি

করোনা ভাইরাসের সংক্রামন রোধে যশোরের মণিরামপুরে ২৬ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এরা সবাই বিদেশ ফেরত প্রবাসী। তাদের মধ্যে আমেরিকা ফেরত রয়েছেন তিন জন, দুবাই ফেরত দুই জন, চীন ফেরত একজন এবং বাকি ২০ জন ফিরেছেন মালয়েশিয়া থেকে। এরআগে গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মণিরামপুরে ১২ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল। যারমধ্যে চীন ফেরত একজনের কোয়ারেন্টাইন ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। তিনি সুস্থ আছেন। শনিবার (২১ মার্চ) সকালে মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

এছাড়া আজ (২১ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টার মধ্যে আরও তিনজন বিদেশ ফেরত ব্যক্তির সন্ধ্যান পেয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তাদেরকে কোয়ারেন্টাইনে নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। তবে এখন পর্যন্ত মণিরামপুরে কোন করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি। এদিকে বিদেশ থেকে কেউ দেশে ফিরলেই তাকে ঘিরে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন এলাকাবাসী। তারা নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে সঙ্কিত হচ্ছেন।

মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. শুভ্রা রানী দেবনাথ বলেন, এই পর্যন্ত ২৬ জন বিদেশ ফেরত লোককে তাদের নিজ নিজ বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বিদেশ থেকে যারা ফিরেছেন, তারা কেউ করোনা আক্রান্ত নয়। তবে তাদের সাথে ভাইরাস আসতে পারে এমনটি ভেবে সবাইকে স্বাস্থ্য সহকারীদের তত্ত্বাবধানে বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। হোম কোয়ারেন্টাইন ছেড়ে কেউ বাইরে চলাফেরা করলে তার ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ফুলবাড়ীগেটে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করতে আওয়ামী লীগের লিফলেট বিতরণ

ফুলবাড়ীগেট প্রতিনিধি

খানজাহান আলী আওয়ামী লীগ ও কেসিসি ২নং ওয়ার্ড আ’লীগের উদ্যোগে ফুলবাড়ীগেটে জনতা মার্কেট, ফুলবাড়ীগেট বাজার, আলতাফ প্লাজাসহ গুরুত্ব পূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে দোকানে দোকানে গিয়ে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করতে লিফলেট বিতরণ করেন। লিফলেট বিতরণে ছিলেন মহানগর আ’লীগের সাবেগ সভাপতি বেগ লিয়াকত আলী, খানজাহান আলী থানা আ’লীগের সভাপতি শেখ আবিদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শেখ আনিসুর রহমান, কেসিসি ২নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি আলহাজ্ব  মোঃ  শাহাবুদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মুন্সি মরিরুজ্জামান মুকুল, সৈয়দ আলী রেজা নান্নু, মাষ্টার শাহজাহান হাওলাদার, জাকারিয়া রিপন, মাসুদ পারভেজ সোহেল, ইমরান মীর, লিয়াকত মুন্সি, শেখ গোলেম মোস্তাফা, কামাল মুন্সি, রানা হাওলাদার, আবু নাঈম, আবু হানিফ, হাফিজুর রহমান মর্তোজা, শেখ রবিউল ইসলাম সহ সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

শক্তি যুব উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের ফুলবাড়ীগেট বাস স্টান্ড চত্ত্বরে মাস্ক বিতরণ

ফুলবাড়ীগেট প্রতিনিধি

শক্তি যুব উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের ফুলবাড়ীগেট বাস স্টান্ড চত্ত্বরে মাস্ক বিতরণ ও করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করোনীয় কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনা। গতকাল বিকাল ৪টায় শক্তি যুব উন্নয়ন ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মোঃ সাজ্জাদুর রহমান লিংকন এর আর্থিক সহায়তায় মাক্স বিতরণ কর্মসূচী ও করোনা ভাইরাস সম্পর্কীয় আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন মোঃ সাইফুল ইসলাম বাবু, মোঃ ফারুক হোসেন মিনা, মোঃ সেলিম চৌধুরী, মোঃ মানিক হোসেন, উজ্জল, সবুজ, রাব্বি, জামাল, শামিম, মুন্না, বেল্লাল, রানা, শ্রাবণ, রুবায়েত, আবির হোসেন সহ সংগঠনের সকল নেতৃবৃন্দ।

ফুলবাড়ীগেট বাজার বণিক সমিতি নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর মূল্য স্থিতিশীল রাখার আহ্বান

ফুলবাড়ীগেট প্রতিনিধি

ফুলবাড়ীগেট বাজার বণিক সমিতির সভাপতি বেগ লিয়াকত আলী এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন বাজারে চাল, ডাল, ডিম, পিয়াজের কোন সংকট নেই, তারপরও করোনা ভাইরাস আতংকে কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ীরা চড়া দামে নিত্য পণ্যের দাম নিচ্ছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের পর্যাপ্ত মজুত রয়েছে। তাই আতংকিত হয়ে প্রয়োজনের অধিক পণ্য কিনা থেকে বিরত থাকার পরামর্শদেন। গত কাল ফুলবাড়ীগেট বাজারে ঘুরে দেখা যায় গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিতে চালের দাম বেড়েছে  ৮ থেকে ১০ টাকা, পিয়াজ কেজিতে বেড়েছে ৫ থেকে ১০ টাকা, প্রতি ডজন ডেিমর দাম বেড়েছে ১০ থেকে ১৫ টাকা, এছাড়া ডালের দাম বেড়েছে ৫ থেকে ৮ টাকা, অন্যান্য পণ্যের দামও উর্ধ্বমুখি। করোনা আতংকে মানুষ বেশী কেনা কাটা করে মজুদ করছে,তাই চাহিদা বেশী থাকায় ব্যবসায়ীরা দাম বেশী নিচ্ছে। এব্যপারে বাজার বণিক সমিতির সভাপতি বেগ লিয়াকত আলী বলেন, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির মূল্য স্থিতিশীল রাখার আহ্বান জানান এবং করোনা ভাইরাসের গুজব ছড়িয়ে বাজারের কোন ব্যবসায়ী অধিক মুল্যে দ্রব্যমূল্য বিক্রয় করলে তার দোকান সীলগালা করা সহ আইনানুগ ব্যবস্থ গ্রহন করা হবে।

