এবার প্রত্যাশা পূরণের ধাপে বাংলাদেশ

0
17

ক্রীড়া প্রতিবেদক
বিশ্বকাপের সূচি হওয়ার পর থেকে মাশরাফি মুর্তজা অনেকবারই বলেছেন, প্রথম তিন ম্যাচই বাংলাদেশের জন্য কঠিন চ্যালেঞ্জ। বিশ্বকাপ খেলতে দেশ ছাড়ার আগে, বিশ্বকাপের আগে অধিনায়কদের নিয়ে আইসিসির আয়োজন কিংবা আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে, বাংলাদেশ অধিনায়ক বারবার মনে করিয়ে দিয়েছেন, বাংলাদেশের শুরুর সূচি বেশ কঠিন। এই কন্ডিশনে অভ্যস্ত ও মানিয়ে নেওয়ার মতো তিনটি দল বাংলাদেশের প্রথম তিন ম্যাচের প্রতিপক্ষ-দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউ জিল্যান্ড ও স্বাগতিক ইংল্যান্ড।
দলের চিন্তা-ভাবনা ছিল সেই বাস্তবতাকে সম্ভাব্য ধরে নিয়েই। প্রথম তিন ম্যাচের চাওয়া ছিল, অন্তত একটি জয়, দুটি পেলে ভালো হয়। প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকাকে। পরের ম্যাচে দারুণ লড়াই করেও কিউইদের কাছে হেরেছে জয়ের খুব কাছে গিয়ে। তৃতীয় ম্যাচে খুব একটা পাত্তা মেলেনি ইংল্যান্ডের সামনে। সবশেষ ম্যাচের হতাশার পরও তাই বলা যায়, প্রথম তিন ম্যাচ থেকে বাংলাদেশের প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে মোটামুটি। সামনের প্রত্যাশার কথা বললে, প্রত্যাশিত জয়গুলি আদায় করে নেওয়ার সত্যিকারের চ্যালেঞ্জ আসছে পরের ধাপ থেকে।
বাংলাদেশের পরের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা, র‌্যাঙ্কিংয়ে যারা বাংলাদেশের নিচে। কাল মঙ্গলবার ব্রিস্টলে ওই ম্যাচে ফেভারিট বাংলাদেশ, জয়টাও কাম্য। শ্রীলঙ্কার পর ১৭জুন টেন্টনে প্রতিপক্ষ র‌্যাঙ্কিংয়ে আরও নিচে থাকা আরেক দল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এই দুই দলের বিপক্ষেই বাংলাদেশের সা¤প্রতিক রেকর্ড দারুণ। এছাড়াও র‌্যাঙ্কিংয়ে আরও নিচে থাকা আফগানিস্তান ও বাংলাদেশের ঠিক ওপরে থাকা পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ও খুবই প্রত্যাশিত। কদিন আগে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে দিয়ে পাকিÍান অবশ্য বুঝিয়ে দিয়েছে, তাদেরকে হারানো সহজ হবে না। তবে বাংলাদেশের বিপক্ষে সবশেষ চার ম্যাচেই হেরেছে পাকিস্তান, টানা পঞ্চম কেন নয়। বিশ্বকাপ শুরুর আগে বাংলাদেশের পরিকল্পনা এগিয়েছিল এই পথ ধরেই। প্রথম তিন ম্যাচে অন্তত একটি জয় যদি আসে, আর পরে যদি হারানো যায় এই চার দলকে, তার পর অন্যান্য ম্যাচের ফলাফল আর কিছুটা ভাগ্যের ছোঁয়া মিলিয়ে সেমি-ফাইনালের ফল খুলে যেতেও পারে!
বাংলাদেশের বিশ্বকাপ অভিযান তাই ব্যর্থ হবে নাকি এগোবে লক্ষ্য পূরণের দিকে, সেটি নির্ধারিত করে দেবে আসলে সামনের ম্যাচগুলোর ফলই। বলা যায়, বিশ্বকাপে বাংলাদেশের আসল লড়াই শুরু হচ্ছে এখন। শক্তি-সামর্থ্যে এগিয়ে থাকা দলের বিপক্ষে কিছু করে ফেলার তাড়না একরকম। আবার জিততেই হবে, এমন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে চাপ নিয়ে মাঠে নামা আরেক রকম। বাংলাদেশ দলকে এখন বইতে হবে সেই ভার, সামলাতে হবে সেই চাপ। বিশ্বকাপের মঞ্চে সহজ হবে না আসলে কোনো ম্যাচই। সব দলেরই আছে লক্ষ্য, পরিকল্পনা আর শক্তির জায়গা। প্রতিপক্ষ সব দলও নিশ্চয়ই সম্ভাব্য জয়ের তালিকায় বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচটি রেখেছে, সেভাবেই ছক কাটছে। কঠিন লড়াইয়ের জন্যই তাই তৈরি থাকতে হবে দলকে।

