বিতর্কিত অঞ্চলে ১০০ চীনা জাহাজ মোতায়েন

0
52

খুলনাঞ্চল ডেস্ক
বিতর্কিত দক্ষিণ চীনা সাগরে নিজেদের অবস্থান আরও শক্ত করেছে বেইজিং। মার্কিন সমরসজ্জার পর এবার অঞ্চলে প্রায় ১০০ জাহাজ মোতায়েন করেছে চীন। ওয়াশিংটনভিত্তিক কৌশলগত ও আন্তর্জাতিক বিষয়ের একটি গবেষণাকেন্দ্র জানিয়েছে, এসব জাহাজ থিটু দ্বীপের দিকে পাঠানো হয়েছে। প্রসঙ্গত, থিটু দ্বীপ ফিলিপাইনের দখলে থাকা একটি দ্বীপপুঞ্জের অংশ যা নিয়ে চীন, তাইওয়ান, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন ও ভিয়েতনামের মধ্যে বিরোধ রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রও দক্ষিণ চীন সাগরে তার সামরিক উপস্থিতি জোরদার করেছে। জানা গেছে, চীনের এই নৌবহরে যুদ্ধজাহাজ ছাড়াও রয়েছে উপকূলীরক্ষী এবং কয়েক ডজন মাছ ধরার ট্রলার। চীন এ অঞ্চলে ফিলিপাইন সরকারের নির্মাণ তৎপরতা বন্ধ করতেই এসব পদক্ষেপ নিয়েছে বলে ওই সূত্রটি উল্লেখ করেছে।
উল্লেখ্য, ২০১৭ সাল থেকে ফিলিপাইন এই দ্বীপে একটি বিমান ঘাঁটি নির্মাণের চেষ্টা করছে। গত বছর এই ঘাঁটি নির্মাণকাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু খারাপ আবহাওয়ার কারণে পুরোপুরি নির্মাণ করা এখনো সম্ভব হয়নি।

মদিনায় মায়ের সামনে শিয়া শিশুর শিরñেদ
খুলনাঞ্চল ডেস্ক
সৌদি আরবের মদিনায় মায়ের সামনে ছয় বছরের শিশুকে শিরñেদ করেছে এক ব্যক্তি। গত বৃহস্পতিবার রাতে দরুদ শুনে শিয়া মতাবলম্বী হওয়ার বিষয়টি টের পেয়ে শিশুটিকে হত্যা করে সে। এ ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক করা হয়নি। খবর ডেইলি মেইলের।
শিশুটির নাম জাকারিয়া আল-জাবের। মায়ের সঙ্গে হজরত মুহাম্মদ (সা.)’র রওজা জিয়ারতের জন্য রওয়া হয়েছিলো সে। পথে তার মা দরুদ শরীফ পাঠ করতেই ট্যাক্সি চালক জানতে চান তিনি শিয়া মুসলমান কিনা? উত্তরে হ্যা বলেন তিনি। সঙ্গে সঙ্গে ট্যাক্সি থামিয়ে শিশুকে বের করে এনে ভাঙা কাচ দিয়ে ঘাড় থেকে মাথা আলাদা করে ফেলেন ওই চালক। সেখানেই জ্ঞান হারান জাবেরের মা।
হত্যাকাÐের পর শোকে স্তব্ধ হয়ে পড়ে সৌদি আরবে শিয়া স¤প্রদায়। শিশুটির পরিবারের কাছে এসে সহানুভূতি জানান দেশটিতে নানা নির্যাতনের শিকার হওয়া শিয়ারা।
ডেইলি মেইলকে শিয়া স¤প্রদায়ের এক নেতা বলেন, ‘আমাদের বিরুদ্ধে সৌদিতে চলা নিপীড়নেরই অংশ এটি। এখানে কর্তৃপক্ষ শিয়াদের কোন প্রকার সুরক্ষা দিচ্ছে না।’
ওয়াশিংটন ভিত্তিক শিয়া মানবাধিকার সংস্থা আসাপ এক বিবৃতিতে এ ঘটনার বিচার দাবি করেছে। সংস্থাটির বিবৃতিতে বলা হয়, ‘সৌদি আরবের শিয়া স¤প্রদায় এখনও নানা হামলার শিকার হচ্ছে। পরিস্থিতির উন্নতিতে আন্তর্জাতিক স¤প্রদায় কোন উদ্যোগ নিচ্ছে না। এমন নৃশংসভাবে জাবেরের হত্যাকাÐের অবশ্যই সুরাহা হওয়া উচিত।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here