অভয়নগরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জরুরী মতবিনিময় সভা

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি

যশোরের অভয়নগর উপজেলা পর্যায়ে করোনা ভাইরাসের বিস্তার প্রতিরোধ সংক্রান্ত উপজেলা কমিটির জরুরী মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকালে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নাজমুল হুসেইন খাঁনের সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যশোরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ। এসময় মতবিনিময় করেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ্ ফরিদ জাহাঙ্গীর, নওয়াপাড়া পৌরসভার মেয়র সুশান্ত কুমার দাস শান্ত, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কেএম রফিকুল ইসলাম, অভয়নগর থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স টি এইচ আই মাহামুদুর রহমান রিজভী,অভয়নগর থানার অফিসাস ইনচার্জ মো. তাজুল ইসলাম, নওয়াপাড়া প্রেসকাবের সভাপতি আসলাম হোসেন, নওয়াপাড়া সরকারি মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ রবিউল হাসান, নওয়াপাড়া সার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শাহজালাল হোসেন, বাজার কমিটির সভাপতি গাজী নজরুল ইসলাম, প্রেস কাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম মল্লিক, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মিনারা পারভিন, উপজেলার ৮ইউনিয়নের চেয়রম্যান গণ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, সুশিল সমাজ, ইমাম পরিসদের নেতৃবৃন্দ সহ স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ফুলতলা বাজারে অতিরিক্ত মূল্যে পণ্য বিক্রি ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা আদায়

ফুলতলা প্রতিনিধি

খুলনার ফুলতলা বাজারে নোভেল করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক ছড়িয়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর মূল্য বৃদ্ধি করায় শনিবার বিকালে ও শুত্রবার রাতে ভ্রাম্যমান আদালত পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে ৫ ব্যক্তিকে ১লাখ ৩০হাজার টাকা জরিমানা ধার্য ও আদায় করেন। এক শ্রেণির আড়ৎদার ও ব্যবসায়ীরা পূর্বের তুলনায় গত দু’দিনে চাল কেজি প্রতি ২ থেকে  ৫ টাকা, পেয়াজ ১৫ থেকে ২০ , রসুন ৩০ থেকে ৪০ টাকা বৃদ্ধি করে। এ ছাড়া মাস্ক প্রতি ২০ থেকে ৫০, হ্যান্ড ওয়াশ ১০ থেকে ১৫ টাকা বাড়িয়ে বিক্রি করে। শনিবার বিকাল ৩টায় নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) রুলী বিশ্বাসের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত পণ্যমূল্য বৃদ্ধি, মূল্য তালিকা ও ক্রয় মেমো না থাকায় কাঁচামাল ব্যবসায়ী আবু সাঈদকে ২০ হাজার টাকা ও জাফর আলীকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য ও আদায় করা হয়। শুক্রবার রাতে ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট পারভীন সুলতানার নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত ফুলতলা বাজারে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় অতিরিক্ত মূল্যে চাল বিক্রির অভিযোগে পবিত্র সাহাকে ৫০ হাজার, নব সাহাকে ৫০ হাজার এবং মূল্য তালিকা না থাকায় আলী হোসেনকে ৫হাজার টাকা জরিমানা ধার্য ও আদায় করা হয়। এ সময় ওসি মোঃ মনিরুল ইসলাম, ওসি (তদন্ত) উজ্জ্বল দত্ত উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া গতকাল সকালে ৩৫ টাকা মূল্যের পেয়াজ ৬০টাকা বিক্রিকালে থানা পুলিশ বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে বাজার কিছুটা নিয়ন্ত্রনে আনে।   

ছাত্র ফেডারেশন খালিশপুর রেলওয়ে বস্তি এলাকায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে উপকরণ ও নির্দেশনাপত্র বিতরণ করে

খবর বিজ্ঞপ্তি

বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন খুলনা মহানগর শাখার উদ্যোগে শনিবার বিকেল ৫টায় করোনা ভাইরাস থেকে সচেতনতা ও প্রাথমিক প্রতিরোধে খালিশপুর রেলওয়ে বস্তি এলাকায় মাস্ক, সাবান ও সচেতনতামূলক নির্দেশনাপত্র বিলি করা হয়। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেনÑবাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন, খুলনা মহানগর শাখার আহ্বায়ক আল আমিন শেখ, সদস্য শ্রমিকনেতা ফয়সাল আহমেদ, জাকির হোসেন প্রমুখ। এ সময়ে ছাত্রনেতা আল আমিন বলেন, দেশের বস্তিবাসীদের জীবন মারাত্মক অস্বাস্থ্যকর। বাধ্য হয়ে অনেককেই একসাথে বসবাস করতে হয় এবং অনেকগুলো পরিবার মিলে একটি টয়লেট ব্যবহার করে। যদি করোনা ভাইরাস এ সব ঘনবসতি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে তাহলে পরিস্থিতি খুবই ভয়ঙ্কর হবে। এদের হোম কোয়ারান্টাইনের মত ব্যবস্থা গ্রহণ করা একেবারেই অসম্ভব। তাই সরকারের উচিৎ অতি দ্রুত বিশাল এই জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।

কেশবপুরের করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মার্কস বিতরণ

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি

কেশবপুরে নিকো গোল্ডস এন্ড প্যারিস কসমেটিক্স এর উদ্যোগে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মার্কস বিতরণ করা হয়েছে। নিকো গোল্ডস এন্ড প্যারিস কসমেটিক্স এর চেয়ারম্যান  রামপ্রসাদ দেবনাথের সভাপতিত্বে শনিবার বিকালে শহরের থানা মোড়ে প্রধান অতিথি হিসাবে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ভ্যান চালক ও মোটরসাইকেল চালকদের মাঝে মার্কস বিতরণ উদ্বোধন করেন মজিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম সরোয়ার। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কেশবপুর উপজেলা প্রেসকাবের সভাপতি এস আর সাঈদ ও মজিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া।