রোলাগাঁরোর নতুন রানী অ্যাশলে বার্টি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ফ্রেঞ্চ ওপেন তথা রোলাগাঁরোর নারী এককে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশলে বার্টি। শনিবার ফাইনালে তিনি চেক প্রজাতন্ত্রের কিশোরী মার্কেতা ভন্দ্রোউসোবাকে ৬-১, ৬-৩ ব্যবধানে হারিয়ে জীবনের প্রথম গ্র্যান্ড¯ø্যাম জিতে নেন।
অবশ্য তার এই জয়টা রূপ কথা হয়ে এসেছে। কারণ, ২০১৪ সালে তিনি টেনিস ছেড়ে ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত হন। নারীদের বিগ ব্যাশে তিনি ব্রিসবেন হিটের হয়ে খেলেন। ১৭ মাস ক্রিকেট খেলে আবার টেনিসে ফিরেন। টেনিসে তখন তার র‌্যাঙ্কিং ছিল ৬২৩। এরপর নিজেকে আবার গড়ে তোলেন টেনিসে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের জন্য। তিন বছরের মাথায় শনিবার তিনি জিতে নেন ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ড¯ø্যাম। আর এর মধ্য দিয়ে ১৯৭৩ সালের পর প্রথম কোনো অস্ট্রেলিয়ান নারী টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে রোলাগাঁরোর শিরোপা জিতলেন বার্টি। সবশেষ ১৯৭৩ সালে অস্ট্রেলিয়ার মার্গারেট জিতেছিলেন রোলাগাঁরোর শিরোপা।
ফাইনাল জেতার পর বার্টি বলেন, ‘এটা অবিশ্বাস্য। আমি বাকরুদ্ধ। আমি প্রায় যথাযথ ম্যাচটি খেলেছি। দুই সপ্তাহ দারুণ কেটেছে আমার জন্য। এই জায়গাটি অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়দের জন্য বিশেষ কিছু। আজ আমি যা অর্জন করলাম সেটার জন্য খুবই গর্বিত।’
রোলাগাঁরোর শিরোপা জেতার ফলে বার্টি বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসবেন। তাতে করে ১৯৭৬ সালের পর অস্ট্রেলিয়ার টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে সর্বোচ্চ র‌্যাঙ্কিং অর্জন করবেন। এর আগে ১৯৭৬ সালে ইভোনি গুলাগং কাওলি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সর্বোচ্চ র‌্যাঙ্কিং অর্জন করেছিলেন।

