ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট জয় বাংলাদেশের যুবাদের

0
13

ক্রীড়া প্রতিবেদক
ক্রিকেটের জনক ইংল্যান্ড, টেস্ট খেলার ঐতিহ্যও তাদের অনেক পুরনো। তবে এই ইংল্যান্ডকে কিন্তু দেশের মাটিতে টেস্টে হারানোর কৃতিত্ব আছে বাংলাদেশের। ক্রিকেটের জনকদের ভয় করে না বাংলাদেশের যুবারাও। গতকাল রবিবার চট্টগ্রামের এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে চারদিনের প্রথম টেস্টে ইংল্যান্ডকে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজে এগিয়ে গেছে জুনিয়র টাইগাররা।
বাংলাদেশের এই জয়ের নায়ক বাঁহাতি স্পিনার মিনহাজুর রহমান। একাই ৬ উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ড অনুর্ধ্ব-১৯ দলের দ্বিতীয় ইনিংস ১৫২ রানে আটকে দেন তিনি। এরপর মাত্র ৩৫ রানের লক্ষ্য ২ উইকেট হারিয়ে সহজেই পেরিয়ে গেছেন স্বাগতিক ব্যাটসম্যানরা। শামিম হোসেন অপরাজিত থাকেন ২০ রানে। আর পারভেন হোসেন ইমন ছক্কা মেরে ম্যাচের ইতি টানেন। প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ড যুবদল অলআউট হয়েছিল ২৮০ রানে। জবাবে ৯ উইকেটে ৩৯৮ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। এরপর তৃতীয় দিনেই ৮৯ রান তুলতে ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলে ইংল্যান্ড। জর্জ হিল ও লুক হলম্যান সপ্তম উইকেটে ৪৫ রানের জুটি গড়লেও চতুর্থ ইনিংসে বাংলাদেশকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মতো লক্ষ্য ছুঁড়ে দিতে পারেনি সফরকারিরা।
মিনহাজুর ৬ উইকেট নেন মাত্র ২৮ রান খরচায়। যুব টেস্টে এটি বাংলাদেশের কোনো বোলারের দ্বিতীয় সেরা বোলিং। এই তালিকায় এক নাম্বারে আছেন গত অক্টোবরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৯৩ রানে ৭ উইকেট নেয়া বাঁহাতি স্পিনার রাকিবুল হাসান।

ভারতকে হারিয়ে সিরিজ নিউজিল্যান্ডের
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ইনিংসের ১৬তম ওভারে মহেন্দ্র সিং ধোনি যখন আউট হন, ভারতের স্কোর তখন ৬ উইকেটে ১৪৫ রান। হাতে পর্যাপ্ত উইকেট ছিল না, শেষ ২৮ বলে দরকার ৬৮ রান। ভারতের পক্ষে আসলে জয় পাওয়াটা কষ্টকরই ছিল। কিন্তু দিনেশ কার্তিক আর ক্রুনাল পান্ডিয়া মিলে অবিশ্বাস্যভাবে দলকে ম্যাচে ফেরান। শেষ ওভারে তো ভারতের দরকার ছিল মোটে ১৬ রান। দুই সেট ব্যাটসম্যান ছিলেন, জয়টা তখন খুব সম্ভব। কিন্তু হলো না, শেষ রক্ষা হলো না সফরকারিদের। হ্যামিল্টনে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে দারুণ লড়াইয়ের পর ভারত হেরেছে ৪ রানে। তাতে ২-১ ব্যবধানে সিরিজটা নিজেদের করে নিয়েছে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড।
টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৪ উইকেটে ২১২ রানের পাহাড়সমান এক পুঁজিই পেয়েছিল কিউইরা। ওপেনার কলিন মুনরো ৪০ বলে খেলেন ৭২ রানের বিধ্বংসী এক ইনিংস। কম বেশি ঝড় তুলেছেন বাকিরাও। আরেক ওপেনার টিম শেফার্ট করেন ২৫ বলে ৪৩। এছাড়া কেন উইলিয়ামসন ২৭ (২১ বলে) আর কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের ব্যাট থেকে আসে ৩০ রান (১৬ বলে)। ভারতের সামনে লক্ষ্য ছিল ২১৩ রানের। বড় এই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে একটা সময় নিশ্চিত হারের মুখে চলে গিয়েছিল সফরকারিরা। শেখর ধাওয়ান মাত্র ৫ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন। আরেক ওপেনার রোহিত শর্মা ৩৮ করলেও ৩২ বলের ইনিংসটা মোটেই টি-টোয়েন্টির সঙ্গে মানানসই ছিল না। মাঝে ঝড় তুলেছিলেন বিজয় শঙ্কর আর রিশাভ পান্ত। শঙ্কর ২৮ বলে ৪৩ আর পান্ত ১২ বলে ২৮ রান করে আউট হন।
এরপর হার্দিক পান্ডিয়াও খেলেন ১১ বলে ২১ রানের এক ইনিংস। কিন্তু তিনি আউট হবার পরের ওভারে অভিজ্ঞ ধোনিও মাত্র ২ রানে সাজঘরে ফিরলে বিপদে পড়ে ভারত। জয় তখন দূরের বাতিঘর।
সেখান থেকে দারুণভাবে দলকে লড়াইয়ে ফেরান দিনেশ কার্তিক আর ক্রুনাল পান্ডিয়া। যদিও বিজয়ের হাসি হাসতে পারেননি তারা। কার্তিক ১৬ বলে ৩৩ আর ক্রুনাল ১৩ বলে ২৬ রানে অপরাজিত থাকেন। নিউজিল্যান্ডের পক্ষে ২টি করে উইকেট নেন মিচেল স্যান্টনার আর ডেরিল মিচেল।