কেশবপুরে জাতীয় পার্টির আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি

কেশবপুরে করোনা ভাইরাসের কারণে উপ-নির্বাচন স্থগিত হওয়ায়  জাতীয় পার্টির এক আলোচনা সভা শনিবার বিকালে দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা জাতীয় পার্টির সহ-সভাপতি বিশ্বনাথ হালদারের সভাপতিত্বে ও দপ্তর সম্পাদক রুহুল আমীন খানের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান ও যশোর জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি শরিফুল ইসলাম সরু। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনীত লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী ও  কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টির নির্বাহী সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, ঝিকরগাছা উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি অধ্যক্ষ রেজাউল ইসলাম, কেন্দ্রীয় নেতা মুফতি ফিরোজ শাহ,  যশোর জেলা জাতীয় পার্টির সহ-সভাপতি আজিজুর রহমান, যুগ্ম-সম্পাদক মিলন হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্বাস আলী, দপ্তর সম্পাদক মনিরুজ্জামান হিরন, মহিলা জাতীয় পার্টির সভানেত্রী পারুল নাহার আশা, কেশবপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল লতিফ রানা, যুগ্ম-সম্পাদক জি.এম.হাসান, ইউপি সদস্য আশরাফ আলী, পৌর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনু, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল জলিল, উপজেলা জাতীয় যুব সংহতির সাধারণ সম্পাদক আবু শাহীন ও পৌর যুব সংহতির সভাপতি আবু বক্কার সিদ্দিক।

জমি জায়গা নিয়ে যশোর সদরের এক বাড়িতে হামলা লুটতরাজের অভিযোগে মামলা

যশোর অফিস

জায়গা জমি নিয়ে প্রতিবেশী সন্ত্রাসীরা সদর উজেলার এনায়েতপুর গ্রামের এক বাড়িতে হামলা চালিয়ে মারপিট জখম শ্লীলতাহানী স্বর্ণালংকার লুটের অভিযোগে কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় আসামী করা হয়েছে ওই এলাকার ৭ জনসহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪জনকে। আসামীরা হচ্ছে, সদর উপজেলার এনায়েতপুর মধ্যপাড়ার শহরআলীর ছেলে আজিজুর রহমান,নাজমুল হোসেন, জিয়ারুল,রেজাউল ইসলাম,রানা,মৃতএয়াকুব মোল্যার ছেলে শহর আলী, মৃত জামাত আলীর ছেলে সুমন হোসেন।

এনায়েতপুর গ্রামের রহমত আলীর ছেলে তানিম হোসেন শুক্রবার রাতে কোতয়ালি মডেল থানায় দায়েরকৃত এজাহারে বলেছেন,জায়গা জমি নিয়ে উক্ত আসামীদের সাথে তাদের র্দীঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছিল। গত ১৯ মার্চ রাত ৯ টায় উক্ত আসামীরা পূর্ব শত্রুতার কারনে রহমত আলীর বাড়িতে হামলা চালিয়ে গালিগালাজ করতে থাকে। রহমত আলী গালিগালাজ করতে নিষেধ করলে আসামীরা বেধড়ক মারপিট শুরু করে। এ সময় চাচাতো বোন জোসনা,চাচা আবদার হোসেন ঠেকাতে এলে তাদেরকে মারপিট করে। এ সময় জোসনা বেগমের শাড়ী ধরে টানা হেচড়াসহ গলায় থাকা ৮ আনা ওজনের স্বর্নের চেইন ছিনিয়ে নেয়। এসময় ঘরে থাকা নগদ ৪০ হাজার ২শ’ ৫০ টাকা ও ৭ হাজার টাকা মূল্যের একটি বাইসাইকেল নিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় রহমত আলী,চাচা আবদার হোসেন ও জোসনাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

যশোরে সাইকেল চোর গণধোলাইয়ের শিকার

যশোর অফিস

প্রকাশ্যে বাইসাইকেল চুরি করে পালাবার কালে আলম নামে এক চোরকে ধরে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনগন। আলম যশোর শহরের শংকরপুর জমাদ্দার পাড়ার লুৎফর রহমানের ছেলে।

সদর উপজেলার বোলপুর গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে আব্দুল করিম জানান, তাদের পালবাড়ী মূর্তির মোড়ে একটি চায়ের দোকান রয়েছে। উক্ত দোকানের পার্শ্বে তাদের একটি সাইকেল তালা বন্ধ করে রেখে দিয়ে চা বিক্রির কাজ করে। শনিবার ২১ মার্চ দুপুর ১২ টায় উক্ত চোর আলম বাইসাইকেলের তালা রেঞ্জ দিয়ে ভেঙ্গে চুরি করে নিয়ে পালাবার কালে হাতে নাতে ধরে ফেলে। পরে চোর আলমকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ব্যাপারে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

যশোরে ট্রাকের ধাক্কায় বাবা ও ছেলে হতাহতের ঘটনায় মামলা দায়ের

যশোর অফিস

যশোর মাগুরা সড়কের সদর উপজেলার লেবুতলা বাজারের অদূরে ট্রাকের ধাক্কায় মোটর সাইকেল আরোহী পিতা ও পুত্র হতাহতের ঘটনায় অজ্ঞাতনামা ট্রাকের চালকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলাটি দায়ের করেন, নিহত জাবেদ আলীর ছেলে মুজাহিদ। শুক্রবার রাত ৮ টায় কোতয়ালি মডেল থানায় তিনি মামলা দায়ের করেন। তিনি ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারি উপজেলার গুনবহা গ্রামের বাসিন্দা।

