মসজিদের দানবাক্সে মিলল দেড় কোটি টাকা

6
Spread the love

খুলনাঞ্চল রির্পোট

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের দানবাক্সে এবার পাওয়া গেছে ১ কোটি ৫০ লাখ ১৮ হাজার ৪৯৮ টাকা। যা এর আগের তুলনায় ৬৬ হাজার ১০০ টাকা কম। তিন মাস ২০ দিন পর শনিবার মসজিদের দানবাক্স খোলা হয়। সকাল ৯টায় জেলা প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে দানবাক্স খোলা হয়। প্রথমে সিন্দুক খুলে টাকা বস্তায় ভরা হয়। এরপর ফ্লোরে ঢেলে শুরু হয় গণনার কাজ। বিকাল ৪টায় গণনা শেষে দানের এ টাকার হিসাব পাওয়া যায়। এছাড়াও দানবাক্সে পাওয়া গেছে সোনা ও রূপার অলংকার এবং বৈদেশিক মুদ্রা।

কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা ও পাগলা মসজিদ কমিটির সম্পাদক পৌর মেয়র মাহমুদ পারভেজের তত্ত্বাবধানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফজলে রাব্বি, মাহামুদুল হাসান, উবায়দুর রহমান সাহেল, পাগলা মসজিদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মুক্তিযোদ্ধা শওকত উদ্দিন ভূইয়া ও রূপালী ব্যাংক কিশোরগঞ্জ শাখার কর্মকর্তারা টাকা গণনার কাজ তদারকি করেন। 

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা জানান, দেশি নগদ টাকা ছাড়াও পাওয়া গেছে বিভিন্ন দেশের মুদ্রা, স্বর্ণ ও রূপার অলংকার। এছাড়াও দানে পাওয়া ছাগল, হাস-মুরগি প্রতি সপ্তাহেই নির্ধারিত দিনে নিলামে বিক্রি করা হয়। 

এর আগে গত ২৬ অক্টোবর পাগলা মসজিদের টাকা গণনা করে পাওয়া গিয়েছিল ১ কোটি ৫০ লাখ ৮৪ হাজার ৫৯৮ টাকা।

পাগলা মসজিদের দানের টাকায় মসজিদ ও মাদ্রাসায় উন্নয়নমূলক কাজ ছাড়াও জটিল রোগীদের চিকিৎসায় সহায়তা করা হয়।