সহজ জয়ে এক নাম্বারে মাশরাফির রংপুর

0
17

ক্রীড়া প্রতিবেদক
আসল কাজটা করে দিয়েছিলেন বোলাররাই। রংপুর রাইডার্সের দুই ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল আর এবি ডি ভিলিয়ার্স তুলির শেষ আঁচড়টুকু টানলেন। তাদের ব্যাটে চড়ে মাত্র ৭৩ রানের লক্ষ্য ৯.৩ ওভারেই পেরিয়ে গেছে রংপুর। ৯ উইকেটের জয়ে বিপিএলের পয়েন্ট তালিকার এক নাম্বারে উঠেই প্লে-অফের মঞ্চে দাঁড়িয়েছে মাশরাফি বিন মর্তুজার দল।
ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই মেহেদী মারুফকে হারিয়ে বসেছিল রংপুর। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে সঞ্জিত সাহার বলে বোল্ড হয়ে তিনি ফেরেন মাত্র ৫ রানে। তবে পরের সময়টায় কুমিল্লার ভিক্টোরিয়ানসের বোলারদের আর কোনো সুযোগ দেননি গেইল আর ডি ভিলিয়ার্স। ৬৭ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছেড়েছেন তারা।
এর আগে রংপুর রাইডার্সের বোলারদের তোপে মাত্র ৭২ রানেই গুটিয়ে যায় কুমিল্লার ইনিংস। টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ইমরুল কায়েসের দল। বল হাতে নিয়ে শুরু থেকেই কুমিল্লার ব্যাটসম্যানদের ওপর ছড়ি ঘোরাতে থাকেন রংপুরের বোলাররা। ইনিংসের প্রথম ওভারেই তামিম ইকবালের (০) উইকেটসহ মেইডেন নেন নাহিদুল ইসলাম। নিজের পরের ওভারেই আরেক ওপেনার এনামুল হক বিজয়কেও (৫) ফেরান নাহিদুল। চতুর্থ ওভারে উইকেট শিকারের উৎসবে যোগ দেন মাশরাফি। পরপর দুই ওভারে সাজঘরে পাঠিয়ে দেন কুমিল্লা অধিনায়ক ইমাল কায়েস (০) এবং থিসারা পেরেরাকে (৩)। মাঝে চতুর্থ ওভারে শামসুর রহমানের (১২) উইকেট নেন শহীদুল ইসলাম। ষষ্ঠ ওভারে মাত্র ২৩ রান তুলতেই সাজঘরে ফিরে যান পাঁচ ব্যাটসম্যান। সেখান থেকে খানিক প্রতিরোধ গড়েন লিয়াম ডসন এবং জিয়াউর রহমান। ২ চারের সঙ্গে ১ ছয়ের মারে ইনিংস সর্বোচ্চ ২১ রান করেন জিয়া। তাদের ৩৩ রানের জুটি ভাঙেন রবি বোপারা।
পরে কুমিল্লা লেজ মুড়িয়ে দেয়ার কাজটাও করেন বোপারাই। ৩ ওভারে মাত্র ৭ রান খরচায় নেন ৩ উইকেট। তবে দশম ব্যাটসম্যান হিসেবে সঞ্জিত সাহাকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে নিজের অভিষেক ম্যাচেই ক্যারিয়ারের প্রথম উইকেট নিয়ে নেন লেগস্পিনার মিনহাজুল আবেদীন আফ্রিদি।