মুজাহিদ তার দায়েরকৃত এজাহারে বলেছেন,গত ১৯ মার্চ সকালে তার ছোট ভাই সিরাজুল ইসলাম তার পিতা জাবেদ আলীকে যশোর ক্যান্টন মেন্ট সিএমএইচ হাসপাতাল থেকে দেখিয়ে বাজাজ প্লাটিনা ে মাটর সাইকেল যোগে বিকেলে বাড়িতে ফিরছিল। বিকেল ৪ টার পর লেবুতলা বাজারস্থ হ্যাপি ব্রিকসের সামনে পৌছালে মাগুরা থেকে আসা যশোর গামী (মাগুরা ট-১১-০১৭১) বেপরোয়া গতি সম্পন্ন একটি ট্রাক  মোটর সাইকেলটিকে ধাক্কা মারলে ছিটতে পড়ে তার পিতা ও ভাই গুরুতর আহত হয়। তাদের দু’জনকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে পিতা জাবেদ আলী চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। স্থানীয় লোকজন ট্রাকটি জব্দ করলেও চালক দ্রুত পালিয়ে যায়।

করোনা সতর্কতায় প্রেসকাব যশোরের পদক্ষেপ

খবর বিজ্ঞপ্তি

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে করণীয় নির্ধারণে প্রেসকাব যশোরের কার্যনির্বাহী কমিটির জরুরি সভা ২১ মার্চ শনিবার সকালে সংগঠনের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উদ্ভূত পরিস্থিতি বিবেচনায় পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত কাবে সাংবাদিক ছাড়া সকলের প্রবেশাধিকার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সাংবাদিকদের কাবে প্রবেশ করতে হলে প্রধান ফটকের সামনে থেকে হাত ধুয়ে আসতে হবে। কাবের পাশাপাশি সাংবাদিকদের সকল ইউনিয়নকেও ইউনিয়নের সদস্য ছাড়া বাইরের কাউকে ভেতরে প্রবেশ করানো থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। কোনো সাংবাদিককে কারো সাথে দেখা বা সাক্ষাত করতে হলে কাবের বাইরে যেয়ে কথা বলতে হবে এবং ফের কাবে প্রবেশ করতে হলে আবারও হাত ধুতে হবে।

এছাড়া, সংবাদ সম্মেলনের জন্যে কাব বরাদ্দ পাওয়ার ক্ষেত্রেও কিছু নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। সার্বিক বিষয়ে আরও জানতে কাবের অফিস সহকারী রফিকুল ইসলামের সাথে ০১৭৪৩-৮৬৪০৪৩ নম্বরে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

যশোর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচন ২৭ মার্চ অনুষ্ঠিত হওয়ার দাবি শ্রমিকদের

যশোর অফিস

যশোর জেলা পরিবহন সংস্থা শ্রমিক ইউনিয়নের স্থগিত হওয়া নির্বাচন আগামী ২৭ মার্চ পুনরায় ভোট গ্রহনের জন্য দিনক্ষন নির্ধারনের জন্য শনিবার দুপুরে প্রেসকাব যশোরে সংবাদ সম্মেলনে দাবি জানানো হয়েছে। এ ৩১ মার্চের মধ্যে এ ইউনিয়নের নির্বাচন না হলে সংগঠনের গঠনতন্ত্র মোতাবেক সকল সদস্যদের সদস্য পদ বাতিল হওয়ার আশংকা রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে যশোর জেলা পরিবহন সংস্থা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মামুনুর রশিদ বাচ্চু, সহ-সভাপতি আবু হাসান, রবিউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মোর্তজা হোসেন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ষষ্ঠী কুমার দত্ত, সহ-সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম ও মিন্টু গাজী, সাংগঠনিক সম্পাদক হারুণ-অর-রশিদ ফুলু, প্রচার সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজু, কোষাধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক হারুন অর রশিদ ফুলু জানান, শুক্রবার যশোর জেলা পরিবহন সংস্থা শ্রমিক ইউনিয়নের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে মাত্র ২২ ঘণ্টা আগে এই নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। অথচ সারা দেশের বিভিন্ন এলাকায় সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এমনকি সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের মতো নির্বাচন হচ্ছে। যেখানে লাখ লাখ মানুষের সমাগম হচ্ছে।সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করা হয়,  যশোর জেলা পরিবহন সংস্থা শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচনকে ঘিরে ইতিমধ্যে ৬৩ জন প্রার্থীর গত চারমাস ধরে প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছেন। ইতোমধ্যে নির্বাচনী প্রচারণার কাজ শেষ হয়েছে। পাঁচ লাখ টাকার নির্বাচনী সামগ্রী ক্রয় করা হয়েছে। ইউনিয়নের ৯ হাজার ১৪৪ জন ভোটারের মধ্যে অনেকে যশোরের বাইরে দেশের বিভিন্ন জেলায় থাকেন। যারা ইতোমধ্যে যশোরে চলে এসেছেন। এমন পরিস্থিতিতে ভোটগ্রহণ না হলে আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি গঠনতন্ত্রের ধারা অনুযায়ী সব সদস্যের সদস্যপদ বাতিল হয়ে যাবে। এজন্য আগামী ৩১ মার্চের মধ্যে নির্বাচন করতে হবে। তাই আমরা আগামী ২৭ মার্চ শুক্রবার ভোট গ্রহণের তারিখ নির্ধারণের দাবি জানাচ্ছি। প্রয়োজনে জনসমাগম এড়াতে দুই দিন ভোট গ্রহণের ব্যবস্থা করলেও আমাদের কোন আপত্তি নেই।

বেনাপোলে ১২ লাখ ইউএস ডলারসহ যুবক আটক

যশোর অফিস

যশোরের বেনাপোল সীমান্তের ধান্যখোলা হতে ১২ লাখ ইউএস ডলারসহ জসিম উদ্দিন (২৯) নামে এক হুন্ডিপাচারকারীকে আটক করেছে বিজিবি। সে যশোর জেলার বেনাপোলের বাহাদুর গ্রামের  মৃত আবু বক্করের ছেলে।

বিজিবির অধিনায়ক  সেলিম রেজা জানান, শনিবার সকালে ধান্যখোলা বিওপির হাবিলদার কবির হোসেনের নেতৃত্বে একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে ধান্যখোলার মাঠ হতে ১২লাখ ইউএস ডলারসহ জসিমকে আটক করা হয়। আটককৃত ডলারের সিজার মূল্য ১ কোটি ১লক্ষ ৬০৪০০ টাকা।