ঢাকা থেকে জয় নিয়ে ফিরতে চায় লাওস
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ঘরে হেরেছে ১-০ গোলে। বাংলাদেশে এসে সেই ফল উল্টে দেয়া কঠিন লাওসের জন্য। কিন্তু তারা সে কাজটি করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। পিঠ দেয়ালে ঠেকায় তাদের সামনে এগুনো ছাড়া উপায় নেই।
গতকাল রবিবার কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে অনুশীলনের পর লাওসের কোচ সুন্দরম মূর্তি বলেছেন, ‘এখনো ৯০ মিনিটের খেলা বাকি। এটা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের বিশ্বাস ম্যাচের ফল বদলে দিতে পারবো।’ বাংলাদেশ সম্পর্কে লাওস কোচ বলেছেন, ‘গত কয়েক মাসে বাংলাদেশ বেশ উন্নতি করেছে। শারীরিকভাগে এখন দলটি আগের চেয়ে ভালো। পাসিং আর স্পিডে তারা ম্যাচের পার্থক্য গড়ে দিতে পারে। তারপরও আমরা আত্মবিশ্বাসী ম্যাটি জেতার ব্যাপারে।’ ঘরের মাঠে হারার কারণ ব্যাখ্যা করে লাওস কোচ বলেছেন, ‘প্রথম ম্যাচে আমরা অনেক সুযোগ পেয়েছিলাম। কিন্তু আমরা সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারিনি। এ কারণেই আমরা ম্যাচটি ১-০ গোলে হেরেছি। আমরা আশাবাদী বাংলাদেশের হোম ম্যাচে সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারবো। সেটাই গুরুত্বপূর্ণ। এখানে এসে মাত্র দুই সেশন অনুশীলনের সুযোগ পেয়েছি।’

কক্সবাজার বিচে ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় ও কক্সবাজার জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে চলতি মাসে শুরু হতে যাচ্ছে ‘ওয়ালটন প্রথম বিচ ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা-২০১৯।’
প্রতিযোগিতার বিষয়ে কক্সবাজার জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক অনুপ বড়ুয়া অপু বলেন, ‘ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় প্রথমবারের মতো আমরা বিচ ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে যাচ্ছি। ২১ ও ২২ জুন বিচে অনুষ্ঠিত হবে এই প্রতিযোগিতা। মূলত কক্সবাজারকে প্রমোট করার লক্ষ্যেই এটা আয়োজন করা। কক্সবাজারকে বিশে^র কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করা। এই প্রতিযোগিতায় কক্সবাজারের বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিযোগীরা অংশ নিবে।

ফ্রান্সকে হারিয়ে অঘটনের জন্ম দিল তুরস্ক
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ইউরো বাছাইপর্বের খেলায় তুরস্কের কাছে হেরে গেল বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। শনিবার গ্রুপ এইচয়ের ম্যাচে তুরস্কের ঘরের মাঠে গ্রিজম্যান-পগবারা হেরেছে ২-০ গোলে।
কোনিয়া বুয়ুকসেহির স্টেডিয়ামে বল পায়ে ফ্রান্স এগিয়ে থাকলেও ম্যাচের ৩০ মিনিটে তুরস্ককে এগিয়ে দেন কান আয়হান। বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই ৪০ মিনিটে ফের বল জালে জড়ায় তুর্কিরা। এবারের গোলদাতা সেঞ্জিক আন্ডার। প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার আগেই ২-০ গোলে পিছিয়ে থাকায় ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে আরও বেশি আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে ফ্রান্স। আক্রমণের ধার বাড়াতে বিরতির পর কিংস্লে কোমান, বেন ইয়েডারদের নামালেও তুরস্কের রক্ষণ ভাঙতে পারেনি লেস ব্লুজরা। শেষতক, তাই হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় তাদের। হারলেও কাল মঙ্গলবারই স্বরূপে ফেরার উপলক্ষ পেয়ে যাচ্ছে ফ্রান্স। এন্ডোরার ঘরের মাঠ এস্তাদি নাসিওনালে তাদের আতিথেয়তা নেবে তারা।