সোনালী অতীত ক্লাব খুলনা’র বার্ষিক সাধারণ সভা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
সোনালী অতীত ক্লাব খুলনার বার্ষিক সাধারণ সভা গতকাল শনিবার বেলা ১১টায় খুলনা জেলা স্টেডিয়ামস্থ ক্লাব চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ক্লাবের সভাপতি, সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও ২৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ্ব আজমল আহমেদের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক রেজাউল আহমেদ রাজের সার্বিক পরিচালনায় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভার আলোচ্যসূচি অনুযায়ী ক্লাবের গঠনতন্ত্র সংশোধন, আন্তর্জাতিক ভ্যাটেনার্স মাস্টার্স কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট খুলনায় সম্পন্ন করা ও ক্লাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের নতুন কমিটি গঠনের জন্য নির্বাচনী সমন্বয় সাব-কমিটি গঠন করা হয়। এছাড়া ক্লাবের সাংগঠনিক প্রস্তাবনা উপস্থাপন করেন ক্লাবের দপ্তর সম্পাদক প্রাণিপ্রেমী এস এম সোহরাব হোসেন। আয়-ব্যয়ের হিসাব পেশ করেন কোষাধ্যক্ষ মো. আবুল হোসেন আবুল।
সভায় অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন ক্লাবের সহ-সভাপতি আফজালুর রহমান, নূরুল ইসলাম কালু, কাজী নাসিবুল হাসান শানু, ওয়াহিদুজ্জামান খান পল্টু, বীরেন দাস বিরু, মোস্তাফিজুর রহমান বাবলু, যুগ্ম সম্পাদক এস এম মনির, সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবর রহমান ফয়েজ, প্রচার সম্পাদক এম এ জলিল, ক্রীড়া সম্পাদক শেখ হেমায়েত উল্লাহ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক হাসান তৌফিক মাহফুজ মুন্না, নির্বাহী সদস্য এ কে আব্দুস রকিব, খাইবার হোসেন সমেরু, হাজী মোতালেব মিয়া, এম এহসানুল হক, এজাজ আহমেদ, এস এম তারিকুল ইসলাম সোহান, শাহ আসিফ হোসেন রিঙ্কু, সরদার মোস্তফা মাসুদ লিটু, মো. আনোয়ার হোসেন, এসএম মনির হোসেন, মো. আমজাদ হোসেন, আব্দুল মান্নান, আসাদুজ্জামান উজ্বল, আব্দুল খালেক শিকদার, কামাল আহমেদ, মোসাব্বির পারভেজ চঞ্চল, মোস্তফা পারভেজ মিঠু, এম এ মোতালেব, শেখ সাইফুউদ্দিন আহমেদ হিমু, শাহীনুর রহমান মনু, মো. আমিরুল ইসলাম, মো. মনির শেখ, মিনা মামুনুর রহমান, মো. বাবর আলী, মো. কামাল, ফিরোজ আরেফিন, শেখ জাহাঙ্গীর (ছোট), জাহাঙ্গীর (বড়), মো. সেলিম হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান পলাশ, মো. সহিদুল ইসলাম, শেখ আব্দুস সালাম, এ জে এম অহিদুল ইসলাম সেলিম, প্রশান্ত দে, পার্থপ্রতীম মÐল, মো. মকবুল হোসেন, মধুসূদন রায়, শেখ ফিরোজ উদ্দিন প্রমুখ।