যশোরে বিউটি পার্লার খুললে জরিমানা

যশোর অফিস

৩১ মার্চের মধ্যে যশোরে কোন বিউটি পার্লার খুললে জরিমানা দিতে হবে। তাই এসময় কোন বিউটি পার্লার না খোলার পরামর্শ দিয়েছেন অনুরোধ জানিয়েছেন যশোর বিউটি পার্লার ওনার্স  এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ।

শনিবার  সকালে যশোর প্রেসকাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে যশোর জেলা বিউটি পার্লার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি  লতিফা শওকত রুপা এ আহবান জানান।

সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ জানান, যশোরে এসোসিয়েশনের  অধীনে ৩৮টি এবং বাইরে ৩০টি বিউটি পার্লার রয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে  সকল অনুষ্ঠান, জনসমগম, সমাবেশ বন্ধ করায় সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী যশোরের সকল বিউটি পার্লার বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তাই এ সময় কেউ বিউটি পার্লার খুললে সর্বোনি¤œ ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হবে। এসোসিয়েশনের নির্বাহী কমিটির সিদ্ধান্তক্রমে এ নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মলনের এতথ্য নিশ্চিত করেছেন এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রোজি হোসেন।

কালোবাজারে বিক্রির সময় চৌগাছায় হতদরিদ্রদের ৩৯ বস্তা চাউল আটক

যশোর অফিস

যশোরের চৌগাছায় কালোবাজারে বিক্রি করার সময় হতদরিদ্রদের ৩৯ বস্তা চাউল আটক করলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম। শনিবার দুপুরে তিনি পৌরশহরের প্রেমরোডের চৌরাস্তার মোড় থেকে এ চাউল আটক করেন। এ ঘটনায় ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ৫ দিনের মধ্যে তদন্ত কমিটিকে সঠিক তদন্ত রির্পোট দাখিল করতে বলা হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার কাবিলপুর বাজার থেকে ২টি আলমসাধু যোগে ৩৯ বস্তা চাউল আসছিল পৌরশহরের লিটন হোসেন নামে এক আড়ৎ ব্যবসায়ীর ঘরে। দশ টাকা কেজি সরকারি এ চাউল কালোবাজারে বিক্রিকরা হচ্ছে এমন সংবাদে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম অভিযান চালিয়ে তা আটক করেন।

উপজেলার কাবিলপুর বাজারের আড়ৎ ব্যবসায়ী জহুরুল ইসলাম সরকারি বস্তায় মোড়ক হতদরিদ্রদের নিকট থেকে ৭১০ টাকা বস্তা দরে ৩৯ বস্তা চাউল ক্রয় করেন। যা তিনি চৌগাছা শহরের লিটন হোসেন নামে এক আড়ৎ ব্যবসায়ীর ঘরে পাঠাচ্ছিলেন।

এ ব্যাপারে কাবিলপুর বাজারে হতদরিদ্রদের চাউলের ডিলার ফিরোজ হোসেন বলেন, ১৮ মার্চ আমার এলাকায় চাল দেওয়া শেষ হয়েছে। শুনেছি কাবিলপুর বাজারের আড়ৎ ব্যবসায়ী জহুরুল ইসলাম গরীবদের নিকট থেকে এ চাল ক্রয় করেছেন। এ ছাড়া চালের ব্যাপারে আমার কোন কিছুই জানা নেই।

কাবিলপুর বাজারের আড়ৎ ব্যবসায়ী জহুরুল ইসলাম বলেন, ৭১০ টাকা বস্তাদরে আমি গরীবদের নিকট থেকে ক্রয় করেছি। যা চৌগাছা শহরের লিটন হোসেন নামে এক আড়ৎ ব্যবসায়ীর নিকট বিক্রি করেছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম বলেন, সরকারি বস্তায় মোড়ক হতদরিদ্রদের দশ টাকা কেজি এ চাউল কালোবাজারে বিক্রি করা হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালায় এবং ৩৯ বস্তা চাউল আটক করি। এ বিষয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) নারায়ণ চন্দ্র পালকে প্রধান করে ৩ সদস্যে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

যশেরের শীর্ষ অস্ত্র ব্যবসায়ী শাকিল-আরিফের ছোট ভাই সানি ছিনতাই মামলায় গ্রেফতার

যশোর অফিস

যশেরের কুখ্যাত ছিনতাইকারী শীর্ষ অস্ত্র ব্যবসায়ী শাকিল-আরিফের ছোট ভাই সানি বিহারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাতে শহরের জেল রোডে কুইন্স হাসপাতালের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সানির নামে মারপিট, চুরি, ছিনতাই, হুমকি দেওয়ার অভিযোগে কোতয়ালি থানায় মামলা রয়েছে। গ্রেফতার সানি শহরের বারান্দী মোল্লাপাড়া এলাকার আওয়াল মিস্ত্রি ওরফে বিহারী আওয়ালের ছেলে।

পুলিশ জানায়, গত ২৭ ফেব্রুয়ারি শহরের মণিহার বাসস্ট্যান্ড এলাকার মনিরুদ্দিন পেট্রোল পাম্পের সামনে শরিফুল সরদার নামে এক ইজিবাইক চালককে গতিরোধ করে। পরে তার কাছ থেকে ৪৩ হাজার টাকা ছিনতাই করে। ছিনতাইয়ের পর ওই ইজিবাইক চালককে এলোপাতাড়িভাবে মারপিট করে জখম করে। এ ঘটনায় শরিফুল সরদার বাদী হয়ে চার জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করে। সানি বিহারী ছাড়াও মামলার অন্য আসামিরা হলেন সানির ভাই সাগর, মোল্লাপাড়া ঢাকা রোড এলাকার শরফুদ্দিনের ছেলে পাপ্পু ও একই এলাকার হৃদয় হোসেন। হৃদয় অস্ত্র ব্যবসায়ী আরিফের শ্যালক। মামলার বাদী শরিফুল সরদার ২ মার্চ কোতয়ালি থানায় মামলা করেন। শরিফুল গোপালগঞ্জের মাঝগাতি গ্রামের মোতালেব সরদারের ছেলে। সে যশোর শহরের নীলগঞ্জ সুপারী বাগান এলাকার বাবু মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়।