প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের হার
ক্রীড়া প্রতিবেদক
বাংলাদেশ দলের সবাই এখনও নিউজিল্যান্ডে পৌঁছাতে পারেনি। তবে বেশিরভাগ সেখানে পৌঁছে অংশ নিয়েছেন এই ম্যাচে। টস হেরে লিংকনের বার্ট সাটক্লিফ ওভালে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের ব্যাটে ছিলো রান খরা। শুধু মাত্র মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মুশফিকুর রহিমের ব্যাট থেকে আসে লড়াকু ইনিংস। মুশফিকুর রহিম ৬১ বলে ৮ চারে করেছেন ৬২ রান। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৮৮ বলে ১০ চারে করেছেন ৭২।
মুশফিক ফিরে গেলে সাব্বির রহমান পরে তার সঙ্গে যোগ দিয়ে খেলেন ৪০ রানের কার্যকরী ইনিংস। শুরুতে লিটন, মুমিনুল ও সৌম্য সরকারের ব্যাট মোটেও কথা বলেনি। ৩ রান আসে লিটনের ব্যাট থেকে, মুমিনুল ৬ আর সৌম্য করেন ১ রান! মেহেদী হাসান করেছেন ৭ রান। আর নাইম হাসান ১৭ রানে অপরাজিত থাকলেও বাকিরা থিতু হতে না পারায় ৪৬.১ ওভারে ২৪৭ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। জবাবে নিউজিল্যান্ড একাদশ উড়ন্ত সূচনা করে জয় নিশ্চিত করলেও বাংলাদেশের বোলিং ঘাম ঝরিয়েছে তাদের। ৪৮.১ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে জয় নিশ্চিত করে তারা। দুটি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজ, মাহমুদউল্লাহ ও মিরাজ। একটি করে নেন নাঈম হাসান ও সৌম্য সরকার।

চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে ফরাশগঞ্জের শুভ সূচনা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগের উদ্বোধনী ম্যাচে জয় পেয়েছে ফরাশগঞ্জ স্পোর্টিং ক্লাব। দেশের পেশাদার ফুটবলের দ্বিতীয় স্তরের এই প্রতিযোগিতায় ঢাকা সিটি এফসিকে তারা হারিয়েছে ১-০ গোলে।
গতকাল রবিবার টুর্নামেন্টের প্রথম দিন কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে একটি ম্যাচই হয়েছে। গত মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগ থেকে চ্যাম্পিয়নশিপে নেমে যাওয়া ফরাশগঞ্জকে শেষ পর্যন্ত আটকে রেখেছিল ঢাকা সিটি। কিন্তু ম্যাচ শেষ হওয়ার এক মিনিট আগে তাদের দুর্ভেদ্য রক্ষণভাগকে পরাস্ত করে ফরাশগঞ্জ। ৮৯ মিনিটে ম্যাচের একমাত্র গোল করেন আরিফ মিয়া। ফরাশগঞ্জ তাদের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলবে ১৪ ফেব্রুয়ারি ওয়ারী ক্লাবের বিপক্ষে। কমলাপুরে ম্যাচ শুরুর আগে বেলুন উড়িয়ে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন বাফুফের সিনিয়র সহসভাপতি সালাম মুর্শেদী।
আজ সোমবার টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় দিন ম্যাচ হবে দুটি। কমলাপুরে বেলা সোয়া একটায় মুখোমুখি হবে ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব ও ওয়ারী ক্লাব। স্বাধীনতা কেএস বিকাল সোয়া তিনটায় মোকাবিলা করবে ফকিরেরপুল ইয়াং এমসিকে।