তরুণ ক্রিকেটারদের কাছে হোয়াইটওয়াশ ইংল্যান্ড
ক্রীড়া প্রতিবেদক
কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিং নেয় বাংলাদেশ। ৯ উইকেটে তারা করে ২৬৬ রান। এরপর ৪৬.৩ ওভারে ২০৩ রানে তারা অলআউট করে ইংল্যান্ডকে।
৬৯ রানে প্রথম ৩ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। তবে ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয়ের সঙ্গে শামীমের ৮৮ রানের জুটিতে সেই ধাক্কা সামাল দেয় তারা। ৯০ বলে ৫৭ রান করে আউট হন মাহমুদ। এরপর জ্যাক মরলের জোড়া আঘাতে ৪ রানের ব্যবধানে তিনজন ব্যাটসম্যান সাজঘরে ফিরলে আবার বিপদে পড়ে স্বাগতিকরা। ৮৭ বলে ইনিংস সেরা ৭২ রান করে মরলের কাছে বোল্ড হন শামীম। তার বিদায়ের পর দলের হাল ধরেন শাহাদাৎ হোসেন। রিশাদ হোসেনের (২২) সঙ্গে তার ৫৮ রানের জুটিতে আড়াইশ ছাড়ায় স্কোর। ৩৫ বলে ৫ চার ও ২ ছয়ে ৫১ রানে অপরাজিত ছিলেন শাহাদাৎ। ইংল্যান্ডের পক্ষে জর্জ হিল সর্বোচ্চ ৩ উইকেট পান। দুটি করে নেন মরলে ও অ্যাডাম ফিঞ্চ।
খুলনাকে হারিয়ে এলিমিনেটরে ঢাকা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
রাজশাহী কিংসকে টপকে সেরা চারে থেকে বিপিএলে পরের পর্ব নিশ্চিত করতে জয়ের বিকল্প ছিল না ঢাকা ডায়নামাইটসের সামনে। খুলনা টাইটানসের বিপক্ষে সেই আকাঙ্ক্ষিত সাফল্য পেল সাকিব আল হাসানরা। ৩১ বল হাতে রেখে ৬ উইকেটের জয়ে এলিমিনেটর নিশ্চিত করলো তিনবারের চ্যাম্পিয়নরা। বিপিএলে লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে ঢাকার চমৎকার বোলিংয়ে সুবিধা করতে পারেনি খুলনা। ৯ উইকেটে তারা করে ১২৩ রান। জবাবে ১৪.৫ ওভারে ৪ উইকেটে ১২৪ রান করে ঢাকা।
উপুল থারাঙ্গার সঙ্গে ওপেনিংয়ে নেমে ঝড় তোলেন সুনীল নারিন। মাত্র ২.৪ ওভারে ৪৩ রানের জুটি গড়ে ফিরে যান ঢাকার এই ওপেনার। ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যান খেলেন ১৩ বলে ৩৫ রানের ইনিংস। দুটি চার ও চারটি ছয় মারেন নারিন। ছোট লক্ষ্যে নেমে এরপর সাকিব (১) ও মিজানুর রহমান (০) দ্রæত বিদায় নেন। কিন্তু থারাঙ্গার ৩০ বলে ৪২ রানের ইনিংসে এই ধাক্কা কাটিয়ে ওঠে ঢাকা। চারটি চার ও দুটি ছয়ে শ্রীলঙ্কার এই ওপেনার হয়েছেন ম্যাচসেরা। নুরুল হাসান ও কিয়েরন পোলার্ডের ৩৬ রানের অপরাজিত জুটি ঢাকাকে নিয়ে যায় জয়ের বন্দরে। নুরুল ২৭ ও পোলার্ড ৯ রানে অপরাজিত ছিলেন। খুলনার পক্ষে মাহমুদউল্লাহ সর্বোচ্চ ২ উইকেট নেন।

মেয়র কাপ ইনডোর গেমস্ এর উদ্বোধন আজ
ক্রীড়া প্রতিবেদক
মেয়র কাপ ইনডোর গেমস্ এর উদ্বোধন হবে আজ শনিবার। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং অফিসার্স ক্লাবের ব্যবস্থানায় আজ রাত সাড়ে ৭টায় অফিসার্স ক্লাবে গেমস্ এর উদ্বোধন করবেন প্রধান অতিথি সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।
অফিসার্স ক্লাবের সভাপতি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন উক্ত ইনডোর গেমস্ উপভোগ করার জন্য সকলকে আহবান জানিয়েছেন।

প্রাইম ব্যাংক ইয়ং টাইগার্স জাতীয় স্কুল ক্রিকেট
জয় পেয়েছে মডেল স্কুল ও জিলা স্কুল
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রাইম ব্যাংক ইয়ং টাইগার্স জাতীয় স্কুল ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় গতকাল শনিবার ২টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। নিজ নিজ খেলায় জয় পেয়েছে সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও খুলনা জিলা স্কুল।
সকাল ৯টায় খুলনা সার্কিট হাউজ মাঠে ‘গ’ গ্রæপ এর খেলায় মুখোমুখি হয় সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও বঙ্গবাসী মাধ্যমিক বিদ্যালয়। টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বঙ্গবাসী মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২৭দশমিক ৪ওভারে মাত্র ৬৩ রানে অলআউট হয়। দলের সর্বোচ্চ ২৮রান করেন জিহাদ। অতিরিক্ত ২৭ রান না হলে ৩৬ রানে আউট হতো কলেজিয়েট স্কুল। ৬৪ রানের লক্ষে খেলতে নেমে মাত্র ১৮দশমিক ১ওভারে ৫উইকেট হারিয়ে অতিরিক্ত ২৯ রানের সুবাদে জয়ের লক্ষে পৌছে যায় সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়।
একই সময়ে খালিশপুর প্রভাতী স্কুল মাঠে ‘ক’ গ্রæপ এর খেলায় মুখোমুখি হয় খুলনা জিলা স্কুল ও লায়ন্স স্কুল এন্ড কলেজ। টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে লায়ন্স স্কুল এন্ড কলেজ ৩৪দশমিক ৩ওভারে মাত্র ১০৫ রান করে। জবাবে ২১দশমিক ১ওভারে ৫উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষে পৌছে যায় খুলনা জিলা স্কুল। ফলে ৫ উইকেটের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে খুলনা জিলা স্কুল। দলের মুরাদ সর্বোচ্চ ৩১রান করেন।

