খুলনা, শনিবার, জানুয়ারী ২০, ২০১৮

প্রকাশ: 2018-01-12

dasd

ওয়েঙ্গারকে বিদায় করে আনচেলত্তিকে আনছে আর্সেনাল!

সবকিছু ‘ডমিনো এফেক্টে’র পতনের জন্য তৈরিই ছিল। বাকি ছিল কেবল একটি টোকার। এফএ কাপে নটিংহাম ফরেস্টের কাছে ৪-২ গোলের হার হয়তো সেই টোকাই। আর্সেন ওয়েঙ্গারের ২১ বছরের রাজত্ব অবশেষে শেষ হতে চলেছে বলেই খবর। এই মৌসুমের শেষে বিদায় নিতে হবে তাঁকে। এরই মধ্যে নতুন কোচ হিসেবে কার্লো আনচেলত্তির সঙ্গে আর্সেনাল চুক্তি করে ফেলেছে কিংবা করতে চলেছে বলে খবর দিয়েছে ইংল্যান্ডের পত্রপত্রিকাগুলো।

ওয়েঙ্গার হটাও রীতিমতো আন্দোলনেই রূপ নিতে চলেছে লন্ডনের ক্লাবটিতে। গত মৌসুম শেষে সমর্থকদের তীব্র চাপের মুখেও ক্লাবের মালিকপক্ষ দুই বছরের জন্য চুক্তি নবায়ন করে ফরাসি কোচের। কিন্তু সেটি দ্বিতীয় বছরে গড়ানোর আগেই ক্লাব ছাড়তে হবে ১৯৯৬ সালে আর্সেনালের দায়িত্ব নেওয়া এই ৬৮ বছর বয়সীকে। ভিন্ন দুই ক্লাবের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার বিরল কীর্তির মালিক আনচেলত্তি বসে আছেন প্রায় ৬ মাস ধরে। এখনই তাই আগাম চুক্তি সেরে রাখতে চায় আর্সেনাল। তাঁর মাপের কোচ বেশি দিন বেকার বসে থাকার নন। ইতালির জাতীয় দলের কোচ হওয়ার লোভনীয় প্রস্তাব যে আনচেলত্তির দুয়ারে।

আর্সেনালের অবস্থা অনেক দিন ধরেই ভালো না। গত মৌসুমে দলকে চ্যাম্পিয়নস লিগেই নিতে পারেননি। অথচ ওয়েঙ্গারকে আর্সেনালে রেখে দেওয়ার পেছনে যে যুক্তিগুলো ব্যবহার করা হয়, তার অন্যতম ছিল, এই কোচের অধীনে প্রতি মৌসুমে অন্তত চ্যাম্পিয়নস লিগ খেলেছে ক্লাব। এই হতাশার সঙ্গে যুক্ত হলো এফএ কাপ থেকে তৃতীয় রাউন্ডে বাদ পড়ার যন্ত্রণা। এখন সুযোগ মাত্র ইউরোপা লিগ আর ইংলিশ লিগ কাপে।

ওয়েঙ্গার এবার সবচেয়ে বড় বিদ্রোহের মুখে পড়েছেন ক্লাবের ভেতর থেকে। সানচেজ, ওজিলের মতো বড় তারকাসহ ১৪ জন খেলোয়াড় ক্লাব ছাড়ার হুমকি দিয়েছেন ওয়েঙ্গারের অধীনে সন্তুষ্ট নন বলে। ফলে ওয়েঙ্গার অধ্যায় শেষ। ক্লাবের প্রতি তাঁর অবদানের কথা ভেবে ওয়েঙ্গারকে সম্মানজনক বিদায়ের পথ তৈরি করে দিতে চায় আর্সেনাল। ক্লাবে আসার দুই বছরের মাথায় আর্সেনালকে লিগ জেতানো ওয়েঙ্গার এরপর প্রিমিয়ার লিগ জিতেছেন আর দুবার। ২০০১-০২ ও ২০০৩-০৪ মৌসুমে। ১৩ বছর ধরে লিগ জেতে না আর্সেনাল। এর মধ্যে অবশ্য বেশ কয়বার কাপ জিতেছে তারা। ওয়েঙ্গার সব মিলিয়ে এফএ কাপ জিতিয়েছেন সাতবার।

মন্তব্য ( ২ )

মন্তব্য করতে করুন অথবা নিবন্ধন করুন

lorem ipsum

মৌসুমের বয়সও যত বাড়ছে ততই ভয়ংকর হচ্ছে বার্সেলোনা । আর কুতিনহো স্কোয়াডে ঢুকে পড়লে তো কথাই নেই । 93 মিনিটের মেসির অ্যাসিষ্ট ছিল দেখার মতো । এটা শুধু মেসিকেই মানায় ।

viewer name

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে এখানে ক্লিক করুন।

আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।