জাতীয় তায়কোয়ান্দোতে সেনাবাহিনী ও আনসারের সাফল্য
ক্রীড়া প্রতিবেদক
জাতীয় তায়কোয়ান্দোর পুরুষ বিভাগে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এবং নারী বিভাগে শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি।
পুরুষ বিভাগে সেনাবাহিনীর সংগ্রহ ৮টি সোনা, ৯টি রুপা ও ৪টি ব্রোঞ্জ। রানার্স-আপ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) পেয়েছে ৪টি সোনা, ৫টি রুপা ও ৫টি ব্রোঞ্জ। মেয়েদের বিভাগে আনসার জিতেছে ৯টি সোনা ও ৫টি রুপা। রানার্স-আপ সেনাবাহিনীর অর্জন ৫টি সোনা ও ৬টি রুপা। জুনিয়র প্রতিযোগিতার বালক বিভাগে বিকেএসপি তিনটি সোনা, দুটি রুপা ও দুটি ব্রোঞ্জ এবং বালিকা বিভাগে গাজীপুর চারটি সোনা ও একটি ব্রোঞ্জ নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

মিয়ানমার যাচ্ছে নারী ফুটবল দল
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ঢাকায় গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ধারাবাহিকতা দ্বিতীয় রাউন্ডেও ধরে রাখতে চান নারী ফুটবলাররা। এএফসি অনুর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় রাউন্ড খেলতে ২৩ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমার যাচ্ছে নারী দল। সেখানে ২৭ ফেব্রুয়ারি শুরু হবে এ টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় রাউন্ড। বাংলাদেশের গ্রæপ প্রতিপক্ষ ফিলিপাইন, চীন ও স্বাগতিক মিয়ানমার।
মিয়ানমারে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ ২৭ ফেব্রুয়ারি ফিলিপাইনের বিরুদ্ধে। ১ মার্চ স্বাগতিকদের মুখোমুখি হবেন মৌসুমীরা। গ্রুপের শেষ ম্যাচ ৩ মার্চ চীনের সঙ্গে। লাওসে ‘এ’ গ্রুপের খেলা হবে ৩ থেকে ৭ মার্চ। মিয়ানমারে অনুর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্বের দ্বিতীয় রাউন্ড শেষ হওয়ার সপ্তাহ পার হলেই বাংলাদেশের মেয়েদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ সিনিয়র সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ। ১২ থেকে ২২ মার্চ নেপালের বিরাটনগরে হবে দক্ষিণ এশিয়ার মেয়েদের সবচেয়ে বড় ফুটবল টুর্নামেন্ট।

হকির নির্বাচনে মুখোমুখি দুই পক্ষ
ক্রীড়া প্রতিবেদক
খেলা থাকলে হকি যতটা আলোচনায় আসে, তার চেয়ে কয়েক গুণ বেশি আলোচনা হয় নির্বাচন আসলে। হকিতে নির্বাচনই যেন সব। অথচ দেশের তৃতীয় বৃহত্তম এ ফেডারেশনে নির্বাচিত কমিটি নেই এক বছর ধরে।
সর্বশেষ নির্বাচিত কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছিল ২০১৭ সালের ৩০শে জুলাই। তার প্রায় ছয় মাস পর গত বছর ১১ই জানুয়ারি জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ মেয়াদ শেষ হওয়া কমিটি বিলুপ্ত করে গঠন করে অ্যাডহক কমিটি। ১৩ মাস পরেই সেই হকিতে বইছে নির্বাচনী বাতাস। যেখানে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হচ্ছেন আবাহনীর কর্মকর্তা ও বর্তমান হকি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাদেক ও মোহামেডান বলয়ের মুমিনুল হক সাঈদ।
বাংলাদেশের হকি কীভাবে চলছে তা বোঝার জন্য একটা উদাহরণই যথেষ্ট। সর্বশেষ প্রিমিয়ার লীগের খেলা, চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দল ঘোষণা এবং তাদের পুরস্কার দিতে লেগে গেছে ৮ মাস।

