বঙ্গবন্ধু ছিলেন বাঙালি জাতির আদর্শ ও দর্শন: খুলনা আওয়ামী লীগ

4
Spread the love


খবর বিজ্ঞপ্তি::


জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকীতে বর্ণাঢ্য আনন্দ মিছিল ও সমাবেশ করেছে খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ। গতকাল রবিবার বিকাল ৩টায় রূপসা মোড়ের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত অধিকারী, আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাড. কাজী বাদশা মিয়া, এ্যাড. কাজী এনায়েত হোসেন, এ্যাড. এম এম মুজিবর রহমান, সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু, আবুল কালাম আজাদ কামাল, কামরুজ্জামান জামাল, এ্যাড. নিমাই চন্দ্র রায়, এ্যাড. অলোকা নন্দা দাস, হাফেজ মো. শামীম, হাজী নুরুজ্জামান, অধ্যা. আশরাফুজ্জামান বাবুল, অসিত বরণ বিশ্বাস, শফিকুর রহমান পলাশ, মো. মোতালেব হোসেন, এস এম আসাদুজ্জামান রাসেল। সভা পরিচালনা করেন, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ ও সাবেক উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. মফিদুল ইসলাম টুটুল।

এসময়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, বঙ্গবন্ধু মুজিব ছিলেন বাঙালি জাতির আদর্শ ও দর্শন। বঙ্গবন্ধু মুজিব সারা জীবন নিপীড়িত নির্যাতিত মানুষের অধিকার আদায়ে রাজনীতি করেছেন। বাঙালির অধিকার আদায় করতে গিয়ে তিনি নিজের জীবনকে উৎসর্গ করেছেন। যা বিশ্বের ইতিহাসে একটি বিরল ঘটনা। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু মুজিব বাঙালিকে শুধু দু’হাত ভরে দিয়েছেন। কোনদিন কখনও কিছুই নেন নি। খোকা মুজিব থেকে তিনি মানুষের দু:খে কষ্টে সাথী হয়েছেন। তিনি চেয়েছিলেন বাংলার নিরন্ন মানুষের মুখে অন্ন আর গৃহহীনকে গৃহ দেয়ার। মুজিব ছিলেন একজন মানবতাবাদি নেতা। কিন্তু বাংলার শত্রুরা বঙ্গবন্ধু’র স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে দেয়নি। তাঁকে হত্যার মধ্য বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন আর মানবতাকে হত্যা করে। নেতৃবৃন্দ বলেন, জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু’র স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে বাঙালির জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। তাঁর এই কাজ ত্বরান্বিত করতে আমাদের সকলের ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

সমাবেশ ও মিছিলে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা শেখ হায়দার আলী, মল্লিক আবিদ হোসেন কবীর, শেখ সিদ্দিকুর রহমান, এ্যাড. রজব আলী সরদার, এ্যাড. আইয়ুব আলী শেখ, এ্যাড. নব কুমার চক্রবর্তী, মকবুল হোসেন মিন্টু, জামাল উদ্দিন বাচ্চু, শেখ ফজলুল হক, জেড এ মাহমুদ ডন, রফিকুর রহমান রিপন, এ্যাড. খন্দকার মজিবর রহমান, অধ্যা. আলমগীর কবির, প্যানেল মেয়র আলী আকবর টিপু, অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, অধ্যা. মিজানুর রহমান, কামরুল ইসলাম বাবলু, মোখলেসুর রহমান বাবলু, সাবেক সংসদ সদস্য ননী গোপাল ম-ল, মো. শাহাজাদা, শেখ মোশাররফ হোসেন, আব্দুল্লাহ হারুন রুমি, এ্যাড. মো. সাইফুল ইসলাম, সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাস, কাউন্সিলর ফকির মো. সাইফুল ইসলাম, তসলিম আহমেদ আশা, শেখ মো. আনোয়ার হোসেন, কাউন্সিলর শামছুজ্জামান মিয়া স্বপন, অধ্যক্ষ দেলোয়ারা বেগম, আলহাজ্ব শেখ আবুল হোসেন, আলী আকবর শেখ, শেখ মো. জাহাঙ্গীর আলম, মাহাবুবুল আলম বাবলু মোল্লা, হাসান ইফতেখার চালু, এ্যাড. সরদার আনিসুর রহমান পপলু, এস, এম হাফিজুর রহমান হাফিজ, খান সাইফুল ইসলাম, জিয়াউল ইসলাম মন্টু, শেখ আবিদ উল্লাহ, এ্যাড. ফারুক হোসেন, মো. নুর ইসলাম, আব্দুল হাই পলাশ, শেখ জাহিদ হোসেন, ফেরদৌস হোসেন লাবু, জাহিদুল হক, মঈনুল ইসলাম নাসির, চ. ম. মুজিবর রহমান, চৌধুরী মিনহাজ উজ্জামান সজল, মুন্সি আইয়ুব আলী, শেখ আব্দুল আজিজ, জামিরুল হুদা জহর, এমরানুল হক বাবু, মো. ইউসুফ আলী খান, নজরুল ইসলাম, মো. জাকির হোসেন, মো. শিহাব উদ্দিন, মো. মোতালেব মিয়া, এমরানুল হক বাবু, এ্যাড. শামীম মোশাররফ, মীর মো. লিটন, শেখ এশারুল হক, সরদার আব্দুল হালিম, আতাউর রহমান শিকদার রাজু, শেখ রুহুল আমিন, ফয়জুল ইসলাম টিটো, অহিদুজ্জামান পলাশ, কামরুল ইসলাম, জামিল খান, সমীর কৃষ্ণ হীরা, দেব দুলাল বাড়ৈই বাপ্পি সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। এর আগে সকাল সাড় ৮টায় দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করা হয়।