বড় জয় নিয়ে ঘরে ফিরলো আবাহনী
ক্রীড়া প্রতিবেদক
বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ৬ বারের চ্যাম্পিয়ন আবাহনী যেন খোলস থেকে বেড়িয়ে এলো নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে। চ্যাম্পিয়নরা চ্যাম্পিয়নের মতো খেলে ঘরে ফিরলো এবারের প্রিমিয়ার লিগের সবচেয়ে বড় জয় নিয়ে। গতকাল শনিবার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে আবাহনী উড়িয়ে দিয়েছে পুরোনো ঢাকার দল রহমতগঞ্জকে।
নাবীব নেওয়াজ জীবনের হ্যাটট্রিক আর নাইজেরিয়ান সানডের জোড়া গোলে আবাহনী জিতলো ৫-১ ব্যবধানে। চার ম্যাচে তৃতীয় জয়ে চ্যাম্পিয়নরা উঠে এলো পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা বসুন্ধরা কিংসের পাশে। নবাগত নোফেলকে ২-১ গোলে হারিয়ে লিগ শুরু। পরের ম্যাচে আরেক নবাগত বসুন্ধরা কিংসের কাছে ৩-০ গোলে ধরাশায়ী। তৃতীয় ম্যাচে কোনোমতো মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে ২-০ গোলের জয়-আবাহনীর মধ্যে আসল আবাহনীকে খুঁজে পাচ্ছিল না সমর্থকরা। ধুঁকেধুঁকে তিন ম্যাচ পার করা আকাশী-হলুদরা জ্বলে উঠলো গতকাল। বিদেশিদের দাপটে প্রায়ই ডাগআউট গরম করা জীবন এ ম্যাচে যোগ্যতা প্রমাণ করলেন।

তিন ম্যাচ পর জামালের জয়ের হাসি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
তিনবারের চ্যাম্পিয়ন, সর্বশেষ আসরে রানার্সআপ। অথচ সেই শেখ জামালের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের শুরুটা চরম হতাশার। প্রথম দুই ম্যাচে বসুন্ধরা কিংস ও মুক্তিযোদ্ধার কাছে হার। তৃতীয় ম্যাচে রহমতগঞ্জের সঙ্গে ড্র। তিন ম্যাচে ৮ পয়েন্ট হারানো শেখ জামালকে জয় ধরা দিলো নোয়াখালীর শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে। গতকাল শনিবার প্রিমিয়ার লিগের নতুন এ ভেন্যুতে স্বাগতিক বিজেএমসিকে ২-০ গোলে হারিয়ে প্রথম জয়ের হাসি শেখ জামালের খেলোয়াড়, কর্মকর্তাদের মুখে।
মাঠে নামার আগে শেখ জামালের মতোই তিন ম্যাচে এক পয়েন্ট ছিল বিজেএমসির। হেরে বিজেএমসি পড়ে রইলো পয়েন্ট টেবিলের ১১ নম্বরে। শেখ জামাল জিতে মোহামেডান, ব্রাদার্স ও মুক্তিযোদ্ধাকে টপকে উঠে গেলো সপ্তম স্থানে। শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে শিরোপা লড়াইয়ে পায়ের নিচে কিঞ্চিত মাটি পেলো জোসেফ আফুসির দল। ১৩ মিনিটে শেখ জামালকে এগিয়ে দেন আর্জেন্টিনার ফরোয়ার্ড লুসিয়ানো। প্রায় মাঝমাঠ থেকে মানিকের নেয়া ফ্রি-কিক থেকে লুসিয়ানো হেডে লিগে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন। ৩৩ মিনিটে ব্যবধান বাড়ান কিরগিজস্তানের ফরোয়ার্ড ডেভিড ব্রুস। এ গোলের উৎসও ছিল ফ্রি-কিক। অধিনায়ক সলোমন কিংয়ের ফ্রি-কিকে গোল করেন ডেভিড।