প্রথম বিভাগ দাবা লীগ শুরু ১৩ ফেব্রæয়ারি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
খুলনা জেলা ক্রীড়া সংস্থার দাবা লীগ’২০১৮-২০১৯ এর পরিচালনা কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুসারে দাবা লীগ এর খেলা আগামী ১৩ ফেব্রæয়ারি বিকাল ৩টা থেকে শুরু হবে।
অংশগ্রহণকারী সকল ক্লাবের কর্মকর্তা ও খেলোয়াড়দের খেলা শুরুর ১ঘন্টা পূর্বে ভেন্যুতে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে। অংশগ্রহণকারী সকল ক্লাবকে অবহিতকরন পত্র এবং বাইলজ প্রেরন করা হয়েছে।

মাদ্রিদ ডার্বি জিতে দু’য়ে রিয়াল
ক্রীড়া প্রতিবেদক
চলতি মৌসুমে লা লিগার শুরুটা একদমই ভালো করতে পারেনি রিয়াল। লম্বা সময়ে ধরে পয়েন্ট টেবিলের ৫-৬ নম্বরে ছিলো সান্তিয়াগো সোলারির দলের অবস্থান। তবে ক্রমেই সময়ের সঙ্গে নিজেদের অবস্থান জোরদার করছে ইউরোপের অন্যতম সেরা এ ক্লাবটি।
যার ধারাবাহিকতায় শনিবার রাতে নগরপ্রতিদ্ব›দ্বী অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে ৩-১ গোলে মাদ্রিদ ডার্বি জয়। এ জয়ে অ্যাতলেটিকোকে তিনে নামিয়ে পয়েন্ট টেবিলের দুই নম্বরে উঠে এসেছে রিয়াল। তবে শীর্ষে থাকা বার্সেলোনার নিচেই রয়েছে তারা। ২৩ ম্যাচে ১৪ জয় ও ৩ ড্রয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসা রিয়াল মাদ্রিদের পয়েন্ট ৪৫। তিন নম্বরে নেমে যাওয়া অ্যাতলেটিকোর পয়েন্ট ৪৪। এক ম্যাচ কম খেলা বার্সেলোনা ৫০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে।

স্টোকস-বাটলারের ব্যাটে ইংল্যান্ডের প্রতিরোধ
ক্রীড়া প্রতিবেদক
পুরো সিরিজে ব্যাট হাতে বিবর্ণ ইংল্যান্ডকে এই টেস্টের প্রথম ইনিংসে রক্ষা করেছে বেন স্টোকস আর বাটলারের ১২৪ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি। অবশ্য অবিচ্ছিন্ন এই জুটিতে ভাগ্য সহায় ছিলো। শেষ সেশনে সবে মাত্র হাফসেঞ্চুরি পূরণ করেছেন অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। তখন আলজারি জোসেফের বলে দুর্দান্ত এক ক্যাচে সাজঘরে ফিরলেও পরে রিপ্লেতে দেখানো নো বলের কারণে ড্রেসিং রুম থেকে পুনরায় ডেকে আন হয় তাকে। শেষ মুহূর্তের নাটকীয় এই পরিস্থিতি ছাড়া নির্বিঘ্নেই তারা পার করে দিয়েছে বাকি সময়। অথচ চা পানের বিরতির আগে ১০৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে ছিলো ইংল্যান্ড। তাদের সেই বিপদ থেকে উদ্ধার করে স্টোকস ও বাটলারের অবিচ্ছিন্ন জুটি।
ভাগ্য সুপ্রসন্ন আবারও বলতে হবে স্টোকসের ক্ষেত্রে। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা ইংল্যান্ডকে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হয় তাকে দলে পেতে। দ্বিতীয় টেস্টের পর পায়ের ইনুজরিতে শঙ্কায় পড়ে গিয়েছিলেন। ক্যারিবীয়দের হয়ে দুটি উইকেট নেন কিমো পল। একটি করে নেন গ্যাব্রিয়েল ও জোসেফ।

পিএসজির জয়ের দিনে কাভানির চোট
ক্রীড়া প্রতিবেদক
লিগ ওয়ানে সবশেষ ম্যাচে লিওঁর কাছে মৌসুমের প্রথম হারের স্বাদ পেয়েছিলো প্যারিস সেন্ট জার্মেই। সামনেই চ্যাম্পিয়নস লিগ লড়াই। এই অবস্থায় জয়ের বিকল্প ছিলো না লিগ জায়ান্টদের। লিগে বোর্দোকে ১-০ গোলে হারিয়েছে পিএসজি।
তবে জয়ের এই আনন্দের সঙ্গে বিষাদ অনুভূতিও মিশে থাকলো জায়ান্টদের। ইনজুরিতে পড়েছেন স্ট্রাইকার এদিনসন কাভানি। ফলে চ্যাম্পিয়নস লিগের আসন্ন শেষ ষোলোর ম্যাচে তার পাওয়া নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। দু’দিন পর ম্যানইউর মুখোমুখি হবে তারা। অবশ্য একমাত্র জয় সূচক গোলটি এসেছে কাভানির পা থেকেই। ৪২ মিনিটে তাকে ফাউল করায় পেনাল্টি পায় পিএসজি। স্পট কিক থেকে কাভানির গোলে স্কোর লাইন ১-০ হয়।