যশোর কোতয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, সানির বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে। এ কারণে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

যশোরের বাঘারপাড়ায় অজ্ঞাত নারীর মরদেহ উদ্ধার

যশোর অফিস

যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার মাহামুদআলীপুর গ্রামের একটি ক্ষেত থেকে অজ্ঞাত এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার বয়স ২৫ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। আজ শনিবার সকাল ৯টার দিকে পুলিশ মহরদেহটি উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

বাঘারপাড়া থানার ওসি সৈয়দ আল মামুন জানান, শনিবার সকালে বাঘারপাড়া উপজেলার মাহামুদআলীপুর গ্রামের মাঠের মধ্যে বামুনহাট-বালিয়াডাঙ্গা সড়কের পাশে একটি ক্ষেতে অজ্ঞাত এক নারীর মরদেহ পড়ে ছিল। স্থানীয়রা মরদেহটি দেখতে পেয়ে পুলিশকে জানায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে। নিহত ওই নারীর পরনে নীল রংয়ের পায়জামার ওপরে কালো রংয়ের বোরখা রয়েছে। এছাড়া গোলাপি রংয়ের একটি ছাপানো ওড়না দিয়ে মাথা বাঁধা ছিল। তার গলা ও মুখে রক্তের দাগ রয়েছে। কিছুটা দূরে একটি ব্যাগের মধ্যে হানিফ পরিবহনের বাসের টিকিট ও পানির বোতল পাওয়া গেছে। বাসের টিকিটে রেহেনা নাম লেখা। টিকিটটি ঢাকার আব্দুল্লাহপুর থেকে যশোর আসার জন্য কাটা হয়েছিল।

ওসি আরো জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তাকে হত্যার পর মরদেহ ফেলে রেখে গেছে দুর্বৃত্তরা। প্রাথমিক পর্যায়ে ধর্ষণের কোন আলামত পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে। নিহত নারীর পরিচয় সনাক্তসহ মামলার প্রস্তুতি চলছে।

করোনায় স্থগিত কেশবপুর উপনির্বাচন

যশোর অফিস

যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনের উপনির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। একই সঙ্গে স্থগিত করা হয়েছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন ও বগুড়া-১ আসনের উপনির্বাচন।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের প্রেক্ষাপটে নির্বাচন কমিশন এই সিদ্ধান্ত নিল।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা সভাপতিত্ব করেন। তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৯ মার্চ চট্টগ্রাম সিটির ভোটগ্রহণ হওয়ার কথা ছিল।

২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করেছিল ইসি। এ সিটির মেয়াদ শেষ হবে ২০২০ সালের ৫ আগস্ট। নির্বাচনী আইন অনুযায়ী, ৫ আগস্টের পূর্ববর্তী ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচনের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। অন্যদিকে গত ১৮ জানয়ারি বগুড়া-১ আসন আর যশোর-৬ আসনটি শূন্য হয়েছে ২১ জানুয়ারি। সংবিধান অনুযায়ী, আসন শূন্য হওয়ার পরবর্তী নব্বই দিনের মধ্যে উপনির্বাচন অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এক্ষেত্রে বগুড়া-১ আসনে ১৬ এপ্রিল আর যশোর-৬ আসনে ১৯ এপ্রিলের মধ্যে ভোটগ্রহণ করতে হবে।

করোনা : যশোরে পুলিশ সদস্য আইসোলেশনে

যশোর অফিস

যশোর পুলিশ লাইনে কর্মরত এক কনস্টেবলকে আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। যশোর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের কাছ থেকে ভিন্ন ভিন্ন তথ্য পাওয়া গেছে।

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ওই সদস্যকে পুলিশ লাইনে, না বাড়িতে আলাদা করে রাখা হবে- সে সিদ্ধান্ত এখনো নেওয়া হয়নি। দ্রুতই এই সিদ্ধান্ত হবে।

স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকাল দশটার দিকে একজন পুলিশ সদস্য ওই কনস্টেবলকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন। জরুরি করোনা ইউনিটে শারীরিক পরীক্ষা শেষে সন্দেহজনক হওয়ায় তাকে হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসারের কাছে পাঠানো হয়। সেখান থেকে তাকে হোম আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। সূত্র অসুস্থ ওই কনস্টেবলের বরাত দিয়ে আরো জানিয়েছে, তিনি পুলিশ লাইনে যে রুমে ছিলেন, সেই রুমের ছয় সদস্যের মধ্যে একজনকে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে ইতিপূর্বে ঢাকায় পাঠানো হয়। দুইজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে বাড়িতে পাঠানো হয়েছে। আর আজ এই কনস্টেবলকে হাসপাতালে আনার পর হোম আইসোলেশনে পাঠানো হলো।

জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) আরিফ আহমেদ বলেন, সন্দেহভাজন এক পুলিশ কনস্টেবলকে আজ হাসপাতালে আনা হয়। তার শরীরে করোনাভাইরাসজনিত লক্ষণ থাকায় তাকে হোম আইসোলেশনে পাঠানোর নির্দেশ দিয়ে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন বলেন, ‘আপনারা আমার আগেই তথ্য জেনে যান। আপনার তথ্য সূত্র বলেন। খোঁজ নিয়ে পরে জানানো হবে।’

জানতে চাইলে যশোর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম জানান, আজ জ্বর-শ্বাসকষ্ট নিয়ে একজন কনস্টেবলকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠাতে বলা হয়েছে। তাকে পুলিশ লাইনে, না বাড়িতে পৃথক করে রাখা হবে সে সিদ্ধান্ত এখনো নেওয়া হয়নি। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন শিকদার সহকর্মীদের ছুটির বিষয়টি দেখভাল করেন। তিনি একটি জরুরি সভায় আছেন। ফিরলে দ্রুতই সে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

কতজন পুলিশ সদস্য হোম কোয়ারেন্টাইনে জানতে চাইলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন শিকদার বলেন, ‘একজনকে ছুটিতে পাঠানো হয়েছে। আজকের বিষয়ে আমার জানা নেই; খোঁজ নিতে হবে।’

জানতে চাইলে পুলিশ সুপার আশরাফ হোসেন বলেন, ‘সামান্য জ্বর। কোথায় হোম কোয়ারেন্টাইন! কোথা থেকে তথ্য পান?’

