অবসরপ্রাপ্তদের পিএফ’র অর্থ প্রদান শুরু করেছে ক্রিসেন্ট জুট মিল

0
55

স্টাফ রিপোর্টার
ক্রিসেন্ট জুটমিলের অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক, কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের বহু কাক্সিক্ষত প্রভিডেন্ট ফান্ড (পি,এফ) পরিশোধ করা শুরু করেছে খুলনার ক্রিসেন্ট জুট মিল।
মিল কর্তৃপক্ষের দক্ষ ব্যবস্থাপনায় মিলের অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিকদের পি,এফ’র পাওনা প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা ইতিমধ্যে পরিশোধ করেছে মিল কর্তৃপক্ষ। বর্তমান প্রকল্প প্রধান গাজী শাহাদৎ হোসেনের ঐচ্ছিক ভাবনা থেকে ক্রিসেন্ট জুট মিলের সাধারন শ্রমিকদের প্রভিডেন্ট ফান্ড পরিশোধ করার লক্ষে দীর্ঘ মেয়াদী সঞ্চয় পত্র ক্রয় করেন তিনি। তার লভ্যাংশ দিয়ে অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক, কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের পি,এফের পাওনা টাকা পরিশোধ করার উদ্যোগ গ্রহন করেন তিনি। গতকাল সকালে ২০১৫-১৬ অর্থ বছরের নভেন্বর মাস পর্যন্ত অবসর প্রাপ্ত শ্রমিক, কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের পিএফ’র পাওনা ১ কোটি ৪৪ লাখ টাকা পরিশোধ করেছে। সকালে মিলের প্রধান কার্যালয়ের পিএফ শাখায় বিদায়ী অবসরপ্রাপ্তদের মাঝে চেক বিতরন করেন মিলের মহাব্যবস্থাপক গাজী শাহাদাত হোসেন। এসময় মিলের হিসাব বিভাগীয় প্রধান শাওন মাহমুদ, প্রশাসন বিভাগীয় প্রধান আহমেদ হোসাইন, পিএফ ইনচার্জ শহ আলম, ক্রিসেন্ট জুটমিল সিবিএর সাধারন সম্পাদক সোহরাব হোসেন, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি পান্নু মিয়া, সহ-সভাপতি মোল্যা আব্দুর রশিদ সহ সিবিএ নেতৃবৃন্দ এবং অন্যান্য কর্মচারীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন। প্রকল্প প্রধান গাজী শাহাদৎ হোসেন জানান, বর্তমান শিল্প বান্ধব সরকারের মিল বাচাঁও, শ্রমিক বাচাঁও নীতিতে ক্রিসেন্ট জুট মিলের অবসরপ্রাপ্তদের পি,এফ পরিশোধ করার নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন তিনি। তার এ সিদ্ধান্তকে মেনে সার্বিক সহযোগীতা করেছেন মিলির সিবিএর নেতারা। মিল কর্তৃপক্ষ ও সিবিএ নেতাদের সমন্বয়ে প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা পি,এফ পরিশোধ করে শ্রমিকদের মাথার ঘাম পায়ে ফেলা গচ্ছিত অর্থ দিতে পেরেছেন। খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল গুলির মধ্যে এ প্রথম ক্রিসেন্ট জুট মিল লভ্যাংশ দিয়ে বিপুল পরিমান পি,এফ অর্থ পরিশোধ করে এক দৃস্টান্ত স্থাপন করলেন। খুলনা ঞ্চলের অন্যান্য মিলের অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক, কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের পাওনা আদায়ের জন্য কত আন্দোলন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। অনেক অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারী পিএফএর পাওনা না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে বলে জানায় শ্রমিকরা। গতকাল পিএফ এর পাওনা টাকার চেক হাতে পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে যান অনেক শ্রমিক-কর্মচারী। অবসার প্রাপ্তদের পি,এফের টাকা প্রদান করতে কোন নেতা বা অন্য কাউকে ঘুষ অথবা বকশিশ প্রদান করা যাবেনা এমন শর্ত জুড়ে দেন গাজী শাহাদৎ হোসেন। গতকাল হাতে চেক পেয়ে সাবেক শ্রমিক নেতা অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক সাদেক আলী জানান, কোন উপহার ছাড়া একসাথে তার পি এফ এর পাওনা টাকা পেয়ে তিনি খুবই খুশী। আগামীতে যেন সব মিলের প্রকল্প প্রধান গন তাদের শ্রমিকদের জন্য এভাবে সঞ্চয়পত্র কিনে তাদের মিলের অবসর প্রাপ্ত শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ করার ব্যবস্থা করেন। মিলের মহাব্যবস্থাপক গাজী শাহদত হোসেন জানান, পরিকল্পনা করে গত ২৭ মে ২০১৩-১৪ এবং ২০১৪-১৫ অর্থ বছরের অবসর প্রাপ্ত শ্রমিক কর্মচারীদের পিএফএর ১ কোটি ৮২ লক্ষ টাকা পরিশোধ করেছেন। পরিকল্পনা করে কাজ না করলে আজ কোন ভাবেই এ অর্থ দেয়া সম্ভব হতনা বলে তিনি জানান। পরিকল্পনা করে কাজ করলে তার সুফল একসময় পাওয়া যায়। তাই শ্রমিক কর্মচারীরা গতকাল তাদের কর্মজীবনের শেষ সম্বল পিএফএর পাওনার চেক হাতেপেল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here