ধোনির ‘ট্রিপল সেঞ্চুরি’
ক্রীড়া প্রতিবেদক
‘ট্রিপল সেঞ্চুরি’টা করেই ফেললেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। গতকাল রবিবার হ্যামিল্টনে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে এই কীর্তি গড়েছেন ভারতের উইকেটরক্ষক এই ব্যাটসম্যান।
টি-টোয়েন্টিতে ট্রিপল সেঞ্চুরি? এও কি সম্ভব। ধোনি আসলে ‘ট্রিপল সেঞ্চুরি’ করেছেন ম্যাচ খেলে। ভারতের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ৩০০টি টি-টোয়েন্টি খেলার কীর্তি এখন তার। আর টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে তিনি এই ক্লাবের ত্রয়োদশতম খেলোয়াড়। ধোনির সঙ্গে ৩০০ টি-টোয়েন্টি খেলার কীর্তি গড়াদের মধ্যে আছেন কাইরন পোলার্ড, ব্রেন্ডন ম্যাককালাম, ক্রিস গেইল, শোয়েব মালিক, ডোয়াইন ব্রাভো, সুনিল নারিনের মতো ক্রিকেটাররা। এর মধ্যে পোলার্ড (৪৪৬) আর ব্রাভো (৪২৯) তো খেলেছেন চারশরও বেশি টি-টোয়েন্টি।

লাল কার্ড দেখিয়ে সেঞ্চুরির দ্বারপ্রান্তে যে রেফারি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রথম লাল কার্ড দেখিয়েছিলেন নিউক্যাসেল ইউনাইটেডের নলবার্ট সোলানোকে। হাতে বল লেগেছিল নলবার্টের। তার পর থেকে ১৯ বছরের প্রিমিয়ার লিগ কেরিয়ারে ৪৭২টি ম্যাচে রেফারি হিসাবে দায়িত্ব সামলেছেন মাইক ডিন। আর ৯৯ বার লাল কার্ড দেখিয়ে সেঞ্চুরির দোরগোড়ায় তিনি।
চলতি লিগে ১৯ ম্যাচে আপাতত ৯টি লাল কার্ড দেখিয়েছেন ডিন। ক্যারিয়ারে ৯৯টি লাল কার্ডের মধ্যে ৫২টি তিনি সরাসরি দেখিয়েছেন। এছাড়াও ডিন ১ হাজার ৭২১টি হলুদ কার্ড দেখিয়েছেন। আরেক রেফারি মার্টিন অ্যাটকিনসন ক্যারিয়ারে এখনও পর্যন্ত ৫৮টি লাল কার্ড দেখিয়েছেন। ডিনের কাছাকাছি আপাতত তিনিই।

জয়ে ফিরল আর্সেনাল
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ম্যানচেস্টার সিটির কাছে হারের ধাক্কা ভুলে ঘুরে দাঁড়িয়েছে আর্সেনাল। তলানির দল হাডার্সফিল্ড টাউনকে হারিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে জয়ে ফিরেছে উনাই এমেরির দল। শনিবার প্রতিপক্ষের মাঠে ২-১ গোলে জেতে আর্সেনাল। আলেক্স আইওবির গোলে এগিয়ে যাওয়া দলটি ব্যবধান দ্বিগুণ করে আলেকসঁদ লাকাজেতের লক্ষ্যভেদে।
শুরু থেকে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলা আর্সেনাল এগিয়ে যায় ষোড়শ মিনিটে। সেয়াদ কোলাশিনাচের ক্রসে ভলিতে খুব কাছে থাকা গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড আইওবি। পরের চার মিনিটে দুটি ভালো সুযোগ হাতছাড়া হয়ে যায় আর্সেনালের। ৪৪তম মিনিটে স্কোর লাইন ২-০ করে ফেলেন লাকাজেত। ইংলিশ মিডফিল্ডার এইন্সলি মেইটল্যান্ড-নাইলসের স্কয়ার পাসে ঠিকানা খুঁজে নেন এই ফরাসি ফরোয়ার্ড। মেইটল্যান্ড-নাইলসের ভুলে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ব্যবধান কমানোর সুযোগ পেয়ে যায় হাডার্সফিল্ড।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here