এর আগে গত ১৯ মার্চ বেনাপোল ইমিগ্রেশনে দায়িত্বরত এক কনস্টেবলকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে বলে পুলিশ বিভাগ সূত্রে জানা যায়।

বেনাপোল সীমান্তে এক লক্ষ ২০ হাজার মার্কিন ডলার সহ আটক -১

যশোর অফিস

বেনাপোলের ধান্যখোলা সীমান্ত থেকে এক লক্ষ ২০ হাজার মার্কিন ডলারসহ জসিম উদ্দিন (৩০) নামে এক হুন্ডি পাচারকারীকে আটক করেছে বিজিবি।আজ শনিবার সকালে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত জসিম বেনাপোল পোর্ট থানার বাহাদুরপুর গ্রামেরআবু বক্করের ছেলে।

বিজিবি জানায়,গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি এক ব্যাক্তি হুন্ডির বড় একটি চালান ভারতে পাচারের জন্য ধান্যখোলা গ্রামে অবস্থান করছে।এধরনের সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবি গোপনে বাহদুরপুর মাঠে অবস্থান নেয়। সোর্সের দেওয়া তথ্যমতে এক যুবককে ধান্যখোলা মাঠ থেকে আটক করা হয়। পরে তার দেহ তল্লাশী করে ১লক্ষ বিশ হাজার মার্কিন ডলার উদ্ধার করা হয়।

যশোর ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল সেলিম রেজা ডলার উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আটককৃত ব্যাক্তিকে বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর হয়েছে। জব্দকৃত ডলারের মুল্য ১কোটি ১লক্ষ টাকা।

ঝুঁকিতে যশোর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সবার সদস্য পদ

যশোর অফিস

যশোর জেলা পরিবহন সংস্থা শ্রমিক ইউনিয়নের স্থগিত হওয়া নির্বাচন আগামী ২৭ মার্চ পূণঃনির্ধারণের দাবি জানানো হয়েছে। আগামী ৩১ মার্চের মধ্যে ভোটগ্রহণ না হলে ইউনিয়নের সব সদস্যদের সদস্য পদ বাতিল হয়ে যাবে।

শনিবার দুপুরে প্রেসকাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন করে সংগঠনের পক্ষ থেকে এই দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, গত শুক্রবার যশোর জেলা পরিবহন সংস্থা শ্রমিক ইউনিয়নের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের অজুহাত দিয়ে মাত্র ২২ ঘণ্টা আগে এই নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। অথচ সারা দেশের বিভিন্ন এলাকায় সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এমনকি সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের মতো নির্বাচন হচ্ছে। যেখানে লাখ লাখ মানুষের সমাগম হচ্ছে।

যশোর জেলা পরিবহন সংস্থা শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচনকে ঘিরে ইতিমধ্যে ৬৩ জন প্রার্থীর গত চারমাস ধরে প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছেন। ইতিমধ্যে নির্বাচনী প্রচারণার কাজ শেষ হয়েছে। পাঁচ লাখ টাকার নির্বাচনী সামগ্রী ক্রয় করা হয়েছে। ইউনিয়নের ৯ হাজার ১৪৪ জন ভোটারের মধ্যে অনেকে যশোরের বাইরে দেশের বিভিন্ন জেলায় থাকেন। যারা ইতিমধ্যে ছুটি নিয়ে যশোরে চলে এসেছেন। এমন পরিস্থিতিতে ভোটগ্রহণ না হলে আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি গঠনতন্ত্রের ধারা অনুযায়ী সব সদস্যের সদস্যপদ বাতিল হয়ে যাবে। এজন্য আগামী ৩১ মার্চের মধ্যে নির্বাচন করতে হবে। তাই আমরা আগামী ২৭ মার্চ শুক্রবার ভোট গ্রহণের তারিখ  নির্ধারণের দাবি জানাচ্ছি। প্রয়োজনে জনসমাগম এড়াতে দুই দিন ভোট গ্রহণের ব্যবস্থা করলেও আমাদের কোন আপত্তি নেই।

সংবাদ সম্মেলনে যশোর জেলা পরিবহন সংস্থা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মামুনুর রশিদ বাচ্চু, সহ-সভাপতি আবু হাসান, রবিউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মোর্তজা হোসেন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ষষ্ঠী কুমার দত্ত, সহ-সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম ও মিন্টু গাজী, সাংগঠনিক সম্পাদক হারুণ-অর-রশিদ ফুলু, প্রচার সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজু, কোষাধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

যশোরে বিদেশ ফেরত ২২ হাজার, হোম কোয়ারেন্টাইনে ৩২৩ জন

যশোর অফিস

যশোরে ৩২৩ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক। তবে, কেউ আইসোলেশনে নেই। আর বিদেশ থেকে গত ১৭ দিনে যশোরের ঠিকানা ব্যবহার করে দেশে ফিরেছেন প্রায় ২২ হাজার জন। এছাড়া কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ের অনুষ্ঠান বন্ধের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। শনিবার (২১ মার্চ) দুপুরে যশোর সার্কিট হাউজে অনুষ্ঠিত করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ লক্ষ্যে গঠিত জেলা কমিটির সভা শেষে জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ শফিউল আরিফ এ তথ্য জানান।