ইনজুরিতে ওয়ানডে সিরিজ শেষ তাসকিনের
ক্রীড়া প্রতিবেদক
এক দুঃখজনক ঘটনা সর্বনাশ করেছে তাসকিনের। শুক্রবার লং-অফ সীমানায় চিটাগং ভাইকিংসের মোসাদ্দেক হোসেনের ক্যাচ নিতে গিয়ে বাঁ গোড়ালিতে ব্যথা পান তিনি। গতকাল শনিবার এমআরআই রিপোর্টে জানা গেছে, এই পেসারের পক্ষে কিউইদের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজে খেলা সম্ভব নয়।
এটা গ্রেড-থ্রি ইনজুরি। এ ধরনের ইনজুরি থেকে সেরে উঠতে তিন থেকে চার সপ্তাহ প্রয়োজন। নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের তিনটি ওয়ানডে হবে ১৩, ১৬ ও ২০ ফেব্রুয়ারি। তাই ওয়ানডে সিরিজের বাইরেই থাকতে হচ্ছে তাসকিনকে।

ইউনাইটেডের বড় জয়ের দিন কষ্টের জয় রেলওয়ের
ক্রীড়া প্রতিবেদক
গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স প্রথম বিভাগ হকি লিগ-২০১৮ আসরে একইদিন জয় পেয়েছে ঢাকা ইউনাইটেড ও ঢাকা রেলওয়ে। ইউনাইটেড অবশ্য বড় জয় পেয়েছে। কিন্তু জয় পেতে একটু বেগ পেয়েছে রেলওয়ে।
গতকাল শনিবার মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে দিনের প্রথম খেলায় ঢাকা ইউনাইটেড ১০-০ গোলে ফরাশগঞ্জ এসসি কে পরাজিত করে। হকি ঢাকা ইউনাইটেড এর পক্ষে সজিব চারটি গোল করেছেন। ১৯, ২৩, ৪১ ও ৫৩ মিনিটে। ২৬ ও ৩৫ মিনিটে দুটি গোল করেছেন তপু। এছাড়া মাসুম, ইমরান, ভিজেন্দ্রা ও রকি একটি করে গোল করেন।
একই ভেন্যুতে দিনের দ্বিতীয় খেলায় ঢাকা রেলওয়ে এসসি ২-১ গোলে কম্বাইন্ড স্পোর্টিং ক্লাব কে পরাজিত করে। রেলওয়ের অর্পণ ৬ মিনিটে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন। কম্বাইন্ডের পক্ষে ৪৩ মিনিটে গোল শোধ করেন মেহেদি হাসান। ৫৮ মিনিটে রেলওয়ের জয়সূচক গোলটি করেন ছোটন।

বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে চার নতুন মুখ
ক্রীড়া প্রতিবেদক
২০১৮ সালের কেন্দ্রীয় চুক্তির বাইরে থাকা ইমরুল কায়েস ও লিটন দাস কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ফিরেছেন। নতুন মুখ হিসেবে চুক্তিতে এসেছেন চার ক্রিকেটার। আবু জায়েদ রাহি, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, নাঈম হাসান ও খালেদ আহমেদকে রুকি ক্যাটাগরিতে রাখা হয়েছে। তবে গত বছর চুক্তিতে থাকলেও এ বছর কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। গতকাল শনিবার মিরপুরে বাংলাদেশ ক্রিকেট (বোর্ডের) সভা শেষে চুক্তিতে থাকা ১৭জন ক্রিকেটারের নাম প্রকাশ করা হয়।
বিসিবির চুক্তিতে ‘এ’-প্লাস ক্যাটাগরিতে আছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ‘এ’ ক্যাটাগরিতে আছেন ইমরুল কায়েস, রুবেল হোসেন ও মোস্তাফিজুর রহমান। ‘বি’ ক্যাটাগরিতে আছেন মুমিনুল হক সৌরভ, লিটন কুমার দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম। রুকি ক্যাটাগরিতে রয়েছেন পাঁচ ক্রিকেটার। তারা হলেন আবু হায়দার রনি, আবু জায়েদ রাহী, সাইফউদ্দিন, নাঈম হাসান ও সৈয়দ খালেদ আহমেদ।