আজকের খেলা
দক্ষিণ আফ্রিকা-ওয়েস্টউন্ডিজ বিকেল সাড়ে ৩টা

আলোচিত সেই গøাভস বদলাতে বাধ্য হলেন ধোনি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ভারত-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে চোখ ছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির উপর। সেনাবাহিনীর লোগো থাকা সেই গøাভস পরে ধোনি খেলবেন কি না? তার উত্তর খুঁজতে চোখ রেখেছিলেন সবাই। তবে টস জিতে বিরাট কোহলি প্রথমে ব্যাটিং নেয়ায় অপেক্ষা বাড়ে দর্শকদের। অবশেষে সেই অপেক্ষার অবসান ঘটে যখন ফিল্ডিং করতে নামে ভারত।
একপ্রকার বাধ্য হয়েই গতকাল রবিবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে গøাভস বদলিয়ে মাঠে নামেন ধোনি। প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সেনাবাহিনীর লোগো থাকা সেই গøাভস অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পরেননি তিনি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সেই ম্যাচে সেনাবাহিনীর লোগো থাকা গøাভস পড়ার পর তর্কবিতর্ক শুরু হয়ে যায় পুরো ক্রিকেট বিশ্বে। এই গ্লাভস পড়ার কারণে প্রশংসার পাশাপাশি সমালোচনার স্বীকার হয়েছেন ধোনি।

ধোনিকে ছাড়িয়ে শীর্ষে রোহিত
ক্রীড়া প্রতিবেদক
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করতে নামে ভারত। ওপেনিংয়ে ব্যাট করতে নেমে ৫৭ রানে আউট হয়ে গেলেও রেকর্ড গড়ে গেছেন ভারতীয় দলের ‘হিটম্যান’ খ্যাত রোহিত শর্মা। ছক্কা হাঁকানোর তালিকায় ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে শীর্ষে উঠে এসেছেন রোহিত।
ইনিংসের ১৬তম ওভারের প্রথম বলে ডিপ স্কয়ার লেগের উপর দিয়ে ছক্কা হাঁকান রোহিত। আর এই ছয়ের মাধ্যমে ধোনির ৩৫৪ ছক্কা ছাড়িয়ে ভারতের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ছক্কার মালিক হন রোহিত। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত ৩৫৫ ছ্ক্কার মালিক রোহিত, ওয়ানডেতে ছয় মেরেছেন ২২১ টি। টি-টোয়েন্টিতে ১০২ ও টেস্টে ৩২ ছক্কা আছে তার। ভারতের ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ ২৬৪ ছক্কার মালিক কিংবদন্তি শচিন টেন্ডুলকার, চতুর্থ সর্বোচ্চ ২৫১ ছয় যুবরাজ সিংয়ের। ২৪৭ ছক্কা নিয়ে পঞ্চম স্থানে আছেন সৌরভ গাঙ্গুলি।

প্রথমবারের মতো ক্রিকেট বিশ্বকাপ খেলবে জাপান
ক্রীড়া প্রতিবেদক
আগামী বছর অনুষ্ঠেয় অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের জন্য কোয়ালিফাই করেছে জাপান ক্রিকেট দল। এবারই প্রথম ক্রিকেটের কোনো বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করলো তারা। এর আগে পুরুষ, মহিলা অথবা বয়সভিত্তিক ক্রিকেট কোনো জায়গায়ই ক্রিকেটের বিশ্বমঞ্চে খেলতে পারেনি জাপানিজরা।
শনিবার পশ্চিম এশীয় অঞ্চলের বাছাইপর্বের ফাইনালে পাপুয়া নিউগিনির মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিলো জাপানের। কিন্তু প্লেয়ার সংকটের কারণে পাপুয়া নিউগিনি খেলতে না পারায় অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করে জাপান। ২০১১ সালের পর এবারই প্রথমবারের মতো পশ্চিম এশীয় অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে খেলেছে জাপান। এর আগে ২০০৭, ২০০৯ ও ২০১১- এই তিনবারে ১১ ম্যাচে মাত্র ১ জয় পায় তারা। কিন্তু এবারে বেশ ভালো দল নিয়েই মাঠে নামে তারা।

