খুলনা নগরী ও জেলায় ৯৭৩ মন্ডপে দুর্গোৎসবের আয়োজন

0
8

স্টাফ রিপোর্টার
চলতি বছর খুলনা মহানগরী ও জেলার ৯৭৩টি মÐপে শারদীয় দুর্গোৎসব পালন করা হবে। গত বছর নগরীতে ১২২টি মন্ডপ ছিল। এবার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২৩টি। জেলায় গত বছর মÐপের সংখ্যা ছিল ৮২২টি। এবার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৫০টি। গত বছরের চেয়ে এবার জেলায় মন্ডপের সংখ্যা বেড়েছে ৩৮টি। এদিকে, দ্রæত গতিতে চলছে প্রতীমা তৈরির কাজ। শিল্পীরা নিপুণ হাতে তৈরি করছেন প্রতীমা। অনেক স্থানেই প্রতীমায় চলছে শেষ সময়ের রঙের আচঁড়। আগামী ১৫ অক্টোবর শুরু হচ্ছে শারদীয় দুর্গোৎসব। ১৯ অক্টোবর প্রতীমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এ আয়োজন।

পূজা পরিষদের দেয়া তথ্য মতে, খুলনার নয় উপজেলার মধ্যে রূপসায় ৭৩টি, তেরখাদায় ৯৯টি, দিঘলিয়ায় ৬০টি, কয়রায় ৫৩টি, পাইকগাছায় ৪৮টি, দাকোপে ৭৮টি, ফুলতলায় ৩১টি, ডুমুরিয়ায় ১৯৭টি ও বটিয়াঘাটায় ১১১টি পূজা মন্ডপ রয়েছে।

এদিকে শারদীয় দুর্গোৎসবকে ঘিরে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে নানা নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। নির্দেশনায় মন্ডপ কেন্দ্রীক মেলা বসানো ও আতশবাজি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়া মহানগরীতে রাত ৮টার মধ্যে দেবীর বিসর্জনের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। পূজা উদযাপন পরিষদ মহানগর শাখার সভাপতি শ্যামল হালদার বলেন, দ্রæত গতিতে চলছে প্রতীমা তৈরির কাজ। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নগরীর প্রত্যেকটি মন্দিরে প্রতীমা তৈরি সম্পন্ন হবে। ১৯ অক্টোবর বিসর্জন দেয়া হবে।

পূজা উদযাপন পরিষদ জেলা শাখার সভাপতি কৃষ্ণপদ দাস বলেন, ইতোমধ্যে খুলনা মহানগর পুলিশ (কেএমপি) কমিশনার, র‌্যাব, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সসহ সকল আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে মতবিনিময় করা হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সার্বক্ষণিক নজরদারি থাকবে। তিনি বলেন, জেলায় প্রতীমা তৈরির কাজ ইতোমধ্যে ৯৫ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here