বাংলাদেশের কাছে হারা সেই কাতার এখন এশিয়ার সেরা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
এই তো গত আগস্টের ঘটনা। ইন্দোনেশিয়ায় এশিয়ান গেমস ফুটবলে কাতারকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠেছিল বাংলাদেশ। সেই কাতার মাত্র ৫ মাসের ব্যবধানে পরলো এশিয়ার সেরার মুকুট।
শুক্রবার রাতে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত এএফসি এশিয়া কাপের ফাইনালে কাতার ৩-১ গোলে জাপানকে হারিয়ে হয়েছে চ্যাম্পিয়ন। মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি এই প্রথম উঠেছে ফাইনালে। প্রথমবারই তাদের বাজিমাত। তবে বাংলাদেশের কাছে হেরেছিল তাদের অনুর্ধ্ব-২৩ দল।

রান তাড়ায় হারল পাকিস্তান
ক্রীড়া প্রতিবেদক
অন্য দুই ফরম্যাটে যেমনই হোক কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে সা¤প্রতিক সময়ে সবার সেরা পাকিস্তান ক্রিকেট দল। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের দলীয় র‌্যাংকিংয়েও শীর্ষে অবস্থান করছে ২০০৯ সালের বিশ্ব টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়নরা। ক্রিকেটের ক্ষুদ্রতম এ সংস্করণে টানা ৯ ম্যাচ জিতে রীতিমতো উড়ছিল তারা।
তবে তাদের এ জয়রথ থামিয়ে দিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ওয়ানডে সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে জেতার পর টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৬ রানের দুর্দান্ত জয় পেয়েছে স্বাগতিকরা। দক্ষিণ আফ্রিকার করা ১৯২ রানের পাহাড় তাড়া করতে নেমে ১৮৬ রানে থামে পাকিস্তান।
সবমিলিয়ে নয় ম্যাচ পর হারলেও, রান তাড়া করে ম্যাচে টানা ১১ জয়ের পর ব্যর্থ হলো পাকিস্তান। সবশেষ ২০১৬ সালের মার্চে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১৯৩ রান তাড়া করতে নেমে ২১ রানে হেরেছিল তারা। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং করে টানা ১১ ম্যাচ জেতার পর শুক্রবার দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে পরাজিত হল তারা। সময়ের হিসেবে প্রায় তিন বছর পর

ইনিংস ঘোষণা অস্ট্রেলিয়ার : বিপদে শ্রীলঙ্কা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ভারতের সঙ্গে মোটেও পেরে ওঠেনি যারা, তারাই কি না শ্রীলঙ্কাকে তেড়ে-ফুঁড়ে জ্বলে উঠেছে ব্যাট হাতে। প্রথম টেস্টে তো ইনিংস ব্যবধানেই জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া। ক্যানবেরায় দ্বিতীয় টেস্টেও লঙ্কানদের ওপর রীতিমত ছড়ি ঘোরাচ্ছে অসিরা। টেস্টের প্রথম দিনটা অনায়াসেই কাটিয়ে দিয়েছিল তারা। দুর্দান্ত সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছিলেন ওপেনার জো বার্নস এবং ট্রাভিস হেড।
ট্রাভিস হেড ১৬১ রান করে আউট হয়ে গিয়েছিলেন প্রথম দিনিই। তবে দ্বিতীয় দিন জো বার্নস ১৭২ রান নিয়ে ব্যাট করতে নেমেছিলেন ডাবল সেঞ্চুরির আশায়। দ্বিতীয় লাঞ্চ বিরতির পর আরও কিছুক্ষণ খেলে, অর্থ্যাৎ আরও ৪৫ ওভার খেলে (মোট ১৩২ ওভার) ৫ উইকেটে ৫৩৪ রানের চূড়ায় ওঠার পর ইনিংস ঘোষণা করে অস্ট্রেলিয়া। ৫৩৪ রানের বিশাল রানের নিচে চাপা পড়ে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে মোটামুটি বিপদেই আছে সফরকারী শ্রীলঙ্কা। দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে তারা ৩ উইকেটে ১২৩ রান নিয়ে। দিন শেষে ১১ রান নিয়ে ব্যাট করছেন কুশল পেরেরা এবং ১ রান নিয়ে রয়েছেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। এখনও ৪১১ রান পিছিয়ে রয়েছে শ্রীলঙ্কা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here