চার সপ্তাহ মাঠের বাইরে নেইমার
ক্রীড়া প্রতিবেদক
শনিবার এক বিবৃতিতে পিএসজি তাদের ফরোয়ার্ডের মাঠের বাইরে থাকার সময় জানিয়ে দেয়। ডান গোড়ালি মচকে গেছে ব্রাজিলিয়ান তারকার।
গত বৃহস্পতিবার কাতারের বিপক্ষে ২-০ গোলে জয়ের ম্যাচে মাত্র ২১ মিনিটে প্রতিপক্ষের এক কড়া ট্যাকলে চোট পান নেইমার। স্টাফদের সহায়তায় আহত পা নিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। তখনই ব্রাজিল ফুটবল কনফেডারেশন জানায়, কোপা আমেরিকায় খেলা হচ্ছে না নেইমারের। দলে তার জায়গায় খেলবেন উইলিয়ান। তবে কবে তিনি ফিরবেন সেটা জানায়নি তারা। পিএসজি নিশ্চিত করেছে, এই চোটের কারণে কোনও অস্ত্রোপচার করাতে হবে না নেইমারের। নিয়মিত চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ হয়ে যাবেন তিনি। সব মিলিয়ে এক মাসের মধ্যে আবার মাঠে দেখা যাবে তাকে।

সান মারিনোর জালে রাশিয়ার ৯ গোল
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ইউরো-২০২০ এর বাছাইপর্বে রেকর্ড ব্যবধানে জয় পেয়েছে রাশিয়া। শনিবার রাতে তারা ‘আই’ গ্রুপের তৃতীয় ম্যাচে সান মারিনোকে হারিয়েছে ৯-০ গোলের ব্যবধানে। যা রাশিয়ার ফুটবল ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয়। রাশিয়ার এমন জয়ে হ্যাটট্রিকসহ চার গোল করেছেন আর্তেম জুবা। জোড়া গোল করেছেন ফেদর মলভ।
শনিবার ম্যাচের ২৫ মিনিটে সান মারিনোর ২০ বছর বয়সী মিশেলে সেভোলি আত্মঘাতি গোল করে রাশিয়াকে এগিয়ে দেন। এরপর ৩১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে আর্টেম তার প্রথম গোলটি করেন। ৩৬ মিনিটে ফেদর কুদরায়াশোভ গোল করে ব্যবধান করেন ৩-০। আর ৪১ মিনিটে অ্যান্তন মিরানচুক গোলের দেখা পেলে প্রথমার্ধেই ৪-০ ব্যবধানের লিড নেয় রাশিয়া। বিরতির পর ৭৩ ও ৭৬ মিনিটে আরো দুটি গোল করে নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন আর্টেম। ৭৭ মিনিটে ফেদর মলভ তার প্রথম গোল করেন। ৮৩ মিনিটে পূর্ণ করেন জোড়া গোল। আর ৮৮ মিনিটে সান মারিনোর কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকেন আর্টেম। যা ছিল তার চতুর্থ রাশিয়ার নবম গোল।

জার্মানি ও ইতালির জয়
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ইউরো-২০২০ এর বাছাইপর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেয়েছে জার্মানি। আর তৃতীয় ম্যাচে জয় পেয়েছে ইতালি। ‘সি’ গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে জার্মানি ২-০ গোলে হারিয়েছে বেলারুশকে। আর ‘জে’ গ্রুপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে ইতালি ৩-০ ব্যবধানে হারিয়েছে গ্রিসকে।
শনিবার গ্রিসের মাঠে ইতালি ১০ মিনিটের ব্যবধানে তিনটি গোল করে। ম্যাচের ১৩ মিনিটে ইতালির হয়ে প্রথম গোলটি করেন নিকোলো বারেলা। ৩০ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন লোরেঞ্জো ইনসিগনি। আর ৩৩ মিনিটে লিওনার্দো বোনুচ্চি গোল করে ইতালিকে এগিয়ে নেন ৩-০ ব্যবধানে। এরপর অবশ্য বাকি সময়ে আর কোনো গোল হয়নি। এদিকে বেলারুশের বিপক্ষে জার্মানির হয়ে প্রথমার্ধের ১২ মিনিটে লিরয় সানে প্রথম গোলটি করেন। আর দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের ৬২ মিনিটে দ্বিতীয় গোলটি করেন মার্কো রেউস। ‘সি’ গ্রুপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে জয় পেয়েছে নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড। তারা এস্তোনিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here