সভায় করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত চিকিৎসা কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখতে চিকিৎসা সামগ্রী সংগ্রহের ব্যাপারে একাধিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সভা শেষে জেলা প্রশাসক আরও বলেন, ‘আইসোলেশন ও প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের জন্য হাসপাতালে কিছু জায়গা নির্ধারণ করে রাখা হয়েছে। এখন পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে কাউকে আনা হয়নি। সবাই হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। গত ৪ মার্চ থেকে প্রায় ২২ হাজার জন যশোরের ঠিকানা ব্যবহার করে বিদেশ থেকে দেশে এসেছেন। তাদের নাম-ঠিকানা ইউনিয়নওয়ারি ভাগ করে সব ইউনিয়ন পরিষদে পাঠানো হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের নিয়ে গঠিত কমিটি তাদের বাড়িতে-বাড়িতে গিয়ে হোম কোয়ারেন্টাইন মানার বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

এছাড়া যশোর জেলায় কমিউনিটি সেন্টারে বিয়ের অনুষ্ঠান না করার জন্য জেলার সব কমিউনিটি সেন্টার মালিকদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ শফিউল আরিফের সভাপতিত্বে সভায় সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন, যশোর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. দিলীপ কুমার রায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন শিকদার, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, পৌর মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টুসহ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

যশোরে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় ৫ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

যশোর অফিস

করোনা ইস্যুকে কাজে লাগিয়ে বেশি মূল্যে পণ্য বিক্রি ও মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় যশোরের পাঁচটি প্রতিষ্ঠানকে ২১ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

শনিবার দুপুরে শহরের চৌরাস্তা, বড়বাজার, এইচএমএম রোড এলাকায় বাজার তদারকি অভিযান পরিচালনাকালে এ জরিমানা করা হয়। অভিযানটি পরিচালনা করেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের যশোরের সহকারী পরিচালক ওয়ালিদ বিন হাবিব।

তিনি জানান, মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা ও পেঁয়াজের ক্রয় রশিদের সঙ্গে বিক্রয়ের তথ্য যাচাই করে গড়মিল পাওয়ায় সুমা এন্টারপ্রাইজকে আট হাজার টাকা, সুমন সাহা স্টোরকে দুই হাজার টাকা, মেসার্স আব্দুল গণি স্টোরকে তিন হাজার টাকা, হালিম স্টোরকে পাঁচ হাজার টাকা ও জামাল স্টোরকে তিন হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পাঁচ প্রতিষ্ঠান থেকে মোট ২১ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

অভিযান চলাকালে দোকান মালিকদেরকে মূল্য তালিকা দৃশ্যমান স্থানে সর্বদা প্রদর্শন করার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

পরে উপস্থিত জনসাধারণের মাঝে ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯-এর লিফলেট বিতরণ এবং সকলকে ভোক্তা-অধিকার বিরোধী কার্যাবলী হতে বিরত থাকার অনুরোধ করা হয়।

তদারকি অভিযানে আরও উপস্থিত ছিলেন কনজুমারস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) যশোরের সদস্য আব্দুর রকিব সরদার ও কোতয়ালি থানা ও সদর পুলিশ ফাঁড়ির একটি টিম।

করোনা প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে যুব ইউনিয়নের হাত ধোয়া কর্মসূচি পালিত

খবর বিজ্ঞপ্তি

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বার বার হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়তে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন খুলনা জেলা কমিটির উদ্যোগে শনিবার হাত ধোয়া কর্মসূচি শুরু হয়। আজ শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টায় নগরীর পিকচার প্যালেস মোড়ে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য এড. মোঃ বাবুল হাওলাদার। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) কেন্দ্রীয় সদস্য এস এ রশীদ, খুলনা মহানগর সভাপতি এইচ এম শাহাদাৎ, সিপিবি নেতা মিজানুর রহমান বাবু। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেনÑবাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সদস্য ও খুলনা জেলা সভাপতি এড. নিত্যানন্দ ঢালী, সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক জয়ন্ত মুখার্জী, যুব ইউনিয়ন নেতা আফজাল হোসেন রাজু, শাহ্ ওয়াহিদুজ্জামান জাহাঙ্গীর, ডাঃ গৌরাঙ্গ সমাদ্দার প্রমুখ। এ সময়ে স্বতস্ফূর্তভাবে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ হাত ধৌত করেন। সংগঠনের পক্ষ থেকে নেতৃবৃন্দ সকলকে ২০ মিনিট পর পর সাবান বা জীবানু নাশক দ্রব্য দ্বারা হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়তে এবং অন্যদেরকে উৎসাহিত করতে ও অন্যান্য স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার আহ্বান জানান।

বাগেরহাট প্রেসকাবের সাবেক সভাপতির মায়ের পরোলোক গমন বিভিন্ন মহলের শোক

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাট প্রেসকাবের সাবেক সভাপতি, দৈনিক জনকন্ঠের ষ্টাফ রিপোর্টার বাবুল সরদারের মা রমা রানী পরলোক গমন করেছেন। শনিবার (২১ মার্চ) সকালে বাগেরহাট সদও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮২ বছর। তিনি এক ছেলে, দুই মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। শনিবার রাতে বাগেরহাট মুনিগঞ্জস্থ কেন্দ্রীয় মহা শশ্মানে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।তার বিদেহী আত্মার শান্তি ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন. খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আব্দুল খালেক তালুকদার, বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাড. আমিরুল আলম মিলন, বাগেরহাট-৩ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুনন্নাহার. বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সরদার নাসির ইদ্দিন. বাগেরহাট প্রেসকাবের সভাপতি এ্যাড. মোজাফফর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাকি তালুকদার , নিরাপদ সড়ক চাই বাগেরহাট জেলা শাখার সভাপতি সাংবাদিক আলী আকবর টুটুল .এছাড়া বিদেহী আত্মার শান্তি ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন বাগেরহাট রিপোটাস এ্যসোসিয়েশন এর কর্মকরতাসহ সকল কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ, এবং।বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা রুপান্তরের নির্বাহী পরিচালক রফিকুল ইসলাম খোকন, স্বপন কুমার গুহ, বাগেরহাট জেলা সমন্বয়কারী আলমগীর হোসেন মীরু, নিউট্রিশন গভর্নেন্স প্রকল্প সমন্বয়কারী খালেদা হোসাইন মুন রায়েন্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আছাদুজ্জামান মিলন।